অতিরিক্ত অর্থ দাবি করায় হোটেলেই হাত-পা বেঁধে যৌনকর্মীকে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

অতিরিক্ত অর্থ দাবি করায় হোটেলেই হাত-পা বেঁধে যৌনকর্মীকে হত্যা

ভাসমান এক যৌনকর্মীকে আবাসিক হোটেলে নিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করায় মো. খোকন ভুঁইয়া (২৮) নামের এক যুবককে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। ওই যৌনকর্মীকে হত্যা করে পালিয়ে যান তিনি। এরপর নিজের মোবাইল বন্ধ করে আত্মগোপন করলেও শেষ পর্যন্ত রাজধানীর ক্যান্টনমেন্টের মাটিকাটা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) রাতে ডিবির তেজগাঁও জোনাল টিমের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) শাহাদত হোসেন সুমা এক সংবাদমাধ্যমকে এই তথ্য জানান।

তিনি বলেন, রাজধানীর শ্যামলী এলাকার একটি আবাসিক হোটেলে ৮ সেপ্টেম্বর এক নারীর হাত-পা বাঁধা মরদেহ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় শেরেবাংলা নগর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন নিহতের স্বামী। একপর্যায়ে হত্যায় জড়িত খোকনকে শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনা হয়।

তদন্ত সংশ্লিষ্টরা জানান, খোকন এক সময় মধ্যপ্রাচ্যে শ্রমিক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। দেশে ফিরে ক্যান্টনমেন্ট এলাকার একটি রেস্তোরাঁয় কাজ নেন। ৭ সেপ্টেম্বর মিরপুরের শেওড়াপাড়া এলাকায় তার এক বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে যান। সেখানে দুজনে বিয়ার পান করেন। এরপর তারা ফার্মগেট এলাকায় চলে আসেন।

রাত ২টার দিকে ফার্মগেট ফুটওভার ব্রিজের ওপর আসমা ওরফে লিমা বেগম ওরফে কবিতা (২৫) নামের এক নারীর সঙ্গে তার কথা হয়। কবিতা তার সঙ্গে রাত কাটাতে সম্মত হলে দুজনে চলে যান শ্যামলীর দুই নম্বর সড়কের ৪/১ নম্বর ভবনে রাজ ইন্টারন্যাশনাল আবাসিক হোটেলে। তারা স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে হোটেলটির ছয়তলার ৬০২ নম্বর কক্ষে ওঠেন। পরদিন ওই কক্ষেই খাটের সঙ্গে ওড়না দিয়ে হাত বাঁধা অবস্থায় কবিতার মরদেহ পাওয়া যায়।

ডিবি সূত্র জানায়, তিন হাজার টাকার চুক্তিতে খোকনের সঙ্গে হোটেলে রাত কাটাতে সম্মত হন কবিতা। সেখানে তারা অন্তরঙ্গ সময় কাটান। তবে পরে কবিতা ২০ হাজার টাকা দাবি করে বসেন। টাকা না পেলে চিৎকার করে সবাইকে বিষয়টি বলে দেবেন বলেও হুমকি দেন। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে ৮ সেপ্টেম্বর ভোরে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন খোকন।

আরও পড়ুন:

ডায়োজিনিস দ্য সিনিক হতে পারেন আমাদের এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত!

রক্ত দিয়ে এরশাদকে লেখা প্রেমিকার চিঠি

যে কারণে স্ট্যাপলার পিন মুক্ত হচ্ছে না টাকার বান্ডিল

'ছেলেদের সাথে বসা যাবে না, মানতে হবে ড্রেসকোড'


এডিসি শাহাদত হোসেন সুমা বলেন, সোমবার খোকনকে মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করেন তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির এসআই সুকান্ত বিশ্বাস। তিনি আসামির জবানবন্দি রেকর্ডের আবেদন জানান। পরে ১৬৪ ধারায় আসামির স্বীকারোক্তি লিপিবদ্ধ করার তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

স্ত্রী কুপিয়ে জখম করে স্বামীর বিষপানে আত্মহত্যা

নাটোর প্রতিনিধি:

স্ত্রী কুপিয়ে জখম করে স্বামীর বিষপানে আত্মহত্যা

নাটোরে পারিবাহিক কলহের জেরে স্ত্রীকে এলোপাথারি কুপিয়ে জখম করে স্বামী বিষপান করে সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। এর আগে মারাত্মক আহত দুজনকেই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

আজ বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে সদর উপজেলার ঋষি নওগা গ্রামে এ ঘটনার পর দুজনকে উদ্ধার করে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে স্থানীয়রা। এদিকে শারিরিক পরিস্থিতির অবনতি হলে রাসুকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। আর চিকিৎসাধীন অবস্থায় সদর হাসপাতালে মারা যায় হাসান। 

আরও পড়ুন


ছাড়পত্র পেলেন তামিম, খেলতে যাবেন নেপাল

কুয়েত ও সুইডেনের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে শেখ হাসিনার বৈঠক

স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামীর ফাঁসির আদেশ


এলাকাবাসী জানায়, দীর্ঘদিন থেকেই সাংসারিক নানা কারণে স্ত্রী রাশিদা বেগম রাসুর সাথে স্বামী হাসান আলীর মনোমালিন্য চলছিল। সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে তারই জেরে ঝগড়া লাগে। এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে হাসান আলী স্ত্রীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথারি কুপিয়ে ফেলে রেখে চলে যায়। 

স্থানীয়রা স্ত্রীর চিৎকারে এসে উদ্ধার করে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে। এদিকে বেলা ১২ টার দিকে হাসানকে গ্রামের পাশের একটি শিমুল গাছের ঔষুধী বাগানে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসি। তার পাশ থেকে বিষের বোতলও উদ্ধার করা হয়। স্থানীয়দের ধারণা সে বিষপানে আত্মহত্যা করতে চেয়েছিল। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাকেও নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। রাশুর অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছে চিকিৎসক।
 
এ ব্যাপারে নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুনসুর রহমান বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে বিস্তারিত জানানো যাবে। 

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

সংবিধান অনুযায়ী এ সরকারের অধীনেই আগামী নির্বাচন: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

মাসুক হৃদয়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

সংবিধান অনুযায়ী এ সরকারের অধীনেই আগামী নির্বাচন: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান এনাম বলেছেন, সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচিত সরকারের অধীনেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ ক্ষেত্রে কারো যদি কোন দাবী থাকে সংবিধানের অধ্যাদেশ বাতিল না করে তাদের কোন দাবী মানার সুযোগ নেই। অতএব আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তবে সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশনকে সর্বাত্মক ক্ষমতা দেয়া হবে।

বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক বাস্তবায়িত বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিদর্শন শেষে বিদ্যাকুট ইউনিয়নের উরখুলিয়া গ্রামে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

এছাড়া ইউপি নির্বাচন নিয়ে তিনি বলেন, কোথাও পরিস্থিতি ঘোলাটে হয়নি, বরং সর্বত্র সুষ্ঠুভাবেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সঠিক রেখে সুষ্ঠু নির্বাচনের মধ্য দিয়ে গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত রাখার সক্ষমতা আওয়ামী লীগ সরকারের রয়েছে।

আরও পড়ুন


স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর পণ্যপরিবহন মালিক-শ্রমিকদের ধর্মঘট প্রত্যাহার

প্রধানমন্ত্রীর এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার দেশের ইতিহাসে মাইলফলক: কাদের

চাকরি দেবে এসএমসি এন্টারপ্রাইজ

সাংবাদিকের ওপর হামলার প্রতিবাদে এসপির কার্যালয়ে অবস্থান ধর্মঘট


এ সময় তার সঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ নবীনগর আসনের সংসদ সদস্য এবাদুল করিম বুলবুল, নবীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা একরামুল সিদ্দিক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ হালিম, বিদ্যাকুট ইউনিয়ন শাখা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক খোকা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

কিশোর বাউল শিল্পীর মাথা ন্যাড়া করায় শিক্ষকসহ তিন মাতবর গ্রেপ্তার

বগুড়া প্রতিনিধি:

কিশোর বাউল শিল্পীর মাথা ন্যাড়া করায় শিক্ষকসহ তিন মাতবর গ্রেপ্তার

বগুড়ার শিবগঞ্জে কিশোর বাউল শিল্পীকে মারপিট করে মাথা ন্যাড়া করে দেয়ার ঘটনায় এক স্কুল শিক্ষকসহ তিন গ্রাম্য মাতব্বরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ উপজেলার জুড়ি মাঝপাড়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে। ঘটনার শিকার বাউল শিল্পী মেহেদী হাসান (১৬) জুড়ি মাঝপাড়ার বেল্লাল হোসেনের ছেলে।

গ্রেপ্তারকৃত তিন মাতব্বর হলেন শিবগঞ্জ উপজেলার গুজিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক (ইংরেজি) ও জুড়ি মাঝপাড়ার বাসিন্দা মেজবাউল ইসলাম (৫২), একই গ্রামের শফিউল ইসলাম খোকন (৫৫) ও তারেক রহমান (২০)।

স্থানীয়রা জানান, মেহেদী হাসান গুজিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির পর্যন্ত লেখাপড়া করে আর্থিক অনটনের কারণে আর পড়াশুনা করতে পারেনি। 

এরপর পার্শ্ববর্তী ধাওয়াগীর গ্রামের বাউলের সঙ্গে চলাফেরা শুরু করে। মেহেদী গত কয়েক বছর ধরে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বাউল গান গেয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিল। বাউল শিল্পী হওয়ার কারণে মেহেদী সাদা লুঙ্গি, সাদা ফতুয়া এবং সাদা গামছা ব্যবহার করত। পাশাপাশি মাথায় বাবরী (লম্বা) চুল রাখে। গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তিরা মেহেদী হাসানের পরনের পোশাক এবং মাথার চুল নিয়ে বিভিন্ন সময় মন্তব্য ও কটাক্ষ করত। 

এসবের প্রতিবাদ করায় গ্রেপ্তারকৃত তিনজনসহ পাড়ার আরো কয়েকজন গত ১৮ সেপ্টেম্বর (শনিবার) রাত ১০টার দিকে মেহেদীর বাড়িতে যায়। তারা মেহেদীকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে জোর করে চুল কাটার মেশিন দিয়ে তার মাথা ন্যাড়া করে দেয়। সেসময় বাধা দিতে গেলে তাকে মারপিটও করা হয়। মাতব্বররা ওই সময় তাকে বাউল গান ছেড়ে দিতে বলে।

বাউল শিল্পী মেহেদীর বাবা বেল্লাল হোসেন বলেন, মাটির চারকানি উচু ঢিবি করে আগরবাতি মোমবাতি জালিয়ে জিকির করে, তা নিয়ে নিষেধও করা হয়। গ্রামের মাতা মুরব্বিরা ঘুম থেকে তুলে জিজ্ঞাসাবাদ করে মাথা ন্যাড়া করে স্কুলে ভর্তি করে দিতে বলেছে।

বগুড়া বাউল গোষ্ঠির সভাপতি সাঈদ সিদ্দিকী বলেন, বাউল শিল্পীর অন্যায়ভাবে চুল কেটে দেয়া হয়েছে, তার বিচার চাই। যে অত্যাচার করা হয়েছে তার উপর তার সুষ্ঠ তদন্ত দাবি করেন তিনি।

বাউল শিল্পীর অন্যায়ভাবে চুল কেটে দেয়ার ঘঞটনাকে নিকৃষ্ট ঘটনা উল্লেখ করে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাদেকুর রহমান সুজন এ ঘধটনায় জড়িতদের শাস্তি দাবী করেছেন।

শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঙ্গলবার রাতে মোবাইল ফোনে বাউল শিল্পীর মাথা ন্যাড়া করে দেয়ার বিষয়টি জানতে পারেন। অভিযান চালিয়ে ওই ঘটনায় জড়িত তিনজনকে আটক করেন। পরে আটক তিনজনসহ ৫ জনের নাম উল্লেখসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মেহেদী হাসান বাদী হয়ে রাতেই থানায় মামলা দায়ের করে।

শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম  বলেন, মাথা ন্যাড়া করে দেয়ার সংবাদ পেয়েই বাউল শিল্পীকে থানা হেফাজতে নেয়া হয়। তার মুখে বিস্তারিত শুনে অভিযান চালিয়ে রাতেই তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আরো দুইজন পলাতক রয়েছে। তাদের গ্রেপ্তার করতে অভিযান চলছে। গ্রেপ্তারকৃত ৩ জনকে বুধবার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন


ছাড়পত্র পেলেন তামিম, খেলতে যাবেন নেপাল

কুয়েত ও সুইডেনের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে শেখ হাসিনার বৈঠক

স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামীর ফাঁসির আদেশ


NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

সুদ ব্যবসায়ীর ভয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে, স্ব-পরিবারে আত্মহত্যার হুমকি

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:

সুদ ব্যবসায়ীর ভয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে, স্ব-পরিবারে আত্মহত্যার হুমকি

চেক জালিয়াতিসহ মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগ তুলে আদালতে মামলা করায় বাদীকে বাড়ি ছাড়া করার হুমকির প্রতিবাদ ও বালিয়াডাঙ্গীতে বেলাল উদ্দীন নামে এক দাদন ব্যবসায়ীর মিথ্যা মামলা ও ভয়ভীতি থেকে রক্ষা পেতে সাংবাদিক সম্মেলন করে ভুক্তভোগী স্ব-পরিবারে আত্মহত্যার হুমকি প্রদান করেছে।

আজ বুধবার দুপুর ১২টায় বালিয়াডাঙ্গী প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করে এ হুমকি প্রদান করেন এবং সেখানে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন উপজেলার চাড়োল ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামের কসির উদ্দীনের ছেলে বেলাল উদ্দীন।

অপরদিকে বাদীকে হুমকি প্রদানকারী বেলাল উদ্দীন উপজেলার বড়বাড়ি ইউনিয়নের ইক্ষু সেন্টারপাড়া এলাকার বাবর আলীর ছেলে ও বালিয়াডাঙ্গী গণ-উন্নয়ন বহুমুখী সমবায় সমিতির প্রতিষ্ঠাতা।

স্ত্রী ও দুই সন্তানকে নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ভুক্তভোগী বেলাল উদ্দীন বলেন, ৪ লক্ষ টাকা জামানতের বিনিময়ে বালিয়াডাঙ্গী গণ-উন্নয়ন বহুমুখী সমবায় সমিতিতে নিয়োগ পেয়ে ৮ বছর কর্মরত ছিলাম। সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে বেতন-ভাতা পরিশোধের কথা বলে আমার নিকট থেকে ১০ পাতার একটি চেক জমা নেয় সমিতির প্রতিষ্ঠাতা বেলাল উদ্দীন। পরে আমি চাকরি ছেড়ে দিতে চাইলে আমার কাছ থেকে হিসাব-নিকাশ চূড়ান্ত করে। কিছুদিন পর জানতে পারি যে, আমার জমা দেওয়া চেকের পাতা ব্যবহার করে আমার বিরুদ্ধে আদালতে ৪৩ লক্ষ টাকার চেক জালিয়াতির ৩টি মামলা দিয়েছে।

লিখিত বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, চেকের মামলাগুলো মিথ্যা উল্লেখ করে বালিয়াডাঙ্গী থানায় ও দিনাজপুর দুর্নীতি দমন কমিশনে অভিযোগ করি। তবে সে অভিযোগের কোন ফল না পেয়ে ঠাকুরগাঁও সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতে মামলা দায়ের করি। সেখানে বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে দিনাজপুর দুদককে তদন্ত করে আগামী নভেম্বর মাসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ প্রদান করেন। দুদকে মামলার খবর পেয়ে সমিতির প্রতিষ্ঠাতা বেলাল ও তার লোকজন গত ১৯ সেপ্টেম্বর আমার বাড়িতে রাতের আধারে পুরো পরিবারকে হত্যার হুমকি দিয়েছে। আমি বর্তমানে প্রাণভয়ে স্ব-পরিবারে শ্বশুড়বাড়িতে অবস্থান করছি। এত টাকার মামলা থেকে নিস্তার না পেলে স্ব-পরিবারে আত্মহত্যা করব। এছাড়া আর কোন রাস্তা আমার নেই।

আরও পড়ুন


ছাড়পত্র পেলেন তামিম, খেলতে যাবেন নেপাল

কুয়েত ও সুইডেনের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে শেখ হাসিনার বৈঠক

স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামীর ফাঁসির আদেশ


ভুক্তভোগী বেলাল উদ্দীন সংবাদ সম্মেলনের বিজ্ঞপিতে উল্লেখ করেন, বালিয়াডাঙ্গী গণ-উন্নয়ন বহুমুখী সমবায় সমিতির প্রতিষ্ঠাতা বেলাল উদ্দীন একজন চড়া মাপের দাদন ব্যবসায়ী। তিনি এলাকায় প্রায় শতাধিক লোকজনের বিরুদ্ধে চেক জালিয়াতির মামলা করেছেন। শুধু তাই নয় তার সুদের টাকা না দিতে পেরে বালিয়াডাঙ্গীস্থ ইশিতা হোটেলের মালিক ও ওয়াপদা মসজিদের ইমাম হাফেজ সাইফুল্লাহ বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছেন। এছাড়াও অসংখ্য মানুষের বাড়ি দখল নিয়েছেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করেন।

তবে সকল অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করে বালিয়াডাঙ্গী গণ-উন্নয়ন বহুমুখী সমবায় সমিতির প্রতিষ্ঠাতা বেলাল উদ্দীন মুঠোফোনে বলেন, সমিতির নামে কোন অভিযোগ সে করেনি। আমার বিরুদ্ধে দুটো মামলা করেছিল। মামলা দুটো খারিজ করে দিয়েছে আদালত। দুদকে মামলা হয়েছে এ বিষয়টা আমি এখনও জানি না। তার প্রতিষ্ঠানকে জড়িয়ে সংবাদ প্রকাশ না করতে অনুরোধ জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে বালিয়াডাঙ্গী প্রেস ক্লাবের সভাপতি রমজান আলী, ঠাকুরগাঁও রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল লতিফ লিটু, ভুক্তভোগী বেলাল সহ তার স্ত্রী, অবুঝ দুটি শিশু সন্তান, স্যালকসহ সহ স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর

ঝিনাইদহে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে জখম

শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ:

ঝিনাইদহে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে জখম

ঝিনাইদহে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে জহুরুল ইসলাম ওরফে ইমামুল হক (২১) নামে এক শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে মারাত্বক জখম করা হয়েছে। গেল মঙ্গলবার রাতে সদর উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের মাঠে এঘটনা ঘটে। 

খবর পেয়ে পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে রাতেই ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। আহত ইমামুল রামচন্দ্রপুর গ্রামের মৃত নজরুল ইসলামের ছেলে ও ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের অনার্সে ভর্তি ইচ্ছুক শিক্ষার্থী। 

পরিবার সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকালের দিকে গ্রামের একটি দোকানে বসা নিয়ে সিনিয়র ও জুনিয়ারদের মধ্যে বাগবিন্ডার এক পর্যায়ে হাতাহাতি হয়। 

আরও পড়ুন


ছাড়পত্র পেলেন তামিম, খেলতে যাবেন নেপাল

কুয়েত ও সুইডেনের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে শেখ হাসিনার বৈঠক

স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামীর ফাঁসির আদেশ


এরই জের ধরে সকল থেকেই ১০ম শ্রেনির শিক্ষার্থী সাকিবের নেতৃত্বে সোহেল, তরিকুল, টগরসহ ৬/৭জন সংঘবদ্ধ দল লোহার রড, চাইনিজ কুড়াল হাতে নিয়ে ইমামুলকে খোজাখুজি করতে থাকে। 

সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বন্ধু সজীবকে সাথে নিয়ে হলিধানী বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিল। পথিমধ্যে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা সাকিবের নেতৃত্বে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা চোর চোর বলে ইমামুলকে ধাওয়া করে প্রতাবপুর মাঠের মধ্যে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে ও কুপিয়ে তাকে মারাত্বক জখম করে ফেলে যায়।
  
এ ব্যাপারে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা জানান খবর পেয়ে হাসপাতালে পুলিশ গিয়ে প্রাথমিক খোঁঁজ খবর নিয়ে এসেছে। তবে আহতের পরিবার অভিযোগ দিলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

NEWS24.TV / কামরুল

পরবর্তী খবর