সৌদি আরবে বাংলাদেশির মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক

সৌদি আরবে বাংলাদেশির মৃত্যু

সৌদি আরবে ক্রেন থেকে ছিটকে পড়ে এক বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। তার নাম শেখ ফরিদ ওরফে আরজু (২৫)।

বাড়ি নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের চর হাজারী ইউনিয়নে।

গতকাল শনিবার দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন চর হাজারী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আবুল খায়ের।

আরও পড়ুন: 


দুই ডোজ টিকা নিয়েও উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার করোনা শনাক্ত


ফরিদের বাড়ি চর হাজারী ইউনিয়নের রহিম কোম্পানির বাড়ি গ্রামে। বাবার নাম আবদুল হালিম।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবুল খায়ের বলেন, বছর খানেক আগে জীবিকার তাগিদে শেখ ফরিদ সৌদি আরবে পাড়ি জমান। দেশটির রাজধানী রিয়াদে বৈদ্যুতিক মিস্ত্রির কাজ করতেন।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

স্পেনে শেখ রাসেলের জম্মদিন ও শেখ রাসেল দিবস উদযাপন

ইসমাইল হোসাইন রায়হান, স্পেন

স্পেনে শেখ রাসেলের জম্মদিন ও শেখ রাসেল দিবস উদযাপন

মাদ্রিদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে ১৮ অক্টোবর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের ও শেখ রাসেল দিবস উপলক্ষে কোরআন তিলওয়াত, আলোচনা সভা, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

সোমবার বিকাল ৫:৩০ ঘটিকার সময় পবিত্র কোরআন তিলওয়াতের মাধ্যমে আলোচনা সভা শুরু হয়।আলোচনা সভায় শেখ রাসেল দিবস উপলক্ষে মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ, শেখ রাসেলের উপর নির্মিত একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ ও মোনাজাত করা হয়।

আলোচনা সভায় মান্যবর রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সারওয়ার মাহমুদ, এনডিসি বলেন যে সরকার সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের জীবন সম্পর্কে শিশু কিশোরদের কাছে তুলে ধরতে প্রতিবছর তাঁর জম্মদিনকে রাসেল দিবস হিসেবে পালনের ঘোষণা দিয়েছে যা অত্যন্ত প্রশংসনীয় একটি উদ্যােগ। 

তিনি তাঁর বক্তব্যে শেখ রাসেলের স্মৃতির উদ্দেশ্যে আয়োজিত চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী সকল শিশু কিশোর ও তাদের অভিভাবকদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। তিনি চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীসহ অংশগ্রহণকারী  সকল শিশু কিশোরকে অভিনন্দন জানান। তিনি ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট শাহাদাৎ বরণকারী সকল শহীদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

তিনি আরো উল্লেখ করেন যে রাসেলের নামটি বঙ্গবন্ধু নিজেই রেখেছিলেন তাঁর প্রিয় ব্যাক্তিত্ব বিখ্যাত দার্শনিক বার্ট্রান্ড রাসেলের নাম। তিনি আরো বলেন যে ১০ বছর ১০ মাসের সংক্ষিপ্ত জীবনে শিশু রাসেল মানবিকতা ও সহপাঠিদের সাথে সহানুভূতির এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত রেখে গেছেন। 

শৈশবকালে শিশু রাসেল স্কুলে চকলেট খাওয়ার সময় সকল শিশুকে চকলেট বিতরণের পর নিজেই চকলেট খেতেন। 

বঙ্গবন্ধুকে রাজনৈতিক কারনে দীর্ঘ সময় কারাগারে থাকার জন্য শিশু রাসের পিতার সান্নিধ্য ও আদর যত্ন থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্টের কাল রাতে শিশু রাসেল মুক্তি চেয়েছিলেন এবং জার্মানিতে তাঁর বড় বোন হাসু আপা (বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ) কাছে চলে যেতে ঘাতকদের কাছে অনুরোধ করেছিলেন, কিন্তু ঘাতকরা শিশু রাসেলের আবেদনে কর্ণপাত না করে তাকে নির্মমভাবে হত্যা করেছিলো। 

আরও পড়ুন:

মেয়াদ-বেতন দুটোই বাড়ছে টাইগার কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর

পরের দুই ম্যাচ জিতলেও মূল পর্ব অনিশ্চিত টাইগারদের

নবীর ভবিষ্যদ্বাণী, বৃষ্টির মতো বিপদ নেমে আসবে

ডেলিভারি বয় থেকে বিশ্বকাপে অঘটনের নায়ক


রাসেল আজ দেশের আনাচে কানাচে এক মানবিক সত্ত্বা হিসেবে বেঁচে আছে সবার মাঝে।দেশের তরুণ প্রজন্মের কাছে রাসেল এক ভালোবাসার নাম। 

তিনি আরো বলেন যে শিশুদেরকে শৈশব থেকেই শিক্ষা দীক্ষা, সততা, দেশ প্রেম সৎ চারিত্রিক গুনাবলীর মাধ্যমে প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। শিশুদের মাঝে স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাস ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে তুলে ধরতে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

রোমে তুসকোলানা সমাজ কল্যাণ সমিতির মিলন মেলা

ইতালি প্রতিনিধি

রোমে তুসকোলানা সমাজ কল্যাণ সমিতির মিলন মেলা

করোনা পরবতী তুসকোলনা সমাজ কল্যান সমিতির মিলন মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। করোনার বৈশ্বিক পাদুর্ভাব এর কারনে রাষ্ট্রীয় বিধিনিষেধ এর জন্য সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে সৃষ্ট দূরত্ব কমাতে এবং সংগঠনের সাংগঠনিক ভিত্তি আরো মজবুত করতে  রাজধানী রোমের পিয়াজা কনসিলিও পার্কে তুসকোলানা সমাজ কল্যান সমিতির আয়োজনে ১৭ই অক্টোবর মিলন মেলা ও প্রীতিভোজ অনুষ্ঠিত হয়।

তুসকোলনা সমাজ কল্যান সভাপতি জাহিদ হাসান খোকন, সাধারন সম্পাদক শাহজাহান পাটোয়ারি ও সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ শাহিন এর আমন্ত্রণে তুসকোলানা সমাজ কল্যান সমিতি'র কর্মকর্তার পাশাপাশি ইতালিস্থ বাংলাদেশি কমিউনিটির সামাজিক, আঞ্চলিক, ব্যবসায়ী, সাংবাদীক নেতৃবৃন্দ পরিবার-পরিজন নিয়ে মিলন-মেলায় অংশগ্রহণ করেন। দীর্ঘ দিন-পরে আনন্দ-উৎসবে একত্রিত হতে পেরে কমিউনিটি  ব্যক্তিবর্গ সবাই আনন্দে উল্লাসে, গল্পে মেতে ওঠেন।

মিলন মেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইতালি আওয়ামী লীগ সভাপতি হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস ফরাজি, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  সাধারন সম্পাদক হাসান ইকবাল। তুসকোলনা সমাজ কল্যান সমিতির সভাপতি জাহিদ হাসান খোকন এর সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সাভায়  উপস্থিত নেতৃত্বে তুসকোলানা সমাজ কল্যান সমিতির মজবুত সাংগঠনিক দক্ষতা,সুন্দর আয়োজন ও অতি আপ্যায়নের প্রসংশা করে সংগঠনের সফলতা কামনা করেন। 

আরও পড়ুন:

মেয়াদ-বেতন দুটোই বাড়ছে টাইগার কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর

পরের দুই ম্যাচ জিতলেও মূল পর্ব অনিশ্চিত টাইগারদের

নবীর ভবিষ্যদ্বাণী, বৃষ্টির মতো বিপদ নেমে আসবে

ডেলিভারি বয় থেকে বিশ্বকাপে অঘটনের নায়ক


প্রধান অতিথি ইতালি আওয়ামী লীগ সভাপতি হাজী মোঃ ইদ্রিস ফরাজি প্রথমে তুসকোলানা সমাজ কল্যান সমিতি'র সুন্দর আয়োজন এর জন্য ইতালি আওয়ামী লীগ ও ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে ধন্যনাদ জানান এবং সংগঠনের সকল নেতৃবৃন্দের বলিষ্ঠ ও ঐক্যবদ্ধ সামাজিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ এর প্রসংশা করেন। 

এসময় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন তুসকোলানা সমাজ কল্যান সমিতির উপদেষ্টা মুক্তার জামান, ১নং সদস্য জহিরুল ইসলাম,সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম,তুসকোলানা বাসির পক্ষে ফারুক, রিপন প্রমূখ।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

নিউইয়র্কে ছুরিকাঘাতে বাংলাদেশি নিহত

অনলাইন ডেস্ক

নিউইয়র্কে ছুরিকাঘাতে বাংলাদেশি নিহত

ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে  সালাহউদ্দিন বাবলু (৫১) নামে প্রবাসী এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন।  স্থানীয় সময় শনিবার রাত ১টার দিকে ম্যানহাটনের সারা দ্য রুজভেল্ট পার্কে এ ঘটনা ঘটে। সালাহউদ্দিন বাবলুর বাড়ি নোয়াখালীর সোনাইমুড়িতে। 

নিউইয়র্ক পুলিশ জানিয়েছে, ওই পার্কের একটি বেঞ্চে বিশ্রাম নিচ্ছিলেন সালাহউদ্দিন। একই বেঞ্চে বসে থাকা কৃষ্ণাঙ্গ এক যুবক সালাহউদ্দিনের ইলেকট্রিক বাইক নিয়ে পালাতে চাইলে তিনি বাধা দেন। 

ধ্স্তাধস্তির একপর্যায়ে সালাহউদ্দিনকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে বাইকটি নিয়ে চলে যায় ছিনতাইকারী।
 
পরিবারসূত্রে জানা গেছে, নিউইয়র্ক সিটির ম্যানহাটনে ‘গ্রুবহাব’ অ্যাপের মাধ্যমে খাবার ডেলিভারির কাজ করতেন সালাহউদ্দিন। সে জন্য ছয় মাস আগে ধার করে ওই ইলেকট্রিক বাইকটি কিনেছিলেন।

 news24bd.tv/আলী  

পরবর্তী খবর

কানাডায় ‘মুক্তবিহঙ্গ’র নাটক “নওকর শয়তান মালিক হয়রান” মঞ্চস্থ

লায়লা নুসরাত, কানাডা

কানাডায়  ‘মুক্তবিহঙ্গ’র নাটক “নওকর শয়তান মালিক হয়রান” মঞ্চস্থ

কানাডার ক্যালগেরির নর্থ ইস্টের ফলকনরিজ কমিউনিটি এসোসিয়েশনে স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে ৫টায় মঞ্চস্থ হলো মুক্তবিহঙ্গ নাট্য সংগঠনের পঞ্চম প্রযোজনা কারলোগোলদনি’র কমেডি ‘দা সারভেন্ট অফ টু মাস্টার্স’ অবলম্বনে অসীম দাসের রচনায় নাটক ‘নওকর শয়তান মালিক হয়রান’। নাটকটির নির্দেশনায় ছিলেন জাহিদ হক।

আলবার্টা সরকারের বেঁধে দেয়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্যালগেরির প্রবাসী বাঙালিরা উপস্থিত হয়ে অনেক দিন পর এক ভিন্নধর্মী বিনোদনে মেতে উঠেছিল।করোনা মহামারী শুরু হওয়ার পর থেকে প্রবাসীরা প্রায় সবাই গূহবনদী থাকায় অনেকেই উচ্ছাস প্রকাশ করেছেন।

ক্যালগেরির আবু ইউসুফ জানালেন- খুব ভালো লাগছে। অনেকদিন পর কমিউনিটির সবাই কে দেখে।এ এক অন্য রকম অনুভুতি। করোনা মুক্ত হয়ে উঠুক বিশ্ব, এমনটাই আমাদের প্রত্যাশা।
 

মুক্তবিহঙ্গ এর সভাপতি জাহিদ হক বলেন, খুব ভালো লাগছে অনেকদিন পর মঞ্চ এ কাজ করে। সারা বিশ্ব করোনা মুক্ত হয়ে নতুন করে পূথিবী আবার জেগে উঠুক যাতে করে মঞ্চ এ নতুন নতুন কাজ করতে পারি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মৌ এবংতাশফিন হোসেন।


নাটকটির মিডিয়া পার্টনার চ্যানেল আই ও প্রবাস বাংলা ভয়েস।

নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন মৌ ইসলাম, জাহিদ হক, তাশফিন হোসেন, সাবরিনা মারিয়াম আদিবা, টিনা দাস, রেশাদ মাসরুর, মাজ হক শুভজিত পাল, মইনুল ইসলাম রকি, মিনার হাসান, খাইরুন্নেসা মিম, নাহিয়ান ওয়াজিদা মীম। লাইটে আদি। সেটে মোশারফ মাসুদ।

সহযোগিতায় ছিলেন আবু ইউসুফ, হাসনান সিদ্দিক সানভী,অভিজিত সাহা, মোঃ শাহ্ আলম,নিগার সুলতানা,আবনার ইউসুফ, শারমিন চৌধুরী, অবন্তী,নীল এবং আভ্র আলম।

উল্লেখ্য শুধু বিনোদনই নয়, বাংলাদেশের পথশিশুদের গত চার বছর ধরে নিয়মিত আর্থিক সহযোগিতা দিয়ে আসছে মুক্তবিহঙ্গ। এ প্রযোজনা থেকে যে অর্থ সংগৃহীত হচ্ছে তার সবই চলে যায় বাংলাদেশের মিরপুরে অবস্থিত মায়ের আঁচল পথশিশু আশ্রয় কেন্দ্রে। গত বছরগুলোতে তারা পথ শিশুদের কম্পিউটার প্রশিক্ষণ এবং সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের জন্য প্রায় তিন লাখ টাকা সহায়তা করেছেন।

আরও পড়ুন


বঙ্গবন্ধু যেতেই গুলি বন্ধ করল বিডিআর

মানুষের সঙ্গে যেভাবে কথা বলতেন বিশ্বনবী

সূরা বাকারা: আয়াত ১২৮-১৩৩, আল্লাহর নির্দেশ ও হয়রত ইব্রাহিম (আ.)

কলকাতা প্রেস ক্লাবে ‘বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার’


 

ইতোমধ্যে সংগঠনটি তাদের কার্যক্রমের স্বীকৃতি স্বরূপ আলবার্টার প্রফেসনাল থিয়েটারের মর্যাদা লাভ করেছে কানাডার গভর্মেন্ট অফ আলবার্টা থেকে। আর এরই পরিপ্রেক্ষিতে ইতিমধ্যে সিটি অফ ক্যালগেরি দশ বছরের জন্য মুক্তবিহঙ্গ ‘বেঙ্গলি থিয়েটার’- নামটি ক্যালগেরির ডাউনটাউন এ অবস্থিত পাবলিক লাইব্রেরিতে খোদাই করে লেখা থাকবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

কানাডার ক্যালগেরিতে প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন

লায়লা নুসরাত, কানাডা

কানাডার ক্যালগেরিতে প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন

বাংলাদেশে বিভিন্ন জেলায় চলমান হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর সংঘবদ্ধ বর্বরোচিত অত্যাচার, হত্যা, নির্যাতন, ভয়ভীতি প্রদর্শন, পূজা মন্ডপ ও প্রতিমা ভাংচুর, এবং নিগ্রহের প্রতিবাদে কানাডার ক্যালগেরিতে প্রবাসী বাঙালিরা প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে।

কানাডার আলবার্টার স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে কঠোর কোভিড নিষেধাজ্ঞার মধ্যে মাস্ক পরে ক্যালগেরির ইসকন মন্দিরের সামনে শান্তিপূর্ণভাবে স্লোগান সম্বলিত প্ল্যাকার্ড নিয়ে প্রবাসীরা মানববন্ধন পালন করে।

সভায় প্রবাসী বাঙালিরা বাংলাদেশের বর্তমান পরিস্থিতি ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ স্বরূপ কালো কাপড়ের মাস্ক পরে এই প্রতিবাদে যোগ দেয়। সভায় বাংলাদেশের সংখ্যালঘু ও হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর এই অত্যাচার বন্ধের জন্য যথাযথ ব্যবস্থা নিতে সরকার ও বিশ্বনেতৃবৃন্দের কাছে আহ্বান জানানো হয়। হিন্দুদের উপর চলমান সহিংসতা ও নির্যাতনের জন্য দুষ্কৃতকারিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিসহ হিন্দুদের জানমালের আশু নিরাপত্তা বিধানেরও দাবী জানানো হয়।

মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচীতে ক্যালগেরির বাংলাদেশি হিন্দু সম্প্রদায়ের নেৃতৃবৃন্দ ও অসাম্প্রদায়িক প্রবাসী বাঙালিরা উপস্থিত ছিলেন। এর মধ্যে ছিলেন কিরণ বণিক শংকর, রূপক দত্ত, সুব্রত বৈরাগী, জয়ন্ত সাহা, দেবাশীষ রায়, জুবায়ের সিদ্দিকী প্রমুখ। আয়োজকদের মধ্যে ছিলেন জয়দীপ সান্যাল, তন্ময় তালুকদার, শুভ্র দাস, নবাংশু শেখর, শান্তনু বণিক, প্রাণবেন্দ্র সেনগুপ্ত, প্রদ্যুত চক্রবর্তী, ববি পাল, পাপলু পাল, বিনিতা দত্ত সহ অর্ধশতাধিক প্রবাসী বাঙালী।

আরও পড়ুন:

মেয়াদ-বেতন দুটোই বাড়ছে টাইগার কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর

চাকরির কথা বলে তরুণীকে হোটেলে নিয়ে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করে নূর

নবীর ভবিষ্যদ্বাণী, বৃষ্টির মতো বিপদ নেমে আসবে

হঠাৎ পায়ের রগে টান পড়লে কী করবেন?


প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন- দুষ্কৃতিকারীদের কোন ধর্ম নেই। এরা মানবতা বিরোধী, দেশ ও দশের শত্রু। তাঁরা বলেন- এই প্রতিবাদ শুধুমাত্র বাংলাদেশের হিন্দুদের জন্য নয়, এই প্রতিবাদ প্রত্যেকটি প্রগতিশীল বাংলাদেশীদের জন্য। সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়ুক এই প্রতিবাদ। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।
 
উল্লেখ্য, কানাডার অন্যান্য প্রদেশেও প্রতিবাদের ঝড় ও কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর