সুন্দরবনে অনুপ্রবেশ করে মাছ শিকার
সুন্দরবনে অনুপ্রবেশ করে মাছ শিকার

সুন্দরবনে অনুপ্রবেশ করে মাছ শিকার

৪ ফিশিং ট্রলারসহ ৪৪ জেলে আটক
Other

বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের মেহেরআলী চর এলাকার একটি খাল থেকে অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে চারটি ফিশিং ট্রলারসহ ৪৪ জন জেলেকে আটক করেছে বন বিভাগ।

সোমবার সন্ধ্যায় সুন্দরবন বিভাগের বিশেষ বাহিনী ‘স্মার্ট প্রেট্রেলিং’ টিমের সদস্যরা তাদেরকে আটক করেন।

এসব জেলে বন বিভাগের পাশ-পারমিট ছাড়াই সরকরি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দুবলাচর ও মেহেরআলীর চরসংলগ্ন বঙ্গোপসাগরে মৎস্য আহরণ করে আসছিলেন বলে জনিয়েছে সুন্দরবন বিভাগ।

আরও পড়ুন: 


মোংলা বন্দরে চাল ও সার বোঝাই জাহাজের পণ্য খালাস বন্ধ

দুই শিশুকে ধর্ষণের দায়ে ৬০ বছর কারাদণ্ড

ঘাস সংগ্রহ করতে নাগর নদী পার হচ্ছিল মৃত দুই নারী

নীলফামারীতে বিমান কোস্টার সার্ভিস উদ্বোধন


সুন্দরবনের দুবলা জেলে পল্লী টহল ফাঁড়ির ভারপ্রপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রহৃাদ চন্দ্র রায় জানান, সুন্দরবন বিভাগের বিশেষ বাহিনী ‘স্মার্ট প্রেট্রেলিং’ টিমের সদস্যরা সোমবার সন্ধ্যায় নিয়মিত টহলদানের সময় শরণখোলা রেঞ্জের মেহেরআলী চর এলাকার একটি খাল ৪টি ফিশিং ট্রলার দেখতে পায়।

এসময়ে তারা ৪টি ফিশিং ট্রলারের পাস-পারমিট দেখতে চাইলে জেলেরা পালানোর চেষ্টা করে। পরে ট্রলারসহ তাদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সুন্দরবনে মাছ আহরনের পাশ-পারমিট দেখাতে ব্যর্থ হয়। পরে তাদের দুবলা টহল ফাঁড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। জব্দ ফিশিং ট্রলারগুলো হচ্ছে- এফবি মায়ের দোয়া, এফবি মামা-ভাগ্নে, এফবি তাহিরা-১ এবং এফবি ইউসুফ। ট্রলার চারটির মালিক পিরোজপুরের রাজা মিয়া ও মোশারেফ হোসেন নামে দুই মৎস্য ব্যবসায়ীর।

তবে ৪৪ জেলের নাম ঠিকানা মোবাইলে জানাতে পরেননি এই বন কর্মকর্তা। বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জ কর্মকর্তা (এসিএফ) মো. শামসুল আরেফীন জানান, সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে এসব জেলেরা ট্রলার নিয়ে ধরে সুন্দরবনরে বিভিন্ন এলাকায় মাছ শিকার করে আসছিল। এদের বিরুদ্ধে সুন্দরবন বিভাগের পক্ষ থেকে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

news24bd.tv তৌহিদ