‘একই অপরাধে কাউকে দুইবার দণ্ডিত করা যাবে না’

অনলাইন ডেস্ক

মানুষের অধিকার মানবাধিকার। বাংলাদেশের সংবিধানের তৃতীয় ভাগে মৌলিক অধিকারগুলো সুস্পষ্টভাবে সন্নিবেশিত আছে। কারোর ক্ষেত্রেই এই অধিকারগুলো ক্ষুণ্ণ করা যাবে না। মানবাধিকারসহ আইনের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপচারিতায় এমনটি বলেছেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মোতাহার হোসেন সাজু। 

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, সংবিধানের ২৭ থেকে ৪৩ অনুচ্ছেদ পর্যন্ত মৌলিক অধিকারের সুরক্ষার বিষয়টি রয়েছে। তিনি বলেন, অপরাধ সংঘটনের সময়কালে যে আইনটি বলবত ছিল- সেই অনুসারে বিচার এবং দণ্ড প্রদান করতে হবে। সংবিধানের ৩৫ (১) ধারায় তা বলা আছে। তিনি উদাহরণ দিয়ে বলেন, '১৯৯৫ সালের নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনে যদি বলা থাকে এই অপরাধের সাজা মৃত্যুদণ্ড। সেটা পরবর্তীতে কোনো আইন করে সেখানে দেখা গেছে সেই দণ্ড কমিয়ে আনা হয়, কোনো অবস্থাতেই সেই দণ্ড কমিয়ে আনা যাবে না। অর্থাৎ দণ্ড যেটা ছিল সেটার আলোকেই বিচার করতে হবে। অথবা দেখা গেছে দণ্ড যদি থেকে থাকে ১০ বছর সর্বোচ্চ সেখানে পরবর্তীতেও যদি কোনো আইন করে সেটাতে আরো বেশি অর্থাৎ ক্যাপিটাল পানিশমেন্ট বা মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হলো। কিন্তু সেই মৃত্যুদণ্ডও দেওয়া যাবে না।' 

‌যদি কোনো ব্যক্তি ফৌজদারি কোনো অপরাধ করে সে ক্ষেত্রে সে জন্য একবারই তাকে বিচারে সোপর্দ করা এবং সাজা দেওয়া যাবে বলেও তিনি জানান। এ ক্ষেত্রে তিনি সংবিধানের ৩৫ (২) ধারার কথা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, ওই একই অপরাধের জন্য যদি একই সময়ে সংগঠিত হয়ে থাকে তাহলে কোনো অবস্থাতেই তাকে দ্বিতীয়বার বিচারের আওতায় সোপর্দ করা যাবে না, তাকে দণ্ডও দেওয়া যাবে না।

আরও পড়ুন:


দক্ষিণাঞ্চলে হবে দ্বিতীয় পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র: শেখ হাসিনা

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের সভাপতির বাসায় ককটেল হামলার অভিযোগ

বিনয়কে দুর্বলতা ভাববেন না

বিএফইউজের নির্বাচন আয়োজনে আর বাধা নেই


অ্যাডভোকেট মোতাহার হোসেন বলেন, ‌'আমরা মাঝে মধ্যে দেখি একই ব্যক্তি দ্বিতীয়বারও একই রকম প্রসিকিউড হচ্ছে অর্থাৎ আইনের কাছে সোপর্দ হচ্ছে। পুলিশ ল-এনফোর্সিং এজেন্সি তাকে অ্যারেস্ট করে নিয়ে যাচ্ছে।' তিনি আদালতের উদাহরণ দিয়ে বলেন, ‌'যদি দেখা যায় সেকেন্ড অপরাধ না ঘটার পরেও আগের একমাত্র অপরাধকে কেন্দ্র করে দ্বিতীয়বার মামলা হয়েছে তাহলে কোর্ট আমলে নেয় প্রথমটাকে। প্রথম মামলাটাকেই কন্টিনিউ করে দ্বিতীয় মামলাকে কোয়াশ করে দেয় বা বাদ করে দিয়ে প্রথমটাকে নিয়েই অগ্রসর হতে থাকে।' 

অ্যাডভোকেট মোতাহার হোসেন সাজু আরো বলেন, যে অপরাধ ব্যক্তি করে নাই সেটা তাঁর মুখ দিয়ে আমরা জোর করে বাধ্য করতে পারি না। অর্থাৎ যে ব্যক্তি যেটা বলতে ইচ্ছুক না সেই কথাগুলো, সেই অপরাধগুলো তাঁর মুখ দিয়ে আমরা জোর করে বাধ্য করতে পারি না। এটা সবিধানের ৩৫ (৩) -এ বাধিত। একইভাবে থানায় বা অন্য যেকোনো সেন্টারে নিয়ে নির্যাতন করা যাবে না। এ বিষয়ে ৩৫ (৪) অনুচ্ছেদে সুস্পষ্টভাবে নির্দেশনা দেওয়া আছে জানিয়ে তিনি বলেন, এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটলে উচ্চ আদালতে গিয়ে মামলা ফাইল করে তাঁর প্রতিকারের ব্যবস্থা করতে পারে।

news24bd.tv নাজিম

অ্যাডভোকেট মোতাহার হোসেন বলেন, ‌'আমরা মাঝে মধ্যে দেখি একই ব্যক্তি দ্বিতীয়বারও একই রকম প্রসিকিউড হচ্ছে অর্থাৎ আইনের কাছে সোপর্দ হচ্ছে। পুলিশ ল-এনফোর্সিং এজেন্সি তাকে অ্যারেস্ট করে নিয়ে যাচ্ছে।' তিনি আদালতের উদাহরণ দিয়ে বলেন, ‌'যদি দেখা যায় সেকেন্ড অপরাধ না ঘটার পরেও আগের একমাত্র অপরাধকে কেন্দ্র করে দ্বিতীয়বার মামলা হয়েছে তাহলে কোর্ট আমলে নেয় প্রথমটাকে। প্রথম মামলাটাকেই কন্টিনিউ করে দ্বিতীয় মামলাকে কোয়াশ করে দেয় বা বাদ করে দিয়ে প্রথমটাকে নিয়েই অগ্রসর হতে থাকে।' 

অ্যাডভোকেট মোতাহার হোসেন সাজু আরো বলেন, যে অপরাধ ব্যক্তি করে নাই সেটা তাঁর মুখ দিয়ে আমরা জোর করে বাধ্য করতে পারি না। অর্থাৎ যে ব্যক্তি যেটা বলতে ইচ্ছুক না সেই কথাগুলো, সেই অপরাধগুলো তাঁর মুখ দিয়ে আমরা জোর করে বাধ্য করতে পারি না। এটা সবিধানের ৩৫ (৩) -এ বাধিত। একইভাবে থানায় বা অন্য যেকোনো সেন্টারে নিয়ে নির্যাতন করা যাবে না। এ বিষয়ে ৩৫ (৪) অনুচ্ছেদে সুস্পষ্টভাবে নির্দেশনা দেওয়া আছে জানিয়ে তিনি বলেন, এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটলে উচ্চ আদালতে গিয়ে মামলা ফাইল করে তাঁর প্রতিকারের ব্যবস্থা করতে পারে।

পরবর্তী খবর

নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন: ওসি-এসআইকে বরখাস্তের নির্দেশ

অনলাইন ডেস্ক

নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন: ওসি-এসআইকে বরখাস্তের নির্দেশ

নোয়াখালী বেগমগঞ্জ নারীর বিবস্ত্র করে অবমাননার ঘটনায় ওসিসহ এসআইকে বরখাস্তের নির্দেশ হাইকোর্টের।

বিস্তারিত আসছে...

আরও পড়ুন:


পাগলীর জন্ম নেওয়া সন্তানের পিতা এমপি বদি

টস জিতে ফিল্ডিংয়ে পাকিস্তান

শোয়েব মালিককে ‘দুলাভাই’ ‘দুলাভাই’ বলে ডাকল ভারতীয় দর্শকরা (ভিডিও)

পরবর্তী খবর

মাকে পিটিয়ে হত্যা; ছেলের মৃত্যুদণ্ড

অনলাইন ডেস্ক

মাকে পিটিয়ে হত্যা; ছেলের মৃত্যুদণ্ড

মাকে পিটিয়ে হত্যা মামলায় ছেলে জিয়াউল হককে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। ২০১৮ সালের ১৩ জুন   জিয়াউল হক এই ঘটনা ঘটায়।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক দিলীপ কুমার ভৌমিক এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জিয়াউল হক সদর উপজেলার শিবপুর গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে।

জানা যায়, ২০১৮ সালের ১৩ জুন আসামি জিয়াউল হক তার ছোট ভাই জুবায়ের খন্দকারের কাছে টাকা চায়। জুবায়ের তাকে টাকা না দিলে ক্রিকেট ব্যাট হাতে জিয়াউল তাকে মারতে আসেন। এ সময় মা জহুরা বেগম (৬০) জুবায়ের বাঁচাতে এগিয়ে আসলে জিয়াউল মায়ের মাথায় ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে এলোপাথাড়ি আঘাত করে। পরে আহত অবস্থায় জহুরা বেগমকে সদর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন:

হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দিরে হামলা, বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ

ঘটনার পরদিন জহুরা বেগমের স্বামী নুরুল ইসলাম ছেলে জিয়াউল হককে একমাত্র আসামি করে থানায় হত্যা মামলা করেন। মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন ফারুক আহমেদ প্রিন্স ও আসামিপক্ষের ছিলেন অ্যাডভোকেট মাসুদার রহমান বিশ্বাস।

রাষ্ট্রপক্ষের আইজীবী পাবলিক প্রসিউকিটর ফারুক আহমেদ প্রিন্স এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

news24bd.tv/এমি-জান্নাত  

পরবর্তী খবর

হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দিরে হামলা, বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ

অনলাইন ডেস্ক

হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দিরে হামলা, বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ

কুমিল্লা, চাঁদপুর, নোয়াখালীসহ দেশের ৬ জেলায় হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দিরে হামলা ভাঙচুরের ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। তাদের নিরাপত্তা কেন দেওয়া হবে না জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়েছে।

বিস্তারিত আসছে...

আরও পড়ুন:


পাগলীর জন্ম নেওয়া সন্তানের পিতা এমপি বদি

শোয়েব মালিককে ‘দুলাভাই’ ‘দুলাভাই’ বলে ডাকল ভারতীয় দর্শকরা (ভিডিও)

পরবর্তী খবর

মেডিকেল শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন প্রধান বিচারপতির

অনলাইন ডেস্ক

মেডিকেল শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন প্রধান বিচারপতির

মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার উত্তরপত্র একই কলেজে শিক্ষকরা না দেখে এবং রেজাল্ট শিট তৈরি না করে ভিন্ন মেডিকেল কলেজে পাঠিয়ে সেই খাতা মূল্যায়ন ও রেজাল্ট শিট করানো উচিত বলে মনে করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) এক মামলার শুনানিতে পাঁচ বিচারপতির ভার্চুয়াল আপিল বেঞ্চে প্রধান বিচারপতি এ বিষয়ে কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘দেশের কোনো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার খাতা তো সেই একই বিশ্ববিদ্যালয় দেখে না। অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে সে খাতা দেখতে পাঠানো হয়। কিন্তু মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীদের রিটেনের খাতা কাটা হয় এবং রেজাল্ট শিট করা হয় যে কলেজের শিক্ষার্থী সেই একই কলেজে।’

বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল (বিএমডিসি) এর পক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার তানজীব উল আলমের উদ্দেশে করে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেন, ‘মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার খাতা একই কলেজে না দেখে এবং রেজাল্ট শিট না করে (ডিফরেন্ট) ভিন্ন মেডিকেল কলেজে পাঠিয়ে সে খাতা দেখানো ও রেজাল্ট সিট করানো উচিত।’

আরও পড়ুন:

জাতীয় দলের নতুন দায়িত্বে খালেদ মাহমুদ সুজন


news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

কুমিল্লায় মন্দিরে হামলা: ১৬ জনকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

অনলাইন ডেস্ক

কুমিল্লায় মন্দিরে হামলা: ১৬ জনকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

কুমিল্লায় মন্দিরে হামলা ঘটনায় গ্রেপ্তার ১৭ আসামির ১৬ জনকে কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে দুই দিন করে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

কুমিল্লা শহরের কাপড়িয়াপট্টি চাঁন্দমনি রক্ষাকালী মন্দিরে হামলার ঘটনাটি ঘটে। মঙ্গলবার কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ১নং আমলী আদালতের (কোতয়ালী) বিচারক নুসরাত জাহান উর্মি এ আদেশ দেন।


আরও পড়ুন: 

১০ মিনিটের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র নয়াপল্টন

এনআইডি নিয়ে সরকারের নতুন পরিকল্পনার কথা জানালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

টসে জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ


আদালত সূত্রে জানা গেছে, ১৭ আসামির একজন শিশু হওয়ায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ (জেলা ও দায়রা জজ) আদালত জামিন দেন। বাকি ১৬ আসামিকে দুই দিন করে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেওয়া হয়। কোতোয়ালি মডেল থানার উপ-পরিদর্শক ও মামলার বাদী আলিম খান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর