স্মার্টফোনে আগুন লাগে যেসব কারণে

অনলাইন ডেস্ক

স্মার্টফোনে আগুন লাগে যেসব কারণে

সম্প্রতি প্রায়ই স্মার্টফোনে আগুন লাগার ঘটনা ঘটছে। তবে কী কারণে এইআগুন লাগার ঘটনা ঘটছে তা অনেকের কাছেই অজানা। চলুন জেনে নেই কী কারণে স্মার্টফোনে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে।

থার্ড পার্টি ব্যাটারি ব্যবহার

স্মার্টফোনে আগুন লাগার অন্যতম কারণ হলো থার্ড পার্টি ব্যাটারির ব্যবহার। এজন্য ফোনের আসল ব্যাটারি ছাড়া অন্য ব্যাটারি ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

গাড়ির চার্জ অ্যাডাপ্টরের ব্যবহার

গাড়িতে থাকা চার্জ অ্যাডাপ্টরে না দিয়ে পাওয়ার ব্যাঙ্ক থেকে স্মার্টফোনে চার্জ দিন। কারণ গাড়িতে থাকা বেশিরভাগ চার্জ অ্যাডাপ্টরই হয় থার্ড পার্টির। তাই সেগুলো ব্যবহার না করাই ভালো।

অতিরিক্ত চার্জ

মোবাইল কখনও অতিরিক্ত সময় ধরে চার্জে রাখবেন না। সারারাত চার্জ দিয়ে একশো পারসেন্ট করার দরকার নেই। নব্বই পারসেন্টের পরে চার্জ খুলে দিলে ডিভাইস ভালো থাকার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।


আরও পড়ুন

হোয়াটসঅ্যাপ বন্ধ হয়ে যাবে যেসব মোবাইলে

সতর্ক না হলে আইনি পদক্ষেপ নেব: শাবনূর

যেসব নির্দেশনা মানতে হবে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের


ত্রুটিপূর্ণ মোবাইল ব্যবহার

সবসময়েই ডিভাইস পড়ে গিয়ে ক্র্যাক হলে সঙ্গে সঙ্গেই ব্যবহার করা যাবে না। প্রথমে সার্ভিস সেন্টারে নিয়ে যাবেন। কেননা, ডিসপ্লে বা বডিতে পানি ঢুকে গেলে ব্যাটারি দ্রুত খারাপ হয়ে যাবে। এই ধরনের ফোন ব্যবহারে সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ডুপ্লিকেট চার্জার ব্যবহার

স্মার্টফোনে ডুপ্লিকেট চার্জার ব্যবহারের থেকে বিরত থাকতে হবে। এতে ব্যাটারির ক্ষতি হয়ে ফোনে আগুন ধরতে পারে।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত     


আরও পড়ুন

হোয়াটসঅ্যাপ বন্ধ হয়ে যাবে যেসব মোবাইলে

সতর্ক না হলে আইনি পদক্ষেপ নেব: শাবনূর

যেসব নির্দেশনা মানতে হবে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের

পরবর্তী খবর

এবার নারীরাও ব্যবহার করবে কনডম!

অনলাইন ডেস্ক

এবার নারীরাও ব্যবহার করবে কনডম!

বিশ্বের প্রথম ইউনিসেক্স কনডম (নারী ও পুরুষের ‍উভয়ের ব্যবহারযোগ্য কনডম তৈরি করেছে মালয়েশিয়া একজন স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ। তিনি টুইন ক্যাটালিস্ট মেডিকেল ফার্মের স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ যার নাম জন ট্যাং ইং চিন।

আজ বৃহস্পতিবার রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, টুইন ক্যাটালিস্ট মেডিকেল ফার্মের একজন স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ মেডিকেল ড্রেসিং’র কাজে ব্যবহৃত উপাদান দিয়ে ইউনিসেক্স কনডম তৈরি করেছেন।  

প্রতিবেদনে আরও এতে বলা হয়, 'ওয়ান্ডালিফ' নামের এই ইউনিসেক্স কনডম মানুষকে তাদের জন্ম নিয়ন্ত্রণ ও যৌন স্বাস্থ্য ভালো রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে আশা করছেন জন ট্যাং ইং চিন নামের ওই উদ্ভাবক। 

জন ট্যাং ইং জানান, এটি সাধারণ কনডমের মতই, সাথে শুধু একটা আঠালো আবরণ দেওয়া হয়েছে যেটা ভ্যাজাইনা বা পেনিসের সাথে লেগে থাকে এবং অতিরিক্ত সুরক্ষার জন্য ওই অংশের পুরোপুরি ঢেকে রাকে। এই আঠালো অংশটি শুধুমাত্র একপাশে ব্যবহার করা হয় যার মাধ্যমে নারী বা পুরুষ উভয়ই এইটা ব্যবহার করতে পারবে।

আরও পড়ুন:

ডিভোর্স দেয়ায় স্ত্রীকে কুপিয়ে খুন, আত্মহত্যার চেষ্টা স্বামীর

মাকে পিটিয়ে হত্যা; ছেলের মৃত্যুদণ্ড

হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দিরে হামলা, বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ

আগামী ডিসেম্বর থেকে  টুইন ক্যাটালিস্ট মেডিকেল ফার্মের নিজস্ব ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে এই ইউনিসেক্স কনডম। প্রতিটি প্যাকেটে দুইটি করে কনডম থাকবে এবং মালয়েশিয়ান মুদ্রায় এর দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪.৯৯ রিঙ্গিত যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৩১০এর সমান।

অনিচ্ছাকৃত গর্ভধারণ এবং যৌন রোগ প্রতিরোধ করতে এই কনডম অন্যতম সংযোজন হবে বলে  ড. ট্যাং আশা ব্যক্ত করেন।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

পরবর্তী খবর

বৃহস্পতিবার কি বন্ধ হবে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট !

অনলাইন ডেস্ক

বৃহস্পতিবার কি বন্ধ হবে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট !

জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক গ্রাহকদের নিরাপত্তা দিতে নতুন ফিচার চালু করেছে। ফেসবুক প্রোটেক্ট নামের ওই ফিচার চালু করতেই অনেকে মেইল পেয়েছেন ইতিমধ্য।

ওই নোটিফিকেশনে বলা হয়েছে, আজ বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবরের মধ্যে ফেসবুক প্রোটেক্ট নামে একটি ফিচার টার্ন অন বা চালু করতে হবে। তা না হলে ফেসবুকের অ্যাকাউন্ট লক হয়ে যাবে।  

ফেসবুক জানিয়েছে, যারা বার্তা পেয়েছেন তাদের বাধ্যতামূলকভাবে ওই ফিচার চালু করতে হবে। চালু না করলে ফেসবুকে ২৮ অক্টোবর থেকে প্রবেশ করতে পারবেন না ব্যবহারকারীরা। মূলত যাদের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বেশি মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারে তারাই ফেসবুক প্রোটেক্ট করার বার্তা পেয়েছেন। ক্রমান্বয়ে সবার জন্য এ ফিচার চালু করবে ফেসবুক। 

আরও পড়ুন:


বিয়েতে মাংস বেশি খেয়েছে, নববধূকে তালাক!

আসছে ইউনিসেক্স কনডম, ব্যবহার করতে পারবে নারী-পুরুষ উভয়ই


এদিকে নটিফিকশনের পাওয়ার পরে অনেক ব্যবহারকারীদের মধ্যে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে, ফেসবুক প্রোটেক্ট কী এবং কীভাবে এটি কাজ করে। ‘ফেসবুক প্রটেক্ট’ সেবাটি প্রসঙ্গে প্রতিষ্ঠানটি জানায়, এটি মূলত হ্যাকিং থেকে রক্ষা পেতে বাড়তি সুরক্ষা দেবে। 

news24bd.tv রিমু    

পরবর্তী খবর

আগামীকাল ‘ফেসবুক প্রোটেক্ট’ চালু না করলে লক হবে অ্যাকাউন্ট?

অনলাইন ডেস্ক

আগামীকাল ‘ফেসবুক প্রোটেক্ট’ চালু না করলে লক হবে অ্যাকাউন্ট?

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জায়ান্ট ফেসবুকে নতুন একটি ফিচার এনেছে। যা নোটিফিকেশন পেয়েছেন অনেক ব্যবহারকারী। ওই নোটিফিকেশনে বলা হয়েছে, ২৮ অক্টোবরের মধ্যে ফেসবুক প্রোটেক্ট নামে একটি ফিচার টার্ন অন বা চালু করতে হবে। তা না হলে ফেসবুকের অ্যাকাউন্ট লক হয়ে যাবে। এই নটিফিকশনের পাওয়ার পরে অনেক ব্যবহারকারীদের মধ্যে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে, ফেসবুক প্রোটেক্ট কী এবং কীভাবে এটি কাজ করে। 

‘ফেসবুক প্রটেক্ট’ সেবাটি প্রসঙ্গে প্রতিষ্ঠানটি জানায়, এটি মূলত হ্যাকিং থেকে রক্ষা পেতে বাড়তি সুরক্ষা দেবে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশে অনেক ব্যবহারকারী সেবাটি সচল করার জন্য নোটিফিকেশন পেয়েছেন। ফেসবুকের পক্ষ থেকে এক বার্তায় তাদেরকে জানানো হয় ২৮ বা ৩০ অক্টোবরের মধ্যে ফেসবুক প্রটেক্ট সচল না করলে তাদের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করা না হলেও লকড করে রাখা হবে।

এ বিষয়ে ফেসবুকের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, বেশ কিছু অ্যাকাউন্টকে বাড়তি নিরাপত্তা দিতে তারা একটি নতুন ফিচার তৈরি করেছে। ওই ফিচারের নাম দেওয়া হয়েছে ফেসবুক প্রোটেক্ট। এটি মুলত একটি ভলানটারি (ঐচ্ছিক) প্রোগ্রাম যা নির্বাচনী প্রার্থী, তাদের প্রচারণা এবং নির্বাচিত প্রতিনিধিদের অ্যাকাউন্টকে বাড়তি সুরক্ষা দেবে। প্রাথমিক ভাবে যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানির নির্বাচনের সময় সেখানকার প্রার্থীদের ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টের সুরক্ষায় এই প্রোগ্রামটি তৈরি করা হয়েছিল। পরে এটি কানাডাতেও চালু করা হয়।

তবে ২০২১ সালে এটি বিশ্বের অন্যান্য দেশের জন্য সরবরাহ করা হবে বলেও জানানো হয়। এ বিষয়ক আপডেটও ফেসবুকের মাধ্যমেই জানানো হবে বলে ফেসবুক জানায়।

ফেসবুকের ওয়েবসাইটে জানানো হয়েছে, যারা এই ফিচারটি চালু করতে পারবেন তারা ফেসবুকের মাধ্যমেই তা জানতে পারবেন। যারা এর আওতায় পড়বেন তারা ফেসবুকের সেটিংসে গিয়ে সিকিউরিটি অ্যান্ড লগ-ইন অপশনে গেলে ফেসবুক প্রোটেক্ট নামে অপশন পাবেন। সেখান থেকে ফেসবুক প্রোটেক্ট অপশন অন করা যাবে। 

আরও পড়ুন:

চাপের মুখে বাংলাদেশ

ইংল্যান্ড ম্যাচের আগে টাইগার শিবিরে বড় দুটি দুঃসংবাদ

শাহরুখের সাথে জুটি থেকে সরে দাঁড়ালেন নায়িকা


 

‘ফেসবুক প্রটেক্ট’ সচল করলে ব্যবহারকারীকে অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তা জোরদার করতে নির্দেশনা দেওয়া হবে, যেমন টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন চালু করা। এছাড়া পেজের অ্যাডমিন হোলে পোস্ট পাবলিশের নতুন করে অনুমোদন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হবে। যারা অ্যাডমিন তাদের অবশ্যই একটির বেশি অ্যাকাউন্ট রাখতে পারবেন না। তাদেরকে আসল নাম ব্যবহার করতে হবে এবং টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন চালু করতে বলা হবে। পাশাপাশি তিনি কোন দেশে আছেন, তা জানাতে বলা হবে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

স্মার্টফোন করছে চোখের ক্ষতি, যে উপায়ে ক্ষতি কমানো সম্ভব

অনলাইন ডেস্ক

স্মার্টফোন করছে চোখের ক্ষতি, যে উপায়ে ক্ষতি কমানো সম্ভব

বর্তমান যুগে সবার হাতে হাতে নিত্য নতুন স্মার্টফোন। আমাদের প্রত্যাহিক জীবনের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে দাড়িয়েছে এই একটি ডিভাইস। ঘরে বাইরে সর্ব জায়গায় আমাদের হাতে থাকছে এই স্মার্টফোন।  কিন্তু সব কিছুরই তো একটা নিদির্ষ্ট মাত্রা থাকে ব্যবহারের। মাত্রাতিরিক্ত কোনও কিছুই ভালো না। কিন্তু স্মার্টফোনের ব্যবহার যত বাড়ছে, ততই বাড়ছে চোখের সমস্যা। বিশেষ করে করোনাকালে এর ব্যবহার আরও বেড়ে গিয়েছে। 

কিন্তু বর্তমান সময়েতো আর স্মার্টফোন ব্যবহার না করে থাকা সম্ভব নয়। তা হলে কী করে এই সমস্যা থেকে বাঁচবেন? সেটােই জানাবে আজ আপনাদের...

*যারা মাত্রাতিরিক্ত স্মার্টফোন ব্যবহারে আসক্ত তারা অ্যান্টি গ্লেয়ার প্রোটেকটর ব্যবহার করুন। এতে চোখের উপর ক্ষতিকারক নীল রশ্মির প্রভাব কম পড়বে। চোখ শুকিয়ে যাওয়ার প্রবণতা কমবে। বারবার চোখের পলক ফেলুন। তাতেও চোখে ভিজে থাকবে। আধ ঘণ্টা অন্তর পরিষ্কার জলের ঝাপটা দিয়ে চোখ ধুয়ে নিন।

Smartphone, Miss Uses , Problem ,  চোখের ক্ষতি, স্মার্টফোন

*ফোনের পর্দায় যত ধুলো এবং ময়লা থাকে, ততই চোখের উপর চাপ বাড়ে। তাই ফোনের পর্দা নিয়মিত পরিষ্কার করুন। চোখের একেবারে কাছে ফোন ধরবেন না। অন্তত ১৬-১৭ ইঞ্চি দূরত্ব রেখে ধরুন। তাতেও চোখে কম চাপ পড়বে।

আরও পড়ুন:

চাপের মুখে বাংলাদেশ

ইংল্যান্ড ম্যাচের আগে টাইগার শিবিরে বড় দুটি দুঃসংবাদ

শাহরুখের সাথে জুটি থেকে সরে দাঁড়ালেন নায়িকা


*২০ মিনিট টানা ফোনের দিকে তাকিয়ে থাকলে, তারপরে অন্তত ২০ সেকেন্ড ধরে ২০ ফুট দূরের কিছুর দিকে তাকান। পারলে ফোনের হরফের মাপ বড় করে নিন। তাতে চোখের উপর চাপ কম পড়বে। ফোনের ঔজ্জ্বল্য বা ব্রাইটনেসও কমিয়ে রাখুন।

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কথা— যখনই চোখের ন্যূনতম সমস্যা হবে, চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

ফেসবুক-ইউটিউব কথা শুনত না, এখন শুনছে: মোস্তাফা জব্বার

অনলাইন ডেস্ক

ফেসবুক-ইউটিউব কথা শুনত না, এখন শুনছে: মোস্তাফা জব্বার

চলতি বছরেই (২০২১) পরীক্ষামূলকভাবে ফাইভ-জি চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ) কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে আমরা পরীক্ষামূলকভাবে ফাইভ-জি চালু করব। ২০২২ সালে আমরা এর সম্প্রসারণ করব। আমরা আশা করবো ২০২২ সাল থেকেই আমাদের সব অপারেটর ফাইভ-জি প্রযুক্তি বিকাশ ঘটাতে সক্ষম হবে।

এ সময় ফেসবুক-ইউটিউব নিয়ে তিনি বলেন, আমেরিকার দুই প্রতিষ্ঠান ফেসবুক-ইউটিউব আগে আমাদের কথা শুনত না। এখন তারা আমাদের কথা শুনছে। সেই সক্ষমতা আমরা অর্জন করেছি।

আরও পড়ুন:


এসএসসি পরীক্ষা কবে থেকে তা জানা গেল

মাঝনদীতে ফেরিতে পানি ঢোকে, দ্রুত চালিয়ে তীরে যায় চালক

পাগলীর জন্ম নেওয়া সন্তানের পিতা এমপি বদি 


মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমরা তাদের বলেছি, বাংলাদেশে ফেসবুক-ইউটিউব চালাতে হবে বাংলাদেশের কমিউটি উপযোগী করে। এ ব্যাপারে আমরা তাদেরকে কড়া ভাষায় চিঠি দেব। তবে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার পেছনে ফেসবুক ইউটিউবকে এককভাবে দায়ী করা যাবে না।

তিনি বলেন, যখন দেশে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের দাপট ছিল না, তখনও এ ধরনের (সাম্প্রদায়িক হামলা ও গুজব) ঘটনা ঘটেছে। এগুলো রোধ করার জন্য প্রয়োজন সচেতনতা।

news24bd.tv/তৌহিদ

পরবর্তী খবর