‘গ্রেপ্তারের সময় বিমর্ষ’ রাসেল

অনলাইন ডেস্ক

‘গ্রেপ্তারের সময় বিমর্ষ’ রাসেল

গ্রেপ্তারের সময় রাসেলকে বিমর্ষিত দেখা গিয়েছিল ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. রাসেলকে।

র‌্যাব জানায়, বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুর থেকে রাসেলের মোহাম্মদপুরের নিলয় কমপ্রিহেনসিভ হোল্ডিংয়ের বাসায় (হাউজ ৫/৫এ, স্যার সৈয়দ রোড) অভিযান চালিয়ে বিকেলের দিকে ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. রাসেল ও তার স্ত্রী শামীমা নাসরিনকে (প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান) হেফাজতে নেওয়া হয়।

এর আগে রাসেল ও তার স্ত্রী শামীমা নাসরিনের (প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান) বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে গুলশান থানায় মামলা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গুলশান থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক অনিন্দ তালুকদার। তিনি বলেন, আরিফ বাকের নামে ইভ্যালির এক গ্রাহক মামলাটি দায়ের করেছেন। মামলার নম্বর- ১৯।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, আরিফ বাকের গত ২৯ মে ও জুন মাসের বিভিন্ন সময়ে ইভ্যালিতে মোটরসাইকেলসহ বেশ কয়েকটি পণ্য অর্ডার করেন। এগুলো ৭ থেকে ৪৫ কার্যদিবসের মধ্যে দেওয়ার কথা থাকলেও তারা দেয়নি। ইভ্যালির কাস্টমার কেয়ারে ফোন দিয়ে সমাধান পাওয়া যায়নি। অফিসে গিয়ে তাদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বললে খারাপ ব্যবহার করেছে। প্রতিষ্ঠানটির সিইও রাসেলের সঙ্গেও দেখা করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন তিনি। তার সঙ্গে ইভ্যালি চরম দুর্ব্যবহার করেছে।

এ বিষয়ে মামলার বাদী আরিফ বাকের বলেন, দুপুর ১২টা ২৫ মিনিটে থানা থেকে জানানো হয় আমার অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মামলাটি হয়েছে। তবে মামলার কপি আমি এখনো হাতে পাইনি।

আরও পড়ুন: 


রাসেলের বাসায় র‌্যাবের অভিযান চলছে

স্ত্রী হত্যার অভিযোগ, স্বামী-শ্বশুর পলাতক

চীনে ১০ কি.মি. গভীরতার শক্তিশালী ভূমিকম্পের হানা

দুবলার চর থেকে খুলনা কাঁকড়া পরিবহনে বাধা নেই: হাইকোর্ট


news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ফেসবুকে ভুয়া তথ্য ছড়ানোয় শিক্ষিকা রুমা সরকার আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক

ফেসবুকে ভুয়া তথ্য ছড়ানোয় শিক্ষিকা রুমা সরকার আটক

ফেসবুকে মিথ্যা তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে বদরুন্নেসা মহিলা কলেজের শিক্ষিকা রুমা সরকার হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে র‍্যাব। সকালে রাজধানীর বেইলি রোডের নিজ বাসা থেকে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়।

বুধবার (২০ অক্টোবর) র‍্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক খন্দকার আল মঈন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এসময় তিনি আরও জানান, তথ্য বিভ্রান্তি করে যারা অপপ্রচার চালাচ্ছে, সহিংসতা ছড়াচ্ছে- তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হচ্ছে। ভুয়া তথ্য দিয়ে যে পোষ্ট দিচ্ছে কিংবা যারা শেয়ার করছে তাদেরও সনাক্ত করা হচ্ছে। সবার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভুয়া তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে এরইমধ্যে ২২ জনকে আটক করা হয়েছে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

বিয়ের তিন মাস পর সন্তান প্রসব, সাবেক প্রেমিকের নামে মামলা

অনলাইন ডেস্ক

বিয়ের তিন মাস পর সন্তান প্রসব, সাবেক প্রেমিকের নামে মামলা

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে বিয়ের প্রায় ৩ মাস পর এক নববধূ সন্তান প্রসব করেছেন। বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকায় শুরু হয় আলোচনা-সমালোচনা। জানা গেছে ভুক্তভোগী তরুণীর (১৭) সঙ্গে এক বছর আগে মো. রাসেল (২০) নামে যুবকের মোবাইল ফোনে পরিচয় হয়। সে উপজেলার চরলক্ষ্মী গ্রামের মৃত নুরুল হকের ছেলে। তারপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

প্রেমের সম্পর্কের সূত্র ধরে রাসেল তরুণীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক করে। সর্বশেষ গত ৫ জানুয়ারি রাত সাড়ে ৭টার দিকে রুবেল ভিকটিমের সঙ্গে কথা আছে বলে ডেকে নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করার চেষ্টা করে। ভিকটিম রাজি না হলে ভিকটিমকে তার শয়ন কক্ষে নিয়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ধর্ষণের ফলে ভিকটিম অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।

এদিকে এই ঘটনায় রোববার বিকালে সন্তান প্রসব নিয়ে ভুক্তভোগীর মা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে চরজব্বর থানায় মামলা দায়ের করেন। মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে চরজব্বর থানার ওসি মো. জিয়াউল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। 

আরও পড়ুন:


ইভ্যালিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব: বিচারপতি মানিক

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্ত

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রকে অপহরণ করে বিয়ে করলো তরুণী!

ডিএমপি কমিশনার ও র‍্যাব ডিজি’র পদোন্নতি


 

এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়, বিষয়টি ভিকটিম প্রথমে গোপন করে রাখে। পরবর্তীতে গত ২-৩ মাস পূর্বে ভিকটিমের অন্যত্র বিয়ে হয়। ১৫ অক্টোবর সন্ধ্যা ৭টার দিকে ওই তরুণী সন্তান প্রসব করেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

পাসপোর্ট অফিসে বানিজ্যমন্ত্রীর ভুয়া ব্যক্তিগত কর্মকর্তা আটক

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

পাসপোর্ট অফিসে বানিজ্যমন্ত্রীর ভুয়া ব্যক্তিগত কর্মকর্তা আটক

ময়মনসিংহ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে বানিজ্যমন্ত্রীর ব্যাক্তিগত কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে প্রতারনা করার সময় রাসেল গোলন্দাজ(৩০) নামে একজন আটক হয়েছে। 

মঙ্গলবার বিকালে দুইজন ব্যক্তির পাসপোর্ট করে দেওয়ার জন্য পাসপোর্ট অফিসে বসে উপ-পরিচালকের সুপারিশ করলে এ নিয়ে সন্দেহ হয় এবং তাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। পরে প্রতারক প্রমাণিত হওয়ায় তাকে কোতোয়ালি মডেল থানায় সোপর্দ করা হয়। আটক রাসেল গোলন্দাজের গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে। 

ময়মনসিংহ আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের উপ-পরিচালক মোঃ হাফিজুর রহমান জানান, মঙ্গলবার বিকালে পাসপোর্ট করে দেওয়ার জন্য দুইজন ব্যক্তিকে সাথে নিয়ে রাসেল গোলন্দাজ  অফিসে আসেন। এ সময় তিনি বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির ব্যক্তিগত কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে দুইজন ব্যক্তির পাসপোর্ট করে দেওয়ার জন্য সুপারিশ করে। তার কথাবার্তায় অসংলগ্ন মনে হলে তাকে আটক করা হয়। তার কাছ থেকে জাতীয় পরিচয় পত্র এবং ভারতীয় হাই কমিশনার কর্তৃক এক্সপোর্ট ইমপোর্ট ব্যবসায়ীর আইডি কার্ড উদ্ধার করা হয়। পরে কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশকে দেখে প্রতারক রাসেল কোন দেশকে তাদের হাতে তুলে দেয়া হয়। 

আরও পড়ুন:


ইভ্যালিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব: বিচারপতি মানিক

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্ত

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রকে অপহরণ করে বিয়ে করলো তরুণী!

ডিএমপি কমিশনার ও র‍্যাব ডিজি’র পদোন্নতি


 

তিনি আরো জানান, পাসপোর্ট করতে আসা জাল-জালিয়াতির সাথে জড়িত যেই হোক কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। 

কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি শাহ কামাল জানান, প্রতারণার অভিযোগে রাসেল গোলন্দাজের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আগামীকাল আদালতে পাঠানো হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

টিভি দেখতে গিয়ে ধর্ষিত হলো শিশু!

অনলাইন ডেস্ক

টিভি দেখতে গিয়ে ধর্ষিত হলো শিশু!

এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে আবদুল বারেক নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদায় এই ঘটনা ঘটে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়।


আরও পড়ুন:

টিকা নিতে অস্বীকার করায় কোচকে বহিষ্কার

কাতারে শুরা কাউন্সিলে ২ নারী নিয়োগ

দ্বিতীয় ম্যাচ নিয়ে যা বললেন সাকিব

নাইজেরিয়ার বন্দুকধারীদের হামলায় কমপক্ষে ৪৩ জন নিহত


পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বাড়িতে টেলিভিশন না থাকায় বারেকের বাড়িতে প্রতিদিন টেলিভিশন দেখতে যায় মেয়েটি। সপ্তাহখানেক আগে ভয়ভীতি দেখিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণ করে বারেক। পরে বিষয়টি কাউকে না জানানোর জন্য হুমকি দেয়।

ধর্ষণের শিকার মেয়েটির বাবা জানান, ঘটনার গত রোববার আমার মেয়ে খেলার করার সময় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে। জিজ্ঞেস করলে ধর্ষণের বিষয়টি খুলে বলে মেয়ে।

এই ঘটনায় গতকাল সোমবার রাতে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে বারেককে আসামি করে দামুড়হুদা মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। আজ সকালে অভিযান চালিয়ে নিজবাড়ি থেকে বারেককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এ বিষয়ে দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস ওয়াহিদ সংবাদমাধ্যমকে জানান, শিশুটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আর গ্রেপ্তারকৃত বারেককে আদালতে পাঠানো করা হয়েছে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত 

পরবর্তী খবর

বোনকে উত্ত্যক্তকারির টাকা নিক্ষেপ, প্রতিবাদ করায় ভাইকে হত্যা!

অনলাইন ডেস্ক

বোনকে উত্ত্যক্তকারির টাকা নিক্ষেপ, প্রতিবাদ করায় ভাইকে হত্যা!

দীর্ঘ দিন যাবত মঈনুল ইসলামের(২০) ছোট বোন সাগিরা আক্তারকে (১৬) প্রতিবেশী হাকিম হোসেন উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন। সাগিরা আক্তারের বড় ভাই মঈনুলসহ পরিবারের লোকজন হাকিমকে উত্ত্যক্ত করতে নিষেধ করেছিলেন। কিন্তু হাকিম তাদের কোনো কথায় পাত্তা দিচ্ছিলেন না। বোনকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় এবার উত্ত্যক্তকারি কাস্তে দিয়ে কুপিয়ে মঈনুল, তার ভাই রমজান, মা ময়নাসহ পরিবারের পাঁচজনকে কুপিয়ে জখম করেন। গুরুতর জখম অবস্থায় মঈনুলকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করালে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

রোববার (১৭ অক্টোবর) সন্ধ্যায় জয়পুরহাটে  সদর উপজেলার চকবরকত ইউনিয়নের জগদীশপুর গ্রামে এ মারধরের ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) অভিযুক্ত হাকিম হোসেনকে পাঁচবিবি উপজেলা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।  গ্রেফতার হাকিম হোসেন একই গ্রামের মো. মোস্তাফার ছেলে।

গত ১৭ অক্টোবর সন্ধ্যায় সাগিরা তার মায়ের কাছে ২০ টাকা চান। তখন হাকিম এ কথা শুনে সাগিরাকে লক্ষ্য করে ১০০ টাকার নোট ছুড়ে দেন। সাগিরা হাকিমের দেওয়া ১০০ টাকা নেননি। তখন মঈনুল হাকিমকে নিষেধ করেন। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে হাকিম তার ঘর থেকে ধারালো কাস্তে এনে মঈনুল, তার ভাই রমজান, মা ময়নাসহ পরিবারের পাঁচজনকে কুপিয়ে জখম করেন।

আরও পড়ুন:


ইভ্যালিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব: বিচারপতি মানিক

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্ত

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রকে অপহরণ করে বিয়ে করলো তরুণী!

ডিএমপি কমিশনার ও র‍্যাব ডিজি’র পদোন্নতি


পরে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে মঈনুল ইসলামসহ আহতদের উদ্ধার করে জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখান থেকে মঈনুল ও আরেকজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার রাতে মঈনুল মারা যান।

চকবরকত পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সুলতান মাহমুদ বলেন, সোমবার জয়পুরহাট থানায় পাঁচজনকে আসামি করে মামলা হয়েছিল। ওই ঘটনায় আহত মঈনুল ইসলাম মারা যাওয়ার পর হাকিম হোসেন পালিয়ে যান। মঙ্গলবার সকালে তাকে পাঁচবিবি থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর