পুরাতন স্মার্টফোন কেনার আগে যা জানা জরুরি

অনলাইন ডেস্ক


পুরাতন স্মার্টফোন কেনার আগে যা জানা জরুরি

ব্যবহৃত ফোন কিনলে মাঝেমধ্যে পড়তে হয় মহাবিপদে। কারণ এই ধরনের ফোন কেনার অল্প কিছুদিন পরই বিগড়ে যায় ফোন। কিন্তু একটু সতর্ক হলেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক পুরনো বা অন্যের ব্যবহার করা স্মার্টফোন কেনার আগে কী কী জিনিস দেখে নেবেন-

>> ক্যামেরা স্মার্টফোনের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। সেটিও ঠিক করে কাজ করছে কি না কেনার আগে ভালো করে দেখে নিন।

>> চার্জারের সঙ্গে জুড়ে ভালো করে দেখে নিন, ফোন চার্জ হচ্ছে কি না। হেডফোন বা ইয়ারফোনের জ্যাকও পরীক্ষা করে নিন।

>> ফোনটির গায়ে কোনো চিহ্ন আছে কি না, ভালো করে দেখে নিন। আঘাতের চিহ্ন থাকলে বুঝবেন যে, ফোনের যন্ত্রাংশের ক্ষতি হয়ে থাকতে পারে।

>> দেখে নতুন বলে মনে হলেও অনেক পুরনো ফোনের টাচস্ক্রিনই কাজ করে না। হয়তো পুরনো টাচস্ক্রিন ভেঙে যাওয়ার পরে নতুন স্ক্রিন লাগিয়ে আগের ব্যবহারকারী ফোনটি বিক্রি করছেন। তাই ফোনটি কেনার আগে স্ক্রিনে টাইপ করে দেখে নিন কোনো অসুবিধা হচ্ছে কি না।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

আজকের রাশিফল, কী আছে ভাগ্যে জেনে নিন

অনলাইন ডেস্ক

আজকের রাশিফল, কী আছে ভাগ্যে জেনে নিন

আজ বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর। বৈদিক জ্যোতিষে ১২টি রাশি- মেষ, বৃষ, মিথুন, কর্কট, সিংহ, কন্যা, তুলা, বৃশ্চিক, ধনু, মকর, কুম্ভ ও মীন-এর ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়। একই রকমভাবে ২৩টি নক্ষত্রেরও ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়ে থাকে। ভাগ্য রেখা অনুযায়ী আপনার আজকের দিনটি কেমন কাটবে, দেখে নিন।  

মেষ: শুভ অপেক্ষা অশুভ ফলের মাত্রা বৃদ্ধি পাবে। বাড়িতে ইলেকট্রনিক্স সামগ্রীর পসরা সাজবে। সংকটকালে বন্ধুবান্ধব আত্মীয়-পরিজন সাহায্যের হাত বাড়িয়ে ধরবে। মামলা মোকদ্দমার ও কোর্ট কেসের রায় পক্ষে নাও আসতে পারে।

বৃষ: ডাকযোগে চেকমানিঅর্ডার বিকাশ এমনকি নগদ অর্থ আসতে পারে। বিদেশে অবস্থানরত স্বজনদের স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের পথ খুলবে। নিঃসন্তান দম্পতিরা কোনো না কোনো শুভ সংবাদপ্রাপ্ত হবেন। মন সুর সংগীত ও ধর্মের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে থাকবে।

মিথুন: কর্ম অর্থ সুনাম যশ প্রতিষ্ঠার পথ সুগম করবে। পিতা-মাতার কাছ থেকে ভরপুর সহযোগিতাপ্রাপ্ত হবেন। সন্তানদের সাফল্যে গৌরবান্বিত হবেন। প্রেমীযুগলের প্রেম-বিবাহের মাধ্যমে সমাজে স্বীকৃতি পাবে। দ্রুতগতির বাহন বর্জন করা শ্রেয়।

কর্কট: ভাগ্যলক্ষ্মী প্রসন্ন হওয়ায় সফলতা আপনার চরণ স্পর্শ করবে। দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্নসাধ বাস্তবায়িত হবে। শিক্ষার্থীদের হাতে থাকা কাজ সম্পন্ন হবে। দাম্পত্য সুখ-শান্তি প্রতিষ্ঠা বজায় রাখতে জীবনসাথীর মতামতকে গুরুত্ব দিন।

সিংহ: দুর্ঘটনা ও অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ভিড়ভাড় তীব্রগতির বাহন বর্জন করুন। প্রেমীযুগলরা সতর্কতার সঙ্গে চলাফেরা করুন। অপরিচিত কাউকে আশ্রয় দেওয়া খাল কেটে কুমির আনার সমান হবে। রাগ জেদ অহংকার আবেগ বর্জন করার আবশ্যকতা রয়েছে।

কন্যা: জীবনসাথী শ্বশুরালয় থেকে ভরপুর সহযোগিতা পাবেন। ডাকযোগে প্রাপ্ত সংবাদ বেকারদের মুখে হাসির ঝলক ফোটাবে। প্রেমীযুগলের প্রেম-বিবাহের মাধ্যমে সমাজে স্বীকৃতি পাবে। লৌকিকতায় যেমন ব্যয় হবে তেমনি উপহারও প্রাপ্ত হবেন।

তুলা: সিজনাল রোগব্যাধির প্রকোপ বৃদ্ধি পাবে। অর্থকড়ির ব্যাপারে কাউকে অধিক বিশ্বাস করা ঠিক হবে না। গুপ্ত ও প্রকাশ্য শত্রুর চাপ বৃদ্ধি পাবে। দূর থেকে আসা কোনো অপ্রিয় সংবাদে মন বিষণ হয়ে পড়বে। মন সুর সংগীতের প্রতি আকৃষ্ট থাকবে।

বৃশ্চিক: পিতামাতার কাছ থেকে ভরপুর সহযোগিতা প্রাপ্ত হবেন। কর্ম ও ব্যবসা-বাণিজ্যে তরতাজা উন্নতি করে চলবেন। মামলা মোকদ্দমার রায় পক্ষে আসবে। শিক্ষার্থীদের হাতে নিত্যনতুন সুযোগ এসে হাজির হবে। সন্তানদের সাফল্যে গৌরবান্বিত হবেন।

ধনু: দীর্ঘদিনের দাম্পত্য ও পারিবারিক কলহ-বিবাদের মীমাংসা হবে। সহকর্মী ও অংশীদারদের কাছ থেকে ভরপুর সহযোগিতাপ্রাপ্ত হবেন। দূর থেকে আসা কোনো সংবাদ বেকারদের কর্মপ্রাপ্তির বাসনা পূরণ করবে। ভ্রমণ যোগ পরিলক্ষিত হবে।

রও পড়ুন:

নারী ক্ষমতায়নে আন্তর্জাতিক সম্মেলন আয়োজনের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

বিচারের কাঠগড়ায় অং সান সুচি

ফ্রান্সের পাশে ইউরোপীয় ইউনিয়ন

৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ, আটক ৩


মকর: কর্মের সুনাম যশ পদোন্নতির পথ সুগম করবে। বিদেশগমন ও স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের পথ খুলবে। গৃহবাড়ি অতিথি সমাগমে মুখর হয়ে থাকবে। রাগ জেদ হটকারী সিদ্ধান্ত ঘাতক বলে প্রমাণিত হবে। দ্রুতগতির বাহন এড়িয়ে চলুন।

কুম্ভ: চতুর্দিক থেকে লাগাতার উন্নতি করে চলবেন। মামলা মোকদ্দমার রায় পক্ষে আসবে। গৃহবাড়ি ভূমি সম্পত্তি ও যানবাহন লাভের পথ খুলবে। অপরিচিত কাউকে আশ্রয় দেওয়া খাল কেটে কুমির আনার সমান হবে।

মীন: মনোবল জনবল অর্থবলের গ্রাফ চাঙা হয়ে উঠবে। গৃহবাড়ি ভূমি সম্পত্তি ও যানবাহন লাভের পথ প্রশস্ত হবে। হারানো পিতৃমাতৃ ধনসম্পদ সম্পত্তি প্রাপ্তির পথ খুলতে পারে। শিক্ষার্থীদের কঠোর শ্রম  মেধা প্রযুক্তির ফল পাবেন।

news24bd.tv রিমু 

 

পরবর্তী খবর

চুলের আগা ফাটা দূর করার ৫টি টিপস

অনলাইন ডেস্ক

চুলের আগা ফাটা দূর করার ৫টি টিপস

চুলের আগা ফাটা অনেকেরই সমস্যা। নিয়মিত যত্ন এবং সঠিক খাওয়াদাওয়া সহজেই এই সমস্যাকে কাবু করতে পারে। কিছু সাধারণ যত্ন ও ঘরে তৈরি হেয়ার মাস্কও হতে পারে সমাধান।

চলুন জেনে নেয়া যাক চুল ফাটা রোধে ঘরোয়া উপায়:

হট অয়েল ট্রিটমেন্ট:

অতীতেও চুলে তেলের ব্যবহার ছিল অপরিহার্য। চুলের দৈর্ঘ্য অনুযায়ী পর্যাপ্ত পরিমাণে অলিভ অয়েল অথবা নারকেল তেল গরম করে স্ক্যাল্পে ম্যাসাজ করতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে, চুলের গোড়া থেকে আগার দিকে তেল মালিশ করবেন। খুব জোরে ঘষলে চুলের কিউটিকল ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। অন্তত এক ঘণ্টা চুলে তেল লাগিয়ে রাখা উচিত।

কলা:

কলাকে বলা হয় প্রাকৃতিক কন্ডিশনার। পাশাপাশি এটি চুলের ইলাস্টিসিটি বাড়ায় এবং চুল পড়া রোধ করে। কলা চটকে সরাসরি চুলে লাগানো যেতে পারে। আবার কলা, মধু ও টক দইয়ের পেস্টও ব্যবহার করা যায়।

মরোক্কান অয়েল:

চুল নরম ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল করতে এই তেল দারুণ কার্যকর। এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ই, ওমেগা-৩ এবং ওমেগা-৬-ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে, যা চুলের জন্য প্রয়োজনীয়। শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার ব্যবহারের পর চুলে তোয়ালে জড়িয়ে রাখুন, যাতে অতিরিক্ত জল শুষে নেয়। অল্প মরোক্কান অয়েল হাতে নিয়ে ভিজে চুলের মাঝামাঝি থেকে ডগা অবধি ম্যাসাজ করুন। প্রতিবার শ্যাম্পু করার পর এভাবে মরোক্কান অয়েল ব্যবহার করলে ভালো ফল পাওয়া যায়।

মধু:

প্রাকৃতিক গুণে সমৃদ্ধ মধু চুলের আগা ফাটা রোধ করে। টক দই ও মধু মিশিয়ে ঘন মিশ্রণ তৈরি করে, মিশ্রণটি চুলের ডগায় লাগিয়ে আধা ঘণ্টা রেখে দিতে হবে। এরপর শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিতে হবে।

আর্গান অয়েল:

এটি ‘লিক্যুইড গোল্ড’ নামেও পরিচিত। আর্গান বীজ থেকে এই তেল তৈরি করা হয়। ভিটামিন ই, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, ফ্যাটি অ্যাসিডসমৃদ্ধ আর্গান অয়েলও চুলের আগা ফাটা রোধ করে। শ্যাম্পু করার পর ভেজা চুলে আর্গান অয়েল লাগালে তা বেশি কার্যকর। যারা ঘন ঘন চুলে হিটিং টুলস বা স্টাইলিং পণ্য যেমন মুজ, জেল বা স্প্রে ব্যবহার করেন, তারা যদি এসব পণ্য ব্যবহার করার আগে বা পরে আর্গান অয়েল ব্যবহার করেন, তাহলে চুলের কম ক্ষতি হয়।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

আজকের রাশিফল, কী আছে ভাগ্যে জেনে নিন

অনলাইন ডেস্ক

আজকের রাশিফল, কী আছে ভাগ্যে জেনে নিন

আজ মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর। বৈদিক জ্যোতিষে ১২টি রাশি- মেষ, বৃষ, মিথুন, কর্কট, সিংহ, কন্যা, তুলা, বৃশ্চিক, ধনু, মকর, কুম্ভ ও মীন-এর ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়। একই রকমভাবে ২৩টি নক্ষত্রেরও ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়ে থাকে। ভাগ্য রেখা অনুযায়ী আপনার আজকের দিনটি কেমন কাটবে, দেখে নিন।  

মেষ: আপনি আপনার আর্থিক, কেরিয়ার এবং সম্পত্তির যেকোনও আলোচনা সহ বেশ কয়েকটি বিষয় সম্পর্কে তীব্রভাবে ব্যক্তিগত বোধ করবেন। দাতব্য কাজ চালিয়ে যেতে ভুলবেন না, কারণ এখানেই আপনার ভবিষ্যৎ রয়েছে। কর্ম সংক্রান্ত নানান দিক আপনার দিকেই পরিচালিত হবে।

বৃষ: যদি কেরিয়ারের পরিকল্পনা করেন, অনুগ্রহ করে আপনার অগ্রগতি পরীক্ষা করার জন্য কিছুটা সময় দিন। সাহায্য চাওয়ার জন্য এটি একটি ভাল মুহূর্ত, প্রধানত কারণ আপনার আশেপাশের মানুষ ভাল মেজাজে আছে। নিজের ব্যক্তিগত প্রশ্নগুলি ভুলবেন না। সেগুলি বহাল রাখুন।

মিথুন: যথেষ্ট পরিশ্রম করছেন কিন্তু কিছু দ্বিধা থাকবে। আজ যদি কেরিয়ারের নতুন কোনও চাহিদা না থাকে, তাহলে নির্দ্বিধায় আপনার শক্তি একটি সৃজনশীল বা অবসর ক্রিয়াকলাপে নিক্ষেপ করুন। একজন পুরোনো বন্ধু বা আত্মীয়ের পরামর্শ প্রয়োজন যা শুধুমাত্র আপনিই দিতে পারেন। নিজে যা জানেন সবার মধ্যে ছড়িয়ে দিন।

কর্কট: আর্থিক প্ররোচনা থাকবে। নিজেকে যেকোনও কাজে এগিয়ে দিন। সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় এসেছে। জীবনের মান বাড়ানোর জন্য প্রস্তুত হন। প্রেমেও সন্দেহ রাখুন।

সিংহ: পরিবারের সদস্যরা অবশ্যই একটি কঠিন মেজাজে থাকবে এবং তাদের স্থিতিশীলতার আকাঙ্ক্ষা অনেক গভীর আবেগের প্রশ্নের সাথে আবদ্ধ। যা এখন ঘটছে তা আপনাকে বিচ্ছিন্ন করার জন্য যথেষ্ট। এটি নিশ্চিত করতে পারে যে অংশীদাররা স্বীকার করে যে আপনি সর্বদা সঠিক ছিলেন।

কন্যা: গার্হস্থ্য অগ্রাধিকার থেকে এখনও বঞ্চিত থাকবেন। পেশাদার উচ্চাকাঙ্ক্ষা হস্তক্ষেপ করছে। গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা চালিয়ে যান। যদিও সিদ্ধান্তগুলি এখনও চূড়ান্ত হওয়ার আশা করবেন না। প্রকৃতপক্ষে কোনও কিছুই নিশ্চিত হওয়ার আগে আরও দুই বা তিন মাস হতে পারে।

তুলা: ইঙ্গিতগুলি পরস্পরবিরোধী, আপনি কোনও বিড়ম্বনার মধ্যে থাকতে পারেন। গার্হস্থ্য উত্তেজনা এবং দ্রুত সিদ্ধান্তের প্রয়োজন হবে তবে আপনার মনোবল ধরে রাখার জন্য পর্যাপ্ত ইতিবাচক বিকাশ রয়েছে। আপনি এখনও আপনার মনের মতো অনেক কিছু পেয়েছেন এবং এটি আরও কয়েক সপ্তাহের জন্য বহাল থাকবে।

বৃশ্চিক: ক্রয় -বিক্রয় যাই হোক না কেন, সম্পত্তির ব্যাপারে আপনি সৌভাগ্যের আশা করতে পারেন। কমনসেন্সের সঠিক ভারসাম্য রয়েছে, যা সবই আপনাকে সফলভাবে দিন পার করার জন্য যথেষ্ট হওয়া উচিত। কর্মক্ষেত্রে দীর্ঘমেয়াদী দৃষ্টিভঙ্গি নিন এবং নিঃশব্দে অভিজ্ঞতা বাড়ানোর দিকে মনোনিবেশ করুন।

ধনু: সম্পর্ক সবসময় আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। প্রকৃতপক্ষে, এটা প্রায়ই বলা হয় যে আপনার স্বাধীন চেতনা সত্ত্বেও। আপনি সঠিকভাবে কাজ করতে পারবেন না। আপনার সবসময় কারওর সহযোগিতা প্রয়োজন। বর্তমান সম্ভাবনাগুলি ভাল হবে না। সবকিছুই সঠিক ক্রমে কাজ করার উপর দাঁড়িয়ে।

রও পড়ুন:

যশ-নুসরাতকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন নিখিল!

ব্রিটিশ রাজকুমারী বিট্রিস ও মোজ্জির ঘরে এল কন্যা সন্তান

রাজ্য সভাপতির পদ হারালেন দিলীপ ঘোষ

শেষ মুহুর্তের গোলে মান বাঁচালো বার্সেলোনা


মকর: আপনার দিকে হঠাৎই শক্তির বিস্ফোরণ হবে। আপনারা কেউ কেউ বর্ধিত চাপ এবং চাপের কারণে ক্লান্ত হয়ে পড়তে পারেন। মনে রাখতে হবে যে অংশীদার এবং সহযোগীরা স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে না।

কুম্ভ: আপনি বিষয়গুলির কেন্দ্রে আছেন এবং ভবিষ্যতের কাছ থেকে আশা করার জন্য আপনার সবকিছু আছে। আপনার সন্দেহ হতে পারে যে অন্য কেউ আপনাকে নিচু করার চেষ্টা করছে, এটিই আপনার দুর্বলতা। এই ধরনের আশঙ্কা সম্ভবত ভিত্তিহীন, কিন্তু তাদের স্বীকৃতি দিয়ে আপনি আশ্বাস খুঁজে পেতে সক্ষম হবেন।

মীন: প্রিয়জনদের নিজস্ব সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার আছে। তবে জেনে রাখুন আপনার সম্পর্কেও একজন সব খবর রাখে। সম্পর্ক থেকে আপনার কী প্রয়োজন তা আপনি সর্বদা নিশ্চিত নন, তবে এখন আপনার আকাঙ্ক্ষার সঙ্গে মিলিত হওয়ার সময় এসেছে।

news24bd.tv রিমু  

পরবর্তী খবর

আক্কেল দাঁত ব্যথায় যা করবেন

অনলাইন ডেস্ক


আক্কেল দাঁত ব্যথায় যা করবেন

আমাদের মুখগহ্বরের উপরের ও নিচের পাটির সবচেয়ে পেছনে বামে-ডানে মিলিয়ে মোট চারটি পেষণ দাঁত রয়েছে, এগুলোই আক্কেল দাঁত। কারো চারটি দাঁতই উঠতে পারে, আবার কারো নাও উঠতে পারে। 

লবঙ্গ:

আক্কেল দাঁতের ব্যথায় এবার থেকে যখন আক্কেল গুড়ুম হওয়ার জোগার হবে, তখন অল্প করে লবঙ্গ নিয়ে দাঁতের ফাঁকে রেখে দেবেন। নিমিষেই ব্যথা দূর হবে।

পেয়ারা পাতা:

পেয়ারা পাতায় উপস্থিত অ্যানালজেসিকস নামে একটি উপাদান চোখের পলকে যন্ত্রণা তো কমায়ই, সেই সঙ্গে দাঁতের ফাঁকে জমে থাকা ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়াদেরও মেরে ফেলে। তাই আক্কেল দাঁতের ব্যথায় পেয়ারা পাতা ধুয়ে চিবিয়ে খান।

পেঁয়াজ:

আক্কেল দাঁত ব্যাথাকে কাবু করতে পেঁয়াজ দারুণ কাজে আসে। এক্ষেত্রে অল্প করে পেঁয়াজ চিবিয়ে নিতে পারেন অথবা আক্কেল দাঁতের উপর রেথে দিলেও দারুণ উপকার মেলে।

রসুন:

রসুনের দুটি কোয়া থেঁতো করে তার সঙ্গে অল্প করে লবণ মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে ফেলুন। এবার সেই পেস্টটা ভালো করে আক্কেল দাঁতের উপর লাগিয়ে দিন। আর যদি এমনটা করতে না পারেন তাহলে পেস্টটি ব্রাশে লাগিয়ে দাঁত মেজে নিন। দেখবেন যন্ত্রণা কমে যাবে।

আরও পড়ুন:


২০৪১ সালের মধ্যে দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদন লক্ষ্য ৬০ হাজার মেগাওয়াট

খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়ল

দুর্নীতি ও মানি লন্ডারিং মামলায় ডিআইজি পার্থ গোপাল কারাগারে

নতুন লুকে পর্দায় ফিরছেন শুভ!


শসা, আলু, বাঁধাকপি:

শসা, আলু বা বাঁধাকপি যেকোনো একটি সাইজ মতো টুকরো করে কাটুন। টুকরাটি আক্রান্ত দাঁতের ওপর রাখুন। ঠাণ্ডা ক্ষত প্রশমিত করবে ও ব্যথা কমাবে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

স্মার্টফোন ব্যবহার: ফিল গুড হরমোনে যে ক্ষতি

অনলাইন ডেস্ক

স্মার্টফোন ব্যবহার: ফিল গুড হরমোনে যে ক্ষতি

ফেসবুকে একটানা স্ক্রল, ভিডিও, ওয়েব-সিরিজ, সিনেমা দেখার নেশা নতুন নয়। আর এই এতে আক্রান্ত বাড়ির ছোট থেকে বড় প্রায় সবাই। একই পরিবারে সবাই থাকা সত্ত্বেও কেউ কারোর সাথে কথা সা বলে ব্যস্ত স্মার্টফোনে। আসলে ভার্চুয়াল দুনিয়ায় কিছু একটা মিস হলেই মনে হয় অনেক বড় কিছু সুযোগ হারিয়ে গেছে। এমনকি এই নেশা ধীরে ধীরে আপনার ধৈর্য, ইচ্ছাশক্তি সবকিছুকেই নিয়ন্ত্রণ করতে শুরু করে।

কিন্তু এই নেশার জন্য দায়ি আপনার স্মার্টফোন বা কোনো সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম নয়। বরং আপনি নিজেই। মানুষের মস্তিস্ক থেকে ফিল গুড বা ডোপামিন নামক একটি হরমোন নিঃসরণ হয়। যা মানুষের শরীরে আনন্দ বা খুশিভাব উত্‍পন্ন করতে সাহায্য করে। এই হরমোনই আপনাকে নতুন কিছু পাওয়ার আশায় এগিয়ে নিয়ে যায়। যেটা আপনাকে আনন্দ দেয়।

এই ডোপামিন হরমোন গেম খেলার সময়, কোনো ওয়েব-সিরিজ দেখার সময় কিংবা ফেসবুক ঘাঁটার সময়ও ক্ষরিত হতে পারে। এটি এমন একটি অনুভূতি তৈরি করে যেখানে আপনি সেই গেম বা ওয়েব-সিরিজ মাঝপথে ছেড়ে আসতে চান না। কিন্তু বিশেষজ্ঞদের মতে, অতিরিক্ত আনন্দভাব পাওয়ার আশায় ডোপামিন ক্ষরণ বেশি হলে তা আপনার মানসিক অবসাদ, দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। যা থেকে বের হওয়া কঠিন।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

পরবর্তী খবর