বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

বেড়াতে গিয়ে অতিরিক্ত মদ পানে দুই ছাত্রলীগ কর্মীর মৃত্যু

কক্সবাজারের কলাতলীর একটি আবাসিক হোটেলে অতিরিক্ত মদ পানের কারণে অসুস্থ হয়ে দুই বন্ধুর মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকালে কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মহিউদ্দিন আহমেদ গণমাধ্যমকে এই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

হোটেলের রেজিস্ট্রারে থাকা ঠিকানা থেকে জানা যায় ওই তিন বন্ধুর বাড়ি চট্টগ্রামের কোতোয়ালি এলাকায়। তাদের মধ্যে মারা যাওয়া ২ জন চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের কর্মী বলে জানা গেছে।

জানা যায়, অতিরিক্ত মদ পানের কারণে কক্সবাজারে একটি আবাসিক হোটেলে অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই ৩ বন্ধু। পরে শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকালে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাফসানুল হক (৩০) নামে একজনের মৃত্যু হয়। অন্যদিকে দুই বন্ধু সাইমুন প্রিয়াম ও রায়হানের অবস্থার খারাপ হলে তাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সাইমুন প্রিয়ামের মৃত্যু হয়।

আরও পড়ুন


ছাত্রকে যৌন হয়রানি ২৭ বছরের তরুণীর, ২০ বছরের কারাদণ্ড

সারাদেশে আজ বজ্রসহ বৃষ্টির আভাস

কুষ্টিয়ায় একই পরিবারের ১৬ জনকে গলা কেটে হত্যার সাক্ষী সেই কহিনূর ভিলা

ফের আইসিইউতে ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি পেলে


অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মহিউদ্দিন আহমেদ জানান, কক্সবাজারে বেড়াতে এসে কলাতলীর বে ওয়ান ডাচ হোটেলে রাফসানুল হক, রায়হান ও সাইমুন প্রিয়ামসহ ৪ বন্ধু ওঠে। তারা সকলে অতিরিক্ত মদ পান করে। এতে ৩ জন শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকালে অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাদের মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাফসানের মৃত্যু হয়।

পুলিশ সুপার আরও জানান, চিকিৎসাধীন থাকা ২ জনকে চট্টগ্রামে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাত সোয়া ২টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সাইমুন প্রিয়াম মারা যান।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

বিয়েতে মাংস বেশি খেয়েছে, নববধূকে তালাক!

অনলাইন ডেস্ক

বিয়েতে মাংস বেশি খেয়েছে, নববধূকে তালাক!

মাংস বেশি খাওয়া নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় নববধূকে তালাক দেওয়া হয়েছে। চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলার বদরগঞ্জ দশমিপাড়ায়। রবিবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে ঘটনার পর রাতেই দু’পক্ষের সমঝোতার ভিত্তিতে বিয়েবিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার দিন বিকালে বরপক্ষের তিনজনকে পিটিয়ে আহত করেছে কনেপক্ষের লোকজন।  

আহতরা হলেন, সদর উপজেলার সরোজগঞ্জের বোয়ালিয়া গ্রামের আলমগীর আলী ছেলে শাহা জামাল (২৮), একই এলাকার মৃত গোলাম রাব্বানীর ছেলে ফারুক হোসেন (৩৫) ও আব্দুর রহিমের ছেলে আসমান আলী (৩৫)। আহতদের মধ্যে শাহা জামালকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।  

এ ঘটনায় বরের স্বজনরা জানান, বদরগঞ্জ দশমিপাড়ার রহিম আলীর ছেলে সবুজের সঙ্গে রবিবার একই এলাকার নজরুল ইসলামের মেয়ে সুমি খাতুনের বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে বরপক্ষের লোকজনকে খেতে দেওয়া হয়। বর সবুজের সঙ্গে খেতে বসেন তার বন্ধুসহ আত্মীয়-স্বজনরা। খাওয়া শেষ হওয়ার মুহূর্তে বরপক্ষের লোকজন আরও মাংস চান। কনেপক্ষের লোকজন দিতে না চাইলে উভয়পক্ষের বাগবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে উভয়ের মধ্যে উত্তেজনা শুরু হলে কনেপক্ষের লোকজন বরপক্ষের তিনজনকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করেন।

আরও পড়ুন:


নুরের রাজনৈতিক দলের আত্মপ্রকাশ আজ

মিরপুর থেকে ৪২৪ কিশোরী নিখোঁজ, শিগগির সামাজিক বৈঠক পুলিশের

কুমিল্লার ঘটনায় পেছনের কারিগরদের খোঁজা হচ্ছে


এদিকে কনেপক্ষের লোকজনের অভিযোগ, বরপক্ষের লোকজন ভাত না খেয়ে শুধু মাংস খেতে থাকেন। বার বার মাংস চাওয়াতে তারা পরে দেবেন বলে জানালে বরপক্ষের লোকজন তাদের ওপর চড়াও হন। তারা তাদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন। যদিও এ ঘটনা নিয়ে কোনো থানা-পুলিশ হয়নি। চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন জানান, বিষয়টি তার জানা নেই।

news24bd.tv রিমু   

পরবর্তী খবর

মধ্যরাতে শেষ হচ্ছে নিষেধাজ্ঞা, ইলিশ শিকারে প্রস্তুত জেলেরা

অনলাইন ডেস্ক

ইলিশ ধরায় নিষেধাজ্ঞা শেষ হচ্ছে আজ। ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে আজ মধ্যরাতে নদীতে জাল নামাবেন জেলেরা। তাই ব্যস্ততা বেড়েছে পটুয়াখালী ও চাঁদপুরের জেলে পল্লীগুলোতে।  

এরই মধ্যে নৌকা ও মাছ ধরার সরঞ্জাম নিয়ে সাগর ও নদীতীরে ভিড়তে শুরু করেছেন জেলেরা। আনন্দ-উচ্ছ্বাসে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। 

ইলিশ ধরার প্রস্তুতি এবং বেকার জেলেদের এমন কর্মব্যস্ততা পটুয়াখালীর উপকূলে। কেউ নৌকা প্রস্তুত করছেন, কেউ বা বুনছেন জাল। আবার কেউবা ডিজেলসহ মাছ ধরার অন্যান্য উপকরন সংগ্রহ করছেন।

ইলিশ শিকারে টানা ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষ হচ্ছে আজ। মধ্যরাত থেকে ইলিশ শিকারে নামবেন জেলেরা। তারা জানান, নিষেধাজ্ঞাকালে রোজগার না থাকায় দিনগুলো কেটেছে অর্থকষ্টে। এমনকি অনেকেই পাননি সরকারি প্রণোদনার চালও। তাই সংসার চালাতে ধার-দেনাও করতে হয়েছে। 

আরও পড়ুন:পাত্রের বীর্য পরীক্ষা করালেন মেয়ের বাবা!

সংশ্লিষ্টরা জানান, এরই মধ্যে সাগরে যাওয়ার সব প্রস্তুতি শেষ করেছে জেলেরা।

একই চিত্র চাঁদপুরেও। নিষেধাজ্ঞার সময় সীমা শেষ হওয়ায় স্বস্তি ফিরেছে জেলে পাড়ায়। 

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

সুনামগঞ্জে 'হাওর বৃত্ত'র উদ্বোধন করলেন এমপি পীর মিসবাহ

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জে 'হাওর বৃত্ত'র উদ্বোধন করলেন এমপি পীর মিসবাহ

সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার পলাশ ইউনিয়নের পলাশ বাজার গোল চত্বরে 'হাওর বৃত্ত'র উদ্বোধন করেছেন, জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় হুইপ ও সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ।

সোমবার (২৫ অক্টোবর) সকালে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পরিষদের বাস্তবায়নে ৮ লক্ষ টাকা ব্যায়ে চত্বরের উদ্বোধন করেন তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সফর উদ্দিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাদিউর রহিম জাদিদ,সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান মাষ্টার, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক মো.আব্দুল কাদির প্রমুখ।

আরও পড়ুন:


গোসলখানার দরজা বন্ধ করে কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ!

হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে দেখতে কোকোর স্ত্রী

প্রেমিকাকে জিহ্বা কাটার ঘটনায় প্রেমিকাসহ গ্রেপ্তার ৪

জোর করে তুলে নিয়ে বিয়ে, দুই বছর পর পিটিয়ে হত্যা করল স্বামী


উদ্বোধন শেষে জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় হুইপ ও সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ বলেন, সুনাগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা এক সময় উন্নয়ন বঞ্চিত ছিল।কিন্তু আমি সংসদ সদস্য হওয়ার পর এই এলাকার মানুষদের কথা দিয়েছিলাম বিশ্বম্ভরপুর উপজেলাকে একটি উন্নয়ন মূলক মডেল উপজেলা তৈরি করব এবং সেটি করছি।

এরপর জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় হুইপ ও সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা সদরে জয় বাংলা চত্বর, শহিদ মিনার, প্রেসক্লাব ও হাওর বিলাশ, হাওর ভিউ পরিদর্শন করেন।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

নোয়াখালীতে মন্দির হামলা ভাংচুরের ঘটনায় জামায়াত নেতা সহ আরও গ্রেপ্তার ১১

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীতে মন্দির হামলা ভাংচুরের ঘটনায় জামায়াত নেতা সহ আরও গ্রেপ্তার ১১

নোয়াখালীতে মন্দির হামলা ভাংচুরের ঘটনায় ও ফেসবুকে উস্বকানি মূলক প্রচারণার অভিযোগে ১১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এর মধ্যে রয়েছে, জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সহ-সভাপতি ফয়সল ইনাম কমল (৩৯) ও সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়ন সাবেক চেয়ারম্যান ও জামায়াত নেতা হারুনুর রশিদ (৪৮)। এই নিয়ে বেগমগঞ্জে ১৩৫জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন:


গোসলখানার দরজা বন্ধ করে কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ!

হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে দেখতে কোকোর স্ত্রী

প্রেমিকাকে জিহ্বা কাটার ঘটনায় প্রেমিকাসহ গ্রেপ্তার ৪

জোর করে তুলে নিয়ে বিয়ে, দুই বছর পর পিটিয়ে হত্যা করল স্বামী


নোয়াখালী পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম আজ সোমবার সকাল ১১টায় নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান। পুলিশ সুপার জানান, কুমিল্লার ঘটনায় উসকানি মূলক বক্তব্য ফেসবুকে প্রচার সহ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 

ফয়সল ইনাম কমলের বিরুদ্ধে ৩২টি মামর সহ ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে। তার বিরুদ্দে উসকানি দাতা হিসাবে প্রমাণিত হয়েছে। 

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

রাজধানী মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৫৯

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানী মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৫৯

রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে ৫৯ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। রোববার সকাল ৬টা থেকে সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় এ অভিযান চালানো হয়। 

আরও পড়ুন:


গোসলখানার দরজা বন্ধ করে কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ!

হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে দেখতে কোকোর স্ত্রী

প্রেমিকাকে জিহ্বা কাটার ঘটনায় প্রেমিকাসহ গ্রেপ্তার ৪

জোর করে তুলে নিয়ে বিয়ে, দুই বছর পর পিটিয়ে হত্যা করল স্বামী


গ্রেপ্তারের সময় তাদের কাছ থেকে ২৬০ গ্রাম ১১ পুরিয়া হেরোইন, ৪ হাজার ৭০২ পিস ইয়াবা, ৪ কেজি ৮৩৬ গ্রাম ৩৫ পুরিয়া গাঁজা ও ৪ লিটার দেশি মদ জব্দ করা হয়।

গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৫১টি মামলা করা হয়েছে। সূত্র: ডিএমপি নিউজ

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর