ইভ্যালির সিইও রাসেল ও চেয়ারম্যান নাসরীন গ্রেপ্তার (ভিডিও)

প্লাবন রহমান

শেষমেষ প্রতারণার অভিযোগে করা মামলায় গ্রেপ্তার হলেন ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম ইভ্যালির এমডি এবং চেয়ারম্যান। বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকার মোহাম্মদপুরে এমডি রাসেলের বাসায় অভিযান চালিয়ে তাদের দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এমন অবস্থায়- অনিশ্চয়তায় পড়েছেন লাখ লাখ টাকা বিনিয়োগ করা গ্রাহকরা। সুরাহা চেয়েছেন সরকারের কাছে।

বাংলাদেশের ই-কমার্সের অন্য নাম হয়ে হয়ে উঠেছিল ইভ্যালি। কম দামে পন্য ডেলিভারির মাধ্যমে অল্প দিনেই জনপ্রিয় হয়ে ওঠে এই ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান। বিভিন্ন অফারের প্রলোভন দেখিয়ে লাখ লাখ গ্রাহকের কোটি কোটি টাকা বিনিয়োগ পায় ইভ্যালি।

কিন্তু সময়মত পন্য না দেয়া, সম্পদ-দেনার ব্যাপক ফারাকে সমালোচনায় পড়ে ইভ্যালি। এমন অবস্থায়-‌প্রতারণার অভিযোগে গত বুধবার রাতে আরিফ বাকের নামের এক গ্রাহক গুলশান থানায় প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ইভ্যালির মো. রাসেল ও তাঁর স্ত্রী চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। সেই মামলায় বৃহস্পতিবার বিকেলে ইভ্যালির এমডি চেয়ারম্যানের বাসায় অভিযান শুরু করে র‌্যাব। পরে তাদের দুজনকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন র‌্যাব।

তথ্য বলছে-আলোচিত ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম ইভ্যালির মোট দেনার পরিমাণ ৫৪২ কোটি ৯৯ লাখ ৫৮ হাজার ৪৮২ টাকা। এই দেনার বিপরীতে তাদের দৃশ্যমান সম্পদ মাত্র ৬৫ কোটি টাকা। এমন অবস্থায় নিজেদের বিনিয়োগ নিয়ে অনিশ্চয়তা দেশের প্রায় ৫০ লাখ গ্রাহক।

আরও পড়ুন: 


রাসেলের বাসায় র‌্যাবের অভিযান চলছে

স্ত্রী হত্যার অভিযোগ, স্বামী-শ্বশুর পলাতক

চীনে ১০ কি.মি. গভীরতার শক্তিশালী ভূমিকম্পের হানা

দুবলার চর থেকে খুলনা কাঁকড়া পরিবহনে বাধা নেই: হাইকোর্ট


 

প্রতিষ্ঠানটির সিইও এবং চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার হওয়ার সময় গ্রাহকরা নিজেদের দুরাবস্থার কথা জানিয়ে সরকারের কাছে সমাধান চেয়েছেন।

২১ অক্টোবরের মধ্যে ইভ্যালির বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের মামলার প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

 news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

কিশোরগঞ্জে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ

অনলাইন ডেস্ক

কিশোরগঞ্জে আ.লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আওয়ামী লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষে তিন পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় একাধিক সূত্র জানায়, পাকুন্দিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ও সাবেক এমপি অ্যাডভোকেট মো. সোহরাব উদ্দিন পাকুন্দিয়ায় পৌর নির্বাচন উপলক্ষে শনিবার বিকেলে উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভার জন্য ঢাকা থেকে বাড়িতে আসেন।

সোহবার উদ্দিনের আগমনকে কেন্দ্র করে ৬৭ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটির সদস্যদের মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হলে স্থানীয় সংসদ সদস্যের গ্রুপটি হোসেন্দী ও ভূঁঞা বাজারে অবস্থান নেয়।

আরও পড়ুন:


ইউনিয়ন নির্বাচন নিয়ে সহিংসতা, নিহত ৪ 

আ.লীগের মনোনয়নপত্র বিক্রি ১৬ থেকে ২০ অক্টোবর

দেশে সাম্প্রদায়িক হামলাগুলোর মদদ দিচ্ছে সরকার: ফখরুল

সেদিন নীল শাড়িটাই পরবো: মাহি

দ্বিতীয় বিয়ে করে সত্যিই 'সারপ্রাইজ' দিলেন মাহি


 

একপর্যায়ে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও ইট-পাটকেল নিক্ষেপ শুরু হয়। ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে পুলিশসহ উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

পাকুন্দিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ সারোয়ার জাহান বলেন, আগামী শনিবারে উপজেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভাকে কেন্দ্র করে কমিটির সদস্যদের মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়। পরে দুপক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে গেলে এ সময় পুলিশের এসআইসহ তিন আহত হন। আহত পুলিশ সদস্যদের পাকুন্দিয়া হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

প্রেমিকার ‌‘গোপন’ ভিডিও ফেসবুকে দিল ‘প্রেমিক’

অনলাইন ডেস্ক

প্রেমিকার ‌‘গোপন’ ভিডিও ফেসবুকে দিল ‘প্রেমিক’

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করার অভিযোগ উঠেছে মারুফ নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। পরে তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার প্রেমিকার মা এ ব্যাপারে মামলা দায়ের করে।

গ্রেপ্তার মারুফ (২২) শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া থানার মির্জাপুর গ্রামের মনির হোসেন ও শিউলি বেগমের ছেলে।

মামলার বরাত দিয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ওসি রকিবুজ্জামান জানান, ফতুল্লার এক তরুণীর (১৭) সঙ্গে মারুফের প্রেমের সম্পর্ক হয়। এতে তারা দুজন বিভিন্ন স্থানে বেড়াতে যায়।

আরও পড়ুন:


ইউনিয়ন নির্বাচন নিয়ে সহিংসতা, নিহত ৪ 

আ.লীগের মনোনয়নপত্র বিক্রি ১৬ থেকে ২০ অক্টোবর

দেশে সাম্প্রদায়িক হামলাগুলোর মদদ দিচ্ছে সরকার: ফখরুল

সেদিন নীল শাড়িটাই পরবো: মাহি

দ্বিতীয় বিয়ে করে সত্যিই 'সারপ্রাইজ' দিলেন মাহি


 

তখন কৌশলে মারুফ মোবাইলে তরুণীর ছবি ও ভিডিও ধারণ করে রাখে। এরই মধ্যে তরুণীকে বিয়ের প্রস্তাব দেয় মারুফ। বিয়েতে রাজি না হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে ফেসবুকে সেই ধারণ করা ভিডিও ও ছবি পোস্ট করে। 

এ ঘটনায় ওই তরুণীর মা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

মুরগীর খামারে শিশু ধর্ষণ

নাসিম উদ্দীন নাসিম, নাটোর

মুরগীর খামারে শিশু ধর্ষণ

নাটোরের সিংড়ায় তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে আব্দুল ওহাব (৫০) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শুক্রবার সকালে উপজেলার রাতাল কুম গ্রামের একটি মুরগির খামারে এই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ধর্ষিত শিশুটি বর্তমানে সিংড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

গ্রেপ্তার আব্দুল ওহাব সিংড়া উপজেলার রাতাল কুমগ্রামের আব্দুর রশীদ প্রামানিকের ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ওই শিশুটি বাড়ির পাশে বিয়সকালবিাড়ি এলাকায় জনৈক আমির হামজার মুরগীর খামারে যায়। এসময় ওই খামারের পাহারাদার আব্দুল ওহাব শিশুটিকে একাকী দেখে কাছে ডেকে নেয়। এক সময় সে শিশুটিকে ধর্ষণ করে। শিশুটির চিৎকারে এলাকার লোকজন ছুটে গিয়ে উদ্ধার করে।

এসময় আব্দুল ওয়াহাবকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আব্দুল ওয়াবকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নুর-ই আলম সিদ্দীকি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। ভিকটিম শিশুটিকে সিংড়া উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।

অভিযুক্ত আব্দুল ওহাবকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ওসি।

আরও পড়ুন:


ইউনিয়ন নির্বাচন নিয়ে সহিংসতা, নিহত ৪ 

আ.লীগের মনোনয়নপত্র বিক্রি ১৬ থেকে ২০ অক্টোবর

দেশে সাম্প্রদায়িক হামলাগুলোর মদদ দিচ্ছে সরকার: ফখরুল

সেদিন নীল শাড়িটাই পরবো: মাহি

দ্বিতীয় বিয়ে করে সত্যিই 'সারপ্রাইজ' দিলেন মাহি


news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

নকল কাবিননামা তৈরি করে ধরা মাদ্রাসা শিক্ষক

অনলাইন ডেস্ক

নকল কাবিননামা তৈরি করে ধরা মাদ্রাসা শিক্ষক

ফেনীতে নকল কাবিননামা তৈরির অভিযোগে আমির হোসেন (৪৫) নামের এক মাদ্রাসা শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

পুলিশ বলছে, গ্রেপ্তার আমির হোসেনের বিরুদ্ধে বিয়ে নিবন্ধনের দায়িত্বপ্রাপ্ত একজন কাজীর নামের সিল, স্বাক্ষর জাল করে নকল কাবিননামা তৈরির অভিযোগ রয়েছে। তিনি ফেনী পৌরসভার উত্তর চাড়িপুর এলাকার একটি মাদ্রাসার শিক্ষক ও ফেনী সদর উপজেলার কালিদহ ইউনিয়নের আলকদিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

গত মঙ্গলবার রাতে শহরের শান্তিধারা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার এবং গত বুধবার ফেনীর আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ফেনী পৌরসভার ১০নং ওয়ার্ডের বিয়ে নিবন্ধনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কাজী আবু তৈয়বের নামের সিল, স্বাক্ষর জাল করে কয়েকটি ভুয়া কাবিননামা তৈরির অভিযোগে তিনি চলতি বছরের ২০ জানুয়ারি ফেনী সদর মডেল থানায় একটি মামলা করেন। মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব সিআইডিকে ন্যস্ত করা হয়। এরপর আরিফুল ইসলাম নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তখন তিনি আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। জবানবন্দিতে তিনি ভুয়া স্বাক্ষর, সিল ও নকল কাবিননামা তৈরির কাজে মাদ্রাসা শিক্ষক আমির হোসেনসহ দুজন যুক্ত ছিলেন বলে আদালতে বলেছিলেন।

আরও পড়ুন


থেমে-থেমে জ্বর আসছে খালেদা জিয়ার, খাচ্ছেনও খুবই অল্প

কুমিল্লার ঘটনা উদ্দেশ্যমূলক ও পরিকল্পিত: রিজভী

যুক্তরাষ্ট্রে উড়াল দিলেন মৌসুমী, ভিসা মেলেনি ওমর সানীর

ক্ষমতায় যাওয়ার বিএনপির রঙিন খোয়াব অচিরেই দুঃস্বপ্নে পরিণত হবে: কাদের


মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও সিআইডি উপপরিদর্শক (এসআই) মো. হাসানুল করিম জানান, আরিফুল ইসলামের স্বীকারোক্তিমূলক ও তদন্তে আমির হোসেনের জড়িত থাকার তথ্য প্রমাণ পেয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অন্য আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

ফেনী সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান জানান, গ্রেপ্তার মাদ্রাসা শিক্ষক আমির হোসেনকে বুধবার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো  হয়েছে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ইউনিয়ন নির্বাচন নিয়ে সহিংসতা, নিহত ৪

অনলাইন ডেস্ক

ইউনিয়ন নির্বাচন নিয়ে সহিংসতা, নিহত ৪

মাগুরায় সদর উপজেলার জগদল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ঘিরে সহিংসতায় চারজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ১০ জন। আধিপত্য বিস্তার নিয়ে এ সহিংসতা হয় বলে জানিয়েছেন জেলার পুলিশ সুপার জহিরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। আহতদেরকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পর দুই মেম্বার প্রার্থী সমর্থদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে।

বিস্তারিত আসছে...

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর