ঝিনাইদহে বেড়েছে পুরুষের একসাথে আত্মহননের প্রবণতা!

শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহে বেড়েছে পুরুষের একসাথে আত্মহননের প্রবণতা!

ঝিনাইদহে গতকাল ১০ সেপ্টেম্বর বিশ্ব আত্মহত্যা প্রতিরোধ দিবস পালিত হয়েছে। সারাবিশ্বেও এই দিনটিকে আত্মহত্যা প্রতিরোধ দিবস হিসাবে পালন করা হয়। ঝিনাইদহে আত্মহত্যার সংখ্যা কমলেও বেড়েছে পুরুষদের আত্মহত্যার হার। সেই সাথে বেড়েছে একসাথে আত্মহত্যার প্রবণতা।

জেলা প্রশাসনের দেওয়া তথ্য মতে, ২০১৬ সাল থেকে চলতি বছরের ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত ঝিনাইদহের ৬ উপজেলায় পারিবারিক কলহ, প্রেমে ব্যার্থতাসহ নানা কারণে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে ২ হাজার ৪১ জন নারী-পুরুষ। বর্তমানে করোনাকালে জেলায় আত্মহত্যার সংখ্যা কমলেও বেড়েছে পুরষদের আত্মহত্যার হার। 

তথ্য যাচাই করে দেখা যায়, ২০১৬ সালে জেলায় মোট আত্মহত্যা করে ৩৮৮ জন। এর মধ্যে নারী ২১৯ জন ও পুরুষ ১৬৯ জন, ২০১৭ সালে আত্মহত্যার সংখ্যা বেড়ে দাড়ায় ৪২৪ জনে। এদের মধ্যে নারী ২৩৭ জন ও পুরুষ ১৮৭ জন। ২০১৮ সালের পর থেকে জেলায় কমতে থাকে আত্মহননের সংখ্যা। সে বছর আত্মহত্যা করে ৩৯৬ জন। এদের মধ্যে নারী ২২০ জন ও পুরুষ ১৭৬ জন। ২০১৯ সালে আত্মহত্যা করে ৩০৬ জন। যার মধ্যে নারী ছিল ১৭১ জন ও পুরুষদ ছিল ১৩৫ জন। ২০২০ সালে জেলায় মোট আত্মহত্যার সংখ্যা ছিল ৩২০ জন। যার মধ্যে নারী ছিল ১৬৯ জন ও পুরুষ ছিল ১৫১ জন। আর চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত আত্মহত্যার সংখ্যা ২০৬ জন। যার মধ্যে নারী ১০৮ জন ও পুরুষ রয়েছে ৯৮ জন। গত ৫ বছরের তথ্য বিবেচনায় নারীদের আত্মহত্যার সংখ্যা বেশি। কিন্তু করোনাকালে বেড়েছে পুরুষদের আত্মহত্যার কার।

তথ্য বলছে, ২০১৬ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত পুরুষদের আত্মহত্যার হার ৪৩ থেকে ৪৪ ভাগ থাকলেও বর্তমানে তা বেড়েছে দাড়িয়েছে ৪৭ ভাগের বেশি। কারণ হিসেবে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, লকডাউনে কর্মহীন আর পাবিবারিক কলহ আর হতাশা। এদিকে বর্তমানে জেলায় দেখা দিয়েছে একসাথে বা একরশিতে আত্মহত্যার প্রবণতা।

ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, পুরুষ মেডিসিন ওয়ার্ডের বারান্দায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে শহরের কাঞ্চনপুর এলাকার ২০ বছর বয়সী যুবক ইমরান হোসেন। গত ২৮ আগস্ট নব-বিবাহিতা স্ত্রীকে সাথে নিয়ে নিজ ঘরে আত্মহত্যার চেষ্টা করে সে। স্ত্রী ওই দিন মারা গেলেও এখন হাসপাতালে কাতরাচ্ছেন সে। বৃহস্পতিবার বিকেলে একসাথে ঘুরে সন্ধ্যায় আত্মহত্যা কারণ আজও অজানা পরিবারের।

ওই মাসেরই ১৩ তারিখে প্রেমের স্বীকৃতি না পেয়ে এক রশিতেই ঝুলে আত্মহত্যা করে মহেশপুর উপজেলার চাপাতলা গ্রামের প্রেমিক জুটি। ২২ আগস্ট দুপুরে হরিণাকুন্ডু উপজেলার বেলতলা গ্রামে পারিবারিক কলহের কারণে সদ্যবিবাহিত স্ত্রীকে নিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে দুইজন। হাসপাতালে নেওয়ার পর প্রথমে স্ত্রী ও পরে মারা যায় স্বামী।

জেলা সনাকের সভাপতি সায়েদুল আলম বলেন, বর্তমানে আমরা দেখছি পারিবারিক কলহ, মনমালিণ্য, প্রেমে ব্যার্থতাসহ নানা কারণে একসাথে আত্মহত্যার প্রবণতা বেড়েছে। জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে এ ধরনের সংবাদ আসছে। সামাজিক এই ব্যাধি দুর করতে দ্বায়িত্ব নিতে হবে সরকার, সমাজ ও পরিবারের। বিভিন্ন সংস্থার মাধ্যমে তৃণমুল পর্যায়ে গিয়ে আত্মহত্যার কু-ফল সম্পর্কে সবাইকে সচেতন করতে হবে।

আত্মহত্যা প্রতিরোধ সংক্রান্ত নানা বিষয়ে কাজ করে ঝিনাইদহের সোসাইটি ফর ভলান্টারি অ্যাকটিভিটিজ (শোভা) নামে একটি সংগঠন। সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম জানান, করোনা কালে আত্মহত্যার হার কমেছে। তবে পুরুষদের আত্মহত্যার হার বেড়েছে। আয়-রোজগার না থাকা, হতাশা বা মানসিক অস্থিরতাই এ কারণ বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন:

কোহলিকে নিয়ে নিজের গোপন তথ্য ফাঁস করলেন নায়িকা

টানা লোকসানে ভারতে ফোর্ডের কারখানা বন্ধের সিদ্ধান্ত

হিজাব ছাড়া নারীদের নিয়ে তালেবান কর্মকর্তার বিস্ফোরক মন্তব্য

পরীমণি অত্যন্ত মানবিক, তার ঋণ শোধ করা যাবে না: পরিচালক


জাহিদুল ইসলাম আরো জানান, ঝিনাইদহসহ এ অঞ্চলের মানুষ কিছুটা আবেগ প্রবণ। যে কারণে আত্মহত্যার হার এখানে বেশি। এ জেলার মানুষ কখন আইলা দেখেনি, কখন দেখেনি রাতের আঁধারে নিজেদের ঘর-বাড়ি নদীতে বিলীন হতে। দেশের অন্যান্য অঞ্চলের মানুষ অনেকটা সংগ্রামী। কিন্তু এ এলাকার মানুষ প্রাকৃতিক কোন দুর্যোগের সম্মুখীন হয়নি। তারা একটু বেশিই আবেগ প্রবণ। আত্মহত্যার প্রধান কারণগুলোর মধ্যে এটাও অন্যতম।

তিনি বলেন, আত্মহত্যা সমাজ থেকে দুর করতে সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে। দায়িত্ব নিতে হবে সরকারকে। সর্বস্তরের মানুষকে সচেতন করলেই এটি দূর করা সম্ভব।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

ঝিনাইদহে ১১টি ইজিবাইকসহ ছিনতাই চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার

শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ :

ঝিনাইদহে ১১টি ইজিবাইকসহ ছিনতাই চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার

ঝিনাইদহে ১১টি ইজিবাইকসহ ছিনতাই চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৬। 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো শাহিনুর সরদার (৩২) মোছা. তিন্নী ওরফে টুনি (২৭) ও ইমরান হোসেন (৩০)। বুধবার রাতে মাগুরা ভায়না মোড়ের টিবি ক্লিনিক পাড়া থেকে তাদেরকে গ্রেপ্তার করে। বৃহস্পতিবার বিকেলে ঝিনাইদহ র‌্যাব কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব কমাণ্ডার এ তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে ঝিনাইদহ র‌্যাবের কোম্পানি কমাণ্ডার মেজর মোহাম্মদ শরীফুল আহসান জানান, ঝিনাইদহসহ এ অঞ্চলের বিভিন্ন এলাকা থেকে ইজিবাইক ছিনতাই করে একটি চক্র ভাড়া দেয় এবং বিক্রি করে থাকে। তারা নিজস্ব গোয়েন্দা তথ্যে ভিত্তিতে জানতে পারেন ওই চক্রটি মাগুরার ভায়নার মোড় এলাকায় অবস্থান করছে।

খবর পেয়ে র‌্যাবের একটি বিশিষ টিম মাগুরা ভায়না মোড়ের টিবি ক্লিনিকের পাশে বিসমিল্লাহ হোটেলের পিছনে ভাড়াকৃত গ্যারেজে অভিযান চালান। 

আরও পড়ুন:


সারারাত যৌনকর্মে সময় না দেয়ায় হত্যা!

অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

লালমনিরহাটে বন্যায় বিধ্বস্ত হয়ে দুই উপজেলা বিদ্যুৎ বিহীন

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা কে এই ইকবাল?


র‌্যাবের অভিযান টের পেয়ে পালানোর সময় মাগুরা শালিখার সরসোনার গফুর সরদারের ছেলে শাহিনুর সরদার, তার স্ত্রী মোছা. তিন্নী ওরফে টুনি ও ঝিনাইদহের পাইকপাড়ার আব্দুল হান্নানের ছেলে শরিফুল ইসলামে গ্রেপ্তার করে। 

সে সময় তাদের কাছ থেকে ১১টি ইজিবাইক, ৫৫ টি ইজিবাইকের ব্যাটারি ও ১১টি ইজিবাইকের চাবি উদ্ধার করে। গ্রেপ্তারকৃতরা এসব ইজিবাইক ছিনতাই করে বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে থাকে বলে র‌্যাবের কাছে স্বীকার করেছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে তাদের থানায় সোপদ্দ করা হয়েছে। 

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

নাটোরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত

নাটোর প্রতিনিধি:

নাটোরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত

দেশের বিভিন্ন স্থানে হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর সন্ত্রাসী হামলা, প্রতিমা ভাংচুর, অগ্নি সংযোগ ও বসতবাড়িতে লুটপাটের প্রতিবাদে নাটোরে সম্প্রীতি সমাবেশ ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে শহরের স্বাধীনতা চত্বর থেকে একটি র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি আলাইপুর এলাকায় অনিমা চৌধুরী অডেটোরিয়ামে গিয়ে শেষ হয়। 

আরও পড়ুন:


সারারাত যৌনকর্মে সময় না দেয়ায় হত্যা!

অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

লালমনিরহাটে বন্যায় বিধ্বস্ত হয়ে দুই উপজেলা বিদ্যুৎ বিহীন

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা কে এই ইকবাল?


পরে সেখানে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, নাটোর-২ আসনের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল, জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ, পুলিম সুপার লিটন কুমার সাহাসহ অন্যান্যরা। 

এ সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা, জনপ্রতিনিধি, সকল ধর্মের প্রতিনিধি, ছাত্র শিক্ষকসহ সামাজিক ও রাজনৈতিক নের্তৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

মন্দিরে হামলার ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখে র‌্যাবের অভিযানে আরও তিনজন গ্রেপ্তার

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

মন্দিরে হামলার ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখে র‌্যাবের অভিযানে আরও তিনজন গ্রেপ্তার

নোয়াখালীর চৌমুহনীতে মন্দিরে হামলা-ভাংচুরের ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখে আরও তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-১১। 

আজ বহস্পতিবার ভোর থেকে জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- সোহরাব হোসাইন (৩২), মো. মানু (৩২) ও মো. হরুন অর রশিদ(৪৫)। 

আরও পড়ুন:


সারারাত যৌনকর্মে সময় না দেয়ায় হত্যা!

অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

লালমনিরহাটে বন্যায় বিধ্বস্ত হয়ে দুই উপজেলা বিদ্যুৎ বিহীন

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা কে এই ইকবাল?


আজ সকালে চৌমুহনীতে সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খন্দকার মো. শামীম হোসেন জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃতরা প্রত্যেকে ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।

এছাড়া গতরাতে জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ভিডিও ফুটেজ দেখে আরও তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এ নিয়ে এসব ঘটনায় মোট ১০৭ জন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। এর মধ্যে এজাহারভুক্ত ৬৮ জন, সন্দেহভাজন ৩৯ জন।

এসব ঘটনায় বেগমগঞ্জ মডেল থানায় ৮টি মামলা হয়েছে। এসব মামলার এজাহারে ২১৯ জনের নাম উলে­খ সহ অজ্ঞাত আরও পাঁচ হাজার লোককে আসামি করা হয়েছে।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

নোয়াখালীতে হামলায় নিহতদের পরিবারের পাশে সাংসদ একরাম

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীতে হামলায় নিহতদের পরিবারের পাশে সাংসদ একরাম

নোয়াখালীর চৌমুহনীতে গত শুক্রবারের হামলায় নিহত যতন সাহা ও প্রান্ত দাসের পরিবার এবং ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির সংস্কারের জন্য আর্থিক সহায়তা দিয়েছেন সদর-সুবর্নচর আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী।

আজ  বৃহস্পতিবার দুপুরে তিনি ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহত দুই পরিবারের স্বজনদের খোঁজ খবর নেন। তাদের সঙ্গে কিছু সময় কাটান। পরে দুই পরিবারকে দুই লাখ টাকা করে মোট চার লাখ টাকা অনুদান দেন। এরপর হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত কয়েকটি মন্দির পরিদর্শন করে সেগুলো সংস্কারের জন্য চার লাখ টাকা অনুদান দেন। 

আরও পড়ুন:


সারারাত যৌনকর্মে সময় না দেয়ায় হত্যা!

অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

লালমনিরহাটে বন্যায় বিধ্বস্ত হয়ে দুই উপজেলা বিদ্যুৎ বিহীন

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা কে এই ইকবাল?


এ সময় তিনি হামলার ভিডিও ফুটেজ দেখে ঘটনার সাথে জড়িতদের প্রত্যেককে দ্রুত গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানান। হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দু সম্প্রদায়ের পাশে দাঁড়ানোর জন্য দলীয় নেতাকর্মীদেরকে নির্দেশ দেন।

এ সময় জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবিএম জাফর উল্যা, নোয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম সামছুদ্দিন জেহান, জেলা যুবলীগের আহবায়ক ইমন ভট্ট, একরামুল হক বিপ্লব সহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। 

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

ঠাকুরগাঁওয়ে দ্রুত আসামিদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:

ঠাকুরগাঁওয়ে দ্রুত আসামিদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

ঠাকুরগাঁও শহরের গোয়ালপাড়া হেডস এর মোড়ে গত শনিবার (১৬ই অক্টোবর) আনুমানিক রাত ৮টায় পরিবারের লোকজনের সামনে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে দুই সন্তানের "মা" মুসলেমিনা আক্তার লিজা (৩০)।

পরে প্রতিবেশীরা লাশ উদ্ধার করে আধুনীক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। কিন্তু তার পরের দিন রোববার এ ঘটনায় লিজার পিতা এসএম মুরশিদ বাদী হয়ে সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঠাকুরগাঁও চৌরাস্থায় লিজা’র প্রতিবেশি ও পরিবারের লোকজন লিজাকে হত্যাকারী স্বামী অন্য আসামিদের দ্রুত বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করে।

লিজাকে হত্যা করে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার নাটক করা হচ্ছে এমন অভিযোগ তুলেন লিজা’র বাবা। মেয়েকে হত্যাকারিদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধনে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন বাবা।

মানববন্ধনে লিজা’র বাবা বলেন আমার মেয়েকে নির্মমভাবে হত্যা করেছেন তার পাষণ্ড স্বামী জবাইদুল রহমান জুয়েল (৩৮) ও তার পরিবারের লোকজনেরা। পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে আমার মেয়েকে বলে জানান তিনি।

অভিযোগে বলা হয়, দীর্ঘ দিন ধরে আসামি জুয়েল পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে। সে কারণে জুয়েল আমার মেয়ের সংসারে কোন প্রকার খরচ দিত না ও বাসায় যেত না। কিছু বললেই আমার মেয়েকে নির্মম অত্যাচার করত। এ জন্য কয়েকবার পারিবারিক ভাবেও আলোচনা করা হয় ও জুয়েলকে সাবধান করা হয়। পরে জুয়েল আমার কাছে ১ লাখ টাকা দাবি করে আমি সেটা দিতে না পারায় সে আমার মেয়েকে হত্যা করে।

লিজা’র প্রতিবেশি ও পরিবারের লোকজন বলেন, থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়েছে এখন দ্রুত আসামিদের গ্রেপ্তারের ও দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবি জানাচ্ছি।

আরও পড়ুন:


সারারাত যৌনকর্মে সময় না দেয়ায় হত্যা!

অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

লালমনিরহাটে বন্যায় বিধ্বস্ত হয়ে দুই উপজেলা বিদ্যুৎ বিহীন

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা কে এই ইকবাল?


news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর