সেঞ্চুরির পথে পেঁয়াজ

সেঞ্চুরির পথে পেঁয়াজ

Other

দুই সপ্তাহের ব্যবধানে প্রায় দ্বিগুণ পেঁয়াজের দাম। এতে প্রতিদিন প্রায় ২৫ কোটি টাকা বাড়তি খরচ হচ্ছে ক্রেতার পকেট থেকে। যে টাকা যাচ্ছে পেঁয়াজের মজুদারদের পকেটে। শুধু তাই নয়, আদা, রসুন, তেল, চিনি, সবজি কিংবা মুরবি সব কিছুতেই পকেট কাটা যাচ্ছে সাধারণ ভোক্তাদের।

আর নিত্যপণ্যের এমন অস্বাভাবিক দামে শুধু হতাশ নয়, ক্ষুদ্ধ ক্রেতারা।  

রাজধানীতে খুব একটা চোখে পড়েনা খোলা সয়াবিন বিক্রি। তবে পণ্যটির দাম যখন ১৫৫ টাকা কেজি, তখন নিম্ন আয়ের মানুষদের কেজি নয় পণ্যটি কিনতে হচ্ছে গ্রাম হিসেবে।  

চিনির সর্বোচ্চ দাম ৭৪ টাকা নির্ধারন করে দিয়েছে সরকার। তবে কে শোনে কার কথা। সাদা চিনি এখনও বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকার উপরে। আর ব্রাউন চিনি ৯০ টাকা কেজি। (গ্রাফিক্স)

সরকারি সংস্থাগুলোর চোখের সামনেই পেঁয়াজের দাম বেড়ে দ্বিগুন। ঢাকার খুচরা বাজারে এখন দেশি পেঁয়াজ ৮০ টাকা কেজি, দু সপ্তাহ আগেও যা ছিলো ৪০-৪৫ টাকা। বছরে ৩০ লাখ মেট্টিক টন পেঁয়াজ বিক্রির হিসেবে প্রতিদিন প্রায় ৮২ লাখ কেজি বিক্রি হয় সারাদেশে। ৩০ টাকা দাম বাড়ায় ক্রেতার পকেট থেকে বাড়তি খরচ হচ্ছে প্রায় ২৫ কোটি টাকা। শুধু তাই নয় আমদানি করা আদা কেজিতে ৬০ টাকা আর রসুনের দাম বেড়েছে কেজিতে ২০ টাকা।

তবে ঢাকার তুলনায় কিছুটা কম চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে। আমদানি করা পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা কেজিতে।

এদিকে ঢাকার বাজারে প্রায় সব সবজির দামই এখন ৭০ থেকে ৮০ টাকা কেজি। কাঁচা মরিচের দাম ঠেকেছে ২০০ টাকায়। ঢাকার পাশাপাশি সবজির দাম চড়া অনান্য জেলাগুলোতেও।  

আরও পড়ুন:


মমতার ভাগ্য নির্ধারণ আজ

চট্টগ্রাম আদালত এলাকায় বোমা হামলা মামলার রায় আজ

টুইটার অ্যাকাউন্ট ফিরে পেতে আদালতে ট্রাম্প

করোনা প্রতিরোধে টিকার বিকল্প কোভিড পিলের পরীক্ষামূলক প্রয়োগে সাফল্য


 

অস্বস্তি ছড়াচ্ছে মুরগীর দামেও। সোনালী মুরগী এ সপ্তাহেও কেজিতে বেড়েছে ৩০ টাকা। দাম বেড়ে ব্রয়লার বিক্রি হচ্ছে ১৭০ টাকা কেজিতে।

তবে ঢাকাসহ প্রায় সব জেলায় কিছুটা কমেছে অতি প্রয়োজনীয় চালের দাম।

news24bd.tv/আলী

;