সুচ বিঁধিয়ে কন্য সন্তানকে খুন, শেষ রক্ষা হলো না সেই মায়ের
Breaking News
সুচ বিঁধিয়ে কন্য সন্তানকে খুন, শেষ রক্ষা হলো না সেই মায়ের

সুচ বিঁধিয়ে কন্য সন্তানকে খুন, শেষ রক্ষা হলো না সেই মায়ের

অনলাইন ডেস্ক

তিন বছরের শিশু কন্যটিই মায়ের বিবাহবহির্ভুক সম্পর্কের মাঝে বাঁধা হয়ে দাড়িয়েছিলো। কিন্তু জন্মদাত্রী সেই মাই তার শিশু কন্যটিকে পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে মিলে হত্যার পরিকল্পনা করে। তার পর তদের পরিকল্পনা অনুযায়ী সেই কন্যটিকে তারা সুচ বিঁধিয়ে তিলে তিলে হত্যা করে। চার বছর আগের সেই ঘটনায় নিহত শিশুর মা এবং তার প্রেমিককে ফাঁসির সাজা দিলো আদালত।

ভারতের পুরুলিয়ার সুচ-কাণ্ডে নিহত শিশুর মা এবং তার প্রেমিক দুজনকেই মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত। ষড়যন্ত্র করে সুচ ফুটিয়ে শিশুকন্যাকে হত্যার মামলায় গত শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) পুরুলিয়ার একটি দ্রুত বিচার আদালত দুজনকে দোষি সাব্যস্ত করে। সরকারি আইনজীবীর আবেদনের প্রেক্ষিতে মামলাটির রায় স্থগিত রাখার পর আজ (২১ সেপ্টেম্বর) শিশুটির মা মঙ্গলা গোস্বামী এবং তার প্রেমিক সনাতন গোস্বামী ঠাকুরকে আদালত ফাঁসির নির্দেশ দিয়েছে।

২০১৭ সালের ১১ জুলাই জ্বর ও সর্দি-কাশির উপসর্গ নিয়ে সাড়ে তিন বছরের মেয়েকে পুরুলিয়ার সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছিল মা মঙ্গলা।  


সিলেটে বাসার ছাদ থেকে আপন দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার

ক্ষমতায় থাকছেন ট্রুডো, তবে গঠন করতে হবে সংখ্যালঘু সরকার

মিডিয়া ভুয়া খবর ছড়িয়েছে: বাপ্পী লাহিড়ি


সে সময়ে চিকিৎসকেরা জানিয়েছিলেন, সেই সময়েই শিশুটির শরীরে একাধিক ক্ষত এবং আঁচড়ের চিহ্ন ছিল। এমনকি শিশুটির নিম্নাঙ্গে রক্তের দাগও ছিল বলে জানিয়েছিলেন তারা। এইসব ক্ষতের কারণ জানতে মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করে এক্সরে করা হলে দেখা যায় তার শরীরের ভেতর বিঁধে রয়েছে সাতটি সূচ। কীভাবে সুচ বেঁধানো হলো, তা জানতে চাওয়া হলেও তার সদুত্তর মেলেনি মঙ্গলার কাছে।  

পরে সে দাবি করে, প্রাক্তন হোমগার্ড সনাতনের বাড়ির পরিচারিকা সে। তার ধারণা সনাতনই তার মেয়ের উপরে নির্যাতন চালিয়েছে।

news24bd.tv/আলী