দক্ষিণাঞ্চলে হবে দ্বিতীয় পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র: শেখ হাসিনা

অনলাইন ডেস্ক

দক্ষিণাঞ্চলে হবে দ্বিতীয় পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র: শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তার সরকার দেশের ক্রমবর্ধমান বিদ্যুতের চাহিদা মেটাতে দেশের দক্ষিণাঞ্চলেই আরেকটি নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্ল্যান্ট স্থাপন করবে।

পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার রূপপুরে নির্মাণাধীন দেশের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের মূল যন্ত্র রি-অ্যাক্টর প্রেশার ভেসেল (আরএনপিপি-পারমাবিক চুল্লিপাত্র) স্থাপনের কাজের উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী রোববার দুপুর পৌনে ১২টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে এর উদ্বোধন করেন। 

শেখ হাসিনা বলেন, আরেকটি পাওয়ার প্ল্যান্ট আমরা করব। আমার ইচ্ছা পদ্মার ওপারেই অর্থাৎ দক্ষিণাঞ্চলে করার। আমরা জায়গা খুঁজছি এবং আশা করি, এ ব্যাপারে খুব একটা অসুবিধা হবে না।

তিনি বলেন, এখানে যদি আরেকটি নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্ল্যান্ট আমরা করতে পারি, তা হলে বিদ্যুতের জন্য আমাদের আর অসুবিধা হবে না।

আরও পড়ুন:


রোববার রাজধানীর যেসব এলাকার মার্কেট বন্ধ থাকবে

প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ১৩ বছর বয়সী কিশোরীকে দুদিন ধরে ধর্ষণ

নির্বাচন কমিশন নিয়ে রাজনীতিতে আবারও উত্তাপ, যা বলছে বিএনপি-আ.লীগ

পল্লবী থেকে উধাও হওয়া সেই ৩ বান্ধবীকে দেওয়া হল পরিবারের জিম্মায়


প্রধানমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-২ ও আমরা নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। আর এই পাওয়ার প্ল্যান্টটা হয়ে যাওয়ার পর আমরা দক্ষিণাঞ্চলে জায়গা খুঁজছি। যদিও দক্ষিণাঞ্চলে শক্ত মাটিওয়ালা জায়গা পাওয়া খুবই কঠিন। 

তিনি বলেন, বিভিন্ন দিক এবং বিভিন্ন জায়গা আমরা সার্ভে করছি, আরেকটি পাওয়ার প্ল্যান্ট আমরা করব। কোথায় ভালো জায়গা পাই এবং আমরা সেটি করতে পারব। 

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা বহুমুখী বিদ্যুৎ উৎপাদন করে যাচ্ছি এই জন্য যে, এই বিদ্যুৎ সুবিধা যাতে মানুষ পায় এবং এটা যাতে অব্যাহত থাকে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি মনে করি, এই বিদ্যুৎকেন্দ্রের বিদ্যুৎ যখন ঘরে ঘরে পৌঁছে যাবে, ইতোমধ্যে আমরা সঞ্চালন লাইন নির্মাণের কাজ শুরু করে দিয়েছি। ২০২৩ সালে আমাদের প্রথম ইউনিট এবং ২০২৪ সালে দ্বিতীয় ইউনিটের কাজ শুরু হয়ে যাবে। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের মানুষের আর্থসামাজিক উন্নতি আরও ত্বরান্বিত হবে, সেটিই আমরা বিশ্বাস করি।

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, এই সময়ে আমরা এই নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্ল্যান্টের কাজ এগিয়ে নিয়ে যেতে পারলাম আমরা, বিশেষ করে রি-অ্যাক্টর প্রেশার ভেসেল আমরা স্থাপন করলাম। যেটি সত্যিই আমাদের জন্য অত্যন্ত গৌরবের। পাশাপাশি ২০৪১ সালের মধ্যে এই উন্নয়নশীল বাংলাদেশকেই উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়তে চাই।

তিনি বলেন, আজকে আমরা উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পেয়েছি। কিন্তু এখানেই থেমে গেলে চলবে না, ’৪১-এ উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলদেশ আমরা গড়ব।

দেশ ২০৭১ সালে স্বাধীনতার শতবর্ষ উদযাপন করবে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সে সময়ে আগামী প্রজন্ম একটি সুন্দর, আধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন ও সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবেই সেটি উদযাপন করবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।

এই দেশকে আর যেন কোনো দিন পিছিয়ে পড়তে না হয়, সে জন্য শতবর্ষ মেয়াদি ডেল্টা প্ল্যানও তার সরকার করে দিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে সরকারপ্রধান বলেন, আর যেন কোনো শকুনির থাবা না পড়ে বাংলাদেশের ওপর। বাংলাদেশের এই উন্নতি এবং অগ্রগতি যেন অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যায়।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন রোসাটমের মহাপরিচালক অ্যালেক্সি লিখাচেভ। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সচিব জিয়াউল হাসান স্বাগত বক্তৃতা করেন।  সূত্র: বাসস 

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

হাফ পাস শুধুমাত্র ঢাকায় কার্যকর হবে বললেন এনায়েত উল্লাহ

অনলাইন ডেস্ক

হাফ পাস শুধুমাত্র ঢাকায় কার্যকর হবে বললেন এনায়েত উল্লাহ

খন্দকার এনায়েত উল্ল্যাহ

আন্দোলনের মুখে গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের অর্ধেক ভাড়া কার্যকরের ঘোষণা দিলেও ঢাকার বাইরে শিক্ষার্থীদের পুরো ভাড়াই দিতে হবে। আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্ল্যাহ এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানিয়েছেন।

আজ সকাল সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভিনিউতে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয়।  

খন্দকার এনায়েত বলেন, ভ্রমণকালে বাসে ছাত্র-ছাত্রীদের অবশ্যই নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বৈধ পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখতে হবে। প্রয়োজনে তা প্রদর্শন করতে হবে। ব্যক্তি মালিকানাধীন বাসে চলাচলের ক্ষেত্রে সকাল ৭টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা হাফ ভাড়ার সুবিধা পাবে।সরকারি ছুটিসহ স্কুল-কলেজের মৌসুমি ছুটির সময়গুলোতে হাফ ভাড়া কার্যকর হবে না।


আরও পড়ুন:

গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর

কুমিল্লায় কাউন্সিলর হত্যা: ৬ হামলাকারী শনাক্ত


তবে শর্তগুলো শুধুমাত্র ঢাকার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য বলে জানান খন্দকার এনায়েত। সেক্ষেত্রে ঢাকার বাইরের জেলাগুলোতে যেসব শিক্ষার্থীরা চলাচল করবে তাদের বাসের সম্পূর্ণ ভাড়া পরিশোধ করতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে হাফ ভাড়ার দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দ্রুত ঘরে ফেরার অনুরোধ করেন তিনি।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর

অনলাইন ডেস্ক

গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর

ফাইল ছবি

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে গণপরিবহনে ‘হাফ ভাড়া’ কার্যকর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাস মালিকরা। এক্ষেত্রে কিছু শর্তও নির্ধারণ করে দিয়েছেন তারা। আগামীকাল (১ ডিসেম্বর) থেকে হাফ ভাড়ার সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে।

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন। বেলা পৌনে ১২টার দিকে রাজধানীর কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভিনিউয়ে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় তিনি বলেন, আগামীকাল বুধবার (১ ডিসেম্বর) থেকে গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের জন্য হাফ পাস ভাড়া কার্যকর। তবে সকাল ৮ থেকে রাত ৮ পর্যন্ত এই ভাড়া নেবে গণপরিবহন। আর ছুটির দিনে এই হাফ পাস ভাড়া কার্যকর হবে না। শুধু রাজধানীতে এটি কার্যকর থাকবে বলেও জানান তিনি।

বিআরটিসি বাসে হাফ ভাড়া কার্যকরে দেওয়া শর্তগুলোর মতো বাস মালিক সমিতিও শর্ত আরোপ করছে। আর এই শর্তগুলো প্রায় একইরকম।

তিনি আরও জানান, ভ্রমণকালে বিআরটিসি বাসের মতোই ব্যক্তি মালিকানাধীন বাসে ছাত্র-ছাত্রীদের অবশ্যই নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বৈধ পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখতে হবে। প্রয়োজনে তা প্রদর্শন করতে হবে। 

এছাড়াও ছুটির দিন হাফ ভাড়া কার্যকর হবে না। হাফ ভাড়া শুধু ঢাকায় সীমাবদ্ধ, অন্যান্য জেলার জন্য নয় বলে জানিয়েছেন খন্দকার এনায়েত উল্যাহ।

বিআরটিসি বাসে চলাচলের ক্ষেত্রে সকাল ৭টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা হাফ ভাড়ার সুবিধা পাবে। তবে ব্যক্তি মালিকানাধীন বাসে এ সুবিধা শুরু হবে সকাল ৮টায়, চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত।

আরও পড়ুন


চাঁপাইনবাবগঞ্জে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে কলেজছাত্র নিহত

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

হাফ পাসের বিষয়ে সিদ্ধান্ত আজ

অনলাইন ডেস্ক

হাফ পাসের বিষয়ে সিদ্ধান্ত আজ

গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের জন্য হাফ পাসের (অর্ধেক ভাড়া) বিষয়ে আজ চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হতে পারে। আজ মঙ্গলবার অর্ধেক ভাড়ার বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করবেন পরিবহন মালিকরা।

সোমবার (২৯ নভেম্বর) এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির দপ্তর সম্পাদক সামদানী খন্দকার।

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) সকাল ১১টায় কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভিনিউতে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

সামদানী খন্দকার জানান, এই সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মহানগরে বাসে হাফ ভাড়ার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেওয়া হবে। সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্ল্যাহ উপস্থিত থাকবেন।

এর আগে, শিক্ষার্থীদের জন্য গণপরিবহনে হাফ পাস বাস্তবায়নে পরিবহন নেতাদের সঙ্গে দুইবার বৈঠক করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। কিন্তু কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই এসব বৈঠক শেষ হয়েছে। বৈঠকে উল্টো ভর্তুকি দাবি করেছেন বাসমালিকরা।

আরও পড়ুন


বাবা-মায়ের পর পরিবারের তৃতীয় চেয়ারম্যান সাফিয়া পারভীন

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

স্কুলছাত্র নিহত: ৯ বাসে আগুনের ঘটনায় যা বলছে পুলিশ

অনলাইন ডেস্ক

স্কুলছাত্র নিহত: ৯ বাসে আগুনের ঘটনায় যা বলছে পুলিশ

রাজধানীর রামপুরায় মাঈনুদ্দিন নামের এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে বাস থেকে ধাক্কা মেরে ফেলে দিয়ে নিহতের ঘটনায় বাসচালককে আটক করেছে পুলিশ। ঘাতক বাসটিকেও জব্দ করা হয়েছে।

ওই ছাত্র নিহতের ঘটনায় উত্তেজিত জনতা ৯টি বাসে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। তবে কারা আগুন দিয়েছে তা খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এটি উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে হতে পারে বলেও মনে করছে পুলিশ।

ঘটনাস্থল থেকে খিলগাঁও ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার হাসান আলী গণমাধ্যমকে জানান, বাস ভাঙচুরের পাশাপাশি ৯টি বাসে আগুন দেওয়া হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট এসব বাসের আগুন নেভায়।

এদিকে, দুর্ঘটনাস্থলে গিয়ে সাংবাদিকদের ডিএমপির মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. আ. আহাদ জানান, আমরা যতদূর জানি উত্তেজিত জনতা এসব আগুন ধরিয়েছে। তবে কোনো সুযোগসন্ধানী কেউ দুর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বাসে আগুন দিয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখবে পুলিশ। এছাড়া কতগুলো বাসে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে তা পরে জানানো হবে।

ডিসি আরও বলেন, আমরা নিহতের ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি বলেছেন, তারা ভাঙচুর বা আগুন দেননি। অন্য কেউ এসে এসব করেছে। এ ধরনের ঘটনা কাম্য নয়। সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিট ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ ও আনুষ্ঠানিকতা শেষ করার পর সড়কটি খুলে দেওয়া হবে।

এর আগে, সোমবার রাত পৌনে এগারোটার দিকে রামপুরা বাজারের সামনে বাসচাপায় মাঈনুদ্দিনের মৃত্যু হয়। নিহত শিক্ষার্থী একরামুন্নেসা স্কুলের এসএসসি পরীক্ষার্থী।

আরও পড়ুন


কাউন্সিলরসহ জোড়া খুন: দুই আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

আটটি বাসে আগুন দিল উত্তেজিত জনতা

অনলাইন ডেস্ক

আটটি বাসে আগুন দিল উত্তেজিত জনতা

রাজধানীর রামপুরায় অনাবিল পরিবহনের বাসচাপায় এক শিক্ষার্থী মারা গেছে। শিক্ষার্থীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ঘটনাস্থলে জড়ো হয়ে সড়ক অবরোধ করেছে উত্তেজিত জনতা। পাশাপাশি উত্তেজিত জনতা বাসে একে একে আটটি বাসে আগুন দিয়েছে। নিহত শিক্ষার্থীর নাম মাঈনুদ্দিন। সে রামপুরা একরামুনেছা স্কুল অ্যান্ড কলেজের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল। 

সোমবার রাতে রামপুরা বাজারের সামনে এ ঘটনা ঘটে। উত্তেজিত জনতা বাসগুলোতে আগুন দেওয়ার পাশাপাশি ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করছে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের কন্ট্রোল রুমের ডিউটি অফিসার এরশাদ হোসেন বলেন, ১১টার পরপরই রামপুরার আবুল হোটেলের পাশে একটি বাসে আগুন দেয়ার সংবাদ পাই। সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিট পাঠানো হয়। ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা গিয়ে দেখেন আরও বেশ কয়েকটি বাসে আগুন দেওয়া হয়েছে। পরে ইউনিট সংখ্যা বাড়ানো হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ওই ছাত্রের সঙ্গে বাস ভাড়া নিয়ে তর্কে জড়িয়ে পড়ে বাসের হেলপার। পরে তাকে ধাক্কায় দিলে, রাস্তায় পড়ে যায় সে। এরপর চলন্ত বাস, তার মাথার উপর দিয়ে চালিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনা স্থলেই তার মৃত্যু হয়।

রামপুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, বাসচাপায় রামপুরা বাজারের সামনে একজন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় উত্তেজিত জনতা সড়ক অবরোধ ও বাসে আগুন দিয়েছে। ঘটনাটি আদৌ কীভাবে ঘটেছে পুলিশ তা জানার চেষ্টা করছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর