ভুয়া পুলিশের প্রতারণায় বিব্রত পুলিশ প্রশাসন

অনলাইন ডেস্ক

ভুয়া পুলিশের প্রতারণায় বিব্রত পুলিশ প্রশাসন

শরীরে বিভিন্ন পদমর্যাদার র‌্যাংক ব্যাজসহ ইউনিফর্ম, হাতে ওয়াকিটকি, গাড়িতে মনোগ্রাম লাগিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করছে ওরা। হুমকি-ধমকি দিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে অর্থ, স্বর্ণালংকারসহ মূল্যবান জিনিসপত্র। প্রতিনিয়ত ওদের হয়রানির শিকার হতে হতে ত্যক্তবিরক্ত সাধারণ মানুষ। পুলিশের ছদ্মবেশে দেশজুড়ে এই চক্রটি নানা ধরনের অপকর্ম চালালেও প্রকৃত অর্থে ওরা পুলিশ না। ছদ্মবেশ ধরা এই প্রতারকচক্রের কারণে ক্ষুণ্ন হচ্ছে পুলিশ বাহিনীর আত্মমর্যাদা। অনেক ভুক্তভোগী এই প্রতারকচক্রের খপ্পরে পড়ে উল্টো পুলিশ বাহিনী সম্পর্কে বিরূপ মনোভাব পোষণ করছেন। ফলে বিব্রত পুলিশ প্রশাসন।

নিরুপায় হয়ে শেষে এই ভুয়া পুলিশচক্রকে প্রতিহত করতে কঠোর অবস্থান নিয়েছে প্রকৃত পুলিশ। তার মধ্যেও অব্যাহত রয়েছে প্রতারকচক্রের অপতৎপরতা। প্রায়ই শোনা যাচ্ছে, দেশের বিভিন্ন এলাকায় চক্রটি কোনো না কোনো ঘটনা ঘটিয়ে বিপদে ফেলছে সাধারণ মানুষকে।

চলতি বছর জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর এই ৯ মাসে ঢাকাসহ দেশের ২৪টি জেলায় ৩৫টি ঘটনায় অভিযান চালিয়ে অনন্ত ৭৩ জন ভুয়া পুলিশকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে একক এবং সর্বোচ্চ ছয়জনের চক্র রয়েছে। গ্রেপ্তারের সময় তাদের কাছ থেকে প্রতারণা করে হাতিয়ে নেওয়া অর্থ, মোবাইল ফোন, মাদকদ্রব্য, স্বর্ণালংকারসহ মূল্যবান সামগ্রী উদ্ধার করা হয়েছে। এ ছাড়া প্রতারকচক্রের ব্যবহৃত ওয়াকিটকি, পোশাক, স্টিকার, পুলিশ লেখা মানিব্যাগ, চাবির রিং, ভুয়া আইডি কার্ড, পিস্তল, গুলি, খেলনা পিস্তল, হাতকড়া, মোটরসাইকেল ও প্রাইভেট কার উদ্ধার করা হয়।

গত ১৭ সেপ্টেম্বর রাজধানীর গাবতলীর তিন রাস্তার মোড়ে ট্রাফিক পুলিশ বক্সের পাশে পুলিশ সার্জেন্ট ও  টহল পুলিশের সমন্বিত তল্লাশি চৌকিতে একজন মোটরচালকের কাগজপত্র দেখতে চাইলে চালক নিজেকে সিআইডির পুলিশ ইন্সপেক্টর পরিচয় দেন। পরিচয়পত্র দেখতে চাইলে তর্কবিতর্কের এক পর্যায়ে ওই ব্যক্তি সটকে পড়তে চাইলে তাঁকে আটক করা হয়। এর আগে গত ১ আগস্ট রাজধানীর মোহাম্মদপুরে একটি মাইক্রোবাসে পুলিশের মনোগ্রাম ও সাইরেন লাগিয়ে প্রতারণা করতে বের হন মুর্তুজা আল নাছির ও জামাল হোসেন ওরফে জসিম। টের পেয়ে ওই দুই প্রতারককে গ্রেপ্তার করে ডিএমপি। এ সময় তাঁদের কাছ থেকে পুলিশের ব্যবহৃত একটি ওয়াকিটকি, সিগন্যাল লাইট, ভিআইপি লাইট ও মনোগ্রামসংবলিত স্টিকার উদ্ধার করা হয়। জব্দ করা হয় মাইক্রোবাসটি।

এদিকে চট্টগ্রামের কোতোয়ালি থানার ওসি পরিচয়ে তিন প্রতারক এক ব্যবসায়ীর কারখানার কর ও ব্যক্তিগত আয়করে অসংগতি রয়েছে এমন ভয় দেখিয়ে চাঁদাবাজি করছিল। পর্যায়ক্রমে আরো বেশি চাঁদা দাবি করে তারা ফোনে বারবার ওই ব্যবসায়ীকে হুমকি দিচ্ছিল। এক পর্যায়ে প্রতারকচক্রটিকে সন্দেহ করেন ওই ব্যবসায়ী। তিনি পুলিশকে খবর দেন। কোতোয়ালি থানা পুলিশ ওই তিন প্রতারককে শেষে গত ১৮ সেপ্টেম্বর গ্রেপ্তার করে। সংঘবদ্ধ চক্রটি পুলিশ পরিচয়ে চট্টগ্রামে প্রতারণা ও চাঁদাবাজি করে আসছিল।

এর বাইরে সম্প্রতি কিশোরগঞ্জ, গাইবান্ধা, টাঙ্গাইলসহ বেশ কয়েকটি স্থানে ভুয়া পুলিশ আটকের ঘটনা ঘটেছে।

এসব ঘটনা বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, ব্যাংক, বীমাপ্রতিষ্ঠান, ব্যবসায়ীদের অফিস, বাসা-বাড়িতে সুযোগ বুঝে প্রতারকচক্র হানা দিচ্ছে। পুলিশ পরিচয়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অনিয়মের কথা বলে কর্তৃপক্ষের কাছে চাঁদা দাবি, সড়কের পাশে বসে মোবাইলে গেম খেলা তরুণদের ভয়-ভীতি দেখানো, মাদক কারবারি আখ্যা দেওয়াসহ গ্রেপ্তারের ভয় দেখিয়ে প্রতারকচক্রটি সাধারণ মানুষের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে বিপুল অর্থ। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কন্যাপক্ষের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার মতো ঘটনাও ঘটিয়েছে চক্রটি।

আরও পড়ুন:


অ্যান্ডোরার বিপক্ষে বড় জয়, বিশ্বকাপের আরও কাছে ইংল্যান্ড

অ্যালকোহল চুরির অভিযোগ!

বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ, অন্তঃসত্ত্বা তরুণী

গাজীপুরে ট্রাকের নিচে পৃষ্ঠ হয়ে মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু


ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (মিডিয়া) ফারুক হোসেন বলেন, ‘একটু লক্ষ করলেই দেখা যাবে, যারা প্রতারণা করছে তাদের বেশভূষা, আচার-আচরণ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্যদের মতো না। তাদের আচরণ এবং তারা যেসব সরঞ্জাম ব্যবহার করছে তার ওপরও লক্ষ রাখতে হবে। গ্রেপ্তারের পর দেখা গেছে এই প্রতারকচক্রের ব্যবহৃত ওয়াকিটকি চালু না। সাদা পোশাকে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করলে অবশ্যই গায়ে জ্যাকেট, গলায় পরিচয়পত্র ঝোলানো থাকে। ভুয়া পুলিশ সদস্যরা বেশির ভাগ ক্ষেত্রে জ্যাকেট বা পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখে না। আর ওরা বেশির ভাগ সময় ব্যবহার করে খেলনা পিস্তল। তারা বাসায় ঢুকেই ডাকাতি করার মতো টাকা, অলংকারসহ মূল্যবান মালামাল হাতিয়ে নিতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে।’

তিনি আরো বলেন, ‘প্রতারণা করছে এমন অভিযোগে বিভিন্ন সময় আমরা ভুয়া পুলিশকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনছি। কোনো নাগরিকের কাছে পুলিশের সন্দেহজনক আচরণ মনে হলে তাত্ক্ষণিক সংশ্লিষ্ট থানায় জানানোর অনুরোধ করছি।’

সূত্র: কালের কণ্ঠ 

news24bd.tv রিমু

পরবর্তী খবর

প্রধানমন্ত্রী তাকে যে শাস্তি দেবেন তা মাথা পেতে নেবো : ইকবালের মা

অনলাইন ডেস্ক

প্রধানমন্ত্রী তাকে যে শাস্তি দেবেন তা মাথা পেতে নেবো : ইকবালের মা

কুমিল্লার পূজা মণ্ডপে পবিত্র কোরআন শরিফ রাখা ব্যক্তিকে শনাক্ত করেছে পুলিশ। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে তাকে চিহ্নিত করে পুলিশ। এদিকে পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখা সেই যুবক ইকবাল হোসেনের (৩০) দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন তার মা বিবি আমেনা।

ইকবালের মা বিবি আমেনা  বলেন, ‘সে ১৬-১৭ বছর বয়স থেকে মাদকাসক্ত হয়ে পাগলামি করে আসছে। তার দ্বিতীয় স্ত্রী চলে যাওয়ার পর থেকে সে আমার মায়ের কাছে থাকতো। ঘটনার দুদিন আগে (১১ অক্টোবর) বিকেলে নেশা করে আমার সঙ্গে দেখা করতে বাসায় আসে। কেন এসেছো জিজ্ঞেস করলে কথা না বলে চলে যায়। এরপর থেকে আর বাসায় আসেনি।

তিনি বলেন, ভিডিওতে দেখেছি আমার ছেলে পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রেখেছে। এজন্য প্রধানমন্ত্রী আমার ছেলেকে যে শাস্তি দেবেন আমরা তা মাথা পেতে নেবো। এ ঘটনায় তার সঙ্গে যদি আরও কেউ জড়িত থাকে তাদেরও আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানাই।

এদিকে কুমিল্লার পূজামণ্ডপে পাওয়া পবিত্র কোরআন শরীফটি বাংলাদেশে ছাপা হয়নি, বরং এটি সৌদি আরব থেকে আনা হতে পারে বলে জানিয়েছে পুলিশ।ছাপা, কাগজ ও ক্যালিগ্রাফির কাজ থেকে আপাতদৃষ্টিতে এটি সৌদি আরবে ছাপা বলে মনে করছে পুলিশ। কোরআন শরীফটি ঘটনার আগের রাতেই আনা হয়েছে বলে ধারণা করছেন তদন্তকারীরা।

অভিযুক্ত ইকবাল কুমিল্লা মহানগরীর ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের দ্বিতীয় মুরাদপুর লস্করপুকুরপাড় এলাকার নূর আহম্মদ আলমের ছেলে। তাকে গ্রেফতারে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একাধিক টিম কাজ করছে।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সকালে দ্বিতীয় মুরাদপুর লস্করপুকুর এলাকায় গিয়ে জানা যায়, সিসি টিভি ক্যামেরার ফুটেজে শনাক্ত হওয়া ইকবাল হোসেন দীর্ঘদিন ধরে মাদকাসক্ত এবং মানসিক ভারসাম্যহীন হিসেবে পরিচিত। তিন ভাই ও দুই বোনের মধ্যে সবার বড় তিনি। এরই মধ্যে বিয়ে করেছেন দুটি।

আরও পড়ুন


বঙ্গবন্ধু যেতেই গুলি বন্ধ করল বিডিআর

মানুষের সঙ্গে যেভাবে কথা বলতেন বিশ্বনবী

সূরা বাকারা: আয়াত ১২৮-১৩৩, আল্লাহর নির্দেশ ও হয়রত ইব্রাহিম (আ.)

কলকাতা প্রেস ক্লাবে ‘বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার


প্রথম বিয়ে করেছিলেন কুমিল্লার পার্শ্ববর্তী চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলায়। ওই সংসারে ১০ বছর বয়সী একটি ছেলেসন্তান রয়েছে। তার পাগলামির কারণে সাত-আট বছর আগে স্ত্রী আশা বেগম তাকে ছেড়ে অন্যত্র বিয়ে করে সংসার করছেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা ইকবালের বিষয়ে যা বললো তার মা

অনলাইন ডেস্ক

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা ইকবালের বিষয়ে যা বললো তার মা

কুমিল্লার পূজা মণ্ডপে পবিত্র কোরআন শরিফ রাখা ব্যক্তিকে শনাক্ত করেছে পুলিশ। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে তাকে চিহ্নিত করে পুলিশ। এদিকে পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখা সেই যুবক ইকবাল হোসেনের (৩০) দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন তার মা বিবি আমেনা।

ইকবালের মা বিবি আমেনা  বলেন, ‘সে ১৬-১৭ বছর বয়স থেকে মাদকাসক্ত হয়ে পাগলামি করে আসছে। তার দ্বিতীয় স্ত্রী চলে যাওয়ার পর থেকে সে আমার মায়ের কাছে থাকতো। ঘটনার দুদিন আগে (১১ অক্টোবর) বিকেলে নেশা করে আমার সঙ্গে দেখা করতে বাসায় আসে। কেন এসেছো জিজ্ঞেস করলে কথা না বলে চলে যায়। এরপর থেকে আর বাসায় আসেনি।

তিনি বলেন, ভিডিওতে দেখেছি আমার ছেলে পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রেখেছে। এজন্য প্রধানমন্ত্রী আমার ছেলেকে যে শাস্তি দেবেন আমরা তা মাথা পেতে নেবো। এ ঘটনায় তার সঙ্গে যদি আরও কেউ জড়িত থাকে তাদেরও আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানাই।

এদিকে কুমিল্লার পূজামণ্ডপে পাওয়া পবিত্র কোরআন শরীফটি বাংলাদেশে ছাপা হয়নি, বরং এটি সৌদি আরব থেকে আনা হতে পারে বলে জানিয়েছে পুলিশ।ছাপা, কাগজ ও ক্যালিগ্রাফির কাজ থেকে আপাতদৃষ্টিতে এটি সৌদি আরবে ছাপা বলে মনে করছে পুলিশ। কোরআন শরীফটি ঘটনার আগের রাতেই আনা হয়েছে বলে ধারণা করছেন তদন্তকারীরা।

অভিযুক্ত ইকবাল কুমিল্লা মহানগরীর ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের দ্বিতীয় মুরাদপুর লস্করপুকুরপাড় এলাকার নূর আহম্মদ আলমের ছেলে। তাকে গ্রেফতারে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একাধিক টিম কাজ করছে।

আরও পড়ুন


বঙ্গবন্ধু যেতেই গুলি বন্ধ করল বিডিআর

মানুষের সঙ্গে যেভাবে কথা বলতেন বিশ্বনবী

সূরা বাকারা: আয়াত ১২৮-১৩৩, আল্লাহর নির্দেশ ও হয়রত ইব্রাহিম (আ.)

কলকাতা প্রেস ক্লাবে ‘বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার


বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সকালে দ্বিতীয় মুরাদপুর লস্করপুকুর এলাকায় গিয়ে জানা যায়, সিসি টিভি ক্যামেরার ফুটেজে শনাক্ত হওয়া ইকবাল হোসেন দীর্ঘদিন ধরে মাদকাসক্ত এবং মানসিক ভারসাম্যহীন হিসেবে পরিচিত। তিন ভাই ও দুই বোনের মধ্যে সবার বড় তিনি। এরই মধ্যে বিয়ে করেছেন দুটি।

প্রথম বিয়ে করেছিলেন কুমিল্লার পার্শ্ববর্তী চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলায়। ওই সংসারে ১০ বছর বয়সী একটি ছেলেসন্তান রয়েছে। তার পাগলামির কারণে সাত-আট বছর আগে স্ত্রী আশা বেগম তাকে ছেড়ে অন্যত্র বিয়ে করে সংসার করছেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

আর আট দিন ডিএমপি কমিশনারের দায়িত্বে আছেন শফিকুল ইসলাম

অনলাইন ডেস্ক

আর আট দিন ডিএমপি কমিশনারের দায়িত্বে আছেন শফিকুল ইসলাম

মেয়াদ বাড়তে পারে এমন গুঞ্জনের মধ্যেই নির্ধারিত মেয়াদ শেষে ৩০ অক্টোবর থেকে অবসরে যাচ্ছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম। আর মাত্র আট দিন রাজধানীর পুলিশপ্রধানের দায়িত্বে আছেন তিনি।  

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে জারি করা এক আদেশে তাকে অবসরে যাওয়ার কথা বলা হয়েছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপসচিব ধনঞ্জয় কুমার দাশ স্বাক্ষরিত এক আদেশে বলা হয়েছে— আগামী ২৯ অক্টোবর তার চাকরির বয়স ৫৯ হওয়ায় সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮-এর ৪৩(১)(ক) অনুযায়ী তাকে সরকারি চাকরি থেকে অবসর দেওয়া হলো।

তার অনুকূলে ১৮ মাসের মূল বেতনের পরিমাণ অর্থ ল্যাম্পগ্রান্টসহ এক বছর অবসর ও অবসরোত্তর ছুটি (পিআরএল) মঞ্জুর করা হলো। তিনি বিধি অনুযায়ী অবসর ও অবসরোত্তর ছুটিকালীন সুবিধাদি প্রাপ্য হবেন।
ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম ২০১৯ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর ডিএমপি কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছিলেন।  এর আগে তিনি সিআইডিপ্রধানের দায়িত্ব পালন করেন। সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন স্থানে হামলার ঘটনার কারণে তার চাকরির মেয়াদ বাড়ানোর গুঞ্জন ওঠে।  অবশেষে সময়মতোই তাকে অবসরে পাঠানো হলো।

আরও পড়ুন


বঙ্গবন্ধু যেতেই গুলি বন্ধ করল বিডিআর

মানুষের সঙ্গে যেভাবে কথা বলতেন বিশ্বনবী

সূরা বাকারা: আয়াত ১২৮-১৩৩, আল্লাহর নির্দেশ ও হয়রত ইব্রাহিম (আ.)

কলকাতা প্রেস ক্লাবে ‘বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার


 

২০১৯ সালের ৭ সেপ্টেম্বর ডিএমপি কমিশনারের দায়িত্ব নেওয়া মোহা. শফিকুল ইসলাম বিসিএস অষ্টম ব্যাচের কর্মকর্তা।  ১৯৮৯ সালের ২০ ডিসেম্বর এএসপি হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করেন।  তার গ্রামের বাড়ি চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায়।  তিনি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। কর্মজীবনে তিনি নারায়ণগঞ্জ, পটুয়াখালী, সুনামগঞ্জ ও কুমিল্লা জেলায় পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

সব মিটারগেজ রেলপথকে ব্রডগেজে রূপান্তর করা হবে: রেলমন্ত্রী

সৈয়দ নোমান, ময়মনসিংহ

সব মিটারগেজ রেলপথকে ব্রডগেজে রূপান্তর করা হবে: রেলমন্ত্রী

দেশের সকল মিটারগেজ রেলপথকে পর্যায়ক্রমে ব্রডগেজ লাইনে রূপান্তর এবং ময়মনসিংহ রেল স্টেশনকে ভবিষ্যতে একটি আইকনিক স্টেশন হিসেবে পুননির্মাণ করা হবে বলে জানান রেলপথ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ময়মনসিংহ রেল স্টেশনে প্ল্যাটফর্ম উঁচুকরণ, একসেস কন্ট্রোল নির্মাণ এবং স্টেশন রিনোভেশন কাজের শুভ উদ্বোধন উপলক্ষ্যে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

এছাড়াও তিনি ময়মনসিংহ অঞ্চলে অন্যান্য স্টেশনের আধুনিকায়ন, জয়দেবপুর থেকে জামালপুর পর্যন্ত ডাবল লাইন নির্মাণ, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্টেশন চালুকরণ সহ অন্যান্য বন্ধ স্টেশন চালু করা, ময়মনসিংহের সাথে ঢাকা এবং চট্টগ্রামের নতুন ট্রেন চালু করা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দেন।

আরও পড়ুন:


পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা ওই ব্যক্তি ‌‘ভবঘুরে’

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা হয় রাত আড়াইটা থেকে ৬টার মধ্যে

নিজের শিশুকন্যাকে ব্লেডের ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করল বাবা


এসময় অন্যদের মাঝে আরও উপস্থিত ছিলেন, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব সেলিম রেজা, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক ধীরেন্দ্রনাথ মজুমদার, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইউসুফ খান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জহিরুল হক, সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন, জেলা প্রশাসক এনামুল হক, পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামানসহ প্রমুখ।

মতবিনিময় সভায় বক্তব্য প্রদানের আগে জেলা আওয়ামী লীগ ও অন্যান্য সহযোগী সহযোগী সংগঠন এবং রেলওয়ে শ্রমিক লীগের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

news24bd.tv/তৌহিদ

পরবর্তী খবর

দেশে ২৪ ঘণ্টায় আবারও মৃত্যু বাড়ল

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশে ২৪ ঘণ্টায় আবারও মৃত্যু বাড়ল

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় রোগী শনাক্ত হয়েছে ২৪৩ জন।

এর আগে গতকাল বুধবার (২০ অক্টোবর) ৬ জনের মৃত্যু এবং ৩৬৮ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনা পরিস্থিতি-সংক্রান্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

বিস্তারিত আসছে...

আরও পড়ুন:


সারারাত যৌনকর্মে সময় না দেয়ায় হত্যা!

অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

লালমনিরহাটে বন্যায় বিধ্বস্ত হয়ে দুই উপজেলা বিদ্যুৎ বিহীন

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা কে এই ইকবাল?


news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর