ধামাকা শপিং মালিকের বিরুদ্ধ মামলা : ১১৭ কোটি টাকা পাচারের প্রমাণ পেয়েছে সিআইডি

অনলাইন ডেস্ক

ধামাকা শপিং মালিকের বিরুদ্ধ মামলা : ১১৭ কোটি টাকা পাচারের প্রমাণ পেয়েছে সিআইডি

ইনভেরিয়েন্ট টেলিকম বাংলাদেশ লিমিটেডের নামে নিবন্ধন ও ট্রেড লাইসেন্স নিয়েছিলেন এস এম ডি জসীম উদ্দিন চিশতী নামের এক ব্যক্তি। পরে ই–কমার্স ‘ধামাকা’ শপিং নামের অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে বিভিন্ন পণ্যের লোভনীয় অফার ও ভার্চ্যুয়াল সিগনেচার কার্ড বিক্রির প্রলোভন দিয়ে গ্রাহকদের কাছ থেকে ৮০৩ কোটি টাকা আদায় করেন। সেখান থেকে তিনি ও তার প্রতিষ্ঠানের অন্যরা ১১৬ কোটি ৬৮ লাখ টাকা অন্য প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসেবে স্থানান্তর করে মানি লন্ডারিং আইনে অপরাধ করেছেন বলে তথ্য পেয়েছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

এ অভিযোগে ইনভেরিয়েন্ট টেলিকম বাংলাদেশ লিমিটেডের মালিক জসীম উদ্দিন চিশতিসহ তার স্ত্রী ও তিন সন্তান ও ধামাকা শপিংয়ের এক পরিচালক এবং চারটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা করেছে সিআইডি।

সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইমের বিশেষ পুলিশ সুপার হুমায়ুন কবির আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মামলা হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনিবলেন, ই–কমার্স ধামাকার বিরুদ্ধে প্রথমে অনুসন্ধান করে সিআইডি। পরে প্রতিষ্ঠানটির মালিকদের বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিংয়ের তথ্য পাওয়ার পর তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। তিনি বলেন, তদন্তের পর্যায়ে মামলার আসামিদের গ্রেপ্তার করা হবে।

মামলার আসামি যারা
মামলায় আসামিরা হলেন- ধামাকা শপিংয়ের ও ইনভেরিয়েন্ট টেলিকম বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এসএস জসিম উদ্দিন চিশতি, তার স্ত্রী ও ইনভেরিয়েন্ট টেলিকমের পরিচালক সাইদা রোকসানা খানম, তার সন্তান ও ইনভেরিয়েন্ট টেকনোলজিসের চেয়্যারম্যান তাসরিফ রিদয়ান চিশতি, ইনভেরিয়েন্ট টেকনোলজিসের পরিচালক মাসফিক রিদয়ান চিশতি, ইনভেরিয়েন্ট টেকনোলজিসের এমডি নাজিমুদ্দিন আসিফ এবং ধামাকা শপিং ও ইনভেরিয়েন্ট টেলিকমের পরিচালক সাফওয়ান আহমেদ। এছাড়াও মামলায় ইনভেরিয়েন্ট টেলিকম বাংলাদেশ লিমিটেড, মাইক্রো ট্রেড, ইনভেরিয়েন্ট টেকনোলজিস লিমিটেড ও মাইক্রো ট্রেড ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেডকেও আসামি করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, অভিযুক্ত ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাবসমূহের জমা ও উত্তোলন স্লিপ এবং দেশের বাইরে সম্পদের তথ্য পাওয়া গেলে পাচারকৃত অর্থ ও সম্পদের পরিমাণ আরও বাড়তে পারে।

এজাহার সূত্রে জানায়, ধামাকা শপিং প্রায় ৫ লাখ গ্রাহকের কাছ থেকে বিভিন্ন লোভনীয় অফারে পণ্য দেওয়ার নামে ৮০৩.৫১ কোটি টাকা গ্রহণ করে। শুরুতে কিছু গ্রাহককে পণ্য দিলেও পরবর্তীতে আর কাউকেই পণ্য না দিয়ে অর্থ আত্মসাৎ করেছে ধামাকা শপিং।

শুধু তাই-ই নয়, ধামাকা শপিং পণ্য সরবরাহকারী ৬০০ প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ২০০ কোটি টাকার পণ্য নিলেও এপর্যন্ত কোনো টাকা পরিশোধ করেনি।

উল্লেখ্য, ধামাকা শপিংয়ের এমডি জসিম উদ্দিন চিশতি, তার স্ত্রী ও সন্তান গত জুলাই থেকে যুক্তরাষ্ট্রে আছেন। তাদের দ্বৈত নাগরিকত্ব রয়েছে। কেবলমাত্র ধামাকা শপিংয়ের পরিচালক (অপারেশন) সাফওয়ান আহমেদ দেশে অবস্থান করছে। এই পাচারের একটি অংশ চিশতি পরিবার যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ে গেছে বলেও তদন্ত জানতে পেরেছে সিআইডি।


বিয়ে ছাড়াই আবারও মা হচ্ছেন কাইলি জেনার

বলিউড পরিচালক বিশাল ভরদ্বাজের প্রস্তাবে মিমের না!

দেশমাতা, আমাকে কি একটু নিরাপত্তা দিতে পারেন


ধামাকা শপিংয়ের বিষয়ে গত ৩০ জুন থেকে অনলাইন প্লাটফর্ম ব্যবহার করে ই-কমার্সের নামে বিভিন্ন পণ্যের লোভনীয় অফার ও ভার্চুয়াল সিগনেচার কার্ড বিক্রি করে অর্থ পাচারের অনুসন্ধানে নামে সিআইডি।

দীর্ঘ অনুসন্ধানের পর অর্থ আত্মসাৎ ও পাচারের তথ্য পাওয়ায় গতকাল বৃহস্পতিবার সিআইডির সহকারী পুলিশ সুপার আল আমিন হোসেন বনানী থানায় অর্থপাচার আইনে মামলা করেছেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

দুই নারীকে ইয়াবাসহ গ্রেফতারের হুমকি দিয়ে টাকা আদায় : ৬ পুলিশ সাময়িক বরখাস্ত

অনলাইন ডেস্ক

দুই নারীকে ইয়াবাসহ গ্রেফতারের হুমকি দিয়ে টাকা আদায় : ৬ পুলিশ সাময়িক বরখাস্ত

দুই নারী যাত্রীকে নাজেহাল ও অর্থ কেড়ে নেওয়ার অভিযোগে রাজশাহী শিরোইল বাস টার্মিনাল ফাঁড়ির শহর উপ-পরিদর্শক (এটিএসআই) নাসির উদ্দিন ও সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সেলিম রেজাসহ ছয় পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করেছেন রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরএমপি) কমিশনার। বরখাস্ত হওয়া অন্য পুলিশ সদস্যরা হলেন- কনস্টেবল শঙ্কর, শাহ আলম, সারওয়ার ও রিপন। 

বৃহস্পতিবার রাতে এক আদেশে আরএমপি কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক তাদেরকে সাময়িক বরখাস্ত করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করেছেন। রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (সদর) ও নগর পুলিশের মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি বলেন, বিভাগীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করায় তাদেরকে সাময়িক বরখাস্ত করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। 

পুলিশের সূত্র জানিয়েছে- নারায়ণগঞ্জ এবং কুমিল্লা থেকে দু’জন নারী বৃহস্পতিবার সকালে বাসে করে রাজশাহীতে তাদের এক আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে যান। তারা শিরোইল বাসস্ট্যান্ডে নামার পরপরই পুলিশ ফাঁড়ির এটিএসআই নাসিরসহ বাকি সদস্যরা তাদেরকে আটক করে। এরপর ওই দুই নারীকে ইয়াবাসহ গ্রেফতার দেখানোর হুমকি দেন ওই পুলিশ সদস্যরা। 

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


এ সময় তারা ভুক্তভোগীদের কাছে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। বাধ্য হয়ে ওই দুই নারী তাদের পরিবারকে বিষয়টি জানান। এরপর পরিবারের সদস্যরা বিকাশের মাধ্যমে পুলিশকে এক লাখ টাকা দেন। এছাড়াও তাদের কাছ থেকে কিছু নগদ টাকাও ছিনিয়ে নেওয়া হয়। 

এ ঘটনার পর ওই দুই নারীর পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশ হেডকোয়ার্টারে অভিযোগ করা হয়। অভিযোগ পাওয়ার পরে পুলিশ হেডকোয়ার্টার থেকে রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনারকে বিষয়টি নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়। এরপর এটিএসআই নাসিরসহ ছয় পুলিশ সদস্য সাময়িক বরখাস্ত হন। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

চলন্ত ট্রেনে ডাকাতি, নিহত ২

জামালপুর প্রতিনিধি

চলন্ত ট্রেনে ডাকাতি, নিহত ২

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জগামী কমিউটার ট্রেনে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ডাকাত দলের আক্রমনে ট্রেনের দুই যাত্রী নিহত হয়েছে এবং আহত হয়েছে একজন। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে কমিউটার ট্রানের ছাদে এই ঘটনা ঘটে। 

জামালপুর রেলওয়ে থানার এসআই মো: মিলন মিয়া ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জগামী কমিউটার ট্রেনের ছাদে ১৫-২০ জন যাত্রী ভ্রমন করছিলেন। ট্রেনটি ময়মনসিংহের গফরগাঁও স্টেশন ছাড়ার পর ৪/৫ জনের একটি ডাকাত দল দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের উপর আক্রমন করে এবং তাদের কাছে থাকা টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। 

এ সময় কয়েকজন যাত্রীর সাথে ডাকাতদের ধস্তাধস্তির হয় এবং ডাকাতদের আক্রমনে তিন যাত্রী আহত হয়ে ট্রেনের ছাদে পড়ে থাকে। পরে ওই ট্রেনের যাত্রীরা পিয়ারপুর স্টেশনে ডাকাতির ঘটনা জানালে জামালপুর রেলওয়ে থানা পুলিশ জামালপুর স্টেশন থেকে আহত ওই তিন যাত্রীকে উদ্ধার করে জামালপুর জেনারেল হাসপাতারে নিয়ে আসে। 

এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক দুইজনকে মৃত ঘোষণা করে এবং আহত একজনকে হাসপাতালে ভর্তি করে। নিহতদের মধ্যে নাহিদ নামে একজনের বাড়ি দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার সানন্দবাড়ি মিতালী বাজার এলাকায় এবং অপরজনের পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি। 

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

পরকীয়া প্রেমিকের সাথে মিলে মা খুন করে প্রিয়াকে

অনলাইন ডেস্ক

পরকীয়া প্রেমিকের সাথে মিলে মা খুন করে প্রিয়াকে

চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে আলোচিত নওরোজ আফরিন প্রিয়া (২১) হত্যা মামলায় প্রিয়ার মা তাহমিনা সুলতানা রুমি ও পরকীয়া প্রেমিক আ. হান্নান মিলে প্রিয়াকে হত্যা করেছে। 

বৃহস্পতিবার বিকালে তাহমিনা সুলতানা রুমি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

এর আগে জড়িত সন্দেহে বুধবার বিকালে রুমির প্রেমিক হান্নানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শাহরাস্তি মডেল থানা সূত্রে জানা যায়, নিহত প্রিয়ার মা তাহমিনা সুলতানা রুমি ও তার প্রেমিক দেবকরা গ্রামের মৃত মুনসুর আলী ভূঁইয়ার পুত্র মো. আ. হান্নান (৩১) মিলে প্রিয়াকে খুন করে।

এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রিয়া ও হান্নানদের বাড়ি পাশাপাশি। প্রিয়ার পিতা বিদেশে থাকার সুবাদে ৫-৬ বছর পূর্বে প্রিয়ার মা রুমির সঙ্গে হান্নানের অবৈধ পরকীয়ার সম্পর্ক গড়ে উঠে। তাদের নিষিদ্ধ প্রেমের রসায়ন লোকমুখে ছড়িয়ে গেলে প্রিয়া নিজেই একদিন আপত্তিকর অবস্থায় তাদের ধরে ফেলে। পরে বিষয়টি মামলা পর্যন্ত গড়ায়।

রও পড়ুন:


সেই বাংলা ছবি থেকে সানি লিওনের অংশটি বাদ

অনলাইনে পণ্য ডেলিভারির সময় নির্ধারণ করে দিলো মন্ত্রণালয়

ভ্রুন নষ্ট না করলে তালাক দেয়ার হুমকি স্বামীর

মানবতাবিরোধী মামলার আসামি শহীদুল্লাহ ফকির গ্রেপ্তার


রুমির স্বামী ইসমাইল হোসেন স্ত্রীর অবৈধ সম্পর্কের বিষয়ে সৌদি আরব থেকে জানতে পেরে তার সাথে ছাড়াছাড়ির সিদ্ধান্ত নিলে স্থানীয়ভাবে বেশ কয়েকটি সালিশের মাধ্যমে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়। এরপর হান্নান বিদেশে চলে যায়। হত্যাকাণ্ডের ১ মাস পূর্বে হান্নান দেশে আসে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক আসাদুল ইসলাম জানান, ঘটনায় জড়িত মামলার বাদী রুমি ও তার প্রেমিক আ. হান্নানকে কোর্টের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।
 
শাহরাস্তি মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল মান্নান জানান, তাহমিনা সুলতানা রুমি ও তার প্রেমিক আ. হান্নান মিলে প্রিয়াকে খুন করে। মেয়ে মায়ের পরকীয়া জেনে ফেলায় ২ জনে পরিকল্পনা করে প্রিয়াকে তাদের পথ থেকে  সরিয়ে দিয়েছে।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

ঢাকায় মিললো ভয়ংকর মাদক আইসের সবচেয়ে বড় চালান

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকায় মিললো ভয়ংকর মাদক আইসের সবচেয়ে বড় চালান

রাজধানী থেকে ৫৬০ গ্রাম ভয়ংকর মাদক ক্রিস্টাল মেথ বা আইস ও ইয়াবা জব্দ করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর (ডিএনসি)।

ডিএনসির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, জব্দ করা আইসের মূল্য প্রায় ৯০ লাখ টাকা। এটি এখন পর্যন্ত ঢাকায় আটক হওয়া আইসের সবচেয়ে বড় চালান।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. মেহেদী হাসান গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন:

অবশেষে ব্রিটেনের লাল তালিকা থেকে বাদ পড়ছে বাংলাদেশ

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

আর কোনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না, জানালেন কৃষিমন্ত্রী

ইভ্যালির সঙ্গে আর সম্পর্ক নেই তাহসানের


 

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকালে তেজগাঁওয়ে অবস্থিত মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর কার্যালয়ে (উত্তর) আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে বলেও তিনি জানান।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

নান্দাইলে অজ্ঞাত বৃদ্ধকে জবাই করে হত্যা

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি:

নান্দাইলে অজ্ঞাত বৃদ্ধকে জবাই করে হত্যা

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলায় অজ্ঞাত (৬৫) এক বৃদ্ধকে জবাই করে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখে পালিয়েছে দুবৃত্তরা। 

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন ধান ক্ষেত থেকে এ লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। 

রও পড়ুন:


জন্মদিনে সৃজিতের কাছে কী চাইলেন মিথিলা?

বায়ু দূষণের তালিকায় বাংলাদেশ প্রথম, ঢাকা তৃতীয়

৪৫ মিনিট পর হাসপাতালে অলৌকিকভাবে বেঁচে উঠলেন নারী!

গাড়ি সাইড দেয়ায় ব্যবসায়ীকে মারধর করলেন এমপি রিমন!


নান্দাইল থানার ওসি মিজানুর রহমান আকন্দ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, স্থানীয়দের খবর নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে নিহতের নাম-পরিচয় এখনো জানা যায়নি। হত্যায় ব্যবহৃত ছুরি পাশেই ফেলে রেখে গেছে খুনিরা। 

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর