বাড়ি কোথায়?
বাড়ি কোথায়?

বাড়ি কোথায়?

Other

ওই দিন ছোট ছেলেকে নিয়ে নদীর ধারে গিয়েছি। পার্কের লম্বা বেঞ্চে বসতে গিয়ে দেখলাম- একজন বয়স্ক বাঙালি আগে থেকে বসে আছেন। ভদ্রতাবশত আমি ওনাকে সালাম দিলাম। উনি আমার দিকে তাকিয়ে প্রথমেই জানতে চাইলেন, আপনার বাড়ি কোথায়? 

পার্কের এই বেঞ্চটাতে সাধারণত পাড়া প্রতিবেশীরাই বসে।

সেই হিসেবে ওনাকে আমার বাসার স্ট্রিট নম্বর ও এভিনিউ বললাম। উনি তখন বললেন, বাংলাদেশে আপনার বাড়ি কোথায়? 

এটাই নিউইয়র্কে বাঙালির স্বভাব ও বৈশিষ্ট্য। কাউকে প্রথম দেখা হলে কুশল বিনিময় নেই, কি করেন, কোথায় থাকেন, জানতে চাইবে না, আচমকা জিজ্ঞাসা করবে- ‘আপনার বাড়ি কোথায়?’ 

আমি শুরুতে ভাবতাম, বয়স্ক লোকজন বুঝি প্রশ্নটা বেশী করে। পরে দেখলাম, সব বয়সীরাও করে। আমার বড় ছেলে একাদশ শ্রেণিতে ওঠার পরে স্কুল থেকে অনুমতি পেয়েছে লাঞ্চ এর সময়ে বাইরে গিয়ে খাওয়ার।  

ব্রুকলিনে ওর স্কুলের কাছে এক ডানকিন ডোনাটে গিয়ে দেখে অনেক বাঙালি নারী কাজ করছে সেখানে। ও তাদের দেখে, বাংলায় কথা বলতে, তাদের একজন প্রশ্ন করল- ‘তোমার বাড়ি কোথায়?’ আমার ছেলে উত্তর দিল- ‘এস্টোরিয়া’। ভদ্রমহিলা ওকে বলল, ‘বাংলাদেশে তোমার বাড়ি কোথায়’?

বাড়ি কোথায়, এই প্রশ্নটা আলাপের সূত্রপাত হিসেবে কেউ কেউ ব্যবহার করতে পারে। যদিও আমি কখনই এই প্রশ্নটা পরিচিত-অপরিচিত কাউকে করি না। আমার বর প্রায়ই করে। কেউ তার জেলার বা থানার নাম বললে, ওখানকার একাধিক এলাকার নাম, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিদের নাম বলে চমকে দেয়। এতে করে সদ্য পরিচিত ব্যক্তিটিকে বেশ আনন্দে বিগলিত হতে দেখা যায়।  

আমেরিকানরা সাধারণত পরিচিত-অপরিচিত কারো সঙ্গে দেখা হবার শুরুতে ‘আবহাওয়া’ নিয়ে কথা বলে। কারণ এখানকার আবহাওয়া খুব ওঠানামা করে। তাই বলে সাধারণ আমেরিকানদের কি আঞ্চলিক প্রীতি নেই। খুব আছে। যে যার স্টেট বা সিটির, সেটার নাম উল্লেখ করার সময় এক ধরনের গর্ব প্রকাশ পায়। কেউ যদি বলে- ‘আই এম ম্যান ফ্রম বস্টন’, তার মানে সে বোঝাতে চায় আমি অন্যদের চেয়ে ওপরে।  

আরও পড়ুন:


ডিসেম্বরেই চালু হবে ৫জি নেটওয়ার্ক: মোস্তাফা জব্বার

দেশে বিনিয়োগ করুন: প্রধানমন্ত্রী

যানজট নিরসনের উদ্যোগ আটকে থাকে মহাপরিকল্পনার নথিতেই

মক্কা-মদিনার মসজিদে কাজ করবেন নারীরা


রোড আইল্যান্ডের দুই শহর নিউপোর্ট ও প্রভিডেন্সে মাস খানেক আগে বেড়াতে গিয়ে কয়েকটি দর্শনীয় স্থানে গিয়েছিলাম। সেখানে গিয়ে দেখলাম, ওখানে দীর্ঘদিন ধরে যারা বাস করছেন, তারা অর্থ-সময়-মেধা দিয়ে এই স্থানগুলোকে অতিথিদের জন্য সুন্দর ও আকর্ষণীয় করে রাখতে সদা তৎপর।  

-মনিজা রহমান, নিউইয়র্ক (ফেসবুক থেকে নেয়া)

news24bd.tv নাজিম

;