মরণ ফাঁদ চট্টগ্রাম-কক্সবাজার সড়কের ফোর লেন প্রকল্পের সুখবর নেই

মরণ ফাঁদ চট্টগ্রাম-কক্সবাজার সড়কের ফোর লেন প্রকল্পের সুখবর নেই

Other

সাড়ে আট বছরের বেশি সময় ধরে সমীক্ষার মধ্যে আটকে আছে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক ফোরলেইনে উন্নতিকরণের  কাজ। সড়কে ৫০টির বেশি বাঁক এবং বড় বড় গর্ত সৃষ্টি হওয়ায়  দুই লেইনের এই মহাসড়ক এখন মৃত্যুফাঁদ । বেড়েছে কয়েকগুণ পরিবহনের চাপ। সড়ক ও জনপদ বিভাগ বলছে অচিরেই সমীক্ষা কাজ শেষ হলেই শুরু হবে ১৫৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই মহাসড়ক ফোর লেইনের সম্প্রসারণ কাজ।

  

দেশের অন্যতম ব্যস্ত মহাসড়কের মধ্যে একটি কক্সবাজার-চট্টগ্রাম সড়ক। প্রতিদিন হাজার গাড়ী চলাচল করে এ মহাসড়কে। কর্ণফুলী সেতুর পরে চার কিলোমিটার ফোরলেইনে নির্মিত হলেও চট্টগ্রাম কক্সবাজার মহাসড়ক এখনও রয়েছে দুই লেইনে ।

 এ সড়কে  বাড়তি যানবাহনের চাপে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা । সড়কের বিভিন্ন স্থানে খানাখন্দ থাকায় একশ ৫৫ কিলোমিটার সড়ক পাড়ি দিতে সময় লাগে চার থেকে পাঁচ ঘন্টা। প্রতিনিয়তই সৃষ্টি হয়  যানজটও। সড়কটি ফোরলেইন হলে চট্টগ্রাম থেকে সড়ক পথে কক্সবাজার যেতে সময় লাগবে তিন ঘন্টা।

যাত্রীরা বলছেন নিরাপদ সড়ক বলতেই ফোরলেইনের কোন বিকল্প নেই।

চট্টগ্রামের পটিয়া থেকে চকরিয়া পর্যন্ত অংশে রয়েছে ৫০টির বেশি ঝুঁকিপূর্ণ বাঁক। তবে এই  সড়ক  ফোরলেইন করার জন্য সমীক্ষা চলছে জানালেন সংশ্লিস্টরা ।

 ব্যবসায়ী নেতারা  বলছেন, দুই  লেইনের  এই সড়ক ফোরলেইন  হলে পর্যটন শহর কক্সবাজার হবে ব্যবসা বাণিজ্যের কেন্দ্র।

আরও পড়ুন: 


 চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট শ্রমিক

বাবা-মাকে ঘরে আটকে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর ফাঁস, সুইসাইড নোট উদ্ধার

আপা নেই, কে ধমক দেবে?

আজ গ্যাস নেই যেসব এলাকায়


 

পর্যটনের গুরুত্ব বিবেচনায় ২০১৩ সালে মহাসড়কটি চার লেনে উন্নীত করতে একটি সমীক্ষা প্রকল্প শুরু করে সড়ক ও জনপথ  অধিদপ্তর। এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের  অর্থায়নে এই সমীক্ষা শেষ হয় ২০১৫ সালে। পরে আরো পাঁচ বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো সওজ অধিদপ্তরের ফাইলেই আটকে আছে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের উন্নয়নকাজ।

news24bd.tv/আলী