শরতকালীন উৎসবে মেতেছে চীন

নাহিদ জিহান

চীনে শুরু হয়েছে শরতকালীন অনুষ্ঠান। শীতের পূর্বে বিভিন্ন প্রদেশে আয়োজন করা হচ্ছে এই শরতের উৎসব। আর এ উপলক্ষ্যে টেলিভশনে আয়োজন করা হয়েছে বিশেষ গালা অনুষ্ঠান।

শরতকালীন জমকালো উৎসবে মেতে উঠেছে চীন। টেলিভিশনগুলোতে উৎসব উপলক্ষ্যে আয়োজন করা হয়েছে বিশেষ অনুষ্ঠানের। নাচ আর গানের পাশাপাশি উৎসবের জৌলস আরো বাড়িয়ে দিয়েছে আতশবাজির খেলা।

আরও পড়ুন:


স্ত্রীকে পরকীয়া থেকে ফেরাতে না পেরে স্ট্যাটাস দিয়ে যুবলীগ নেতার আত্মহত্যা

সংস্কারের অভাবে বেহাল রাঙামাটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট

গাজীপুরে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ভেসে আসা তিমির ওজন ৩০ হাজার কেজি, দৈর্ঘ্য ৪০ ফুট


চীনা মিডিয়া গ্রুপ সিএমজির আয়োজনে মিড অটাম ফেস্টিভ্যাল গালা অনুষ্ঠান দেখে ভীষণ উচ্ছসিত বিদেশি দর্শকরাও। সেই সঙ্গে প্রবাসী চীনাদের কাছেও এ অনুষ্ঠান দেশের প্রতি টান আরো বাড়িয়ে দিয়েছে।

যেসব চীনারা দেশের বাইরে থাকে, টেলিভিশনের মাধ্যমে তাদের কাছে এই উৎসব উপভোগ করা অত্যন্ত আনন্দের। যা জন্মভূমির জন্য নাড়ির টান মনে করিয়ে দেয়।

চীনের সিচুয়ান প্রদেশের শিচ্যাং স্যাটেলাইট উৎক্ষেপন কেন্দ্রের কাছে, ৩৬০ ডিগ্রী এঙ্গেলে গড়ে তোলা এই স্টেজ পারফর্মেন্স ইতিহাসের সবচেয়ে শো বলে দাবি করেছেন আয়োজনকরা।

তিন পর্বের এই গালা অনুষ্ঠানে চীনা ইতিহাস ও সংস্কৃতির তুলে ধরা হয়। অনলাইনে এরইমধ্যে দেশি-বিদেশি ৯ কোটির বেশি দর্শক এই অনুষ্ঠান উপভোগ করেছেন।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

গরু জবাই নিষিদ্ধের প্রস্তাব অনুমোদন হলো শ্রীলংকায়

অনলাইন ডেস্ক

গরু জবাই নিষিদ্ধের প্রস্তাব অনুমোদন হলো শ্রীলংকায়

শ্রীলংকা সরকার একটি খসড়া আইন অনুমোদন করেছে। সে আইনে দেশে গরু জবাই নিষিদ্ধ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

সরকার বলছে, এই নিষেধাজ্ঞার ফলে শ্রীলংকার গবাদি দুগ্ধ-শিল্প উপকৃত হবে। মন্ত্রিসভায় প্রস্তাবটি পাশ হওয়ার পর খসড়া আইনটিকে অনুমোদনের জন্য এখন সংসদে তোলা হবে।

সমালোচকদের উদ্ধৃত করে বিবিসি জানায়, শ্রীলংকার সংখ্যালঘু মুসলমানদের লক্ষ্য করে আইনটি তৈরি করা হয়েছে। কারণ তারাই গোমাংসের প্রধান ভক্ষক। শ্রীলংকার কট্টরপন্থী সিংহলী বৌদ্ধ গোষ্ঠীগুলি গোমাংস নিষিদ্ধ করার সরকারি প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছে বলেও জানিয়েছে বিবিসি।

শ্রীলংকা একটি বৌদ্ধ সংখ্যাগুরু দেশ। জনসংখ্যার ৭০ শতাংশ লোক এই ধর্মের অনুসারী। কিন্তু দেশটির বেশিরভাগ মানুষই মাংসভোজী। তবে বৌদ্ধদের একাংশ গরুকে পবিত্র-জ্ঞান করেন এবং তারা গোমাংস খাওয়া থেকে বিরত থাকেন। তবে সে দেশের জনসংখ্যার ১০ শতাংশ মুসলমান। এরা সহ খ্রিস্টান, কিছু বৌদ্ধ এবং হিন্দুরাও গরুর মাংস খান।

আরও পড়ুন:


ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইপিএল নিয়ে জুয়া, ৩ জনের সাজা

চট্টগ্রাম আদালত এলাকায় বোমা হামলা মামলার রায় আজ

টুইটার অ্যাকাউন্ট ফিরে পেতে আদালতে ট্রাম্প

যুবলীগ নেতার সঙ্গে ভিডিও ফাঁস! মামলা তুলে নিতে নারীকে হুমকি


সরকারের সমালোচকরা বলছেন, শ্রীলংকার গোমাংসের ব্যবসা এবং হালাল সার্টিফিকেশনের নিয়ন্ত্রণ মুসলমানদের হাতে। ফলে এরাই এই প্রস্তাবিত আইনে ক্ষতিগ্রস্ত হতে যাচ্ছেন। তবে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, গরু জবাই বন্ধ করার পক্ষে বিভিন্ন দল অবস্থান নিয়েছে। তাদের যুক্তি, কৃষিকাজ এবং দুগ্ধ শিল্পের জন্য প্রয়োজনীয় গরু দেশে নেই।

শ্রীলংকায় গরু জবাই নিষিদ্ধ করার প্রস্তাব প্রথম উঠেছিল ২০০৯ সালে। সে সময় একজন সংসদ সদস্য ভিজেদাসা রাজাপাক্সে এসংক্রান্ত একটি প্রস্তাব সংসদে তুলেছিলেন। তবে সে সময় প্রস্তাবটি সংসদে গৃহীত হয়নি। এরপর ২০১২ সালে ক্যান্ডি শহরের কর্তৃপক্ষ পৌর এলাকার মধ্যে গরু জবাই নিষিদ্ধ করে। পরের বছর এনিয়ে বিতর্কটি তীব্র আকার ধারণ করে যখন গরু জবাই নিষিদ্ধ করার দাবিতে একজন বৌদ্ধ ভিক্ষু নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন।

এরপর কট্টরপন্থী দুটি সিংহলী বৌদ্ধ সংগঠন, সিনহালা রাভায়া এবং বদু বালা সেনা, একে তাদের আন্দোলনের একটি প্রধান বিষয়বস্তুতে পরিণত করে। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাক্সে ২০১৬ সালের প্রস্তাবটিকে নতুন করে সংসদে তুলে আনেন এবং আইন প্রক্রিয়ার কাজ শুরু করেন।

news24bd.tv/তৌহিদ

পরবর্তী খবর

গাড়ির কাগজ দেখানোর কথা বলে পুলিশকে অপহরণ করলো গাড়ি চোর!

অনলাইন ডেস্ক

গাড়ির কাগজ দেখানোর কথা বলে পুলিশকে অপহরণ করলো গাড়ি চোর!

গাড়ির কাগজপত্র পরীক্ষার সময় রাস্তা থেকে কর্তব্যরত এক পুলিশ সদস্যকে অপহরণের ঘটনা ঘটেছে। রাস্তায় চলাচলকারী সব গাড়ি থামিয়ে কাগজ দেখছিলেন পুলিশ। সে সময় একটি ‘সুইফট ডিজায়ার’ গাড়ি এসে দাড়ায়।  সে সময়ে গাড়িতে থাকা ব্যক্তিকে পুলিশ সদস্যরা গাড়ির কাগজপত্র দেখাতে বললে গাড়ি চালক বলে,‘মোবাইলে কাগজের ছবি নেই কিন্তু গাড়িতে কাগজ রাখা আছে। একজন গাড়িতে উঠে কাগজ দেখে যান।’

পরে এক পুলিশ সদস্য উঠে বসেন গাড়িতে। কিন্তু কাগজ দেখানোর পরিবর্তে গাড়ির গতি বাড়ান চালক। মুহূর্তে পুলিশকর্মীকে নিয়ে ধুলো উড়িয়ে হাওয়া হয়ে যায় গাড়িটি। আনন্দবাজার   এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে।

পুলিশ সদস্যকে অপহরণের ঘটনা ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশে। রোববার রাজ্যের গ্রেটার নয়ডা এলাকার সূরজপুরে অদ্ভূত এ কাণ্ডটি আলোচনার জন্ম দিয়েছে।  

এ ঘটনায় পুরো এলাকায় হইচই পড়ে যায়। হতবাক পুলিশকর্মীরাও। শেষ পর্যন্ত ঘটনাস্থল থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে একটি পুলিশ ফাঁড়ির সামনে অপহৃত পুলিশকর্মীকে নামিয়ে দেন সচিন। পরে পুলিশ সচিনকে গ্রেফতার করে।

আরও পড়ুন:


ইভ্যালিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব: বিচারপতি মানিক

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্ত

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রকে অপহরণ করে বিয়ে করলো তরুণী!

ডিএমপি কমিশনার ও র‍্যাব ডিজি’র পদোন্নতি


জানা গেছে, ট্রাফিক কনস্টেবলকে অপহরণের অভিযোগে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ  ২৯ বছরের সচিন রাওয়াল নামে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে। দু’বছর আগে গুরুগ্রামে একটি গাড়ির দোকান থেকে ‘টেস্ট ড্রাইভ’-এর নাম করে গাড়ি চুরি করেছিলেন তিনি। পুলিশকর্মীকে অপহরণসহ একাধিক ধারায় সচিনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

জাপান উপকূলে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া

অনলাইন ডেস্ক

জাপান উপকূলে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া

জাপান উপকূলে ফের একটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। মঙ্গলবার দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের সামরিক বাহিনী এ তথ্য দিয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

সংবাদমাধ্যমটি জানায়, পেনিনসুলার পূর্বে সিনপো থেকে এ ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়েছে। এদিকে আলজাজিরা জানায়, বিষয়টি দক্ষিণ কোরীয় ও মার্কিন গোয়েন্দারা বিশ্লেষণ করে দেখছে। ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোর এ ঘটনাকে অত্যন্ত দুঃখজনক বলে মন্তব্য করেছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিয়ো কিশিদা।


আরও পড়ুন:

টিকা নিতে অস্বীকার করায় কোচকে বহিষ্কার

কাতারে শুরা কাউন্সিলে ২ নারী নিয়োগ

দ্বিতীয় ম্যাচ নিয়ে যা বললেন সাকিব

নাইজেরিয়ার বন্দুকধারীদের হামলায় কমপক্ষে ৪৩ জন নিহত


কিম প্রশাসনের এমন ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে স্থিতিশীলতা আনতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে কোনো কিছুকেই আমলে না নিয়ে ক্ষেপনাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে পিয়ংইয়ং।

মঙ্গলবার মার্কিন সেনাবাহিনী এই ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের জন্য উত্তর কোরিয়ার প্রতি নিন্দা জানায় এবং দেশটিকে পরবর্তী কোনো অস্থিতিশীল কাজ থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানায়।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত 

পরবর্তী খবর

টিকা নিতে অস্বীকার করায় কোচকে বহিষ্কার

অনলাইন ডেস্ক

টিকা নিতে অস্বীকার করায় কোচকে বহিষ্কার

করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা নিতে অস্বীকার করায় ফুটবল কোচ নিক রোলোভিচকে বহিষ্কার করেছে ওয়াশিংটন স্টেট ইউনিভার্সিটি। সেই সাথে তার সহযোগীকেও বহিষ্কার করা হয়েছে। জানা যায়, নিকের বার্ষিক আয় ছিল ৩.১ মিলিয়ন ডলার।

বিবিসি একটি প্রতিবেদনে জানিয়েছে ওয়াশিংটনে সকল কর্মচারী ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য করোনা টিকা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। টিকা না নিলে চাকরিচ্যুত করারও বিধান রাখা হয়েছে।


আরও পড়ুন:

কাতারে শুরা কাউন্সিলে ২ নারী নিয়োগ

বানভাসি রাস্তায় বিয়ে করতে এলেন বর-কনে : ছবি ভাইরাল

দ্বিতীয় ম্যাচ নিয়ে যা বললেন সাকিব

নাইজেরিয়ার বন্দুকধারীদের হামলায় কমপক্ষে ৪৩ জন নিহত


টিকা নিতে অনাগ্রহ প্রকাশের জন্য নিক ধর্মীয় কারণ উল্লেখ করেন। তবে তার এ অজুহাত আমলে নেয়নি বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাথলেটিকস বিভাগের পরিচালক প্যাট চুন।

ইতিমধ্যে ওয়াশিংটন স্টেট ইউনিভার্সিটির ৯০ ভাগ কর্মচারী ও ৯৭ ভাগ শিক্ষার্থী করোনা টিকা নিয়েছে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত 

পরবর্তী খবর

অবশেষে ক্ষমা চাইলেন ট্রুডো

অনলাইন ডেস্ক

অবশেষে ক্ষমা চাইলেন ট্রুডো

৩০ সেপ্টেম্বর ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার কামলুপস আদিবাসীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করার কথা থাকলেও সেখানে যাননি কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। দুই দফায় চিঠি পাঠিয়ে আমন্ত্রণ জানানোর পরেও না যেতে পারায়  তাদের কাছে ক্ষমা চাইতে গতকাল সোমবার এলাকাটিতে ভ্রমণ করেছেন ট্রুডো। 

বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানা যায়, জাস্টিন ট্রুডো সেখানে গিয়ে আদিবাসী নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তাদের কাছে ওই ঘটনার জন্য ক্ষমা চেয়েছেন।

জানা গেছে, আমন্ত্রণে সাড়া না দিয়ে ট্রুডো পরিবারের সঙ্গে ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার একটি সৈকতে সময় কাটিয়েছেন। তা নিয়ে কানাডায় ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়।


আরও পড়ুন:

কাতারে শুরা কাউন্সিলে ২ নারী নিয়োগ

বানভাসি রাস্তায় বিয়ে করতে এলেন বর-কনে : ছবি ভাইরাল

দ্বিতীয় ম্যাচ নিয়ে যা বললেন সাকিব

নাইজেরিয়ার বন্দুকধারীদের হামলায় কমপক্ষে ৪৩ জন নিহত


এ বছর মে মাসে ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার একটি সাবেক আদিবাসী স্কুলের এক জায়গায় গণকবরের সন্ধান মেলে। সেখানে ২১৫টি শিশুর দেহাবশেষ পাওয়া যায়।

এই ঘটনা সামনে আসার পর থেকেই ৩০ সেপ্টেম্বর কানাডার ‘ট্রুথ অ্যান্ড রিকনশিলিয়েশন ডে’-তে জাস্টিন ট্রুডোকে ওই এলাকায় যাওয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছিল। কিন্তু তখন সেখানে না যাওয়ায় অবশেষে ক্ষমা চাইলেন।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত 

পরবর্তী খবর