চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য!

অনলাইন ডেস্ক

চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য!

মঙ্গলবার সন্ধ্যয় কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের কমিটি প্রকাশ করা হয়।কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আবু তৈয়ব অপি ও সাধারণ সম্পাদক লোকমান হোসেন রুবেল ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে লালমাই উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি প্রকাশ করেন।

কমিটিতে উপজেলার বাকই উত্তর ইউনিয়নের ছাত্রলীগের সভাপতি শাহপরান সওদাগরকে সভাপতি ও বাগমারা উত্তর ইউনিয়নের সহ-সভাপতিকে আরিফুল ইসলাম রাব্বিকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। 

তবে আলোচনা বিষয় ছাত্রলীগের কমিটি বা সভাপতি-সম্পাদক নিয়ে না। ৭১ সদস্য বিশিষ্ট এই কমিটিতে সদস্য পদ পেয়ে আলোচনায় এসেছে চতুর্থ শ্রেণির আজমাইন আঞ্জুম নোয়েল। তাকে নিয়ে এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনার ঝড়।

নবগঠিত কমিটির তালিকায় দেখা যায়, সাধারণ সদস্যের তালিকায় আজমাইন আঞ্জুম নোয়েলের নাম রয়েছে। তবে নোয়েল চতুর্থ শ্রেণির নয়, ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র বলে দাবি করেছেন তার বাবা ইউনিভার্সাল কামাল। ছেলের বয়স ১২ বছর বলেও দাবি করেন তিনি।

কামাল বলেন, 'বঙ্গবন্ধু ছাত্রলীগ করেছেন ১০ বছর বয়স থেকে। আমার ছেলের বয়স ১২ বছর। এই নিয়ে সমস্যা হবে না। আর যদি সমস্যা হয়, তাহলে আমি বিষয়টা সমাধান করবো।'

কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জাহিদুল ইসলাম চৌধুরী শিপন তার ফেসবুকে লেখেন, 'চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী কুমিল্লা লালমাই উপজেলা ছাত্রলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য।'

আরও পড়ুন:


ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইপিএল নিয়ে জুয়া, ৩ জনের সাজা

চট্টগ্রাম আদালত এলাকায় বোমা হামলা মামলার রায় আজ

টুইটার অ্যাকাউন্ট ফিরে পেতে আদালতে ট্রাম্প

যুবলীগ নেতার সঙ্গে ভিডিও ফাঁস! মামলা তুলে নিতে নারীকে হুমকি


 

এদিকে, শিশুটির উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটিতে পদ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লোকমান হোসেন রুবেল। তিনি দাবি করেন, অতিউৎসাহী কারো জন্য অথবা ভুলবশত ওই ছেলের নামটা যোগ হয়েছে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

বিএনপির রাজনীতি চলছে অদৃশ্য সুতার টানে: কাদের

অনলাইন ডেস্ক

বিএনপির রাজনীতি চলছে অদৃশ্য সুতার টানে: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, শেখ হাসিনা সরকারের মেরুদণ্ড শক্ত, কারণ তাদের সঙ্গে জনগণ রয়েছে। কোনো দৃশ্যমান বা অদৃশ্য শক্তির কাছে বঙ্গবন্ধুকন্যা মাথা নত করেন না। বরং বিএনপির রাজনীতি চলছে অদৃশ্য সুতার টানে।

তিনি বলেন, দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতির চিত্র বিএনপি দেখতে পায় না। অগণতান্ত্রিক পন্থায় ক্ষমতা দখলের দিবাস্বপ্ন ভেস্তে যাওয়ায় বিএনপির দৃষ্টিসীমা এখন কুয়াশাচ্ছন্ন।

আজ দুপুরে তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে তিনি এসব কথা বলেন।

‘দেশ এক অদৃশ্য শক্তি চালাচ্ছে’ বিএনপি নেতাদের এই বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ হাসিনার উন্নয়ন ও ভবিষ্যৎমুখী রাজনীতি বিএনপির সুবিধাবাদী রাজনীতির ওপর অমানিশার ছায়া ফেলেছে। বর্তমান সরকার কোনো দলের ওপর খবরদারি করে না বরং সরকার পরিচালনাকে পবিত্র দায়িত্ব মনে করে। 

আরও পড়ুন: ৪০ বছরের মধ্যে কার্বন নিঃসরণ শূন্যে নামাবে সৌদি আরব

দেশে আতঙ্ক ও নির্মম রাজনৈতিক পরিস্থিতি বিরাজ করছে- বিএনপি নেতাদের এমন অভিযোগের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ধর্মকে পুঁজি করে বিভেদ সৃষ্টিকারী সাম্প্রদায়িক অপশক্তি আতঙ্কে রয়েছে। আতঙ্কে রয়েছে আগুন সন্ত্রাসীরা। দেশের সাধারণ মানুষ আতঙ্কে নয় বরং ভালো আছে, স্বস্তিতে আছে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

২৬ অক্টোবর যে নামে দল ঘোষণা করতে যাচ্ছে নূর

অনলাইন ডেস্ক

২৬ অক্টোবর যে নামে দল ঘোষণা করতে যাচ্ছে নূর

ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নূর ও গণফোরামের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়ার নেতৃত্বে আগামী ২৬ অক্টোবর নতুন দল আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে।

অনুমতি পেলে মঙ্গলবার সকাল ১০টায় রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে তাদের নতুন দলের ঘোষণা হবে। এই দলের নাম হবে ‘গণপরিষদ’ বলে জানা গেছে।

দল ঘোষণার অনুষ্ঠানে বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাদেরও সেখানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধিরাও উপস্থিত থাকবেন অনুষ্ঠানে।

এ বিষয়ে ড. রেজা কিবরিয়া বলেন, আগামী ২৬ অক্টোবর আমাদের নতুন দলের আত্মপ্রকাশ ঘটবে। এ নিয়ে আমি সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে ইতিবাচক জবাব পেয়েছি। তরুণ ও যুবক শ্রেণিকে প্রাধান্য দিয়ে আমরা নতুন নেতৃত্ব সাজাব। দল ঘোষণার আগেই চট্টগ্রামে আমাদের নয়জন নেতার বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া হয়েছে। এটা দুঃখজনক।

আরও পড়ুন


বাংলাদেশের বিপক্ষে নামার আগে শ্রীলঙ্কা শিবিরে বড় দুঃসংবাদ

কানাডার ক্যালগেরিতে প্রতিবাদ সভা এবং কার র‌্যালি

বাংলাদেশের খেলার দিনে ৬ হাইভোল্টেজ ম্যাচ

স্বপ্নের পায়রা সেতুর উদ্বোধন আজ, দক্ষিণাঞ্চলে উৎসবের আমেজ


আর ডাকসুর সাবেক ভিপি নূর বলেন, গত ৩০ সেপ্টেম্বর আমাদের দল ঘোষণার কথা ছিল। কিন্তু নানা জটিলতায় তা সম্ভব হয়নি। পরে আমরা ২০ অক্টোবর দলের আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠান করার পরিকল্পনা করি। প্রশাসনিক জটিলতায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে অনুষ্ঠানের অনুমতি না পাওয়ায় পরে তা-ও পরিবর্তন করা হয়। এবার আমরা ২৬ অক্টোবর একই স্থানে অনুষ্ঠানটি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

দল ঘোষণার অনুষ্ঠানের জন্য ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের মিলনায়তন ব্যবহারের অনুমতি চাওয়া হয়েছে। এখনো অনুমতি মেলেনি। যদি অনুমতি না মেলে তাহলে ২৬ অক্টোবর ঢাকার যে কোনো জায়গায় অনুষ্ঠান করে দলের ঘোষণা দেওয়া হবে বলেও জানান নুরুল হক নূর। সূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

অন্য ধর্মের ওপর আঘাত করার অধিকার কারো নেই: হানিফ

অনলাইন ডেস্ক

অন্য ধর্মের ওপর আঘাত করার অধিকার কারো নেই: হানিফ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় রচিত আমাদের সংবিধানের চার মূলনীতি ছিলো-ধর্মনিরপেক্ষতা মানে অসাম্প্রদায়িকতা, জাতীয়তাবাদ, গণতন্ত্র ও সমাজতন্ত্র। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে নয় মাস যুদ্ধ করে আমরা এই সংবিধানের চার মূলনীতি রচনা করেছিলাম।

লোকজ সংস্কৃতিতে আমাদের সামাজিক বন্ধন ছিল। সেই সামাজিক বন্ধনে অসাম্প্রদায়িকতার বিষ ঢেলে দিয়েছে একটি গোষ্ঠি। অথচ বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় একটি অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ।

তিনি বলেন, আমরা মুসলিমরা দাবি করি ইসলাম শান্তির ধর্ম। এই শান্তির ধর্মের ভুল ব্যাখ্যা তুলে ধরা হচ্ছে। মাহফিলে হুজুরেরা ধর্মের সঠিক ব্যাখ্যা না করে ভুল ব্যাখা দিচ্ছেন। কুমিল্লার ঘটনায় মূল আসামি আটক হয়েছে। তিনি একজন মুসলমান। মুসলমান হয়ে কুরআন শরীফকে তিনি মন্দিরে রেখে আসলেন। আমাদের কুরআনকে তিনি অসম্মানিত করেছেন। আর আমরা সবাই ধর্মের কথা বলে সারাদেশে মন্দিরে মন্দিরে হামলা চালিয়ে দাঙ্গা শুরু করে দিয়েছি। অথচ অন্য ধর্মের ওপর আঘাত করার অধিকার কারো নাই।

চসিকের আলকরণ ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর, প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা তারেক সোলেমান সেলিমের নাগরিক শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

আজ বিকেল ৩টায় কাজীর দেউড়ির ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে শোকসভাটি অনুষ্ঠিত হয়।

মাহবুবউল আলম হানিফ আরও বলেন, একজন ব্যক্তি যদি পরপর চার বার কাউন্সিলর নির্বাচত হন। তাহলে বুঝতে আর বাকি থাকে না। তিনি কত জনপ্রিয় ছিলেন। আমি তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করি ও তাঁর পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই।

প্রধান বক্তা একে এম আফজালুর রহমান বাবু বলেন, সেলিম ভাই আপাদমস্তক একজন সংগঠন। কঠিন সমস্যার সমাধান দিতেন এক মিনিটেই। সেলিম একজন মানবিক মানুষ। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের চারবারের নির্বাচিত কাউন্সিলর ছিলেন। চট্টগ্রামের মানুষ সেলিম ভাইকে ভুলতে পারেনি। সেলিম ভাই চট্টগ্রামের মানুষের মাঝে আজীবন বেঁচে থাকুক।

সেলিম ভাইয়েরা যে নীতি আদর্শ নিয়ে রাজনীতি করে গেছেন। আমরা সকলে যেন সে পথে যাই। সে প্রত্যাশা করি। 

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু কখনো ধর্মনিরপক্ষতা নিয়ে আপস করেননি। মৌলবাদের বিরুদ্ধে আমাদের রুখে দাঁড়াতে হবে। সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান বলেন, তারেক সোলেমান সেলিম কখনো রাজনীতিকে বিজনেস সেন্টার হিসেবে নেননি। রাজনীতিকে তিনি নিয়েছিলেন বিজ্ঞান হিসেবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ হিসেবে। তারেক সোলেমান সেলিম চট্টগ্রামের মানুষের অন্তরে সারাজীবন বেঁচে থাকবেন।

মহানগর আ.লীগের সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আপনারা সকলে তারেক সেলেমান সেলিমের ভূমিকা পালন করেন। তারেক সোলেমান এর অনুসারীরা যেনো শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হই।

সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, এটা আমাদের সংগঠনের দুর্বলতা কিনা জানি না। তারেক সোলেমান সেলিমকে তার জীবনদশায় যে মূল্যায়ন করা দরকার তা আমরা দিতে পারিনি। মিথ্যা অপবাদ দিয়ে তাঁকে যারা ছোট করার চেষ্টা করেছিলেন। তারা আজ নাগরিক শোক সভার দৃশ্য দেখে বুঝতে পারছেন তিনি কত বড় মাপের নেতা ছিলেন। আমি আপনাদের বলব। যা অন্তরে ধারণ করি তা যেন আমরা মুখ দিয়ে প্রকাশ করি। স্বার্থের রাজনীতি থেকে দূরে থাকি।

আরও পড়ুন: কাল খুলে দেয়া হচ্ছে পায়রা সেতু

সংসদ সদস্য মোসলেম উদ্দিন আহমেদ বলেন, তারেক সোলেমান সেলিমকে অপবাদ দিয়ে শেষ করতে পারেনি। তিনি মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছেন। তিনি কখনো মুছে যাবার নয়।

শোকসভার সদস্যসচিব জামশেদুল আলম চৌধুরীর পরিচালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন নাগরিক শোকসভা কমিটির চেয়ারম্যান ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক একে এম আফজালুর রহমান বাবু, মহানগর আ.লীগের (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি আলহাজ্ব মাহতাবউদ্দিন চৌধুরী, সাবেক মেয়র ও মহানগর আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আ.লীগের সভাপতি ও সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোসলেম উদ্দিন আহমেদ, দক্ষিণ জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সাবেক সদস্য অ্যাডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী, কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, কাউন্সিলর আলহাজ্ব আতা উল্লাহ, কাউন্সিলর নুরুল আলম, কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিন, কাউন্সিলর জালাল উদ্দিন ইকবাল, কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা শহিদুল চৌধুরী রাসেল, সিটি কলেজের সাবেক ছাত্রনেতা সাদেক হোসেন পাপ্পুর প্রমূখ। আরো উপস্থিত ছিলেন সাবেক ছাত্রনেতা মাহফুজুর রহমান রোটন।

সভায় আবেগঘন বক্তব্য রাখেন তারেক সোলেমান পুত্র মহিম ইসলাম রাতুল। 

প্রসঙ্গত, গত ১৮ জানুয়ারি ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে তারেক সোলেমান সেলিম মারা যান।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

বিতর্কিত ব্যক্তিকে নৌকায় দেখতে চায় না মির্জানগরের বাসিন্দারা

অনলাইন ডেস্ক

বিতর্কিত ব্যক্তিকে নৌকায় দেখতে চায় না মির্জানগরের বাসিন্দারা

ফেনীর পশুরাম উপজেলার মির্জানগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিতর্কিত ব্যক্তিকে মনোনয়ন না দিতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করেছেন ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণ।

আজ দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে অবস্থিত আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে শতাধিক মানুষ অংশ নেন।

মানববন্ধনে উপজেলা ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সাবেক সভাপতি আবুল হাসেম চৌধুরী বলেন, বর্তমান ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ২০০৩ সালে জামায়াতের সমর্থন নিয়ে মির্জানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ২০১১ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর ‘সরকারি দলে’ প্রবেশ করেন। এরপর জেলা-উপজেলার কিছু নেতাকে হাত করে আওয়ামী লীগের সমর্থন নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েই ‘আওয়ামী লীগ’ নিধনে নামেন। আওয়ামী লীগের দুঃসময়ের নেতাকর্মীর ওপর নির্যাতন করেন।

জেলা যুবলীগ নেতা ফখরুল ইসলাম ফারুক বলেন, বিতর্কিত ব্যক্তি নুরুজ্জামান ভুট্টো চেয়ারম্যান হওয়ার পর ভারতীয় নাগরিকদের অবৈধভাবে বাংলাদেশের ভোটার করেছে। জনপ্রতিনিধি হয়েও সে ঠিকাদারের ভূমিকায় ১০ শতাংশ বাণিজ্য করে সরকারি কাজে ব্যাপক অনিয়ম করেছে।

আরও পড়ুন: এবার শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার চাপ কমাতে চায় চীন

তিনি বলেন, ২০২০ সালের ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস ও জাতির পিতার শাহাদাত বার্ষিকীতে উপজেলা জামায়াতের আমীর নূর মোহাম্মদ ও ইউনিয়ন জামায়াতের আমির আনোয়ার শাহকে অতিথি করে অনুষ্ঠান করেন। এতে ক্ষুব্ধ হয় স্থানীয় আওয়ামী লীগ। পরে উপজেলা আওয়ামী লীগ থেকে তাকে শোকজ করা হয়। এমন বির্তকিত ব্যক্তিকে নৌকা দেওয়া হলে আওয়ামী লীগ ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

কর্মসূচিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলী আকবর ভূঁইয়া, ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক লোকমান চৌধুরী, ছাত্রলীগের সাবেক নেতা আবু ইউসুফ ও সাবেক ছাত্রনেতা নুরুল আলম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

প্রতিমন্ত্রীকে অপরিপক্ব বলে বহিষ্কার দাবি চরমোনাই পীরের

অনলাইন ডেস্ক

প্রতিমন্ত্রীকে অপরিপক্ব বলে বহিষ্কার দাবি চরমোনাই পীরের

এরশাদের আমলে সংবিধানে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম করা হয়েছিল। সেটা এখনও বহাল আছে। সেটা বহাল থাকার পরও একজন প্রতিমন্ত্রী রাষ্ট্রধর্ম নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। এটা সংবিধান পরিপন্থি বলে জানিয়েছেন  চরমোনাই পীর মুফতি রেজাউল করিম।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানের বহিষ্কার দাবি করে তিনি আরও বলেন ‘মানুষের আবেগ-অনুভূতিতে আঘাত করে রাজনীতিক নেতা ও মন্ত্রীদের কথা বলার প্রবণতা বন্ধ করতে হবে।

শনিবার দুপুরে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দেশের চলমান পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত  লিখিত বক্তব্যে তিনি এ দাবি জানান।

লিখিত বক্তব্যে চরমোনাই পীর বলেন, ক্ষমতাসীন রাজনীতিক দলের নেতা ও মন্ত্রীরা প্রায়ই ইসলামের বিরুদ্ধে বিষোদগার করেন। সম্প্রতি একজন প্রতিমন্ত্রীর বালখিল্যতা জাতি দেখেছে। অপরিপক্ব সেই প্রতিমন্ত্রী যেভাবে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম নিয়ে মন্তব্য করেছেন তাতে জনরোষ আরও বেড়েছে।

মন্দিরে হামলার ঘটনাকে বিচ্ছিন্ন ঘটনা দাবি করে তিনি বলেন,‘এ ধরনের ঘটনা বাংলাদেশের সাধারণ চরিত্র নয়। বাঙালির হাজার বছরের ইতিহাস ও মুসলমানদের ধর্মীয় শিক্ষা এ ধরনের ঘটনাকে সমর্থন করে না।

‘দেশে একদলীয় শাসন চলছে’ মন্তব্য করে চরমোনাই পীর বলেন, ‘দেশে যখন একদলীয় শাসন চলে, সরকার যখন বিরোধী রাজনীতিক দলগুলোকে কোণঠাসা করে রাখে তখন অনিয়ন্ত্রিত বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়া একটি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া। কুমিল্লা ও দেশব্যাপী তারই বহিঃপ্রকাশ দেখা গেছে।

সংবাদ সম্মেলনে কুমিল্লার ঘটনা-পরবর্তী ঘটনা তদন্তে বিচার বিভাগীয় কমিটি করার দাবি করে।

সংবাদ সম্মেলনে ধর্ম অবমাননাকে কেন্দ্র দেশের বিভিন্ন জায়গায় সনাতন সম্প্রদায়ের মন্দির ও ঘরবাড়িতে যেসব অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে তার তীব্র নিন্দা করে তার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের দ্রুত বিচার দাবি করেন চরমোনাই পীর।

আরও পড়ুন

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রকে অপহরণ করে বিয়ে করলো তরুণী!

শরীরের ইমিউনিটির উপর বিশ্বাসী অভিনেত্রী করোনায় আক্রান্ত

অনিয়ন্ত্রিত পতিতাবৃত্তি বন্ধ করতে চান স্পেনের প্রধানমন্ত্রী

অবরোধ তুলে নিলো ঢাবি শিক্ষার্থীরা


সংবাদ সম্মেলনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব মাওলানা ইউনুস আহমাদ, সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী, আলহাজ খন্দকার গোলাম মাওলা, অধ্যাপক মাহবুবুর রহমানসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর