অসময়ে মাচায় তরমুজ চাষ

আব্দুল লতিফ লিটু, ঠাকুরগাঁও

অসময়ে বাণিজ্যিকভাবে মাচায় তরমুজ চাষ করে সফলতা পেয়েছেন ঠাকুরগাঁওয়ের কৃষকরা। বাজারে এই তরমুজের দর চড়া থাকায় লাভবান হচ্ছেন তারা। স্বল্প খরচে লাভ বেশি হওয়ায় এ তরমুজ চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন অনেকে।

ঠাকুরগাঁও পীরগঞ্জ উপজেলায় মাচায় অসময়ের তরমুজ চাষ করছে এ অঞ্চলের কৃষকরা।  আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ফলনও বেশ ভালো হয়েছে।

কৃষকরা জানান, মাচার এই তরমুজ প্রতিটি ৩-৪ কেজি ওজনের হয়। লাল ও হলুদ বর্ণের এ তরমুজগুলো দেখতে যেমন সুন্দর, খেতেও অনেক সুস্বাদু। আর অসময়ে এই তরমুজের বাজার দরও বেশ চড়া থাকে।

স্বল্প খরচে লাভ বেশি হওয়ায় এই তরমুজ চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন অনেকে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, নতুন জাতের এই তরমুজ চাষ প্রসারের লক্ষ্যে মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের সব ধরনের সহায়তা করছে স্থানীয় কৃষি বিভাগ।

নতুন প্রযুক্তিতে অসময়ে তরমুজ চাষ একটি অসাধারণ উদ্যোগ। আর এভাবেই কৃষি এগিয়ে যাচ্ছে ও কৃষকরা স্বাবলম্বী হচ্ছে বলে মনে করেন তারা।

আরও পড়ুন:


টাকার অভাবে বাঁচানো গেল না শরীরের বাইরে হৃৎপিণ্ড নিয়ে জন্মানো শিশুটিকে

কিশোরীকে স্বামীর ঘরে ঢুকিয়ে দরজা বন্ধ করে বাইরে পাহারা দেয় স্ত্রী

গাড়িচাপা দেওয়া ইসরাইলি ২ পুলিশের অবস্থা আশঙ্কাজনক

এই হচ্ছে বিএনপি, আর সব দোষ আওয়ামী লীগের?


news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

সাইবার আগ্রাসন থামছেই না

রিশাদ হাসান

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার অত:পর দাঙ্গা, যার বলি হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। সম্প্রতি কুমিল্লার ঘটনা যার বাস্তব উদাহরণ। শুধু তাই নয় সামাজিক রাজনৈতিক অস্থিরতা বাড়াতে এই সব অপপ্রচার চলছে দেশের বাইরে থেকেও। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কাছেই সবাই জিম্মি। 

প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রাষ্ট্রের শৃঙ্খলা রক্ষায় এই জিম্মি দশা থেকে দ্রুতই বেরিয়ে আসতে হবে। সাইবার অপরাধ বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, অপরাধীদের শাস্তির আওতায় আনতে না পারলে এমন অবস্থা চলতেই থাকবে।

সম্প্রতি কুমিল্লার ঘটনায় মুহূর্তেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার ঘটনা বাংলাদেশে এটাই প্রথম নয়। এর আগেও রামু বা নাসিরনগরের ঘটনাও কারো অজানা নয়। যার নেপথ্যে সবচেয়ে বড় দায় সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপপ্রচার।

দেশে বা দেশের বাইরে বসে এমন সাম্প্রদায়িক, সামাজিক ও রাজনৈতিক অস্থিরতা সৃষ্টির জন্য প্রতিদিন তৈরি হচ্ছে হচ্ছে অসংখ্য কন্টেন্ট। প্রচলিত আইনে বিচার না হওয়ায় অপরাধীরা থেকে যাচ্ছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে।

অধিক মাত্রায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম নির্ভরতা ও তথ্য যাচাই না করাকেই দুষছেন প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা। যার ফলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কাছে জিম্মি হয়ে পড়ছে পুরো রাষ্ট্র।

আরও পড়ুন:


গাজীপুরে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে পার্লার কর্মীকে গণধর্ষণ

পরিকল্পিতভাবে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি পূজায় সহিংসতা সৃষ্টি করেছে: কাদের

ইন্দোনেশিয়ার বালিতে শক্তিশালী ভূমিকম্প, নিহত ৩

ঘোড়ার খামারে বিয়ে করছেন বিল গেটসের মেয়ে


সাইবার অপরাধ বিশেষজ্ঞরা মনে করেন দেশের প্রচলিত আইনে বিচার পেতে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় গুলোতে সমন্বিতভাবেই কাজ করতে হবে।

ফেসবুক একটি দেশের গণতন্ত্রের জন্য হুমকি, সম্প্রতি এমন তথ্য দিয়ে পুরো বিশ্বকে চমকে দিয়েছেন খোদ ফেসবুকের সাবেক কর্মকর্তা ফ্রান্সেস হাউজেন। তাই যদি হয় তবে এই অপপ্রচার রোধে কি করণীয় হবে সে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় হচ্ছে আরেকটি হাসপাতাল

নয়ন বড়ুয়া জয়, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় হচ্ছে আরেকটি হাসপাতাল

চট্টগ্রাম মেডিকেলের স্বস্তি ফিরাতে পতেঙ্গায় অচিরেই চালু হচ্ছে আরেকটি হাসপাতাল। বেপজারের ৫ একর জায়গার ওপর নির্মিত তিন ভবনে একশ বেডের হাসপাতাল চালুর অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। বন্দর, পতেঙ্গা, ইপিজেড ও হালিশহরের ২০ লাখের বেশি মানুষের দীর্ঘ দিনের দাবির প্রেক্ষিতে বহুল কাঙ্খিত হাসপাতাল চালুর খবরে খুশি এলাকাবাসী।

চট্টগ্রাম মহানগরীর দক্ষিণাংশ তথা পতেঙ্গা, ইপিজেড ও বন্দরবাসীর সবচেয়ে বড় দুঃখ ছিল একটি হাসপাতাল না থাকা। দীর্ঘ যানজট ভোগান্তি পেরিয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেলে আসতে আসতেই প্রাণ হারিয়েছেন অনেকে। দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে অবশেষে হাসপাতাল পাচ্ছেন এই এলাকার মানুষ। সম্প্রতি বেপজার তিনটি ভবনে একশ বেডের সরকারি হাসপাতালের অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আরও পড়ুন


শাকিব খানের সঙ্গে তুরস্কে গিয়ে যে ভালোবাসায় পড়েছিলেন বুবলী (ভিডিও)

কোহলিদের কোচ হচ্ছেন রাহুল দ্রাবিড়, চোখ কপালে উঠার মত বেতন?

প্রেমিকের সঙ্গে পূজা দেখতে গিয়ে অচেতন অবস্থা জঙ্গলে পড়েছিল তরুণী

বরিশালের ক্ষুদে বোলিং যাদুকর সাদিদে মুগ্ধ বিশ্ব, স্বপ্ন বড় হয়ে বিশ্বকাপ জয়ের


চট্টগ্রাম ১১ আসনের সংসদ সদস্য এম এ লতিফ জানান, এই হাসপাতালে থাকবে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা। এলাকার ২০ লাখের বেশি মানুষের চিকিৎসা সেবার দুয়ার খুলবে এই হাসপাতাল।

চট্টগ্রাম মেডিকেলে যেখানে ১৩শ শয্যা সেখানে এখন প্রতিদিন রোগী ভর্তি ৩ হাজারের বেশি। এই হাসপাতাল চালু হলে রোগীর চাপ কিছু কমবে বলে মনে করছে সংশ্লিষ্টরা। তবে নতুন হাসপাতাল ২৪ ঘণ্টা চালু রাখার দাবি এলাকাবাসীর।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

পাল্লা দিয়ে বাড়ছে নিত্যপণ্যের দাম

মাহমুদুল হাসান

নিম্ন ও মধ্য আয়ের মানুষের আয় আগের মতোই থাকলেও রীতিমতো পাল্লা দিয়ে বাড়ছে নিত্যপণ্যের দাম। তাই দ্রব্যমূল্যের এমন ঊর্ধ্বগতিতে ভালো নেই সাধারণ মানুষ। সপ্তাহের ব্যবধানে লাফিয়ে বেড়েছে আটা চিনি আলুসহ প্রায় সব রকম নিত্যপণ্যের দাম। সাধারণ মানুষ আমিষের চাহিদা পূরণে যে মুরগী ও ডিম খান, তার দামও বেড়েছে অস্বাভাবিক হারে।

সাধারণ ক্রেতারা বলছেন, বাজার থেকে পণ্য কেনা কষ্টসাধ্য হয়ে উঠছে।

মানুষের আয়ের যে অবস্থা তার সাথে কোনোই মিল নেই বাজার দরের। রাজধানীর কারোয়ান বাজারে সপ্তাহের বাজার করতে এসেছেন বেসরকারি চাকরিজীবী মো. আরিফ। এক দোকান থেকে অন্য দোকানে ঘুরছেন একটু কম দামে যদি পাওয়া যায় নিত্যপণ্য। বলছেন, বাজারের এমন উত্তাপ টের পাচ্ছেন হাড়ে হাড়ে।

কাঁচা সবজির দোকানে দাম কম শুধু পেপে আর পটলের। কিন্তু একই সবজি ঘুফিরে আর কতেই খাওয়া যায়? অন্য প্রায় সব সবজির দামই ৫০ টাকার উপরে। শীতের সবজিও বিক্রির উপেযুক্ত হয়নি এখনও।

গত কিছুদিন ধরে স্থিতিশীল ছিল আলুর দাম। এক সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতি ৫ কেজি আলুর দাম বেড়েছে ১০ টাকা। আদা- রসুনের দাম বেড়েছে কেজিতে ২০ টাকা।

এরই মধ্যে  পেঁয়াজ ও চিনি আমদানিতে শুল্ক কমিয়েছে এনবিএর। ফলাফল মোটামুটি স্থিতিশীল অবস্থায় আছে এই দুই পন্যের দাম।

আরও পড়ুন:


ইউনিয়ন নির্বাচন নিয়ে সহিংসতা, নিহত ৪ 

আ.লীগের মনোনয়নপত্র বিক্রি ১৬ থেকে ২০ অক্টোবর

দেশে সাম্প্রদায়িক হামলাগুলোর মদদ দিচ্ছে সরকার: ফখরুল

সেদিন নীল শাড়িটাই পরবো: মাহি

দ্বিতীয় বিয়ে করে সত্যিই 'সারপ্রাইজ' দিলেন মাহি


 

তবে একেবারে নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে মুরগি ও ডিমের দাম। গরিব মানুষণ আমিষের চাহিদা পূরণে যে ব্রয়লার মুরগী খান সপ্তাহের ব্যবধানে বেড়েছে ১০ টাকা। আর মিমের ডজন এখন ১১০ টাকা।

তবে চালের দাম আর বাড়েনি। মোটামুটি আগের দামেই বিকিও হচ্ছে মিনিকেট আটাশসহ অন্য চাল।

গরীবের খাদ্য মোটাচাল বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা, আর মিনিকেট চাল বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা কেজে

বাজারে ইলিশের বিক্রি বন্ধ থাকায় চোপ পড়েছে অন্য মাছের দামে।

এমন অবস্থায় প্রায় মাথা খারাপ অবস্থা সাধারণ ক্রেতাদের।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

যশোরে শীতকালীন সবজির বাম্পার ফলন

রিপন হোসেন

শীতকালীন সবজি চাষে ব্যস্ত সময় পার করছেন যশোরের কৃষকরা । আবহাওয়ায় অনুকুলে থাকায় বাম্পার ফলনের আশাও করছেন তারা। আগাম সবজি চাষে  কৃষকদের সব ধরনের সহায়তা করছে স্থানীয় কৃষি বিভাগ।

যশোরে প্রতিবছরই রেকর্ড পরিমাণ সবজি উৎপাদন হয়। এখানকার উৎপাদিত সবজি দেশের মোট চাহিদার ৬৫ ভাগ যোগান দেয়।  বর্তমানে এ জেলার চুড়ামনকাটি, বারীনগর, হৈবতপুরসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের  মাঠ জুড়ে এখন  শীতের সবজি।

আরও পড়ুন:


আওয়ামী লীগ বলেছে, তারা সেদিকে যাবে না: ফখরুল

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইপিএল নিয়ে জুয়া, ৩ জনের সাজা

কুমিল্লার ঘটনায় যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী


শীতকালীন সবজি বাধাঁকপি, ফুলকপি, সিম, মুলা, লাল শাক, পালং শাকসহ নানা ধরনের সবজিতে ভরা ক্ষেত। ক্ষেত পরিচর্যায় ব্যস্ত কৃষকরা।

কৃষকরা জানান, দীর্ঘ অনাবৃষ্টিতে এবছর সবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এই ক্ষতি পুষিয়ে নিতেই আগাম শীতকালীন সবজি আবাদ করছেন কৃষকরা। বাজারে দর চড়া থাকায় খুশি।

শীতকালীন সবজি চাষে কৃষকদের কারিগরি সহায়তার পাশাপাশি নানা পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে বলে জানালেন সংশ্লিষ্টরা।

কৃষি বিভাগের হিসেবে, যশোর জেলায় এবার প্রায় ২০ হাজার হেক্টর জমিতে শীতকালীন সবজি চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে।

news24bd.tv/তৌহিদ

পরবর্তী খবর

বঙ্গবন্ধু সেতুর দুই পার্শ্বে ৭০ কি.মি. যানজট

আতিক রহমান ও আব্দুস সামাদ সায়েম

সীমাহীন যানজটে নাকাল উত্তর ও পশ্চিমাঞ্চলের ২২ জেলার মানুষ। সিরাজগঞ্জের নকলা সেতুর সংস্কার কাজ চলায় ৯ ঘণ্টা ধরে বঙ্গবন্ধু সেতুর টোল আদাল বন্ধ ছিলো। এতে সেতুর পূর্ব ও পশ্চিম প্রান্ত মিলে প্রায় ৭০ কিলোমিটার এলাকায় তীব্র যানজট ছড়িয়ে পড়ে। ৩০ মিনিটের পথ পেরুতে সময় লাগছে ১০ থেকে ১২ ঘণ্টা। সড়ক ও জনপথ বিভাগ বলছে, নকলা সেতুর সংস্কার কাজ শেষ হলে কমবে দুর্ভোগ।

এই দৃশ্য বঙ্গবন্ধূ সেতুর পূর্ব প্রান্তের। টাঙ্গাইলের এলেঙ্গা পর্যন্ত প্রায় ২৫ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে সৃষ্টি হয়েছে তীব্র যানজটের।

আরও পড়ুন:


আওয়ামী লীগ বলেছে, তারা সেদিকে যাবে না: ফখরুল

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইপিএল নিয়ে জুয়া, ৩ জনের সাজা

কুমিল্লার ঘটনায় যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী


এদিকে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিমে হাটিকুমরুল মহাসড়কে ৪৫ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে সৃষ্টি হয়েছে অসহনীয় যানজটের। এছাড়া বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম গোলচত্ত্বর থেকে ভূইয়াগাঁতী, হাটিকুমরুল-বনপাড়া সড়কের সলঙ্গা এলাকা ও হাটিকুমরুল-পাবনা সড়কের বোয়ালিয়া পর্যন্ত যানজট ছড়িয়ে গেছে।

মাত্র ৩০ মিনিটের পথ পার হতে এখন দিন পেরিয়ে যাচ্ছে। তীব্র গরমে ঘণ্টার পর ঘণ্টা সড়কে থেকে পণ্যবাহী ট্রাকের কাঁচামাল নষ্ট হতে শুরু করেছে। অসুস্থ্য হয়ে পড়েছেন অনেকে বাস যাত্রী।

সিরাজগঞ্জের নকলা সেতুর সংস্কার কাজ চলায় গাড়ি চলছে এক লেন দিয়ে। ভোর থেকে এতেই সৃষ্টি হয় যানজট। বেলা বাড়ার সাথে সাথ তা আরো দীর্ঘ হতে থাকে। প্রায় ৯ ঘণ্টা ধরে বঙ্গবন্ধু সেতুর টোল আদায় বন্ধ রেখেছে কর্তৃপক্ষ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে হাইওয়ে পুলিশ।

সড়ক ও জনপদ বিভাগ জানিয়েছে, নকলা সেতুর পশ্চিমাংশে সড়কের ওপরের অংশ তুলে ফেলে সেগুলোও মেরামত করা হচ্ছে। সংস্কার কাজ শেষ হলে দুর্ভোগ কমে আসবে বলে জানান সড়ক জনপদ বিভাগ সিরাজগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী।

মহাসড়কটি দিয়ে প্রতি দিন উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২২ জেলার অন্তত ২০ হাজার যানবাহন চলাচল করে। প্রায় ৯ ঘণ্টা ধরে বঙ্গবন্ধ সেতু বন্ধ থাকায় দুই পারে অন্তত ১০ হাজার গাড়ি আটকা পড়েছে বলে ধারনা সংশ্লিষ্টদের।

news24bd.tv/তৌহিদ

পরবর্তী খবর