করোনায় স্কুল বন্ধ থাকায় শ্রেণিকক্ষে সপরিবারে বসবাস
করোনায় স্কুল বন্ধ থাকায় শ্রেণিকক্ষে সপরিবারে বসবাস
স্কুল খুললেও দখল ছাড়েননি

করোনায় স্কুল বন্ধ থাকায় শ্রেণিকক্ষে সপরিবারে বসবাস

অনলাইন ডেস্ক

করোনাকালে পটুয়াখালী সদর উপজেলার মাদারবুনিয়া ইউনিয়নের ৭১ নং নন্দীপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যথারিতি বন্ধ ছিল। এই সুযোগে স্কুলের বেঞ্চ দিয়ে চৌকি বানিয়ে শ্রেণিকক্ষে সপরিবারে বসবাস শুরু করে স্থানীয় বাসিন্দা মোশারেফ হোসেন। কিন্তু, গত ১২ সেপ্টেম্বর থেকে স্কুলটি খুলে দেয়া হলেও তিনি দখল ছাড়েননি।

জানা যায়, বিদ্যালয়ের একটি শ্রেণিকক্ষে পরিবার নিয়ে বসবাস করছেন মোশারেফ হোসেন।

কিছু বেঞ্চ একত্রিত করে বানিয়েছেন দু'টি চৌকি। কিছু বেঞ্চ একত্রিত করে রেখেছেন গৃহস্থালীর মালামাল। রান্নার জন্যে বারান্দার এক কোনে চুলা বসানো হয়েছে। সেখানে তিনি ও তার স্ত্রী থাকছেন।

প্রধান শিক্ষক মো. রফিকুল ইসলাম জানান, করোনাকালে বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় ইউপি চেয়ারম্যানের অনুরোধে তাকে এখানে থাকতে দেওয়া হয়েছে।

মোশারেফ হোসেন জানান, তার দাদা বিদ্যালয়ের জমিদাতা। কিন্তু, তার নিজস্ব কোনো জমি না থাকায় ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে একটি ঘর চেয়েছিলেন। তিনি ঘর দিতে না পেরে এখানে থাকতে দিয়েছেন।

ইউপি চেয়ারম্যান মিলন মাঝি বলেন, আমি কিছু জানি না। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তোলা হচ্ছে।

সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শহীদুল ইসলাম জানান, স্কুলের রুমে এভাবে থাকতে দেয়া বিধিসম্মত নয়। এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে এবং শিগগির বিদ্যালয়ের রুমটি দখলমুক্ত করা হবে।

আরও পড়ুন:


বগুড়ায় বাসের ধাক্কায় অটোরিকশার দুই নারী যাত্রী নিহত

জামালপুর থেকে নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসাছাত্রীকে ঢাকা থেকে উদ্ধার

যশোরের ১৮টি রুটে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে


NEWS24.TV / কামরুল