এসআইয়ের সঙ্গে পরকীয়ায় ঘর ছাড়লেন নারী, স্বামীর লিখিত অভিযোগ
এসআইয়ের সঙ্গে পরকীয়ায় ঘর ছাড়লেন নারী, স্বামীর লিখিত অভিযোগ

এসআইয়ের সঙ্গে পরকীয়ায় ঘর ছাড়লেন নারী, স্বামীর লিখিত অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক

স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে উত্তরা পূর্ব থানা এলাকায় বসবাস এক ব্যক্তির। সুখেই সংসার চলছিল তার। কিন্তু গত ফেব্রুয়ারির পর সংসার জীবনে নেমে এসছে অশান্তি। কারণ স্ত্রীর পরকীয়া।

এক মারামারিকে কেন্দ্র করে গত ফেব্রুয়ারিতে ওই ব্যক্তির স্ত্রী উত্তরা পূর্ব থানায় মামলা করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তার সঙ্গে বিভিন্ন সময় মামলা নিয়ে কথা বলতে বলতে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন ওই নারী। এরপর থেকে ওই পুলিশ কর্মকর্তার সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ হতো তার। সম্পর্ক গভীর হতে থাকলে বুঝতে পারেন ওই নারীর স্বামী। সম্প্রতি ওই নারী ১০ মাসের শিশু সন্তানকে নিয়ে ঘর ছেড়েছেন।

এসআই ও স্ত্রীর পরকীয়ার এসব কর্মকাণ্ডের প্রতিকার চেয়ে ওই নারীর স্বামী গাজীপুরের পুলিশ সুপারের (এসপি) কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে উত্তরা এলাকায় বসবাস করতেন ওই ব্যক্তি। গত বছরের ১২ ফেব্রুয়ারি উত্তরা পূর্ব থানায় একটি মামলা করেন ওই নারী। সেই মামলার তদন্তভার পড়ে থানার এক উপপরিদর্শকের (এসআই) ওপর। মামলার তদন্তের প্রয়োজনে ওই ব্যক্তির স্ত্রীর সঙ্গে প্রায়ই কথা বলতেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা। একপর্যায়ে দুজনের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

আরও পড়ুন


কৌশানির খোলামেলা ছবিতে ‘অশালীন’ মন্তব্যের ঝড়!

ক্ষমা চাইলেন কানাডায় টক শো’র জন্য টাকা দাবি করা বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত সেই প্রার্থী

পরীমণি অত্যন্ত মানবিক, তার ঋণ শোধ করা যাবে না: পরিচালক

রাজধানীর বাড্ডায় সড়ক দুর্ঘটনায় যুবক নিহত


ওই ব্যক্তির অভিযোগ অনুযায়ী, ওই পুলিশ কর্মকর্তা ওই নারীকে নানান প্রলোভন দেখান। তাঁকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। মামলা নিষ্পত্তি হওয়ার পরও দুজনের মধ্যে যোগাযোগ হতে থাকে। যেটা আমার কাছে অস্বাভাবিক বলে মনে হয়। পরে আমার স্ত্রীর মোবাইল মেসেঞ্জার দেখি। পরে উভয়ের মধ্যে হওয়া কথোপকথনে প্রমাণ পাই তাদের মধ্যে সম্পর্কের। ওই এসআই বিভিন্নভাবে আমার স্ত্রীকে প্রলোভন দেখিয়ে নিজের সংসার (আমার) করতে নিরুৎসাহিত করছেন।

নিরুপায় হয়ে গত ৩১ আগস্ট গাজীপুরের পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন ওই ব্যক্তি। পুলিশ সুপার ঘটনার তদন্তের দায়িত্ব দেন গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) আমিনুল ইসলামকে।

অভিযোগকারী গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এসআই আমার স্ত্রীকে নানা প্রলোভন দেখিয়ে নিয়ে গেছে। এ কারণে আমার দুই সন্তানের ভবিষ্যৎ নিয়েও চিন্তিত আছি। বর্তমানে বড় মেয়ে আমার কাছে। ছোট মেয়ে ও স্ত্রীর হদিস পাচ্ছি না। ’

গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমিনুল ইসলাম জানান, ওই ঘটনায় এসআইকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। অভিযোগের তদন্ত চলছে।

news24bd.tv এসএম

;