বিএনপি সব সময় পেছনের দরজা পছন্দ করে: তথ্যমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

বিএনপি সব সময় পেছনের দরজা পছন্দ করে: তথ্যমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ (এমপি) বলেছেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় এসেছিলেন। বেগম খালেদা জিয়াও পেছনের দরজা পছন্দ করেন।

তিনি বলেন, বিএনপি সবসময় পেছনের দরজা পচ্ছন্দ করে। আর সেই কারণেই গত সাড়ে ১২ বছর ধরে আন্দোলন সংগ্রামের নামে দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে পেছনের দরজা দিয়ে কিছু করা যায় কিনা সেই চেষ্টাই করেছে। এই ধরনের রাজনীতি তাদের জন্য মঙ্গল বয়ে আনবে না।

আজ সকালে খুলনা জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর সাংবাদিক কল্যাণ তহবিল থেকে করোনাকালীন সহায়তার চেক বিতরণে অনুষ্ঠানটির আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন গণমাধ্যমের ৭৫জনকে প্রধানমন্ত্রীর সাংবাদিক কল্যাণ তহবিল থেকে ১০ হাজার টাকার চেক প্রদান করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি এই সরকারের অধীনে আর নির্বাচনে যাবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে। এর আগে ২০১৪ সালেও নির্বাচন বর্জন করে। ২০১৮ সালে নির্বাচনে আসবে কিনা আসবে না নির্বাচনে আসে। গাঁধা জলঘোলা করে খায়। বিএনপির অবস্থাও তেমনি। আবারো নির্বাচনে না যাওয়া আত্মহনন সিদ্ধান্ত।

খুলনা জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশিদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ। বক্তব্য দেন খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, সাংবাদিক অমিয় কান্তি পাল।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরে বলেন, সাড়ে ১২ বছর আগে বাসি ভাত চাওয়ার কণ্ঠ পাওয়া যেত। এখন আর শোনা যায় না। এটা বদলে যাওয়া বাংলাদেশ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সামাজিক কল্যাণকর রাষ্ট্র গঠন করতে চান। এ জন্য বিধাবা ভাতা, স্বামী পরিত্যাক্তা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, বৃদ্ধভাতা, মাতৃত্বকালীনসহ অনেক ভাতা চালু করেছেন। সাধারণ মানুষ তার সুফল পাচ্ছেন।

মন্ত্রী বলেন, করোনাকালীন সময়ে প্রধানমন্ত্রী একদিনও বসে থাকেননি। তথ্য প্রযুক্তির সর্ব্বোত্তম ব্যবহার করে ই-ফাইল চালু, মন্ত্রী পরিষদের সভা, একনেট সভা হয়েছে। বিশ্বে জিডিপির হার কমলেও বাংলাদেশে বেড়েছে। জিডিপি রেট ভারতকে ছাঁড়িয়েছে। মাথাপিছু আয় ২৫০ ডলার বেড়েছে। আমরা ১০ বছর আগে পাকিস্তানকেও সব সূচকে হারিয়েছি।

সাংবাদিকদের জন্য ১০ কোটি অনুদান প্রদানের বিষয়টি উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর অনুদান থেকে সাংবাদিকদের করোনাকালীন সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। যারা ওই সময়ে চাকুরিচ্যুত, বেতন পাননি তাঁরা সকলে এই সহায়তা পাবেন। যারা সব সময় সরকারের সমলোচনা করেন, তারও এ থেকে বাদ পড়বেন না।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী বাংলাদেশ বেতার খুলনা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি খুলনায় পূর্ণাঙ্গ টেলিভিশন কেন্দ্র, সিনেপ্লেক্সসহ তথ্য কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হবে বলে সাংবাদিকদের আশ্বাস দেন।

পরবর্তী খবর

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত: জাফরুল্লাহ

অনলাইন ডেস্ক


স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত: জাফরুল্লাহ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালকে পদত্যাগ করার পরামর্শ দিয়েছেন ভাসানী অনুসারী পরিষদের চেয়ারম্যান ও গণস্বাস্থ্যের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

তিনি বলেন, আসাদুজ্জামান খান খুব ভালো একজন মানুষ। বর্তমানে যে দু-একজন ভালো মন্ত্রী আছেন তার মধ্যে তিনি একজন। যেহেতু তাকে তার গোয়েন্দা সংস্থা মিস লিড করেছে এবং তিনি বলেছেন আমরা সব মন্দিরের নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছি। যদি নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হতো তাহলে এ ঘটনা ঘটতো না। তাই তার পদত্যাগ করা উচিত।

আজ দুপুরে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ ক্ষতিগ্রস্ত পূজামণ্ডপ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন তিনি।

জাফরুল্লাহ বলেন, যেসব মন্দিরে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে সেগুলোতে সরকারকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। দেরি নয়, আগামীকাল থেকেই এ ক্ষতিপূরণ দেওয়া শুরু করতে হবে।

আরও পড়ুন:


‘পবিত্র কোরআন অবমাননার’ ব্যাপারে সাংবাদিকদের প্রশ্নে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আমার পিছনে কোন রাজনৈতিক বংশের জোর ছিল না: মোদি

ক্যামেরার সামনেই বিরাট-আনুশকার কথা কাটাকাটি!

সরকারের মদদেই পূজা মণ্ডপে কোরআন অবমাননা: ফখরুল


তিনি বলেন, বর্তমান সরকার জনগণের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। শুধু হিন্দু বা মুসলিমের নয় সবার নিরাপত্তা দিতে হবে, যা দিতে সরকার ব্যর্থ। এ ব্যর্থতার মূল কারণ হচ্ছে গণতন্ত্র।

এ সময় ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, প্রেসিডিয়াম সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা নঈম জাহাঙ্গীর, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রেস উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু, শহীদ আসাদের ছোটভাই ডা. নুরুজ্জামান, ভাসানী অনুসারী পরিষদের সদস্য ব্যারিস্টার সাদিয়া আরমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

আমরা আরও বেশি সতর্ক: ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

আমরা আরও বেশি সতর্ক: ওবায়দুল কাদের

পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনা পরিকল্পিত বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, আগামী জাতীয় নির্বচনকে সামনে রেখে আবারও সক্রিয় অন্ধকার গোষ্ঠী। আমরা আরও বেশি সতর্ক; এখন কোনো অপশক্তি মাথাচাড়া দিতে পারবে না।

শেখ রাসেলের ৫৮ তম জন্মদিন উপলক্ষে ল্যাবরোটরি স্কুলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ সব কথা বলেন তিনি।

সব সাম্প্রদায়িক শক্তির খুঁটি একটাই; সেটা বিএনপি মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় খুলে গেছে ক্যাম্পাসে অস্থিরতা সৃষ্টির সুযোগ কাউকে দেওয়া যাবে না। বাংলাদেশে এই মুহূর্তে ভোট হলে বিপুল ভোটে বিজয়ী হবে আওয়ামী লীগ। ভোটের মাঠে সুবিধা করতে পারবে না এটা ভালোভাবেই বুঝতে পেরেছে বিএনপি।

news24bd.tv/তৌহিদ

পরবর্তী খবর

সরকারের মদদেই পূজা মণ্ডপে কোরআন অবমাননা: ফখরুল

অনলাইন ডেস্ক

সরকারের মদদেই পূজা মণ্ডপে কোরআন অবমাননা: ফখরুল

সরকারের মদদেই পূজা মণ্ডপে কোরআন অবমাননার ঘটনা ঘটেছে। ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি নষ্ট  করার চেষ্টা করছে সরকার। এমন মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিস্তারিত আসছে...

news24bd.tv/তৌহিদ

পরবর্তী খবর

‘রাজাকারপুত্র’কে নৌকার মনোনয়ন দেওয়ার অভিযোগে বিক্ষোভ

অনলাইন ডেস্ক

‘রাজাকারপুত্র’কে নৌকার মনোনয়ন দেওয়ার অভিযোগে বিক্ষোভ

পাবনার সুজানগর উপজেলার নাজিরগঞ্জ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পরিবর্তন করে ‘রাজাকারপুত্র’কে মনোনয়ন দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। গত ১৪ অক্টোবর এই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে পূর্বের মনোনীত প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুস সাত্তারকে পরিবর্তন করে বর্তমান চেয়ারম্যান মশিউর রহমানকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার রাতে মনোয়নয়ন পরিবর্তনের খবর এলাকায় পৌঁছালে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। 

মনোনয়ন পরিবর্তনের খবরে মশিউর সমর্থকরা খুশি হলেও, আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী ও স্থানীয় মানুষ ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। মশিউর চেয়ারম্যানকে দুর্নীতিবাজ ও রাজাকার পরিবারের সন্তান দাবি করে মনোনয়ন পরিবর্তনের দাবিতে শনিবার বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী।

এদিকে মনোনয়ন পরিবর্তনের খবরে আব্দুস সাত্তারের সমর্থক আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী ও স্থানীয়দের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভ ও হতাশা সৃষ্টি হয়েছে। শনিবার বিকেলে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করে আব্দুস সাত্তারকেই আওয়ামী লীগ প্রার্থী করার দাবি জানিয়েছেন সমর্থকরা।

বিক্ষুব্ধ স্থানীয়রা জানান, চেয়ারম্যান মশিউর রহমান স্বাধীনতা বিরোধী পরিবারের সন্তান। তিনি জনবিচ্ছিন্ন, বিতর্কিত ব্যক্তি। চেয়ারম্যান থাকাকালে তিনি পরিষদে বসতেন না, জনগণের ভালো মন্দের খোঁজও রাখতেন না। ইউপি সদস্যদের মতামতের তোয়াক্কা না করে নিজস্ব ক্যাডার বাহিনীকে দিয়ে পরিষদ চালিয়েছেন। দুর্নীতি, অনিয়ম, সালিশ বাণিজ্য, অবৈধ বালি ব্যবসাসহ এমন কোনো অপকর্ম নেই যে তিনি করেননি। 

এছাড়াও সরকারী বিধি ভঙ্গ করে গোপনে দেশের বাইরে চলে যেতেন। এসব কারণে তিনি চেয়ারম্যান পদ থেকে বরখাস্তও হয়েছিলেন। এমন বিতর্কিত ব্যক্তিকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দেওয়ায় এলাকাবাসীর মাঝে হতাশা নেমে এসেছে।

সুজানগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওহাব বলেন, মশিউর রহমানের বাবা সৈয়দ আলী খান মুক্তিযুদ্ধের সময় শান্তি কমিটির সক্রিয় সদস্য ছিলেন। সর্বশেষ প্রকাশিত রাজাকারের তালিকাতেও তার নাম রয়েছে। এখন তার পরিবারের অনেকেই আওয়ামী লীগ করলেও তারা চিহ্নিত স্বাধীনতা বিরোধী পরিবার এতে কোনো সন্দেহ নেই। 

আরও পড়ুন:


মিনিস্টারে বিশাল নিয়োগ , যোগ্যতা ৮ম শ্রেণী

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশে চাকরি, যোগ্যতা এসএসসি

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরে চাকরির সুযোগ, যোগ্যতা এইচএসসি

পল্লী বিদ্যুৎতে বড় নিয়োগ, যোগ্যতা এসএসসি


 

এদিকে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আওয়ামী লীগের সদ্য মনোনয়ন পাওয়া চেয়ারম্যান প্রার্থী মশিউর রহমান খান বলেন, কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ প্রার্থী সিলেকশনে ভুল বুঝতে পেরে প্রার্থী পরিবর্তন করেছে। তৃণমূল নেতাকর্মীকে সাথে নিয়েই আমি নৌকার বিজয় নিশ্চিত করব।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

চৌমুহনীর ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত চান বুলু

অনলাইন ডেস্ক

চৌমুহনীর ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত চান বুলু

নোয়াখালীর প্রধান বাণিজ্যিক কেন্দ্র বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনীতে হিন্দুদের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান, মন্দির ও বাড়িতে হামলা-ভাঙচুরের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী বরকত উল্লাহ বুলু। এ ঘটনায় তিনি বিচারবিভাগীয় তদন্ত দাবি করে ফুটেজ দেখে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

 শনিবার বিকালে গণমাধ্যমের সঙ্গে ফোনালাপে তিনি এ দাবি করেন।

সাবেক মন্ত্রী বরকত উল্লাহ বুলু বলেন, বিএনপি একটি অসম্প্রদায়িক দল। আমরা সব সময় সম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে বিশ্বাস করি। এই সম্প্রদায়িক সম্প্রীতি সৃষ্টি করেছেন প্রয়াত রাষ্ট্রপতি বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান। অবিলম্বে দোষীদের শাস্তি দিতে হবে। চৌমুহনীতে মারা যাওয়া দুইজনের জন্য গভীর শোক ও সমবেদনা জানাচ্ছি।

বিএনপির এই ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, ৯১ সালে আমরা যখন রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসি তখন আমি নোয়াখালীতে সংসদ সদস্য ছিলাম। সেই সময় ভারতে বাবরী মসজিদ ভাঙার পর নোয়াখালীর বেগম গঞ্জের ২৬টি ইউনিয়নে গান্ধী ও রাম ঠাকুর আশ্রমসহ হিন্দুদের সকল মন্দির আমরা পাহারা দিয়েছি। বিডিআর, পুলিশসহ আমাদের নেতা-কর্মীরা আতঙ্কিত হিন্দু পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে। সবাইকে আশ্বস্ত করেছি, বেগমগঞ্জে কিছু হবে না।

আরও পড়ুন:


মিনিস্টারে বিশাল নিয়োগ , যোগ্যতা ৮ম শ্রেণী

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশে চাকরি, যোগ্যতা এসএসসি

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরে চাকরির সুযোগ, যোগ্যতা এইচএসসি

পল্লী বিদ্যুৎতে বড় নিয়োগ, যোগ্যতা এসএসসি


 

তিনি বলেন, আমরা সেদিন সর্বদলীয় বৈঠক ডেকেছিলাম। সেই বৈঠকের সভাপতিত্ব করেন বর্ষিয়ান আওয়ামী লীগ নেতা ৭০‘ এর এমএনএ ও সংসদ সদস্য নূরুল হক। আমি সংসদ সদস্য হিসেবে প্রধান অতিথি ছিলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের জেলা সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ এম এ হানিফ। এ ছাড়া স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের নান্টু সাহাসহ বিএনপি, আওয়ামী লীগ, জাসদ, বাসদ ও কমিউনিস্ট পার্টির নেতৃবৃন্দসহ সেদিন সব পক্ষের প্রতিনিধি সেখানে উপস্থিত ছিলেন। প্রায় ২০ হাজার মানুষ সেদিন রেলওয়ে ময়দানে উপস্থিত ছিলেন। সেদিন কোনো ঘটনা সেখানে ঘটেনি।

বিএনপির এই নেতা বলেন, শুক্রবার বেগমগঞ্জের চৌমুহনীতে ন্যাক্কারজনক এ ঘটনা কে বা কারা ঘটিয়েছে। কার উসকানিতে এ ঘটনা ঘটিয়েছে, তা খুঁজে বের করতে হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর