বিধানসভায় নামাজঘর, প্রতিবাদে রাস্তায় বিজেপি
বিধানসভায় নামাজঘর, প্রতিবাদে রাস্তায় বিজেপি

বিধানসভায় নামাজঘর, প্রতিবাদে রাস্তায় বিজেপি

অনলাইন ডেস্ক

ভারতের ঝাড়খণ্ড রাজ্য বিধানসভায় নামাজের জন্য একটি ঘর বরাদ্দ করেন স্পিকার। এর প্রতিবাদে গতকাল বুধবার রাস্তায় বিজেপি সমর্থকরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ মিছিল করলে পুলিশ তাদের ওপর লাঠিচার্জ ও গরম পানি ছোঁড়ে। বৃহস্পতিবার (০৯ সেপ্টেম্বর) বিজেপি সমর্থকরা ঝাড়খণ্ড রাজ্যে ‘কালো দিবস’ পালন করছে।  

স্পিকার রবীন্দ্রনাথ মাহাতো বিজেপির প্রতিবাদ নিয়ে জানান, বিধানসভায় নামাজ পড়ার জন্য ঘর হবে কিনা, তা একটি সর্বদলীয় কমিটি স্থির করবে।

কয়েক দিন আগে এক নির্দেশ জারি করে বিধানসভার সচিবালয় জানায় যে টি-ডব্লিউ ৩৪৮ নম্বর ঘরটিকে নামাজ পড়ার জন্য ব্যবহার করা হবে।

নামাজের ঘর নির্ধারণ করার নির্দেশ জারি হতেই বিজেপি প্রতিবাদ শুরু করে। গত সোমবার বিধানসভার অধিবেশন শুরু হতেই বিজেপির বিধায়করা বিক্ষোভ দেখান। তারা ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগানও দেন।

স্পিকার রবীন্দ্রনাথ মাহাতো বলছেন, আগের ভবনে মুসলমান কর্মচারীদের নামাজ পড়ার জন্য একটি ঘর ছিল। নতুন ভবনে সেরকম একটি ঘরের আবেদন এসেছিল যেখানে তারা নিয়মিত নামাজ পড়তে পারবেন। তাদের আবেদন অনুযায়ী একটা খালি ঘর দিয়ে দেয়া হয়েছে। এ নিয়ে অহেতুক বিতর্ক হচ্ছে।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বিবিসিকে বিধানসভার প্রাক্তন স্পিকার ও বিজেপি বিধায়ক সি পি সিং বলেছেন, বিধানসভার পুরনো ভবনে দুটো মন্দির আগে থেকেই ছিল। নতুন ভবনেও হনুমানজির মন্দির গড়ে দিতে হবে। এই দাবি না মানা হলে আন্দোলন জোরদার হবে।

আরও পড়ুন:

কনস্টেবল পদে বিশাল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আবেদন করবেন যেভাবে

দল ঘোষণার পর অধিনায়কত্ব ছাড়লেন রশিদ, নতুন অধিনায়ক ঘোষণা

এবার ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি পেলেকে ছাড়িয়ে গেলেন মেসি

মেসির হ্যাটট্রিকে আর্জেন্টিনার বড় জয়


অন্যদিকে সরকারে জোটসঙ্গী কংগ্রেস বিধায়ক ডা. ইরফান আনসারি বলছেন, বিহার পশ্চিমবঙ্গসহ সব রাজ্যের বিধানসভাতেই নামাজ পড়ার জন্য আলাদা ঘর আছে। এটা নিয়ে বিজেপির গেল গেল রব তোলার কোনও মানে হয় না।  

স্পিকারের মনে হয়েছে শুক্রবার নামাজের সময়ে কর্মীরা বাইরে নামাজ পড়তে চলে গেলে কাজের ক্ষতি হয়। তাই তিনি একটা ঘর দিয়েছেন। কেউ যদি পুজোর জন্য ঘর চায়, সেটা তারা দাবী তুলুক।

news24bd.tv/ নকিব