কুষ্টিয়ায় হঠাৎ টিকাদান বন্ধ, জনভোগান্তি
কুষ্টিয়ায় হঠাৎ টিকাদান বন্ধ, জনভোগান্তি

কুষ্টিয়ায় হঠাৎ টিকাদান বন্ধ, জনভোগান্তি

Other

সময়মতো টিকার গাড়ি না আসায় কুষ্টিয়ায় আজ সকাল থেকে বন্ধ হয়ে গেছে করোনার টিকাদান। সকালে সিভিল সার্জন অফিসের ফেসবুকে টিকাদান বন্ধ থাকবে এ ঘোষণা দিলেও কেন্দ্রে এসে ফিরে গেছেন টিকা গ্রহিতারা। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তারা।

আগেভাগেই টিকা নিয়ে কাজে যাবেন এমন প্রত্যাশায় সূর্য উঠার আগেই কুষ্টিয়ার কলকাকলী মাধ্যমিক বিদ্যালয় টিকাদান কেন্দ্রে ভিড় করেন মানুষ।

কিন্তু দীর্ঘ অপেক্ষার পর জানতে পারেন টিকা নেই, আজ দেওয়া হবে না। বেলা বাড়তে থাকলে
টিকাদান কেন্দ্রের প্রধান ফটকের সামনে মানুষের ভিড বাড়তে থাকে। এদের কেউ এসেছেন চাকরি থেকে ছুটি নিয়ে, কেউবা কৃষি কাজ ফেলে, কেউ এসেছেন অনেক দূর থেকে। কিন্তু সবাইকে ফিরে যেতে হচ্ছে।

সোমবার সকালে সিভিল সার্জন অফিস, কুষ্টিয়ার ফেসবুক পেইজে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে- অনিবার্য কারণবশত আজ ১৩/০৯/২০২১ মঙ্গলবার কুষ্টিয়া জেলার সকল কেন্দ্রে কোভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রম সাময়িকভাবে বন্ধ থাকবে।

টিকা নিতে আসা আবু তালেব বলেন, গতকাল টিকা নিতে আসছিলাম, বলেছিল শেষ হয়ে গেছে আজ আসতে। আজ আসছি- আজো বলছে টিকা শেষ হয়ে গেছে। তিনি জানতে চান এখন কী করবো?

বেসরকারি চাকুরে সেলিম হোসেন বলেন, আমিও কাল আসছিলাম। বলেছিলো আজ টিকার গাড়ি আসবে ৯-১০ টায় দিকে শুরু করবে। আজও দিচ্ছে না। অফিষ কামাই করে আসলাম।

আরও পড়ুন:


এসএসসি-এইচএসসির পরীক্ষা ও ফলাফলের নতুন নিয়ম

ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি রোহিত শর্মার কাঁধে

রমিজ রাজা পিসিবির চেয়ারম্যান

৯৩০ মাইল পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া

আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় নষ্ট হচ্ছে কোটি টাকার গাছ


তিনিও প্রশ্ন করেন কবে টিকা দেবে সেই কথা কে জানাবে।

কৃষিকাজ ফেলে এসেছেন আতিয়ার রহমান। দ্বিতীয় ডোজ নেয়ার মেসেজ এসেছে তাই আসলাম। এসে দেখছি সব মানুষ ফিরে যাচ্ছে। কাজ কামাই করে আসলাম। আসার খরচও হলো কাজও কামাই হলো। এভাবে হয়রানি করার কোন মানে হয়? প্রশ্ন করেন তিনি।

সীমা রানীও এসেছেন দ্বিতীয় ডোজ নিতে। তিনি জানার চেষ্টা করছিলেন টিকা আজ দেবে কিনা।

খলিসাকুন্ডি থেকে আসা এক নারী বলেন, আগেও দুই দিন ঘুরে গেছেন। এতো দূর থেকে এসে বারবার ঘুরে যাচ্ছি, খুব অসুবিধা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

অনেকেই বলেন, মেসেজ মোতাবেক এসেও আমাদের ফেরত যেতে হচ্ছে। কেন্দ্র থেকে মৌখিকভাবে আসতে বলা হয়। তারপরও ফিরে যেতে হচ্ছে।

এ ব্যাপারে কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন ডা. আনোয়ারুল ইসলাম জানান, আমাদের একটা গড়মিল হয়ে গেছে। ভোর ৪টার সময় গাড়ি আসার কথা ছিলো। বিশেষ কারণে এটা আসেনি। আমরা চেয়েছিলাম একদিন যাতে টিকা দেয়া বন্ধ না থাকে। সেজন্য মেসেজ দিয়েছিলাম টিকা গ্রহিতাদের। মেসেজতো ফেরত নেয়া যায় না। আজ আর নতুন করে মেসেজ দিচ্ছি না। যদি আগামীকাল ভোর ৪টার সময় গাড়ি আসে তাহলে কালই টিকা দেওয়া যাবে।

তিনি বলেন, এর আগে এমন হয়নি। রাত ৯টায় গাড়ি ঢাকা থেকে আসে, ভোর ৪টায় পৌঁছে যায়।

তিনি বলেন, এবার ১ লাখ সিনোফার্মার ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে কুষ্টিয়ার জন্য। এ দিয়ে আগামী ১২-১৩ দিন চলবে। মানুষের ভোগান্তি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কেন্দ্রগুলোতে স্বাস্থ্যবিভাগের লোক রাখা হয়েছে- তারা মানুষকে বুঝিয়ে যাতে ফিরিয়ে
দেয়।

সিভিল সার্জন বলেন, কুষ্টিয়া কলকাকলী কেন্দ্রে প্রদীপ নামে একজন আছে। পরে প্রদীপকে খুঁজে পাওয়া যায় কেন্দ্রের ফটকের থেকে দূরে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ছাউনির নিচে বসে আছেন। প্রথমে নিজের পরিচয় অস্বীকার করলেও পরে বলেন মানুষকে বলে বলে কাহিল হয়ে পড়েছি।

প্রতিদিন কুষ্টিয়ার ৮টি কেন্দ্র থেকে ৮ থেকে ৯ হাজার টিকা দেওয়া হয়। কিন্তু গত ১১ সেপ্টেম্বর ১১০ জনকে প্রথম ডোজ দেওয়ার পর অ্যাস্ট্রোজেনেকার টিকা শেষ হয়। আর সিনোফার্মার টিকা শেষ হয়েছে ১২ সেপ্টেম্বর। এদিন ৭৫১ জনকে প্রথম ডোজ ও দ্বিতীয় ডোজ ৪৯৪ জনকে দেওয়া হয়েছে।

কুষ্টিয়ায় এ পর্যন্ত টিকার জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছেন ৬ লাখ ১৮ হাজার ৪৪৩ জন। প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন ২ লাখ ৪৬ হাজার ৭৬১ জন। দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ১ লাখ ২১ হাজার ৩০৩ জন।

news24bd.tv তৌহিদ