মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৯ | আপডেট ০৯ মিনিট আগে

বিশ্বকাপ উন্মাদনা

লালপুরে উড়ছে সহস্রাধিক ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার পতাকা

নাসিম উদ্দীন • নাটোর প্রতিনিধি

লালপুরে উড়ছে সহস্রাধিক ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার পতাকা

বিশ্বকাপ ফুটবলের ময়দানির লড়াইয়ের দিন যতোই ঘনিয়ে আসছে, ততোই উত্তাপ ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বের এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্তে। ফুটবল মহাযজ্ঞের উন্মাদনায় পিছিয়ে নেই বাংলাদেশের গ্রাম-গঞ্জও। নিজ দলের প্রতি ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশের দেখা মিললো নাটোরের লালপুর উপজেলার চণ্ডিগাছা এলাকার শত শত ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ভক্তের মধ্যে। 

এখন আর তাদের মধ্যে আওয়ামী লীগ-বিএনপিতে ভেদাভেদ নেই।  নিজ নিজ দলের সমর্থনের জানান দিতে গোপালপুর-আব্দুলপুর সড়কের দু’ধারে ৩ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে উড়ছে হাজারো ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার পতাকা। বিশ্বকাপের দিন ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে এ পতাকার সংখ্যাও দিন দিন বাড়ছে।

আর্জেন্টিনার ভক্ত এবং চা বিক্রেতা আব্দুল হাকিম (৪০) ও বীর মুক্তিযোদ্ধা শাকের আলীর ছেলে শাহিনুর রহমান (৩০) মেসির দেশের পতাকা টাঙ্গানোর প্রধান উদ্যোক্তা। আব্দুল হাকিম জানান, চা বিক্রি করে যে আয় হয় তার এবং শাহিনুর দু’জনের অর্থায়নে ১ এপ্রিল থেকে প্রতিদিন রাতে ১০টি করে আর্জেন্টিনার পতাকা টাঙ্গিয়ে যাচ্ছি। আর এই কার্যক্রম চলবে খেলা শুরুর দিন পর্যন্ত। 

অপর উদ্যোক্তা শাহিনুর রহমান জানান, পতাকা টাঙ্গানোর পাশাপশি আর্জেন্টিনা ভক্তদের বড় পর্দায় খেলা দেখানোর জন্য নিজ অর্থায়নে প্রজেক্টর কেনা হবে।

এদিকে, ওই একই সড়কের উত্তর দিকে কয়েকশ ব্রাজিলের পতাকা পত পত করে উড়ছে। পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের জাতীয় পতাকার সংখ্যাও দিন দিন বাড়ছে। নেইমার-কুতিনহোদের পতাকা টাঙ্গানোর উদ্যোক্তা ব্রাজিলভক্ত মিজান মেম্বার, মাহাবুর, রাজিব,রেজাউল আলমসহ আরো কয়েকজন।

মিজান মেম্বার জানান, ব্রাজিলকে যাতে বিশ্বকাপ জেতে, সেজন্য আমরা সবসময় দোয়া করছি। ইতোমধ্যেই পতাকার জন্য ৪০-৫০ হাজার টাকা ব্যায় করা হয়েছে। ব্রাজিলভক্তদের খেলা দেখার জন্য আমরা প্রজেক্টরের ব্যবস্থা তো করবোই। পাশাপশি নিরবিচ্ছিন্নভাবে খেলা দেখার জন্য জেনারেটরের ব্যবস্থা করা হবে।

একই জায়গায় দু’দলের এমন অবস্থান কোন সংঘাতে নিয়ে যাবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, আমরা ভিন্ন দলের সমর্থক হলেও সবাই আত্মীয়, এক জায়গার মানুষ এবং সারা জীবন এক সাথে এক জায়গায় বাস করবো। তাই খেলা নিয়ে উত্তেজনা থাকলেও মনোমালিন্য হবেনা। এ বিষয়ে আমরা সর্বদা সচেতন ও সতর্ক আছি। 

নাসিম/অরিন/নিউজ টোয়েন্টিফোর

মন্তব্য