৫ দিনের রিমান্ডে কনক সারোয়ারের বোন

অনলাইন ডেস্ক

৫ দিনের রিমান্ডে কনক সারোয়ারের বোন

কনক সরওয়ারের বোন নুসরাত শাহরিন রাকার পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বুধবার (০৬ অক্টোবর) ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের দুই বিচারক পৃথক আদেশে এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উত্তরা পশ্চিম থানার এসআই বদরুল মিল্লাত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

রাষ্ট্রপক্ষে ঢাকার মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর আব্দুল্লাহ আবু রিমান্ড আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন।

আসামিপক্ষে ঢাকা বারের সাবেক সভাপতি মাসুদ আহমেদ তালুকদার, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওমর ফরুক ফারুকী ও ঢাকা বারের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক খন্দকার হযরত আলী রিমান্ড বাতিল পূর্বক জামিন আবেদন করেন। শুনানি শেষে ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবুবকর ছিদ্দিক তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদেশ দেন।

একই তদন্ত কর্মকর্তা উত্তরা পশ্চিম থানার মাদক মামলায় নুসরাত শাহরিন রাকার সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করেন৷ আসামিপক্ষে ওমর ফারুক ফারুকীসহ কয়েকজন রিমান্ড বাতিল পূর্বক জামিন আবেদন করেন।

শুনানি শেষে বিচারক মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট নিভানা খায়ের জেসী দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদেশ দেন।

পরবর্তী খবর

কুমিল্লায় মন্দিরে হামলা: ১৬ জনকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

অনলাইন ডেস্ক

কুমিল্লায় মন্দিরে হামলা: ১৬ জনকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

কুমিল্লায় মন্দিরে হামলা ঘটনায় গ্রেপ্তার ১৭ আসামির ১৬ জনকে কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে দুই দিন করে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

কুমিল্লা শহরের কাপড়িয়াপট্টি চাঁন্দমনি রক্ষাকালী মন্দিরে হামলার ঘটনাটি ঘটে। মঙ্গলবার কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ১নং আমলী আদালতের (কোতয়ালী) বিচারক নুসরাত জাহান উর্মি এ আদেশ দেন।


আরও পড়ুন: 

১০ মিনিটের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র নয়াপল্টন

এনআইডি নিয়ে সরকারের নতুন পরিকল্পনার কথা জানালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

টসে জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ


আদালত সূত্রে জানা গেছে, ১৭ আসামির একজন শিশু হওয়ায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ (জেলা ও দায়রা জজ) আদালত জামিন দেন। বাকি ১৬ আসামিকে দুই দিন করে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেওয়া হয়। কোতোয়ালি মডেল থানার উপ-পরিদর্শক ও মামলার বাদী আলিম খান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

আবদুল বাসেতকে জাতি চিরকাল শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করবে: প্রধান বিচারপতি

অনলাইন ডেস্ক

আবদুল বাসেতকে জাতি চিরকাল শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করবে: প্রধান বিচারপতি

জ্যেষ্ঠ আইনজীবী আব্দুল বাসেত, প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন

সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী আবদুল বাসেত মজুমদারের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

সুপ্রিম কোর্টের স্পেশাল অফিসার ব্যারিস্টার মোহাম্মদ সাইফুর রহমান শোকবার্তার বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন।

এতে প্রধান বিচারপতি বলেন, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের বিজ্ঞ জ্যেষ্ঠ আইনজীবী, বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এবং সাবেক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুল বাসেত মজুমদারের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করছি। অত্যন্ত সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে তিনি পেশাগত দায়িত্ব পালন করেছেন। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা এবং মানুষের ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে তার অসামান্য অবদান রয়েছে।


আরও পড়ুন: 

ইংল্যান্ড ম্যাচের আগে টাইগার শিবিরে বড় দুটি দুঃসংবাদ

১৫টি ট্রাক নিয়ে ডুবে গেলো ফেরি শাহ আমানত

১০ মিনিটের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র নয়াপল্টন

এনআইডি নিয়ে সরকারের নতুন পরিকল্পনার কথা জানালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী


সদ্য প্রয়াত এ আইনজীবী সম্পর্কে তিনি বলেন,  গুরুত্বপূর্ণ আইনি বিষয়ে তিনি আদালতকে সব সময় সহযোগিতা করেছেন। তিনি ছিলেন সর্বজন শ্রদ্ধেয় ব্যক্তি। দরিদ্র মানুষের আইনজীবী হিসেবে তিনি ব্যাপকভাবে পরিচিত ছিলেন। তিনি জুনিয়র আইনজীবীদের সার্বক্ষণিক সহযোগিতা করেছেন। জাতি চিরকাল শ্রদ্ধাভরে তাকে স্মরণ করবে।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য ‘গরিবের আইনজীবী’ খ্যাত আবদুল বাসেত মজুমদার বুধবার সকাল ৮টা ১৮ মিনিটে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় মারা যান।

বাসেত মজুমদারের প্রতি শ্রদ্ধায় বসবে না সুপ্রিম কোর্ট

জ্যৈষ্ঠ আইনজীবী বাসেত মজুমদার আর নেই

news24bd.tv নাজিম

 

পরবর্তী খবর

বাসেত মজুমদারের প্রতি শ্রদ্ধায় বসবে না সুপ্রিম কোর্ট

অনলাইন ডেস্ক

বাসেত মজুমদারের প্রতি শ্রদ্ধায় বসবে না সুপ্রিম কোর্ট

গরিবের আইনজীবী হিসেবে পরিচিত বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি প্রবীণ আইনজীবী আব্দুল বাসেত মজুমদারের মৃত্যুতে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগ আজ বসবে না।

সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. আলী আকবর স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: 

জ্যৈষ্ঠ আইনজীবী বাসেত মজুমদার আর নেই

ইংল্যান্ড ম্যাচের আগে টাইগার শিবিরে বড় দুটি দুঃসংবাদ


আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য ‘গরিবের আইনজীবী’ খ্যাত আবদুল বাসেত মজুমদার বুধবার সকাল ৮টা ১৮ মিনিটে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় মারা যান।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

জন্মদিনের পার্টিতে দুই শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ, মামলার রায় আজ

অনলাইন ডেস্ক

জন্মদিনের পার্টিতে দুই শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ, মামলার রায় আজ

২০১৭ সালে রাজধানী বনানীর রেইনট্রি হোটেলে জন্মদিনের পার্টিতে দুই শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনায় হওয়া মামলার রায় আজ মঙ্গলবার। ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭-এর বিচারক বেগম মোসাম্মৎ কামরুন্নাহারের আদালত এই রায় ঘোষণা করবেন। 

মামলার আসামিরা হলেন আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাত আহমেদ, সাফাতের বন্ধু নাঈম আশরাফ ওরফে এইচ এম হালিম, সাদমান সাকিফ, দেহরক্ষী রহমত আলী ও গাড়িচালক বিল্লাল হোসেন।

এই মামলার রায়ের দিন ধার্য ছিল গত ১২ অক্টোবর। তবে ওইদিন ওই আদালতের বিচারকের অসুস্থতার কারণে ছুটিতে থাকায় ভারপ্রাপ্ত বিচারক আল মামুন রায়ের তারিখ পিছিয়ে দেন। তার আগে গত ৩ অক্টোবর যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হয়। 

আরও পড়ুন:


যশোরে ৫ শিশুকে বলাৎকার! যুবক গ্রেফতার

বাড়িতে ঢুকে যুবলীগকর্মীকে কুপিয়ে হত্যা


মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ২০১৭ সালের ২৮ মার্চ রাত ৯টা থেকে পরদিন সকাল ১০টা পর্যন্ত হোটেলে জন্মদিনের পার্টিতে দুই শিক্ষার্থীকে একাধিকবার ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই বছরের ৬ মে সাফাতসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে বনানী থানায় ধর্ষণ মামলা করা হয়।

তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের ৭ জুন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের উইমেন সাপোর্ট অ্যান্ড ইনভেস্টিগেশন ডিভিশনের (ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার) পরিদর্শক ইসমত আরা এমি পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেন। 

news24bd.tv রিমু  

পরবর্তী খবর

ধর্ষণ মামলা : বাদী ও আসামিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ আদালতের

অনলাইন ডেস্ক

ধর্ষণ মামলা : বাদী ও আসামিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ আদালতের

বরগুনায় ধর্ষণ মামলার আসামী ও বাদীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) দুপুরে ট্রাইব্যুনালের বিচারক হাফিজুর রহমান এ আদেশ দেন।

বাদী ওই নারী ছাড়াও আরেক আসামি হলেন-বরগুনা সদর উপজেলার পদ্মা গ্রামের আবদুল গনি হাওলাদারের ছেলে ছগির হোসেন (৪২)।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ছগির পেশায় একজন আইনজীবীর সহকারী। ওই নারী (৩৫) আদালতে পাড়ায় আসা যাওয়ার সুবাদে ছগিরের সঙ্গে পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে ছগির তার প্রতিপক্ষ জাহিদ নামের একজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দিয়ে তাকে ১০ লাখ টাকা আদায়ের লোভ দেখান। এ মামলায় তিনি ওই নারীকে বাদী হতে বলেন। কিন্তু ওই নারী রাজি হচ্ছিলেন না। পরে তাকে ২০ হাজার টাকা ও একটি মোবাইল ফোন দেওয়ার কথা বললে তিনি মামলার বাদী হতে রাজি হয়ে যান।

চলতি বছরের ২৩ মার্চ ওই নারী ছগিরের সঙ্গে দেখা করতে আসেন। ছগির তাকে বলেন ধর্ষণ মামলা করতে হলে ধর্ষণের আলামত দরকার। এ কথা বলে তিনি ওই নারীকে ধর্ষণ করেন। পরে ওই নারী থানায় গিয়ে জাহিদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করতে গেলে পুলিশের জেরার মুখে পড়েন এবং সব ঘটনা স্বীকার করেন। পরে ওই নারী ছগিরকে আসামি করে মামলা করেন এবং পুলিশ ছগিরকে গ্রেফতার করে।

আরও পড়ুন:

মা কালী সেজে জনগণকে তাক লাগালেন রিখিয়া

আরিয়ানের জামিন শুনানি আজ, টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয়ার প্রস্তাব

ওই নারী মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ছগিরের বিরুদ্ধে করা মামলা প্রত্যাহারের আবেদন করেন। বিচারক বিস্তারিত শুনে বাদী ওই নারী এবং ছগিরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর