নাটোরে ২০ শতাংশ শিক্ষার্থী ঝড়ে পড়ার আশঙ্কা

নাটোর প্রতিনিধি

নাটোরে ২০ শতাংশ শিক্ষার্থী ঝড়ে পড়ার আশঙ্কা

করোনা সংক্রমন কমে যাওয়ার পর গত ১২ সেপ্টেম্বর থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুললেও অনেক শিক্ষার্থী এখনও স্কুলমুখি হয়নি। করোনা কালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের কেউ কেউ বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে সংসার জীবন শুরু করেছে। এদের মধ্যে মেয়েদের সংখ্যা বেশি।

ছেলেদের কেউ কেউ সংসারে সহায়তা করতে অর্থ আয়ের জন্য দিন মজুরি সহ বিভিন্ন কাজ বেছে নিয়েছেন। এতে করে ধারণা করা হচ্ছে ২০ শতাংশ শিক্ষার্থীর ঝড়ে পড়তে পারে। তবে ঝড়ে পড়াদের অনেকেই শিক্ষা গ্রহণের ইচ্ছা পোষণ করেছেন। তাদের অনেকেই পরিবেশ ও পরিস্থিতি দেখে সিদ্ধান্ত নিবেন।

কথা হয় জেলার সিংড়া উপজেলার চক সিংড়া এলাকার মো. রোকনের সাথে। উপজেলার কতুয়াবাড়ি হাইস্কুলের ৯ম শ্রেণীর ছাত্র। করোনার কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া বাবার সংসারে সহায়তা করতে দিনমজুরির কাজ বেছে নিয়েছেন। বর্তমানে সে মাটি বহনকারী ট্রাকের হেলপার হিসেব কাজ করছে। সে অচিরেই স্কুলে যাওয়া শুরু করবে বলেও জানায়। 

একই এলাকার বাসিন্দা ও উপজেলার আনোয়ারা পাইলট স্কুল এন্ড কলেজের ৯ম শ্রেণীর ছাত্র নাসিম মাহমুদ জানান, সে করোনার মধ্যে পাইপ মিস্ত্রি হিসেবে কাজ শুরু করেছেন। তিনি লেখা পড়ার পাশাপাশি এই কাজ চালিয়ে যেতে চান। পরিবেশ ও পরিস্থিতি দেখে ২/৩ দিনের মধ্যে তিনি স্কুলে যাওয়া শুরু করবেন।

জেলা প্রথমিক শিক্ষা অফিসার এরশাদ উদ্দিন আহমেদ জানান, জেলায় প্রাথমিক শিক্ষার্থী রয়েছে ১ লাখ ৬৯ হাজার জন। এরমধ্যে প্রথম দিন ৫ম ও ২য় শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের ক্লাস নেওয়া হয়েছে। ইংরেজী, বাংলা ও অংক বিষয়ে তিনটি ক্লাস নেওয়া হয় তাদের। জেলায় এই তিনটি ক্লাসের মোট শিক্ষার্থী রয়েছে ৪৭ হাজার ১৯৩ জন। প্রথমদিন ক্লাসে উপস্থিত হয় ৩৪ হাজার ৬৪১ জন। উপস্থিতির হার ছিল শতকরা ৭৩ শতাংশ। অথাৎ অনুপস্থিত ছিল শতকরা ২৭ শতাংশ। 

এদের কেউ কেউ সজনদের বাড়িতে বেড়াতে গেছে বলে অভিভাবকদের অনেকেই জানিয়েছেন। যেহেতু পুরোদমে ক্লাস চালু হয়নি, সে কারণে অনেক অভিভাবক পরিস্থিতি দেখে তাদের সন্তানদের স্কুলে পাঠাতে চান। সব শ্রেণীর ক্লাস পুরোদমে শুরু হলে শিক্ষার্থীদের প্রকৃত অনুপস্থিতি নিশ্চিত করা সম্ভব হবে।

জেলা শিক্ষা অফিসার রমজান আলী আকন্দ বলেন, জেলায় মাধ্যমিক, কলেজ ও মাদ্রাসা সমুহে মোট শিক্ষা রয়েছে ১ লাখ ৮৮ হাজার ৮৭৫ জন। এর মধ্যে মাধ্যমিকে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১ লাখ ২৯ হাজার ১০৪ জন, কলেজে শিক্ষার্থী রয়েছে ৪০ হাজার ৮৫৯ জন এবং মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৮ হাজার ৯১২ জন। এর মধ্যে সোমবার ২১ সালের ১০ম শ্রেণী, ২২ সালের ১০ শ্রেণী ও ৭ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি ছিল ৪৮ হাজার ৫০০ জন। এই তিনটি শ্রেণীতে মোট শির্ক্ষার্থীর সংখ্যা ৫১ হাজার ৬শ জন। 

তিনি আরও বলেন, জেলায় করোনা পরবর্তী স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় শিক্ষার্থীদের উপস্থিতির হার ৮০ শতাংশের মত। সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পুরোপুরিক্লাস চালু হলে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতির হার বৃদ্ধি পাবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

আরও পড়ুন


লন্ডনের বিলাসবহুল হোটেলে মরিয়ম নওয়াজের ছেলের বিয়ে

বারবার রিমান্ডে পরীমণি: ক্ষমা চাইলেন দুই বিচারক

বছর না ঘুরতেই অন্তঃসত্ত্বা কাজল!

বাণিজ্য মেলা হবে এবার নতুন স্থানে, ১ জানুয়ারি থেকে শুরু


NEWS24.TV / কেআই

পরবর্তী খবর

টেকনাফে ফিরেছেন আটকে পড়া তিন শতাধিক পর্যটক

অনলাইন ডেস্ক

কক্সবাজারের সেন্টমার্টিন থেকে টেকনাফে ফিরেছেন আটকে পড়া তিন শতাধিক পর্যটক।  

আবহাওয়া ভাল থাকায় মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) সকাল ৮টা থেকে ১০টা পর্যন্ত ৯টি ট্রলারে এসব পর্যটক টেকনাফের উদ্দেশে রওয়ানা হন। 

লঘু চাপের প্রভাবে বঙ্গোপসাগর উত্তাল থাকায় গেল রোববার টেকনাফের সাথে সেন্টমার্টিন সমুদ্র পথে যাত্রী বাহী ট্রলার চলাচল বন্ধ করে দেয় প্রশাসন। 

আরও পড়ুন:


পিএসসির প্রশ্ন ফাঁস করলে ১০ বছরের জেল: মন্ত্রিপরিষদ সচিব

গাজীপুর সাফারি পার্কে জেব্রা পরিবারে নতুন অতিথি

‘সংখ্যালঘু’ শব্দটি থাকা উচিত না

পায়রা সেতুর উদ্বোধন ২৪ অক্টোবর


এ কারণে ওই দিন বিকেল থেকে ট্রলারসহ কোন নৌযান প্রবালদ্বীপ থেকে ছেড়ে আসেনি। ফলে সেন্টমার্টিনে আটকা পড়েন তিন শতাধিক পর্যটক।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

প্রেমিকের সঙ্গে দীর্ঘদিন শারীরিক সম্পর্ক, বিয়ের দাবি তরুণীর

অনলাইন ডেস্ক

প্রেমিকের সঙ্গে দীর্ঘদিন শারীরিক সম্পর্ক, বিয়ের দাবি তরুণীর

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমিকার সঙ্গে দীর্ঘদিন শারীরিক সম্পর্ক করে প্রেমিক শ্রী নিমাই চন্দ্র। কিন্তু হঠাৎই নিমাই বিয়ের চেষ্টা করলে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছেন প্রেমিকা।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) বিকাল ৫টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের বারাইটারী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

জানা যায়, প্রায় ১ বছর আগে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে গ্রামের শ্রী নরেশ চন্দ্রের ছেলে শ্রী নিমাই চন্দ্রের (২৪) সঙ্গে কামাত আঙ্গারিয়া গ্রামের এক তরুণীর (২০)। বিয়ের প্রলোভনে অনেকবার শারীরিক সম্পর্ক করেন অভিযুক্ত প্রেমিক। বিষয়টি জানাজানি হলে নিমাইয়ের পরিবার ফুলবাড়িতে পাত্রী খুঁজে চুক্তিপত্র ও আশির্বাদ সম্পন্ন করে।

এ খবর পেয়ে তরুণী সোমবার (১৮ অক্টোবর) বিকাল ৫টার দিকে বিয়ের দাবিতে নিমাইয়ের বাড়িতে প্রবেশের চেষ্টা করলে বাড়ির লোকজন তাকে গলা ধাক্কা দিয়ে বের করে দেয়। পরে প্রেমিকের বাড়ির সামনে অবস্থান নেন এবং বৃষ্টিতে ভিজে অসুস্থ হয়ে পড়ে সে।

আরও পড়ুন


বরিশালে টানা বৃষ্টিতে জনজীবন বিপর্যস্ত

একসঙ্গে আইরিন-ইমন

ঘোষিত প্রণোদনার দাবিতে শের-ই বাংলা মেডিকেলে নার্সদের বিক্ষোভ

ভয় নেই, পাশে আছি: আওয়ামী লীগ


ঘটনাটি জানাজানি হলে লোকজন জমায়েত হতে দেখে নিমাই আত্মগোপন করে। বিষয়টি সমাধানের জন্য স্থানীয় ব্যক্তিরা এসে প্রেমের বিষয়টির সত্যতা পেয়ে নিমাইয়ের স্বজনকে ওই প্রেমিকার বিয়ে নিমাইয়ের সঙ্গে দিতে বলে। উপায় না পেয়ে ছেলে পক্ষ বুধবার বিয়ের তারিখ দিলেও অসুস্থ হয়ে পড়া ওই তরুণীকে তার স্বজনরা ওই বাড়ি থেকে নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করায়।

এ বিষয়ে ভুরুঙ্গামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন ঘটনার সত‍্যতা স্বীকার করে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দ বিষয়টি মীমাংসা করবেন বলে জানালে মেয়েটিকে তার অভিভাবকের জিম্মাায় দেওয়া হয়েছে। তবে এ ঘটনায় থানায় কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

কর্মহীন বরগুনার পাঁচ হাজারেরও বেশি মৎস্য শ্রমিক

সুমন শিকদার, বরগুনা

ইলিশ ধরা, পরিবহন ও বিক্রি নিষেধ থাকায় কর্মহীন হয়ে পড়েছে বরগুনার পাঁচ হাজারেরও বেশি মৎস্য শ্রমিক। বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে তাদের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। তাই নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন সরকারি সহায়তা পাওয়ার দাবি করছেন এই মৎস্য শ্রমিকরা। 

এবিষয়ে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে বলছেন, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা। 
বাংলাদেশের বৃহত্তম মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র পাথরঘাটা বিএফডিসি মৎস্য ঘাট। ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা চলায় মৎস্য অবতরণ, ক্রয়-বিক্রয়ে সরগরম থাকা এই মৎস্য ঘাটটি এখন জনশূন্য। 

ইলিশ ধরা, ক্রয়-বিক্রয়, পরিবহন বন্ধ থাকায় শুধুমাত্র এই মৎস্যঘাটেরই পাঁচ হাজারের বেশি শ্রমিক এখন বেকার।

মৎস্য কেন্দ্রিক এই শ্রমিকদের বিকল্প পেশা না থাকায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে স্বাভাবিক জীবন। একমাত্র আয়ের পথ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় পরিবার পরিজন নিয়ে বিপাকে পড়েছেন তারা।

নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন সময় জেলেদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা থাকলেও এই মৎস্য শ্রমিকদের জন্য নেই কোন সহায়তা। তাই নিষেধকালে জেলেদের মতো শ্রমিকদেরও সহায়তার আওতায় আনার দাবি মৎস্য শ্রমিকদের।

আরও পড়ুন:


পিএসসির প্রশ্ন ফাঁস করলে ১০ বছরের জেল: মন্ত্রিপরিষদ সচিব

গাজীপুর সাফারি পার্কে জেব্রা পরিবারে নতুন অতিথি

‘সংখ্যালঘু’ শব্দটি থাকা উচিত না

পায়রা সেতুর উদ্বোধন ২৪ অক্টোবর


ঘাট শ্রমিকদের জন্য সরকারের কোনো বরাদ্দ না থাকায় মৎস্য বিভাগের কিছুই করার থাকে না। তবে কর্মহীন হয়ে পড়া এই শ্রমিকদেরও সরকারি সহায়তার আওতায় আনা যায় কিনা এবিষয়ে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে বলছেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা।

বরগুনাসহ দেশের উপকূলীয় সাগর-নদীতে ৪ অক্টোবর মধ্যরাত থেকে শুরু হয়েছে ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা; চলবে আগামী ২৫ অক্টোবর মধ্যরাত পর্যন্ত।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

সিলেটে বিষপানে যুবকের আত্মহত্যা

অনলাইন ডেস্ক

সিলেটে বিষপানে যুবকের আত্মহত্যা

সিলেটের বিশ্বনাথে জুনেদ আহমদ (৩০) নামের এক যুবক বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন।

আজ সকালে ৭টায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

মৃত, জুনেদ আহমদ নামতিনি উপজেলার দশঘর ইউনিয়নের চাঁন্দভরাং পুরানগাঁও গ্রামের মৃত আঙ্গুর মিয়ার ছেলে। পেশায় তিনি কৃষিজীবী ছিলেন। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, পরিবারের লোকজনের সাথে অভিমান করে সোমবার রাত ১টায় কীটনাশক পান করেন তিনি। এসময় বমির শব্দ শুনে পরিবারের সদস্যরা তার রুমে ছুটে যান। বিষয়টি আচ করতে পেয়ে দ্রুত তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান তারা। পরে আজ মঙ্গলবার সকাল ৭টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি।

 

আরও পড়ুন:


পিএসসির প্রশ্ন ফাঁস করলে ১০ বছরের জেল: মন্ত্রিপরিষদ সচিব

গাজীপুর সাফারি পার্কে জেব্রা পরিবারে নতুন অতিথি

‘সংখ্যালঘু’ শব্দটি থাকা উচিত না

পায়রা সেতুর উদ্বোধন ২৪ অক্টোবর


বিশ্বনাথ পুলিশ স্টেশনের অফিসার ইন-চার্জ গাজী আতাউর রহমান বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

বরিশালে টানা বৃষ্টিতে জনজীবন বিপর্যস্ত

রাহাত খান, বরিশাল

বরিশালে টানা বৃষ্টিতে জনজীবন বিপর্যস্ত

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট বায়ুচাপের তারতম্যের কারণে বরিশালে আজও মুশলধারে বিরামহীন বৃষ্টি হচ্ছে। এতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। 

বরিশাল আবহাওয়া অফিস সূত্র জানায়, বঙ্গোপসাগরে সঞ্চালনশীল বজ্রমেঘমালার কারণে বায়ুচাপের সৃষ্টি হয়েছে। এই বায়ুচাপের তারতম্যের কারণে বজ্রসহ বৃষ্টি হচ্ছে। গতকাল রাত থেকে বরিশালে মুশলধারে বৃষ্টি হচ্ছে।

গতকাল সকাল ৬টা থেকে আজ সকাল ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টা বরিশাল আবহাওয়া অফিস ৬৪.১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে। আজ মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত প্রায় ৬০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে তারা।

বৈরী আবহাওয়ার কারণে দেশের ৩টি সমুদ্র বন্দরকে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত এবং নদী বন্দর সমূহকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।

আরও পড়ুন


একসঙ্গে আইরিন-ইমন

ঘোষিত প্রণোদনার দাবিতে শের-ই বাংলা মেডিকেলে নার্সদের বিক্ষোভ

ভয় নেই, পাশে আছি: আওয়ামী লীগ

গভীর রাতে পরকীয়া প্রেমিকার বাড়িতে গিয়ে রক্তাক্ত প্রেমিক!


এদিকে বিরামহীন বৃষ্টির কারণে বরিশালের জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে শিক্ষার্থী ও কর্মব্যস্ত মানুষ পড়েন চরম বিপাকে। সংকট দেখা দিয়েছে অভ্যন্তরীন বিভিন্ন যানবাহনের। যানবাহন সংকটের কারনে বেড়েছে রিক্সা এবং থ্রি হুইলার ভাড়া।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর