দিকনির্দেশনা সম্পর্কে আপনার স্পষ্ট ধারণা ছিল

অনলাইন ডেস্ক

দিকনির্দেশনা সম্পর্কে আপনার স্পষ্ট ধারণা ছিল

আজ সোমবার, ১১ অক্টোবর। বৈদিক জ্যোতিষে ১২টি রাশি- মেষ, বৃষ, মিথুন, কর্কট, সিংহ, কন্যা, তুলা, বৃশ্চিক, ধনু, মকর, কুম্ভ ও মীন-এর ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়। একই রকমভাবে ২৩টি নক্ষত্রেরও ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়ে থাকে। ভাগ্যরেখা অনুযায়ী আপনার আজকের দিনটি কেমন কাটবে, দেখে নিন। 

মেষ: এতদিন থেকে আপনার দিকনির্দেশনা সম্পর্কে আপনার স্পষ্ট ধারণা ছিল যে আপনি কোন দিকে যাচ্ছেন তা জানার আশা ছেড়ে দিতে পারেন। তবুও, এখন যখন মঙ্গল শেষ পর্যন্ত নিজের আচরণ করছে, আপনি ক্রমবর্ধমান সিদ্ধান্তমূলক মেজাজে থাকবেন। এবং এটি অবশ্যই একটি সুসংবাদ হতে পারে।

বৃষ: আপনি এখনও ব্যস্ত কিন্তু, এখন একটি অদ্ভুত সহানুভূতিশীল অবস্থান থাকবে। সাম্প্রতিক দিনগুলির তুলনায় কম জটিলতা থাকা উচিত।  এমন কার্যকলাপের সঙ্গে আরও বেশি সময় থাকা উচিত যা আপনাকে সত্যই অনুপ্রাণিত করে। আজই আপ-টু-ডেট হয়ে নিন এবং আপনি কয়েক দিনের মধ্যে সংক্ষিপ্ত আতঙ্কের জন্য ভালোভাবে প্রস্তুত থাকবেন। 

মিথুন: আপনার কাছাকাছি থাকা ব্যক্তিদের যৌথ সম্পদ সম্পর্কে ভিন্ন ধারনা থাকতে পারে। আসল বিষয়টি রয়ে গেছে যে গার্হস্থ্য ক্রয়গুলি প্রয়োজনীয়, যদিও তারা প্রত্যাশার চেয়ে বেশি ব্যয়বহুল হতে পারে, আপনার অতিরিক্ত নগদ পাওয়া উচিত। কর্মক্ষেত্রে, আপনার অন্তর্দৃষ্টিগুলি কাজে আসে। 

কর্কট: কমপক্ষে একটি অংশীদারিত্বকে আরও সমান ভিত্তিতে স্থাপন করা এবং অতীতে সম্পর্ক খারাপ করা থেকে বিরত থাকুন। যে কোনও খারাপ অভ্যাসের বিরতি দেওয়া দরকারী, সম্ভবত অত্যন্ত লাভজনক।  বার্ষিক চ্যালেঞ্জগুলির জন্য প্রস্তুত থাকুন। আপনাকে অংশীদারের প্রয়োজনের বিষয়ে আরও মনোযোগ দেওয়ার আহ্বান জানাবে।

সিংহ: রোমান্টিক অভিনবতা কাটানোর জন্য এটি একটি ভাল দিন। সম্ভবত আপনি যদি পেশাদার এবং ঘরোয়া প্রতিশ্রুতি থেকে নিজেকে মুক্ত করতে পারেন তবে একটি ট্রিপ নিতে সক্ষম হবেন। উপভোগ্য কিন্তু সময় নষ্টকারী বিচ্যুতি এবং বিভ্রান্তির জন্য প্রস্তুত থাকুন। অন্যথায়, আপনি আপনার ব্যাটারি রিচার্জ করার সুযোগ মিস করবেন।

কন্যা: আপনি এখনও বন্ধুদের আচরণে বিরক্ত হতে পারেন, কিন্তু এমন একটি অনুভূতি রয়েছে যেখানে আপনি নিজেকে কোন অনাকাঙ্ক্ষিত উন্নয়নে অবদান রেখেছেন। আপনার বুঝতে হবে যে মানুষ অসম্পূর্ণ প্রাণী এবং ভবিষ্যতে আরও সহনশীল হওয়ার চেষ্টা করুন। অন্তত আপনি আশা করতে পারেন যে অংশীদাররাও আপনার জন্য কাজ করতে রাজি।

তুলা: প্ল্যানের শেষ মুহূর্তের সম্ভাব্য পরিবর্তন সহ সপ্তাহটি একটি অস্থির নোটে শেষ হওয়ার প্রতিটি চিহ্ন দেখায়। আপনি যদি এখনও একটি নতুন বন্ধুত্ব, একটি গোপন পরিকল্পনা, একটি আর্থিক চুক্তি, বা খবরের একটি আইটেম সম্পর্কে অনিশ্চিত হন, তাহলে অযথা চিন্তা করবেন না। আগামী মাসের প্রথম দিকে সব রহস্য উন্মোচিত হবে।

বৃশ্চিক: আপনার ক্যারিয়ারে পরিবর্তিত পরিস্থিতির মুখোমুখি হওয়ার এবং পদোন্নতির পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার সময় রয়েছে, এমন ক্রিয়াকলাপ যা আপনার মর্যাদা এবং প্রতিপত্তি বৃদ্ধি করবে। তবে এখনও চূড়ান্ত ফলাফল আশা করবেন না। সর্বোপরি, আপনি একজন ধৈর্যশীল মানুষ। 

ধনু: সাধারণ গ্রহের অবস্থা এখনও ঘোলাটে, তাই ছবি পরিষ্কার না হওয়া পর্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি পিছিয়ে দেওয়ার কোনও ক্ষতি নেই। সামাজিকভাবে, স্ফুলিঙ্গ উড়তে পারে, যদিও যুক্তিগুলি দ্রুত তৈরি করা হবে। আসলে, আপনি অবাক হতে পারেন যে শান্তি স্থাপন করা কত সহজ। 

মকর: কাছের কেউ চরিত্রের বাইরে কাজ করতে পারে এবং একজন প্রতিদ্বন্দ্বী সন্দেহ জাগিয়ে তুলতে পারে। এটা সম্ভব যে আপনি পুরোপুরি নিরীহ আচরণকে ভুল বুঝছেন। আপনি বাড়িতে অংশীদারদের অদক্ষতা হিসাবে যা দেখছেন সে সম্পর্কে আপনি ক্রমবর্ধমান অধৈর্য হয়ে উঠবেন। ক এই দিনগুলোতে এটাই স্বাভাবিক!

আরও পড়ুন:


বিষ খাইয়ে ব্যর্থ হওয়ার পর ভাড়াটে খুনি দিয়ে বাবাকে হত্যা করালো মেয়ে

পরকীয়ার জেরে শ্যালিকার বিয়ে ভাঙলেন দুলাভাই, আপত্তিকর ছবি!

মুহিবুল্লাহ হত্যাকাণ্ড: দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দিলেন ইলিয়াছ

বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডে চাকরির সুযোগ


কুম্ভ: অংশীদাররা এখন এবং আগামী দিনে চলমান করতে পারে। আপনার কর্মস্থলে আপনার প্লেটে অনেক কিছু থাকতে পারে, সেক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই নীচু করে কিছু অতিরিক্ত সময় দিতে হবে। নিশ্চিত করুন যে পরিবারের সদস্যরা হতাশ বোধ করবেন না এবং যেখানে প্রয়োজন সেখানে সাহায্যের জন্য এখনই পদক্ষেপ নিন। 

মীন: যদি আপনার কাজের সঙ্গে লেখালেখি, শিক্ষা, ভ্রমণ শিল্প বা যোগাযোগের অন্য কোন রূপ জড়িত থাকে, তাহলে চমকের আশা করুন। সব আপনার পছন্দ হবে না, কিন্তু অধিকাংশই দীর্ঘমেয়াদী উপকারে স্বাগত জানাবে। বুদ্ধিমান মীনরা পরবর্তী পাঁচ বছরেও উদ্যোগের পরিকল্পনা করবে।

news24bd.tv রিমু 

পরবর্তী খবর

রিবন্ডেড চুলের যত্ন নেওয়ার টিপস

অনলাইন ডেস্ক


রিবন্ডেড চুলের যত্ন নেওয়ার টিপস

ফাইল ছবি

শখের বসে হোক কিংবা অন্য কোনো কারণে অনেকেই চুল রিবন্ডিং করেন। কিন্তু এরপর যে চুলটির বিশেষ যত্ন নিতে হয় তা আমাদের অনেকেরই অজানা। ফলে চুল দুর্বল হয়ে যায়, শুরু হয় চুল পড়া। 

রিবন্ডেড চুলের যত্ন কিভাবে নিতে হয় আসুন সেটা জেনে নেই:-

১. রিবন্ডিং করা চুলের যত্নে অয়েল ম্যাসাজ খুব গুরুত্বপূর্ণ। সপ্তাহে তিন দিন শ্যাম্পু করার এক ঘণ্টা আগে চুলে অয়েল ম্যাসাজ করুন। এতে চুলের স্বাস্থ্য ভালো থাকে। 

২. গোসলের আগে গরম পানিতে তোয়ালে চুবিয়ে আধা ঘণ্টা চুল পেঁচিয়ে রাখুন। এরপর শ্যাম্পু করুন। এতে রক্ত সঞ্চালন বাড়বে। চুলের রুক্ষ ভাব কমবে। তবে ভেজা তোয়ালে অনেকক্ষণ পেঁচিয়ে রাখবেন না, এতে চুলের গোড়া দুর্বল হয়ে যায়।

৩.রিবন্ডেড চুলের জন্য হালকা শ্যাম্পু ব্যবহার করতে হবে। আজকাল মার্কেটে রিবন্ডেড হেয়ারের জন্য ভালো মানের শ্যাম্পু পাওয়া যায়। শ্যাম্পু করার পর অবশ্যই কন্ডিশনার ব্যবহার করতে হবে। রিবন্ডিং করা চুলের জন্য আলাদা শ্যাম্পু কন্ডিশনার পাওয়া যায়। সেগুলো ব্যবহার করুন।

৪.দিনে তিনবার মোটা দাঁতের চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়ে নিন, এতে মাথার ত্বকের রক্ত সঞ্চালন বাড়ে। তবে ভেজা চুল আঁচড়ানো যাবে না। এতে চুলে অনেক ক্ষতি হয়।

আরও পড়ুন:


আফ্রিকার ৭ দেশ থেকে এলেই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন

দুই হাত হারানো ফাল্গুনীকে বিয়ে করলো এনজিও কর্মী সুব্রত

স্বাধীনতার ৫০ বছরে স্বাস্থ্যখাতে অভাবনীয় সাফল্য

ঢাকার যানজটেই শেষ জিডিপির প্রায় ৮৭ হাজার কোটি টাকা


৫. অনেকেই চুল শুকানোর জন্য হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করেন। রিবন্ডিং করা চুলে এটা ব্যবহার করা যাবে না। চুল তাপ থেকে দূরে রাখতে হবে। অতিরিক্ত তাপে চুল ভেঙে যাবে। চুল শুকানোর জন্য তোয়ালে ব্যবহার করতে হবে। তবে তোয়ালে দিয়ে চুল জোরে জোরে ঘষা যাবে না।

৬. চুলের আগা কেটে ফেলার পর চুলে প্রোটিন প্যাক, ডিপ কন্ডিশনিং কিংবা হেয়ার স্পা করতে পারেন। যেমন ডিম একটি, ক্যাস্টর অয়েল এক চামচ, লেবুর রস এক চামচ ও মধু এক চামচ একসঙ্গে মিশিয়ে স্কাল্পে লাগান। এরপর শাওয়ার ক্যাপ বা তোয়ালে দিয়ে মাথা ঢেকে রাখুন। এক ঘণ্টা পর শ্যাম্পু করুন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

চর থাপ্পড়ে বাড়বে সৌন্দর্য্য, আগ্রহ বাড়ছে নারীদের

অনলাইন ডেস্ক

চর থাপ্পড়ে বাড়বে সৌন্দর্য্য, আগ্রহ বাড়ছে নারীদের

থাপ্পড় থেরাপি।

ত্বকের সৌন্দর্য্য ধরে রাখতে মানুষ কত কিছুই না করে থাকে। ছুটে যায় দেশ-বিদেশে। খরচ করে কাড়িকাড়ি টাকা। কিন্তু এবার  নিজেকে সুন্দর করে তুলতে ‘থাপ্পড় থেরাপি’ নামে একটি পদ্ধতি আবিষ্কার করা হয়েছে। অবাক হবেন নিশ্চয়।

সৌন্দর্য্য ধরে রাখতে অ্যারোমা থেরাপির পাশাপাশি জায়গা করে নিয়েছে ‘থাপ্পড় থেরাপিও’।

মূলত দক্ষিণ কোরিয়ার নারীরাই এই থেরাপির প্রচলন শুরু করেন।

ত্বকের যত্ন নিতে সেখানকার নারীরা নিজেদের গালে থাপ্পড় মারতেন। তারপর এই থেরাপি শুধু দক্ষিণ কোরিয়াতেই সীমাবদ্ধ থাকেনি, ধীরে ধীরে গোটা বিশ্বেও বেশ জনপ্রিয় হয়।

রূপচর্চার অঙ্গ এই ‘থাপ্পড় থেরাপির’ পদ্ধতি হলো হাতের তালুর দ্বারা নিজের উভয় গালেই হাল্কা হাতে, আলতো করে চড় মারা।

আরও পড়ুন: 


৪ অভিজ্ঞ ছাড়াই ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে লড়বে পাকিস্তান


যেভাবে কাজ করে থাপ্পড় থেরাপি

হাতের তালু দিয়ে গালে থাপ্পড় মারার ফলে মুখের রক্ত সঞ্চালন ঠিক থাকে। ত্বককে ভীতর থেকে পরিষ্কার করতে সাহায্য করে এই পদ্ধতি। মুখের প্রতিটি অংশে রক্ত প্রবাহ বেড়ে যায়। ফলে ত্বক হয়ে ওঠে জেল্লাদার ও উজ্জ্বল।

news24bd.tv/ তৌহিদ

পরবর্তী খবর

কোন বাদাম উপকারী: কাঁচা নাকি ভাজা?

অনলাইন ডেস্ক

কোন বাদাম উপকারী: কাঁচা নাকি ভাজা?

বাদাম

বাদাম স্বাস্থ্যকর স্ন্যাকস হিসেবে বেশ সুপরিচিত। এতে রয়েছে ক্যালরি, প্রোটিন, ফ্যাট, কার্বোহাইড্রেট, ফাইবার, ভিটামিন ই, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, কপার, ম্যাংগানিজ ইত্যাদি। 

বাদাম থেকে শরীরের জন্য উপকারী কোলেস্টেরল পাওয়া যায়। এছাড়া এতে রয়েছে সি-রিঅ্যাক্টিভ প্রোটিন ও ইন্টারলিউকিন  যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। ফাইবার সমৃদ্ধ বাদাম দূর করে হজমের গণ্ডগোল।

বাদাম খেলে হৃদপিণ্ড সক্রিয় থাকে। নিয়মিত বাদাম খেলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে। এমনকি রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে বাদাম। 

বাদাম কাঁচা বা ভাজা দুই অবস্থাতেই খাওয়া যায়। তবে কোন বাদাম খাওয়া বেশি উপকারী? 

দুই ধরণের বাদামেই রয়েছে উপকারিতা। কাঁচা বাদামে অনেক সময় ব্যাকটেরিয়া থাকে যেগুলো স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। আবার ভাজা বাদাম হারিয়ে ফেলে কিছু পুষ্টিগুণ।

ফলে বাইরে থেকে সরাসরি ভাজা বাদাম না কিনে কাঁচা বাদাম কিনে তা বাড়িতে ভেজে খেতে পারেন। এতে বাইরের অতিরিক্ত লবণ, চিনি কিংবা তেল থেকে মুক্ত থাকা যাবে।

আরও পড়ুন:

আইপিএলে নিজের বেতন কমালেন কোহলি


news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

করলার তেতো কমানোর টিপস

অনলাইন ডেস্ক

করলার তেতো কমানোর টিপস

পুষ্টিগুণে ভরা সবজি করলা

করলা স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী হলেও অনেকেই করলা খেতে পছন্দ করেন না। বিশেষ করে ছোটরা। কারণ এর স্বাদ তেতো। তবে চিন্তার কারণ নেই। কারণ তেতো কমানোর কিছু উপায় রয়েছে। আসুন সেগুলো একটু জেনে নেই।

১. করলা লম্বালম্বি মাঝ বরাবর কাটুন। এবার চা চামচ দিয়ে আঁচড়ে বিচি বের করে নিন।

২. সুন্দর পাতলা স্লাইস করে নিন ভাজির জন্য। আগেই কোনো পানি দেবেন না।


আরও পড়ুন:

বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটূক্তি, কাটাখালীর মেয়র আটক

শুরু হলো মহান বিজয়ের মাস

আজ থেকে ঢাকার গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের ভাড়া অর্ধেক কার্যকর


৩. সামান্য লবণ দিয়ে মেখে ২০ মিনিট রেখে দিন। ২০ মিনিট পর হাত দিয়ে কচলান।

৪. দেখবেন সবুজ তেতো পানি বের হবে। এই পানি ফেলে দিন।

৫.এবার পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে চিপে সঙ্গে সঙ্গে রান্না করুন। বুঝতেই পারবেন না করলা খাচ্ছেন, নাকি অন্যকিছু খাচ্ছেন।

মনে রাখবেন, করলা কেটে বেশি সময় পানিতে ভিজিয়ে রাখলে বেশি তেতো হয়ে যায়। তাই ধোয়ার সঙ্গে সঙ্গে রান্না করে ফেলতে হবে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ত্বকের বয়স কমায় কাঁচা হলুদ

অনলাইন ডেস্ক

ত্বকের বয়স কমায় কাঁচা হলুদ

কাঁচা হলুদ

কাঁচা হলুদের ব্যবহার আমাদের গায়ের রঙ উজ্জ্বল হতে তো সাহায্য করেই, পাশাপাশি ত্বকের ভেতর থেকেও যত্ন নেয় এটি। তাই ত্বকের যত্নে নিয়মিত হলুদ ব্যবহার করতে পারেন।

কাঁচা হলুদের উপকার সম্পর্কে জানানো হল।

কাঁচা হলুদ ত্বকের বয়স কমায়। তাই বিভিন্ন ক্রিমের প্রয়োজনীয় উপাদান হিসেবে হলুদ ব্যবহার করা হয়। ত্বকের বিভিন্ন দাগ, রিঙ্কল ও সান ট্যান থেকে ত্বককে রক্ষা করার জন্য কাঁচা হলুদের ফেসপ্যাক ঘরেই তৈরি করে মুখে লাগানো যেতে পারে।


আরও পড়ুন:

গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর

হাফ পাস শুধুমাত্র ঢাকায় কার্যকর হবে বললেন এনায়েত উল্লাহ

কুমিল্লায় কাউন্সিলর হত্যা: ৬ হামলাকারী শনাক্ত


কাচা হলুদকে জাদুকরি উপাদান বলা হয়। এটি ত্বকের অধিকাংশ সমস্যা সমাধান করতে পারে। কারকিউমিন রং ফর্সা করে, ত্বক উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে। কারকিউমিন ত্বককে পাতলা করতে কাজ করে। ব্যাকটেরিয়া দূর করে; ভেতর থেকে উজ্জ্বলতা বাড়ায়।

কাঁচা হলুদের অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি, এন্টিসেপ্টিক ও অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল গুণ মুখে ব্রণ কমায়। ব্রণ সমস্যার থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য মুখে নিয়ম করে কাঁচা হলুদ পেস্ট করে মাখুন ও খান, দেখবেন তাড়াতাড়ি উপকার পাচ্ছেন। কাঁচা হলুদ শুধু ব্রণই দূর করে না, তার সাথে ব্রণের দাগ এবং লোমকূপ থেকে তেল বের হওয়ার পরিমাণও কমিয়ে দেয়।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর