ইজারা নিয়ে জটিলতায় দু’পক্ষের উত্তেজনা!
ইজারা নিয়ে জটিলতায় দু’পক্ষের উত্তেজনা!

ইজারা নিয়ে জটিলতায় দু’পক্ষের উত্তেজনা!

অনলাইন ডেস্ক

ঘাটের ইজারা নিয়ে পাবনার বেড়ার নগরবাড়ি দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। রাজস্বখাতের এই ঘাটটি নিয়ে বিশৃঙ্খলার আশঙ্কা করছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। প্রকৃতপক্ষে বিআইডব্লিউটিএ নিয়মিত ইজারাদারের পরিবর্তে অন্য আরেকজনকে ইজারা দেয়ায় এই সমস্যা দেখা দিয়েছে। তবে, হাইকোর্ট ঘাটটি প্রথম ইজারাদারকে বুঝিয়ে দিতে নির্দেশ দিয়েছে।

জানা যায়, স্থানীয় মেসার্স ঈমান আলী নামক ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান টানা কয়েক বছর নগরবাড়ি ঘাটের ইজারা নিয়ে সরকারি শুল্ক আদায় করে আসছে। বিআইডব্লিউটিএর নির্দেশনা অনুসারে ইজারাদার মেসার্স ঈমান আলী নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে আবেদন করে। অজ্ঞাত কারণে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ মেসার্স ঈমান আলীকে ২০২১-২০২২ অর্থবছরের ইজারা সংক্রান্ত নবায়নের আবেদন নামঞ্জুর করে।

তার প্রেক্ষিতে মেসার্স ঈমান আলী নামক প্রতিষ্ঠানটি হাইকোর্ট বিভাগে ৫৮৪০/২০২১ নং একটি রিট পিটিশন দায়ের করে। পরে হাইকোর্ট শুনানি শেষে রিট পিটিশনটি আমলে নিয়ে এক মাসের স্থগিতাদেশ দেন। এরপর সরকারের রাজস্ব আদায়ের স্বার্থে বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ শুল্ক আদায়ে তিন কর্মচারীকে দিয়ে একটি কমিটি করে। এই কমিটি ৩০ জুন ২০২১ থেকে ১ জুলাই পর্যন্ত শুল্ক আদায় করে। পরে মেসার্স ঈমান আলী নামের ওই প্রতিষ্ঠান খাস কালেকশনের ওপর স্থগিতাদেশ চেয়ে আবেদন করেন। উচ্চ আদালত তার পক্ষে রায় দেন।


আরও পড়ুন

বিয়ে বন্ধ করতে কনে নিজেই থানায়!

শেখ হাসিনার জন্মদিনে নড়িয়ায় দোয়া ও দুই হাজার কোরআন বিতরণ

কবি গোলাম মোস্তফার নাতনি কবি ফরিদা মজিদ আর নেই

 
উচ্চ আদালতের স্থগিতাদেশের প্রেক্ষিতে খাস কালেকশন বন্ধ হয়ে গেলে বিআইডব্লিউটিএ তখন ইজারা প্রদান পদ্ধতির ৩৩(খ)(১) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী ‘স্পট কোটেশন’ পদ্ধতিতে বেড়া উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল হক বাবুকে ৩০ জুলাই ২০২১ থেকে ২৮ আগস্ট ২০২১ পর্যন্ত নগরবাড়ি-কাজীরহাট-নরাদহ এলাকার লেবার হ্যান্ডলিং ঘাট/পয়েন্টটির ইজারার কার্যাদেশ প্রদান করে।

এ ব্যাপারে নগরবাড়ি বণিক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বাবু বলেন, এই ঘাটের মাধ্যমে ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসারসহ সরকারের প্রায় ৬০০ কোটি টাকার আধুনিক নৌবন্দর নির্মাণ প্রক্রিয়াধীন। সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড অব্যাহত রাখতে ঘাটের ইজারা প্রদানের বিষয়টি খতিয়ে দেখা উচিত বলে তিনি মনে করেন।

তিনি আরও বলেন, ইমান আলী ঘাটটি না পাওয়ায় বিভিন্ন ধরনের অপপ্রচার করছেন। এটি পেশি শক্তির বিষয় নয়, যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে কাগজপত্রের বিচার বিশ্লেষণ করে কর্তৃপক্ষ আমাকে কার্যাদেশ দিয়েছেন।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত