তালেবান টাইপের মুসলমানরা সারাজীবন ভোক্তা হয়ে থাকবে
তালেবান টাইপের মুসলমানরা সারাজীবন ভোক্তা হয়ে থাকবে

রুবাইয়াত সাইমুম চৌধুরী

তালেবান টাইপের মুসলমানরা সারাজীবন ভোক্তা হয়ে থাকবে

Other

“এখনকার দিনে পিএইচডি ডিগ্রি, মাস্টার্স ডিগ্রির কোনো মূল্য নাই। আপনারা দেখুন, ক্ষমতায় থাকা মোল্লা ও তালেবান কারও পিএইচডি,এমএ, এমনকি হাইস্কুলের ডিগ্রীও নেই। কিন্তু তারা সবার সেরা। ”  - শেখ মৌলভি নুরুল্লাহ মুনির, আফগান শিক্ষামন্ত্রী 

নুরুল্লাহ মুনির সাহেবের মত মুসলমানদের চিন্তার জন্যই মুসলমান সমাজ এত এত এত এত পিছিয়ে।

তারা ইসলামের স্বর্ণ যুগের গল্প দিবেন , যখন এক খলিফা একা প্রায় অর্ধ পৃথিবী শাসন করেছেন। তার বীরত্বের গল্প দিবেন। কিন্তু এটা বলবেন না, সেই সময়ে খলিফা শিক্ষাকে কতটা গুরত্ব দিয়েছিলেন। কত কত বই আরবীতে অনুবাদ করা হয়েছিলো। ইরান থেকে রোম পর্যন্ত সব জ্ঞানের বই, যেখান থেকে পাওয়া গিয়েছিলো, তা অনুবাদ করা হয়েছিলো পড়ে ভালো ভাবে বুঝার জন্য এবং প্রয়োগ করার জন্য। তার দূরদৃষ্টি কত প্রখর ছিলো। তিনি নারীদের কতটা স্বাধীনতা দিয়েছিলেন। তার এসব কাজ অনেকেরই পছন্দ হয় নি। তাইতো তাকেও খুন করা হয়।
 
মুসলমানরা তরবারির জোড়ে বিশ্ব শাসন করেনি শুধু, করেছিলো জ্ঞানের শক্তিতে।  

তালেবান টাইপের মুসলমানরা সারাজীবন ভোক্তা হয়ে থাকবে। কখনো কোনো কিছু তৈরি করতে পারবে না। তাদের কাছে ব্যবসায়ীরা খালি বেচতেই থাকবে আর তারা কিনবে। এমনকি যে বন্দুক দিয়ে যুদ্ধ করে তারা সেটাও তাদের কিনতে হয়। হয় আমেরিকা, নয় রাশিয়া, নয় ইউরোপ, নয়তো ইজরায়েল। বানাবার মুরোদ তাদের নেই।  


বিয়ে ছাড়াই আবারও মা হচ্ছেন কাইলি জেনার

বলিউড পরিচালক বিশাল ভরদ্বাজের প্রস্তাবে মিমের না!

দেশমাতা, আমাকে কি একটু নিরাপত্তা দিতে পারেন


তাদের মুরোদ মেয়েদের লিখাপড়া বন্ধ করা, মেয়েদের খেলাধুলা বন্ধ করা, শিল্প সাহিত্য বন্ধ করা, পুরুষের দাড়ির সাইজ বড় করতে বাধ্য করা সহ , শরিয়া আইনের অপপ্রয়োগ করে ইসলাম আর মুসলমানদের বদনাম করা পর্যন্তই। জনগনের অর্ধেককে ( নারীদের) বাদ দিয়ে তারা শরিয়া আইনের অপব্যবহার করে তাদের দেশের মানুষের ভালো করার গল্প শোনায়। অনেকে আবার বিশ্বাসও করে।

আফসোস, তাদেরকেই অনেকে আদর্শ ভাবে। তাদের মত হতে চায়।   আফসোস। বড়ই আফসোস।

লেখাটি রুবাইয়াত সাইমুম চৌধুরী-এর ফেসবুক থেকে নেওয়া।

(সোশ্যাল মিডিয়া বিভাগের লেখার আইনগত ও অন্যান্য দায় লেখকের নিজস্ব। এই বিভাগের কোনো লেখা সম্পাদকীয় নীতির প্রতিফলন নয়। )

news24bd.tv/আলী