বিনিয়োগ খরা কাটাতে ওয়ান স্টপ সার্ভিসকে গতিশীল করার দাবি

সুলতান আহমেদে

দেশি-বিদেশী ব্যবসায়ীদের একসাথে সব সেবা বা ওয়ান স্টপ সার্ভিসকে আরও গতিশীল করার দাবি উঠেছে।

শীর্ষ ব্যবসায়ীরা বলছেন, তা করা গেলে কেটে যাবে বেসরকারি খাতের বিনিয়োগ খরা। তাদের অভিযোগ, ওয়ান স্টপ সার্ভিসে চুক্তিবদ্ধ হয়েও বেশ কিছু সরকারি প্রতিষ্ঠান সময়মতো সেবা দিচ্ছে না। যদিও বিডা চেয়ারম্যান বলছেন, সেবা দিতে হয়রানি করা হলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে তারা। 

ব্যবসা সহজে করা যায় এমন সূচকে বিশ্বের ১৯০ টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান এখনও ১৬৮ তম। আর এমন পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে দেশি বিদেশী উদ্যোক্তাদের একসাথে সব ধরনের সেবা দিতে আইন করে গঠন করা হয় ওয়ান স্টপ সার্ভিস। যার নেতৃত্ব দিচ্ছে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ-বিডা।

বিডার হিসেব বলছে, প্রতিষ্ঠার পর থেকে মোট ৩৯,৭২২ টি সেবা প্রদান করা হয়েছে ওয়ান স্টপ সার্ভিসের মাধ্যমে। যার মধ্যে বেধে দেয়া সময়ের মধ্যে দেয়া গেছে ১৯,৯৫৫ টি আর সময়ের বাইরে ১৯,৭৬৭ টি সেবা দিয়ে বিডা। যার সিংহভাগই বিদেশী বিনিয়োগকারিদের জন্য। 

এর বাইরে আরো ৩৫টি সেবা দিতে বিভিন্ন সরকারি সংস্থার সাথে ধাপে ধাপে চুক্তি করেছে বিডা। তবে চুক্তি অনুযায়ি সেবা দিতে পারছেনা বেশ কয়েকটি সরকারি সংস্থা। বিডা চেয়ারম্যান অবশ্য বলছেন, আরোও ভালো সেবা দিতে চেষ্টা করছেন তারা।

ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই সভাপতি বলছেন, করোনা মহামারি কমে আসায় বাড়ছে বিনিয়োগ, এমন পরিস্থিতিতে ওয়ান স্টপ সেবাও বাড়াতে হবে।

অনেক ব্যবসায়ী মনে করেন, ওয়ান স্টপ সেবা বিদেশী বিনিয়োগকারিরা পেলেও দেশিয় ব্যবসায়ীরা কাঙ্খিত হারে পাচ্ছে না। তবে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ  সেবায় পুরোপুরি দুর্নীতি বন্ধ করে সবার জন্য সময়মতো সেবা নিশ্চিত করার বিকল্প নেই।

বিশ্বব্যাংকের ব্যবসা সহজীকরণ সূচকে ২০২১ এর মধ্যেই একশোর ঘরে আসার পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে সরকার।

আরও পড়ুন:


দুই মেয়েসহ মা নিখোঁজ উৎকন্ঠায় পরিবার

রশি দিয়ে বাধা প্রতিবন্ধী শহিদের বন্দী জীবন

বাগেরহাটে সড়ক দুর্ঘটনায় ক্রিকেটার রিদু নিহত

স্কুল খোলার পর যেভাবে চলবে প্রাথমিকের ক্লাস!


NEWS24.TV / কেআই

পরবর্তী খবর

ঘরে বাজার ডট কমের সাথে কেনাকাটা হবে সাশ্রয়ে

অনলাইন ডেস্ক

ঘরে বাজার ডট কমের সাথে কেনাকাটা হবে সাশ্রয়ে

বাজার আমাদের জীবনের নিত্তনৈমিত্তিক এমনই একটি বিষয় যা ছাড়া জীবন ভাবা কঠিন হয়ে যায়। সে হোক খাবারের জন্য কাঁচা বাজার কিংবা রান্নাঘরের মশলা,হোক প্রিয় কুকুরছানাটির খাবার কিংবা মহামারীর এই সময়ে সুস্থ থাকতে ক্লিনিং ম্যাটারিয়াল। যে কোনো সময়ে এইসকল প্রয়োজনীয় পণ্য হতে দরকার।

মহামারীর এই সংকট লগ্নে কিংবা নগরের ব্যাস্ত জীবনে হয়তো সময় হয়ে ওঠেনা বাজারে গিয়ে প্রয়োজনীয় পণ্য কেনার কিংবা স্বাস্থ্যবিধির কথা ভেবেও সশরীরে গিয়ে বাজার করা হয়ে উঠেছে চিন্তার ব্যাপার। কিন্তু  প্রয়োজন তো মানবে না কোনো বাধাই। তাইতো আপনার সকল প্রয়োজনীয় নিত্যদিনের পণ্য আপনার ঘরে পৌঁছে দিতে রয়েছে ঘরে বাজার ডট কম (Ghore Bazar.com)

২০১৮ সালের ১৪ই এপ্রিল মনিরুজ্জামান সরকার ও সনিয়া আক্তার বন্যা দুই বন্ধু মিলে শুরু করেছিলেন ঘরে বাজার ডট কম(Ghore Bazar.com)। তারা ভাবতেন মোবাইল, পোশাক,গহণা যদি ঘরে বসেই কেনাকাটা করা যায় তাহলে ঘরের নিত্যকার বাজার কিংবা কাঁচাবাজার ই বা কেন নয়?

সেই ভাবনা থেকেই সকল ধরনের দৈনন্দিন দরকারি পণ্যটি আপনার ঘরে পৌঁছে দিতে তাদের এই উদ্যোগ।

১৪টি ক্যাটাগরির মধ্যে ৭০টি সাবক্যাটাগরিতে প্রায় ৭০০০ এর ও বেশি পণ্য দিয়ে সাজানো হয়েছে ঘরে বাজার ডট কমের বাজারটি শুধু আপনার জন্য। মাছ-মাংস,শাক-সবজি থেকে শুরু করে মশলা, বিভিন্ন ধরণের ফ্রোজেন ফুড থেকে শুরু করে আপনার প্রিয় পোষ্য প্রাণীর খাবার,স্কুল-কলেজের প্রয়োজনীয় স্টেসনারী থেকে আপনার গাড়ির মোবিল সবই পাবেন ঘরে বাজার ডট কমে।

ঘরে বাজার ডট কম হলো একটি পিওর গ্রোসারি ই কমার্স প্রতিষ্ঠান। এখানে নিজস্ব ওয়ার হাউজে প্রতিটি আসল ও ভেজালমুক্ত পণ্য সংরক্ষণ করা হয় এবং এখান থেকেই ডেলিভারি দেওয়া হয়।

নিজের পরিবারের জন্য যেমন সবচেয়ে সেরা জিনিস টি নিতে আপনি আপোষ করেন না একই ভাবে ঘরে বাজার ডট কম ও গ্রাহক কে বাজারের সেরা জিনিস টি দিতে সবসময়ই সজাগ।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের যেকোনো জায়গা থেকে ঘরে বাজার ডট কম(Ghore Bazar.com) এর ওয়েব সাইট কিংবা এপ থেকে যেকোনো পণ্য অর্ডার করলে সর্বোচ্চ ভালো মানের পণ্য যাচাই বাছাই করে মাত্র ১ঘন্টার মধ্যে ডেলিভারি হবে আপনার কাঙ্ক্ষিত পণ্য।

বিভিন্ন উৎসব উপলক্ষে বিশেষ মূল্যছাড় ছাড়াও ৯৯৯টাকার বেশি পণ্য অর্ডারে পেয়ে যাবেন ফ্রি ডেলিভারি ঘরে বসেই। পণ্য পাওয়ার পর টাকা পরিশোধ, কার্ড কিংবা অনলাইনে সব ভাবেই রয়েছে পেমেন্ট এর সুবিধা।

আরও পড়ুন:

এক বছরের চেষ্টায় নীলগিরিতে 'মানুষখেকো' বাঘ জীবিত আটক

বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ভারত-পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ

ফাইনালে কলকাতা-চেন্নাইয়ের সম্ভাব্য একাদশ, সাকিব থাকছেন কি?

আফগানিস্তানে শিয়া মসজিদে বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ৩০


ভুল পণ্য কিংবা ভুল মূল্যের পণ্য যেগুলো কাঁচাবাজার যদি ডেলিভারি হয় সেক্ষেত্রে রয়েছে ৬ঘন্টার মধ্যে এক্সচেঞ্জ এর সুযোগ। এছাড়া যেকোনো ধরণের পণ্যে যদি কোনো সমস্যা দেখা দেয় এবং এটি যদি আপনি ব্যবহার না করেন তাহলে ৩দিনের মধ্যে জানালে রয়েছে এক্সচেঞ্জ কিংবা মানি ব্যাক পলিসি।

সর্বোচ্চ সাশ্রয়ী মূল্যে অল্প সময়ে নাগরিক জীবনের সুন্দর সমাধান করার লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে ঘরে বাজার ডট কমে। প্রতিষ্ঠানটি আগামী ১/২বছরের মাঝে প্রতিটি বিভাগীয় শহরে পৌঁছে দিতে চায় তাদের সেবা।

ঘরে বাজার ডট কম থেকে আপনার পণ্যটি কিনতে যোগাযোগ করতে পারেন তাদের হটলাইনে। প্লে স্টোর কিংবা গুগল স্টোরে পেয়ে যেতে পারেন তাদের এপ। কিংবা সরাসরি যোগাযোগ করতে পারেন তাদের ওয়েবসাইট এ (www.ghorebazar.com)

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

রেকর্ড ভাঙার দ্বারপ্রান্তে বিটকয়েনের দাম!

অনলাইন ডেস্ক

রেকর্ড ভাঙার দ্বারপ্রান্তে বিটকয়েনের দাম!

বিটকয়েন বিশ্বের সবথেকে বড় ক্রিপ্টোকারেন্সি। গত ৬ মাসে প্রথমবারের মতো শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) বিটকয়েনের দাম ৬০ হাজার ডলার ছুঁয়েছে।

এপ্রিল মাসের পর থেকে এটির দাম ৬০ হাজার ডলারের কাছে ঘেঁষতে পারেনি। তবে এবার ৪.৫ শতাংশ দাম বাড়ায় বর্তমান দাম দাঁড়িয়েছে ৫৯ হাজার ৩০ ডলারে। রয়টার্সের এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে। 

এতে আরও বলা হয়েছে, ইউএস সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি) আগামী সপ্তাহে প্রথম ইউএস বিটকয়েন ফিউচার ইটিএফ (এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ড) ট্রেডিং শুরু করার অনুমতি দিতে প্রস্তুত, এমন ইঙ্গিত পাওয়ার কারণেই বিটকয়েনের দর ঊর্ধ্বমুখী।

আরও পড়ুন:


আইপিএল: কে কোন পুরস্কার পেলেন জেনে নিন

মোবাইলে টুজি সচল, থ্রিজি ও ফোরজির জন্য নেটিজেনদের আক্ষেপ

সন্তান জন্ম দিয়েই মারা গেলেন নির্যাতনের শিকার গায়ে আগুন দেয়া সেই কিশোরী

নতুন সুখবর দিলেন জয়া


গত ২০ সেপ্টেম্বরের পর থেকেই দামের এই ঊর্ধ্বমুখিতা দেখা গেছে। বিটকয়েনের ইতিহাসের এর সর্বোচ্চ দাম উঠেছিল ৬৪ হাজার ৮৯৫ ডলারে। বর্তমানে সেই রেকর্ড ভাঙার দ্বারপ্রান্তে রয়েছে বিটকয়েনের দাম। 

news24bd.tv রিমু  

পরবর্তী খবর

যশোরে আউশ ধানের আশানুরূপ উৎপাদন

রিপন হোসেন

যশোরে এ বছর আউশ ধানের আশানুরূপ উৎপাদন হয়েছে। বর্তমানে ধান কাটা ও মাড়াইয়ের কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন এ অঞ্চলের কৃষকরা । আবার বাজারে বিক্রিও করছেন অনেকে । বাজার দর চড়া থাকায় খুশী তারা ।

যশোরের মনিরামপুর, বাঘারপাড়া, শার্শা ও অভয়নগর উপজেলার বেশ  কয়েকটি এলাকায় আউশ ধান  পাকতে শুরু করেছে। কষ্টে ফলানো সোনার ফসল ঘরে তুলতে ব্যস্ত  কৃষক-কৃষাণীরা ।

 কৃষকরা জানান, এ বছর আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় আউশ ধানের আশানুরুপ উৎপাদন হয়েছে। বোরো ধানের চেয়ে আউশ ধানের উৎপাদন খরচ কম । এ ধান তোলার পর একই জমিতে আবার সবজি চাষ করা হয় । এ কারণে এই ধান আবাদে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন অনেকে ।

আরও পড়ুন:


ইউনিয়ন নির্বাচন নিয়ে সহিংসতা, নিহত ৪ 

আ.লীগের মনোনয়নপত্র বিক্রি ১৬ থেকে ২০ অক্টোবর

দেশে সাম্প্রদায়িক হামলাগুলোর মদদ দিচ্ছে সরকার: ফখরুল

সেদিন নীল শাড়িটাই পরবো: মাহি

দ্বিতীয় বিয়ে করে সত্যিই 'সারপ্রাইজ' দিলেন মাহি


এই ধান বাজারে বিক্রিও শুরু করেছেন কেউ কেউ । দর ভাল থাকায় খুশী তারা ।

আউশ ধান রোপণ ও বপনের বিষয়ে কৃষকদের মাঠ পর্যায়ে সব ধরণের সহায়তা করেছে স্থানীয়  কৃষি বিভাগ ।  

চলতি মৌসুমে এ  জেলায় ১৬ হাজার ৩০০ হেক্টর জমিতে আউশ ধানের চাষ হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

যশোরে এ বছর আউশ ধানের আশানুরুপ উৎপাদন

রিপন হোসেন, যশোর

যশোরে এ বছর আউশ ধানের আশানুরুপ উৎপাদন হয়েছে। বর্তমানে ধান কাটা ও মাড়াইয়ের কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন এ অঞ্চলের কৃষকরা। 

আবার বাজারে বিক্রিও করছেন অনেকে। বাজার দর চড়া থাকায় খুশি তারা। যশোরের মনিরামপুর, বাঘারপাড়া অভয়নগর উপজেলার বেশ কয়েকটি এলাকায় আউশ ধান  পাকতে শুরু করেছে। কষ্টে ফলানো সোনার ফসল ঘরে তুলতে ব্যস্ত কৃষক-কৃষাণীরা। 

আরও পড়ুন


থেমে-থেমে জ্বর আসছে খালেদা জিয়ার, খাচ্ছেনও খুবই অল্প

কুমিল্লার ঘটনা উদ্দেশ্যমূলক ও পরিকল্পিত: রিজভী

যুক্তরাষ্ট্রে উড়াল দিলেন মৌসুমী, ভিসা মেলেনি ওমর সানীর

ক্ষমতায় যাওয়ার বিএনপির রঙিন খোয়াব অচিরেই দুঃস্বপ্নে পরিণত হবে: কাদের


কৃষকেরা জানান, এ বছর আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় আউশ ধানের আশানুরুপ উৎপাদন হয়েছে। বোরো ধানের চেয়ে আউশ ধানের উৎপাদন খরচ কম। এ ধান তোলার পর একই জমিতে আবার সবজি চাষ করা হয়। এ কারণে এই ধান আবাদে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন অনেকে। এই ধান বাজারে বিক্রিও শুরু করেছেন কেউ কেউ। দর ভাল থাকায় খুশি তারা।

আউশ ধান রোপণ ও বপনের বিষয়ে কৃষকদের মাঠ পর্যায়ে সব ধরণের সহায়তা করেছে স্থানীয়  কৃষি বিভাগ। চলতি মৌসুমে এ জেলায় ১৬ হাজার ৩০০ হেক্টর জমিতে আউশ ধানের চাষ হয়েছে। 

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

পেঁয়াজ-চিনিতে কমলো শুল্ক

অনলাইন ডেস্ক

পেঁয়াজ-চিনিতে কমলো শুল্ক

পেঁয়াজ ও চিনির দাম নিয়ন্ত্রণে শুল্ক কমিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। পেঁয়াজ আমদানির ক্ষেত্রে শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৫ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে। চিনির নিয়ন্ত্রণমূলক শুল্ক (আরডি) ৩০ শতাংশ থেকে কমিয়ে ২০ শতাংশ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত দুটি পৃথক প্রজ্ঞাপন জারি করেছে এনবিআর।

আজ ১৪ অক্টোবর থেকেই নতুন শুল্কহার কার্যকর হয়েছে। চিনির নতুন শুল্কহার কার্যকর থাকবে আগামী বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। অন্যদিকে পেঁয়াজের নতুন শুল্কহার কার্যকর থাকবে আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

এর আগে বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশন পেঁয়াজ ও চিনির ওপর শুল্ক কমানোর সুপারিশ করেছিল। পরে পেঁয়াজ, চিনি ও ভোজ্য তেলে শুল্ক-কর কমানোর জন্য এনবিআরকে অনুরোধ করে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। 

আরও পড়ুন:


ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইপিএল নিয়ে জুয়া, ৩ জনের সাজা

চট্টগ্রাম আদালত এলাকায় বোমা হামলা মামলার রায় আজ

টুইটার অ্যাকাউন্ট ফিরে পেতে আদালতে ট্রাম্প

যুবলীগ নেতার সঙ্গে ভিডিও ফাঁস! মামলা তুলে নিতে নারীকে হুমকি


 

দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখতে সোমবার আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক করে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। পেঁয়াজের দাম উঠলে ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাসে এনবিআর পেঁয়াজে আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করেছিল। তখন শুল্ক প্রত্যাহারের মেয়াদ ২০২১ সালের ৩১ মার্চ পর্যন্ত বেঁধে দেওয়া হয়েছিল। এপ্রিল মাস থেকে আবার পেঁয়াজের আমদানি শুল্ক ৫ শতাংশ পুনর্বহাল করা হয়।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর