কানাডায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি

লায়লা নুসরাত, কানাডা

কানাডায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি

বরফাচ্ছন্ন কানাডার ক্যালগেরিতে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রধান উৎসব দুর্গোৎসব শুরু হয়ে গেল আজ “আমরা সবাই”-এর এক দিনব্যাপী ভার্চুয়াল পূজার মাধ্যমে। ১১ থেকে ১৪ই অক্টোবর পর্যন্ত ক্যাল্গেরির বাংলাদেশ পূজা পরিষদ দেবীর আরাধনা করছে পঞ্জিকার তিথী অনুযায়ী। সব শেষে বঙ্গীয় পরিষদ, ক্যাল্গেরি ১৫ থেকে ১৭ই অক্টোবর মন্দির থেকে আনন্দময়ী মা দুর্গার পূজা সরাসরি সম্প্রচার করবে।

করোনাকালে এবারের আয়োজনে শুধু মন্দির প্রাঙ্গণের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকছে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সব আয়োজন। বয়স্ক ব্যক্তি ও শিশুদের ইচ্ছা থাকলেও এবার পূজা মন্দিরে আসতে পারছেন না। ভক্তের সংখ্যানুপাতে একাধিকবার পুষ্পাঞ্জলি এবং অনলাইনে পুষ্পাঞ্জলির ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

এবার দুর্গাপূজায় স্বাস্থ্যবিধি ও গাইডলাইন পূর্ণার্থীদের মেনে চলতে হবে। মন্দির প্রাঙ্গণে নারী-পুরুষের প্রবেশ ও বের হওয়ার পথ আলাদা ও নির্দিষ্ট থাকবে। প্রবেশকালে ডাবল ভ্যাকসিনেশনের সনদপত্র দেখাতে হবে। পূজামণ্ডপে আসা সবার মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। এছাড়াও ভক্তবৃন্দকে নির্দিষ্ট দূরত্ব (কমপক্ষে দুই মিটার) বজায় রেখে লাইন ধরে সারিবদ্ধভাবে প্রবেশ করতে হবে এবং প্রণাম শেষে বের হয়ে যেতে হবে। 

এছাড়াও মন্দিরের প্রবেশ পথে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা সাবান দিয়ে হাত ধোয়া এবং তাপমাত্রা পরিমাপের জন্য থার্মাল স্ক্যানারের ব্যবস্থা থাকবে। গত বছরের মতো এ বছরও আলোকউজ্জ্বল আর সূক্ষ্ণ ছোঁয়ায় সাজানো হবে না পূজামণ্ডপ। নানা মাত্রিক আচার অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে চলবে দেবী দুর্গার আরাধনা। তবে একে অন্যের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়ে পূজামণ্ডপে নেয়া হবে বিশেষ সতর্কতা। সেই মিলনমেলা মূলত হবে ভার্চুয়ালি।

ক্যালগেরির প্রবাসী বাঙালী জয়দীপ স্যানাল জানালেন- বৈশ্বিক করোনা থেকে সারা বিশ্ব মুক্ত হয়ে নতুন করে জেগে উঠুক প্রাণ-মায়ের কাছে এটাই আমাদের প্রধান প্রার্থনা। বিশ্ববাসীর সুখ ও শান্তি কামনা করছি। 

ক্যালগেরির ‘আমরা সবাই’ এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রুপক দত্ত বলেন: আসছে শুভ দিনে মায়ের আশীর্বাদে দেশে ও বিশ্বের মধ্যে শান্তি বিরাজ করবে, আগামী দিনগুলো আরো সুন্দর হয়ে উঠবে, করোনাসহ সকল পাপ ও পঙ্কিলতা দূর হয়ে মানুষের মধ্যে শান্তি ফিরে আসবে এমনটাই আমাদের প্রত্যাশা।

ক্যালগেরি বঙ্গীয় পরিষদের প্রাক্তন সভাপতি কিরণ বণিক শংকর বলেন, সকল ধর্মীয় রীতি মেনেই পুজো হবে। তবে তিনি বলেন, ‘উৎসবের নামে সুইসাইড’ করার কোন অর্থ নাই। পূজার আয়োজকরা আশা করছি এই ধরনের অবিবেচক সিদ্ধান্ত থেকে বিরত থাকবেন। বিশ্ব জননী তিনি সংকট নাশিনী, তিনিই সকল সংকট নাশ করে আবারও ধরাতে স্বাভাবিক জীবন ও পুজোর পরিবেশ ফিরিয়ে আনবেন।

আরও পড়ুন:

পরকীয়ার জেরে শ্যালিকার বিয়ে ভাঙলেন দুলাভাই, আপত্তিকর ছবি!

গাঁজা সেবনে অভ্যস্তদের করোনায় মৃত্যুঝুঁকি বেশি: গবেষণা

অবশেষে যশের সঙ্গে বিয়ের কথা স্বীকার করলেন নুসরাত!

পল্লবী থেকে উধাও হওয়া সেই ৩ বান্ধবীকে দেওয়া হল পরিবারের জিম্মায়


বাংলাদেশ পূজা পরিষদ অব ক্যালগেরির এক্সকিউটিভ কমিটির সদস্য প্রকৌশলী সুব্রত বৈরাগী বলেন, দুর্গতি বিনাশ করার জন্য তার আবির্ভাব। তাই দেবির নামকরণ ‘দুর্গা’।  আমরা বিশ্বাস করি দেবী সর্বত্র আছেন, মঙ্গলের বার্তা দিয়ে তিনি পৃথিবীকে শান্তিময় করে তুলবেন।

দেশের মাটিতে পা রাখতে না পারলেও কানাডায় সনাতন ধর্মাবলম্বী প্রবাসী বাঙ্গালিরা দুর্গাপূজাকে ঘিরে মেতে উঠবেন আনন্দ উৎসবে। দেবীর পায়ে অঞ্জলি আর দর্শনের পাশাপাশি বিশ্ববাসীর সুখ ও শান্তি কামনা করে করবেন প্রার্থনা।

উল্লেখ্য, কানাডার অন্যান্য প্রদেশেও স্বাস্থ্যবিধি ও সতর্কতা মেনে নেয়া হয়েছে শারদীয় দুর্গোৎসব এর প্রস্তুতি। তাছাড়া  নব প্রজন্মের কাছে আবহমান বাংলার কৃষ্টি, ইতিহাস, ঐতিহ্য ও জাতীয় সত্ত্বাকে তুুলে ধরতে অনেকেই উদযাপন করবেন ভার্চুয়াল পূজা।

 

পরবর্তী খবর

টরোন্টোতে বাংলাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর আক্রমণ ও নির্যাতনের প্রতিবাদ

লায়লা নুসরাত, কানাডা

টরোন্টোতে বাংলাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর আক্রমণ ও নির্যাতনের প্রতিবাদ

আজ ২৪ অক্টোবর  বিকেলে প্রগ্রেসিভ ডেমোক্রেটিক ইনিশিয়েটিভ (PDI), কানাডার উদ্যোগে টরোন্টোতে, বাংলাদেশী হিন্দুদের উপর সাম্প্রতিক সহিংসতার নিন্দা জানাতে একটি মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে।

উদীচী কানাডা, টরন্টো ফিল্ম ফোরাম, রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী সংস্থা, পাঠশালা, জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশন সহ অন্যান্য সংগঠন এই প্রতিবাদ সমাবেশে অংশগ্রহণ করে ।

বাংলাদেশের সরকার হিন্দু সম্প্রদায়কে নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় পিডিআই যুগ্ম আহ্বায়ক আজিজুল মালিক, বিদ্যুৎ রঞ্জন দে উভয়েই সরকারের তীব্র নিন্দা করেন। তারা অবিলম্বে দোষীদের গ্রেফতার করে সারাদেশে শান্তি প্রতিষ্ঠার দাবি জানান।

নাসির উদ দুজা, প্রাক্তন ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি এবং পিডিআই কানাডার সংগঠক, ১৯৭২ সালের মূল সংবিধানে ফিরে যাওয়ার জোর দাবি জানান এবং এর প্রয়োজনীয়তার উপর আলোকপাত করেন। তিনি হামলায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ন্যায্য ক্ষতিপূরণ এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অবিলম্বে পদত্যাগ দাবি করেন। তিনি সকল সচেতন বাংলাদেশীকে সকল দমন-পীড়ন ও অসাম্যের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানান। 

আরও পড়ুন:

১০ দেশের রাষ্ট্রদূতকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করলো তুরস্ক

হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে দেখতে কোকোর স্ত্রী

পুকুরে না, সেই গদা পাওয়া গেল বাড়ির ভেতরে!

ভারতের বিপক্ষে 'রণকৌশল' ফাঁস করলেন শাহিন আফ্রিদি


সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সুভাষ দাস, শাজাহান কামাল, আহমেদ হোসেন, ফারহানা আজিম শিউলী, শিবু চৌধুরী, দেবব্রত দে তমাল, শাহীন হাসান, টরন্টো স্কুল ছাত্রী সুকন্যা চৌধুরী প্রমুখ । 

পিডিআই কানাডার সমন্বয়ক মাহবুব আলম সমাবেশে অংশগ্রহণকারীদের নবনির্মিত "শহীদ মিনারের" দিকে শান্তিপূর্ণ সমাবেশের জন্য অনুরোধ করেন এবং সেখানে উদীচী শিল্পীদের সংগীত পরিবেশনার মধ্যদিয়ে প্রতিবাদ সভা সমাপ্ত হয়।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

অন্টারিও আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রতিবাদ সভা ও মানবন্ধন

লায়লা নুসরাত, কানাডা

অন্টারিও আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রতিবাদ সভা ও মানবন্ধন

বাংলাদেশে বিভিন্ন জেলায় হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর চলমান সংঘবদ্ধ বর্বরোচিত অত্যাচার, হত্যা, নির্যাতন, ভয়ভীতি প্রদর্শন, পূজা মন্ডপ ও প্রতিমা ভাংচুর, এবং নিগ্রহের প্রতিবাদে শনিবার ২৩শে অক্টোবর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, অন্টারিও, কানাডা টরেন্টোর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে এক প্রতিবাদ সভা ও মানবন্ধন পালন করেন।

সভায় বক্তারা তাদের বক্তব্যে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর অত‍্যাচারের তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ সহ দোষী ব‍্যাক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব‍্যাবস্থা গ্রহণের জন‍্য বাংলাদেশ সরকারের প্রতি জোড় দাবী জানান।

বক্তব‍্য রাখেন অন্টারিও আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তফা কামাল, সাধারণ সম্পাদক লিটন মাসুদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ নাজমুল হোসেন মনা, সাবেক ছাত্র নেতা ও প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের মিলু, নাট‍্যকর্মী আহমেদ হোসেন, অন্টারিও আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ফয়জুল করিম, গোলাম সারোয়ার, সাংগঠনিক সম্পাদক মনির বাবু, পান্না আহম্মেদ, বিপ্লব চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক খালেদ শামীম, সমাজকল‍্যান সম্পাদক কান্তি মাহমুদ, সংষ্কৃিতিক সম্পাদক ফারহানা শান্তা, নির্বাহী সদস‍্য ইঞ্জিনিয়ার মকবুল হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান, এস বি হামিদ,কাজল তালুকদার, সমির রায়, ক‍্যানবাংলা টিভির প্রধান নির্বাহী ড. হুমায়ুন কবির, কানাডা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা আক্তার জানু, শাহানা বেগম, রোকশানা খাতুন, কানাডা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আমরুল ইসলাম, শিল্প বিষয়ক সম্পাদক নজরুল আহমেদ, নির্বাহী সদস‍্য ঝোটন তরফদার, তাজুল ইসলাম, সুকোমল রায় সহ আরও অনেকে।

আরও পড়ুন:

১০ দেশের রাষ্ট্রদূতকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করলো তুরস্ক

হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে দেখতে কোকোর স্ত্রী

পুকুরে না, সেই গদা পাওয়া গেল বাড়ির ভেতরে!

জোর করে তুলে নিয়ে বিয়ে, দুই বছর পর পিটিয়ে হত্যা করল স্বামী


 

news24bd.tv/ নকিব

 

পরবর্তী খবর

কানাডার সাস্কাটুনে পালিত হল শারদীয় দুর্গাপূজা

লায়লা নুসরাত, কানাডা

কানাডার সাস্কাটুনে পালিত হল শারদীয় দুর্গাপূজা

দেশে বা প্রবাসে যেখানেই থাকুক আশ্বিনের শুরু মানেই বাঙ্গালির মননে আকাশে বাতাসে পূজোর গন্ধ। ক্রমাগত করোনার আক্রমন আর দেশে হিন্দুদের প্রতি একগুচ্ছ ধর্মান্ধের তীব্র থাবা পরিবেশকে করে তুলছে শ্বাসরুদ্ধকর, ঠিক তখন কানাডার সাস্কাটুনে সাস্কা্টুন সর্বজনীন পূজা পরিষদ (এসএসপিপি ) আয়োজন করেছিল দুর্গাপূজা। 

গত ১৬ ও ১৭ অক্টোবর , শনি ও রবিবার স্থানীয় লক্ষ্মীনারায়ণ মন্দিরে অনাড়ম্বর পরিবেশে পালিত হল শারদীয় দুর্গাপূজা।
বৈশ্বিক মহামারির কারনে সর্বক্ষেত্রে ছিল সরকারের বেধে দেয়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কঠোর বিধিনিষেধ। ভ্যাক্সিনেশনের প্রমাণপত্র, মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার- এবার পূজাকে নিয়ে গেছে অন্য উচ্চতায়। তারপরও পুষ্পাঞ্জলির সময় ভক্তবৃন্দের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত। পুজার্চনা আর পুষ্পাঞ্জলির পর ছিল প্রসাদ বিতরণ। সন্ধ্যায় ছিল মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

প্রথমদিন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের শুরুতেই এসএসপিপি-র সভাপতি উত্তম পাল বাংলাদেশে হিন্দুদের উপর হামলার প্রতিবাদে একমিনিট নিরবতা পালনের আহবান জানালে উপস্থিত সকলে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করেন। ' আয়রে ছুটে আয়'- দলীয় সংগীতের মাধ্যমে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পর্দা উঠে। শ্যামলী সাহা এবং দীপ্তি তালুকদার বৈশ্বিক মহামারির মাঝেও দায়িত্ব নিয়ে স্বল্প সময়ে দুইদিন ব্যাপি সফল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপহার দিয়ে প্রমান করলেন সকলের সহযোগিতা পেলে সফল অনুষ্ঠান সম্ভব । 

আরও পড়ুন:

১০ দেশের রাষ্ট্রদূতকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করলো তুরস্ক

হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে দেখতে কোকোর স্ত্রী

পুকুরে না, সেই গদা পাওয়া গেল বাড়ির ভেতরে!

জোর করে তুলে নিয়ে বিয়ে, দুই বছর পর পিটিয়ে হত্যা করল স্বামী


দুইদিনে চারবেলা প্রসাদ প্রস্তুত এবং বিতরণে আশীষ সরকারের দলীয় প্রচেষ্টা ভক্তবৃন্দের কাছে প্রশংসা কুড়িয়েছে। রবিবার সন্ধ্যায় স্বল্প পরিসরে সিঁদুর খেলার মাধ্যমে দুইদিনব্যাপি শারদীয় পূজার সমাপ্তি ঘটে। সবশেষে সাস্কাটুন সর্বজনীন পূজা পরিষদ (এসএসপিপি)-র সভাপতি বাবু উত্তম পাল এবং সাধারন সম্পাদক বাবু সুদিপ দত্ত - সরকারের স্বাস্থ্যবিধি মেনে সুন্দরভাবে দুর্গা পূজা সম্পন্ন করার জন্য স্পন্সরসহ সকল সদস্যকে ধন্যবাদ এবং কালীপূজার আমন্ত্রন জানান।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

কানাডার ক্যালগেরিতে প্রতিবাদ সভা এবং কার র‌্যালি

লায়লা নুসরাত, কানাডা

কানাডার ক্যালগেরিতে প্রতিবাদ সভা এবং কার র‌্যালি

বাংলাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর সংঘবদ্ধ বর্বরোচিত অত্যাচার, হত্যা, নির্যাতন, ভয়ভীতি প্রদর্শন, পূজা মন্ডপ ও প্রতিমা ভাঙচুর এবং স্বাধীনতার পর থেকে ক্রমবর্ধমান সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে কানাডার স্থানীয় সময় দুপুরে ‘বাংলাদেশি হিন্দু কম্যুনিটি ইন ক্যালগেরি’র আয়োজনে বিশাল প্রতিবাদ সমাবেশ এবং শহরজুড়ে গাড়ি সমাবেশ কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

ক্যালগেরিতে ক্রমবর্ধমান আন্দোলন এবং গত সপ্তাহের মানববন্ধনের পর কার র‍্যালি ও প্রতিবাদ সমাবেশে বৈরী আবহাওয়াকে উপেক্ষা করে বাংলাদেশিদের পাশাপাশি অন্যান্য দেশের বিভিন্ন ভাষাভাষীরাও অংশ নেয়।

আলবার্টার কোভিড রেস্ট্রিকশনের মধ্যেও কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে আচরণবিধি মেনে স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে মানুষ প্রতিবাদ এবং সারা বিশ্বকে সাথে নিয়ে এই নির্যাতন প্রতিরোধের জন্য অঙ্গীকার করা হয়। সভার দাবীর প্রতি কতিপয় প্রাদেশিক এম,এল,এ, কানাডার সংসদ সদস্য এবং রাজনীতিবিদরা সমর্থন জানায়।

বক্তারা বলেন - বাংলাদেশে হিন্দু, খ্রিস্টান এবং বৌদ্ধসহ সংখ্যালঘু সম্প্রদায় এবং আদিবাসীরা কয়েক দশক ধরে লক্ষ্যবস্তু সহিংসতা, ভাঙচুর এবং অগ্নিসংযোগের শিকার হয়ে আসছে। বাংলাদেশের হিন্দু সম্প্রদায়, আদিবাসী জনগোষ্ঠী এবং অন্যান্য সমস্ত সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে সমস্ত বর্বর ও নৃশংস হামলার আমরা তীব্র নিন্দা জানাই।

সভায় নিয়মিত জাতিগত নিধন, ভাঙচুর, মন্দির ধ্বংস এবং সংখ্যালঘুদের উপর হামলা অবিলম্বে বন্ধ করার আহ্বান জানানো হয়। এজন্য কানাডার প্রভিন্সিয়াল ও ফেডারেল সরকারসহ বিশ্বের সকল মানুষের কাছে এই জাতিগত নিধন ও সাম্প্রদায়িক অত্যাচার প্রতিরোধে যাথাসাধ্যভাবে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয়। এছাড়াও বাংলাদেশ সরকারের কাছে তারা সবার যথাযথ নিরাপত্তা ও দোষী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের দাবী জানানো হয়।

আরও পড়ুন


বাংলাদেশের খেলার দিনে ৬ হাইভোল্টেজ ম্যাচ

স্বপ্নের পায়রা সেতুর উদ্বোধন আজ, দক্ষিণাঞ্চলে উৎসবের আমেজ

‘ক্রসফায়ারের হুমকি দিয়ে মুসাকে দিয়ে স্ত্রী মিতুকে হত্যা করায় স্বামী বাবুল’

রাত ১২টার দিকে ঘরে ঢুকে সপ্তম শ্রেণিপড়ুয়া প্রেমিকাকে ধর্ষণ প্রেমিকের


অনুষ্ঠানে অন্যান্য দেশের ও বিভিন্ন ভাষাভাষীর বিভিন্ন সংগঠনের মানুষ সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য প্রদান করে। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ক্যালগেরির কাউন্সিলর রাজ ঢালিওয়াল, বিশ্ব হিন্দু ফাউন্ডেশনের পরিচালক গোপাল সাইনি, হিন্দু সোসাইটির প্রেসিডেন্ট নবদীপ মাহেন্দ্রু, ইসকন ক্যালগেরির প্রেসিডেন্ট আত্মারাম দাস। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশী সাংস্কৃতিক কর্মী, প্রগতিশীল বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, এবং বাংলাদেশ কানাডা এসোশিয়েশন অফ ক্যালগেরির সভাপতি মোহাম্মদ রশিদ রিপন এছাড়াও মোহাম্মদ কাদের, মাহমুদ হাসান দীপু, জুবায়ের সিদ্দিকী, বায়েজিদ গালিব এবং জেবুন্নেসা চপলা সহ অন্যরা। প্রচন্ড প্রতিকূল আবহাওয়ার মধ্যে সবাই স্লোগান ও গানে সকল সংখ্যালঘু নির্যাতনের অবসান চান, বাংলাদেশকে অসাম্প্রদায়িক এবং সবার জন্য সমান একটি দেশে রূপান্তরের জন্য বিশ্ববাসীর সহায়তা কামনা করেন। আয়োজকরা স্বাধীনতার পর থেকে আস্তে আস্তে জাতিগত নিধন এবং বাংলাদেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়দের বিলুপ্তি আর চলতে না দেয়ার জন্য প্রতিরোধের শপথ নিতে বাংলাদেশীদেরদের প্রতি আহ্বান জানান।

প্রতিবাদ সমাবেশের পর গাড়ীতে কালো কাপড় বেঁধে এবং প্রতিবাদী ব্যানার ও পোস্টার নিয়ে শহর প্রদক্ষিণ করা হয় এবং শহরের প্রাণকেন্দ্র সিটি হলে গিয়ে শেষ হয়। অনুষ্ঠানে প্রায় সত্তুরোর্ধ গাড়ি অংশ নেয়।

উল্লেখ্য বাংলাদেশি হিন্দু কম্যুনিটি ইন ক্যালগেরি আয়োজিত এই শান্তিপূর্ণ সমাবেশে আয়োজকরা মনে করেন এই প্রতিবাদ প্রত্যেকটি প্রগতিশীল বাংলাদেশীদের জন্য। জাতি-ধর্ম-বর্ণ-গোত্র-মতামত নির্বিশেষে সারাবিশ্বে ছড়িয়ে পড়ুক এই প্রতিবাদ।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কানাডার টরন্টোতে মানববন্ধন

অনলাইন ডেস্ক

সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে কানাডার টরন্টোতে মানববন্ধন

বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে পূজামন্ডপ এবং হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে হামলার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে দৃর্বৃত্তদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন টরন্টো প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

তারা বলেছেন, বিভিন্ন সময়ে সংঘটিত সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিচার না হওয়ায় সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা, নিপীড়ন বাড়ছে। এটি কোনোভাবেই কাম্য নয়। স্থানীয় সময় শুক্রবার টরন্টোর বাঙালিপাড়া হিসেবে পরিচিত ডেনফোর্থে আয়োজিত মানববন্ধনে এ দাবি জানানো হয়।

’সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস, রুখে দাঁড়াও বাংলাদেশ’ স্লোগান নিয়ে ‘সচেতন নাগরিক সমাজ, টরন্টো’ এ ব্যানারে সব দল-মতের মানুষের অংশগ্রহণে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

সচেতন নাগরিকবৃন্দের মানববন্ধন শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন চাকসুর সাবেক সাধারণ সম্পাদক আজিমউদ্দিন আহমেদ। তিনি তার বক্তৃতায় বাংলাদেশে যে কোনো ধরনের সাম্প্রদায়িক উসকানির বিরুদ্ধে সাধারন নাগরিকদের রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান।

টরন্টো ফিল্ম ফোরামের মানববন্ধন শেষে আয়োজিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা নিরঞ্জন সরকার বাচ্চু, ফিল্ম ফোরামের সভাপতি এনায়েত করিম বাবুল, সাধারণ সম্পাদক মনিস রফিক, ইঞ্জিনিয়ার আবদুল গফফার, অলক চৌধুরী, আজিমউদ্দিন আহমেদ, শিবু চৌধুরী, নবিউল হক বাবলু, রাজকুমার বিশ্বাস প্রমুখ।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর