এটিএম বুথেই তরুণীর নাচ (ভিডিও)

অনলাইন ডেস্ক

এটিএম বুথেই তরুণীর নাচ (ভিডিও)

এই জীবনের সর্ব কাজে প্রয়োজন টাকা। টাকা ছাড়া এই বিশ্বে কোনও কিছু করা সম্ভব না। তাই তো সারা বিশ্বের মানুষ টাকা আয়ের জন্য ব্যস্ত থাকছেন প্রতিটা মুহুর্ত। মাস শেষে যখন পরিশ্রমের অর্থ ব্যাংক অ্যাকাউন্টে  ঢুকে তখন তো আন্দের সীমা থাকে না। আর তাই তো টাকা হাতে পাওয়ার পর খুশিতে নেচে উঠে সবার মন।কিন্তু সেই আনন্দে এটিএম বুথের ভেতরই কেউ নাচানাচি শুরু করে দিয়েছেন, এমন ঘটনা খুব একটা দেখা যায় না। 

তবে সম্প্রতি এটিএম বুথের ভেতরে নাচানাচি করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছেন এক তরুণী।

ইনস্টাগ্রামে ছড়িয়ে পড়া তরুণীর ওই ভিডিওতে দেখা যায়, একটি বুথের ভেতর টাকা তোলার মেশিনে কার্ড ঢোকানোর পরপরই নাচ শুরু করে দেন এক তরুণী। 

মেশিন থেকে টাকা বের হতে দেখে তার খুশি বেড়ে যায় আরও কয়েকগুণ। মেশিন থেকে টাকা তুলে হাতে নেওয়ার পর আরেক দফা নাচ নাচেন মেয়েটি। সবশেষ মাথা নিচু করে টাকা দেওয়া মেশিনকে সম্মানও জানান তিনি।

আরও পড়ুন:


ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইপিএল নিয়ে জুয়া, ৩ জনের সাজা

চট্টগ্রাম আদালত এলাকায় বোমা হামলা মামলার রায় আজ

টুইটার অ্যাকাউন্ট ফিরে পেতে আদালতে ট্রাম্প

যুবলীগ নেতার সঙ্গে ভিডিও ফাঁস! মামলা তুলে নিতে নারীকে হুমকি


 

ঘটনাটি কোন দেশে কবে ঘটেছে তা নিশ্চিত নয়। তবে তরুণীর টাকা তোলার মজার এ ভিডিওটি ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। 

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ভারত-পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ

অনলাইন ডেস্ক

২০২১ সালে বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ১১৬টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ৭৬তম। সূচকে মোট ১০০ স্কোরের মধ্যে বাংলাদেশের স্কোর ১৯ দশমিক ১। যেখানে প্রতিবেশী ভারত ও পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে বাংলাদেশ।

এবারের সূচকে ৯২তম অবস্থানে রয়েছে পাকিস্তান। ভারতের অবস্থান ১০১তম। সূচকে বাংলাদেশ ও নেপাল সমঅবস্থান রয়েছে। মিয়ানমারের অবস্থান ৭১তম। 

আরও পড়ুন


থেমে-থেমে জ্বর আসছে খালেদা জিয়ার, খাচ্ছেনও খুবই অল্প

কুমিল্লার ঘটনা উদ্দেশ্যমূলক ও পরিকল্পিত: রিজভী

যুক্তরাষ্ট্রে উড়াল দিলেন মৌসুমী, ভিসা মেলেনি ওমর সানীর

ক্ষমতায় যাওয়ার বিএনপির রঙিন খোয়াব অচিরেই দুঃস্বপ্নে পরিণত হবে: কাদের


২০২০ সালের বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ১০৭টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ৭৫তম। ২০১৯ সালে ১১৭টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ৮৮তম এবং ২০১৮ সালে বাংলাদেশের অবস্থান ৮৬তম ছিলো। জিএইচআইয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১২ সাল থেকে বাংলাদেশের অনেকটায় অগ্রগতি হয়েছে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

জানা গেল বিশ্বের সবচেয়ে ধনী বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম

অনলাইন ডেস্ক

জানা গেল বিশ্বের সবচেয়ে ধনী বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় প্রথম স্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়টির বর্তমান সম্পদের পরিমাণ ৫৩ দশমিক ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়। খবর রয়টার্সের।

চলতি বছরের জুনের হিসেবে এক বছরে বিশ্ববিদ্যালয়টির সম্পদের পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে ৩৪ শতাংশ। তালিকায় আগে থেকেই শীর্ষে ছিল বিশ্ববিদ্যালয়টি।

এক প্রতিবেদনে রয়টার্স জানায়, প্রাইভেট ও পাবলিক মার্কেটের বিনিয়োগের ফলেই এবছর এতো মুনাফা অর্জন করতে পেরেছে বিশ্ববিদ্যালয়টি। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তারা বছরটিকে একটি 'অসামান্য' বছর হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তবে প্রতিবছরই যে এমনটা হবে না এটাও মনে করিয়ে দিয়েছেন তারা।

হার্ভার্ডের প্রধান বিনিয়োগ কর্মকর্তা ও হার্ভার্ড ম্যানেজমেন্ট কোম্পানির প্রধান নির্বাহী এন পি নারভেকার বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়োগ করলে চলতি বছরে হার্ভার্ডের আয় আরও বেশি হতে পারতো। তবে প্রতি বছর এমন আয় নাও হতে পারে বলেও যোগ করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গত বছর জুন পর্যন্ত এক বছরে করোনাভাইরাস অতিমারিতে বিশ্ববিদ্যালয়টির সম্পদ বৃদ্ধি পেয়েছিল ৭.৩ শতাংশ।

আরও পড়ুন:

এক বছরের চেষ্টায় নীলগিরিতে 'মানুষখেকো' বাঘ জীবিত আটক

বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ভারত-পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ

ফাইনালে কলকাতা-চেন্নাইয়ের সম্ভাব্য একাদশ, সাকিব থাকছেন কি?

আফগানিস্তানে শিয়া মসজিদে বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ৩০


হার্ভার্ডের প্রতিদ্বন্দ্বী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ৫৬ শতাংশ মুনাফা করেছে ম্যাসাচুসেটস ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি, তাদের সম্পদের পরিমাণ ২৭.২ বিলিয়ন ডলার। এছাড়া চলতি বছরে ৫২ শতাংশ মুনাফা নিয়ে ব্রাউন ইউনিভার্সিটির সম্পদ ৬.৯ বিলিয়ন ডলার বলে জানায় হার্ভার্ড।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

এক বছরের চেষ্টায় নীলগিরিতে 'মানুষখেকো' বাঘ জীবিত আটক

অনলাইন ডেস্ক

এক বছরের চেষ্টায় নীলগিরিতে 'মানুষখেকো' বাঘ জীবিত আটক

ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের নীলগিরি জেলায় এক বছরের চেষ্টায় এক 'মানুষখেকো' বাঘকে জীবিত উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে স্থানীয় বনবিভাগ কর্তৃপক্ষ। গত এক বছরে চারজন মানুষকে হত্যা করেছে বাঘটি। খবর এনডিটিভির।

চলতি মাসের শুরুতে মাদ্রাজ হাইকোর্টের নির্দেশে, বনবিভাগের কয়েকজন বিশেষজ্ঞ বনে 'এমডিটি-২৩' বাঘটিকে শনাক্ত করতে অভিযান চালায়। এসময় কোর্ট বাঘটিকে শুধুমাত্র শনাক্ত করার, অর্থাৎ হত্যা না করার নির্দেশ দেন। উত্তরে জানানো হয়, বাঘটিকে হত্যা করার কোন পরিকল্পনা তাদের নেই।

এমনকি হাইকোর্টের বেঞ্চে একটি শুনানিও অনুষ্ঠিত হয়, যেখানে নিশ্চিত করা হয় বাঘটি ভয়ংকর হলেও যেন এটিকে হত্যা করার কোন পদক্ষেপ গ্রহণ না করে জীবিত ধরা হয়। 

আরও পড়ুন:

বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ভারত-পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ

ফাইনালে কলকাতা-চেন্নাইয়ের সম্ভাব্য একাদশ, সাকিব থাকছেন কি?

ভিড়ের মধ্যে কান্না করা শিশুকে ঘিরে আসল রহস্য উদঘাটন

আফগানিস্তানে শিয়া মসজিদে বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ৩০


আহত বাঘটিকে ফাঁদে ফেলতে প্রায় ১০০ জন বনবিভাগের কর্মচারী একটি অভিযান চালায়। যাদের মধ্যে কেরালা টাস্ক ফোর্সের কয়েকজন সদস্য এবং কয়েক সপ্তাহ ধরে প্রশিক্ষণ দেয়া কয়েকটি হাতিও ছিল।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

আফগানিস্তানে শিয়া মসজিদে বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ৩০

অনলাইন ডেস্ক

আফগানিস্তানে শিয়া মসজিদে বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ৩০

আফগানিস্তানের কান্দাহারে জুমার নামাজের সময় একটি শিয়া মসজিদে বোমা হামলায় অন্তত ৩০ জন নিহত এবং ৯০ জন আহত হয়েছেন। বিস্ফোরণের সুনির্দিষ্ট কারণ জানা না গেলেও প্রাথমিকভাবে এটি আত্মঘাতী বোমা হামলা বলে ধারণা করা হচ্ছে। খবর বিবিসির।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঘটনাস্থলে তিনটি বোমা বিস্ফোরিত হয়। একটি মসজিদের প্রধান ফটকে, অন্য একটি অজুখানায়, এরপর আরও একটি বোমা বিস্ফোরিত হয়। 

বিবি ফাতিমা মসজিদের ভেতরের তোলা ছবিতে ভেতরের চূর্ণ-বিচূর্ণ জানালার কাঁচের মধ্যে এখানে-সেখানে মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। আহত অনেককে সাহায্যের জন্য চিৎকার করতে দেখা যায়।

এএফপির সাংবাদিক ঘটনাস্থল থেকে জানান, শুক্রবার জুমার নামাজে মসজিদে তিল ধারণের জায়গা ছিল না। বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থলে আহতদের হাসপাতালে নেয়ার জন্য অন্তত ১৫টি অ্যাম্বুলেন্স ঘটনাস্থলে হাজির হয়।

রয়টার্স জানায়, তালেবান বাহিনী ঘটনাস্থল ঘিরে ফেলে ও সুস্থদেরকে আহতদের রক্তদানের আহ্বান জানায়। 

বিবিসির আফগানিস্তান প্রতিনিধি সিকান্দার কারমানি জানান, ইসলামিক স্টেটের একটি স্থানীয় গ্রুপ আইএস-কে ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন:

বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ভারত-পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ

ফাইনালে কলকাতা-চেন্নাইয়ের সম্ভাব্য একাদশ, সাকিব থাকছেন কি?

ভিড়ের মধ্যে কান্না করা শিশুকে ঘিরে আসল রহস্য উদঘাটন

যে কারণে ব্রাজিলের রেফারিকে নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন মেসি


তিনি আরও জানান, কান্দাহার আফগানিস্তানের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর। এটি তালেবানের জন্মস্থল হিসেবেও পরিচিত। ফলে এই অঞ্চলে এমন হামলা বিশেষ গুরুত্ব বহন করে। 

এর আগে গত শুক্রবার জুমার পরে দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় শহর কুন্দুজে একটি আত্মঘাতী হামলায় ৫০ জনের বেশি মুসলিম নিহত হন।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

নির্দিষ্ট সময়ে ভ্যাকসিন না নিলে বহিষ্কারের ঘোষণা

অনলাইন ডেস্ক

নির্দিষ্ট সময়ে ভ্যাকসিন না নিলে বহিষ্কারের ঘোষণা

নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী ভ্যাকসিন না নিলে তাকে নৌবাহিনী থেকে বহিষ্কার করা হবে বলে জানিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নৌবাহিনী। ২৮ নভেম্বরের মধ্যেই ভ্যাকসিন নিতে হবে বলে স্থানীয় সময় বুধবার এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে মার্কিন নৌবাহিনী। খবর ইউএসএনআই নিউজের।

বিবৃতিতে বলা হয়, যেসব সামরিক সদস্যের ভ্যাকসিন পেন্ডিং আছে অথবা যারা অনুমোদিত কারণ ছাড়া নির্দিষ্ট মেয়াদের মধ্যে ভ্যাকসিন গ্রহণ করবে না তাদের বহিষ্কারের ব্যাপারে নৌবাহিনী তাদের পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে। এই টিকা সকল সামরিক সদস্যের জন্য বাধ্যতামূলক।

সুতরাং, যারা এখনও এক ডোজ টিকাও নেয়নি তাদের অবশ্যই ১৪ নভেম্বরের মধ্যে ফাইজার বা, মডার্নার প্রথম ডোজ ভ্যাকসিন নিতে হবে। কেননা ১৪ দিনের মধ্যে ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া যায় না। 

মার্কিন নৌবাহিনীর হিসেবে, এরই মধ্যে সাড়ে ৩ লাখ সক্রিয় সেনার মধ্যে ৯৯ শতাংশ নৌসেনা প্রথম ডোজ এবং ৯৪ শতাংশ দ্বিতীয় ডোজ ভ্যাকসিন নেয়ার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে। 

আরও পড়ুন:

বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ভারত-পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ

ফাইনালে কলকাতা-চেন্নাইয়ের সম্ভাব্য একাদশ, সাকিব থাকছেন কি?

ভিড়ের মধ্যে কান্না করা শিশুকে ঘিরে আসল রহস্য উদঘাটন

যে কারণে ব্রাজিলের রেফারিকে নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন মেসি


আর সব মিলিয়ে দেশটিতে ১৪ লাখ সক্রিয় সেনা সদস্যের মধ্যে ৯৬ শতাংশ অন্তত এক ডোজ এবং ৮৪ শতাংশ দুই ডোজ ভ্যাকসিন নেয়ার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে বলে জানিয়েছে পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি।

মার্কিন নৌবাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়, নাবিকদের অবশ্যই সবসময় বিশ্বের যেকোন প্রান্তে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। কাজেই স্বাস্থ্যগত কোন বিষয়ে তাদের কোন ছাড় দেবার অবকাশ নেই।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর