বন্ধুকে হারিয়ে একেবারে ভেঙে পড়েছেন আবুল হায়াত
বন্ধুকে হারিয়ে একেবারে ভেঙে পড়েছেন আবুল হায়াত

বন্ধুকে হারিয়ে একেবারে ভেঙে পড়েছেন আবুল হায়াত

অনলাইন ডেস্ক

একুশে পদকপ্রাপ্ত অভিনেতা, নাট্যকার, নির্দেশক ও শিক্ষক ড. ইনামুল হক আর নেই মারা গেছেন। সোমবার (১১ অক্টোবর) বিকালে রাজধানীর বেইলি রোডের নিজ বাসায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে দেশের নাট্যাঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন তার সহকর্মী ও ঘনিষ্ঠজনেরা।

তবে সবচাইতে বেশি কষ্ট পেয়েছেন নাট্যাঙ্গনের আরেক কিংবদন্তি অভিনেতা আবুল হায়াত।

ড. ইনামুল হকের সঙ্গে প্রায় ৫৫ বছরের বন্ধুত্ব ছিল আরেক কিংবদন্তি অভিনেতা আবুল হায়াতের। তার মৃত্যুতে আবুল হায়াত জানালেন, বন্ধুকে হারিয়ে তিনি একেবারে ভেঙে পড়েছেন।

গণমাধ্যমকে আবুল হায়াত বলেন, একটু আগেই আমি তার মৃত্যুর খবরটা শুনলাম। আমাদের বন্ধুত্ব ৫০ বছরের বেশি সময়ের, প্রায় ৫৫ বছরের। তাকে নিয়ে আসলে আমার বলার কিছু নেই। আমি একজন বন্ধু হারালাম, নাট্য সতীর্থ হারালাম, একজন ভালো মানুষকে হারালাম। একটা বড় শূন্যতা তৈরি হয়ে গেল। এটা কীভাবে পূরণ হবে আমি জানি না। আসলে আমি মানসিকভাবে একেবারে ভেঙে পড়েছি। খুবই মর্মাহত আমি। তাই 
আমি তার জানাজার নামাজে যেতে পারব কিনা, এখনো বলতে পারছি না। ’

জীবদ্দশায় ড. ইনামুল হক অত্যন্ত অঙ্গীকারবদ্ধ এবং সজ্জন মানুষ ছিলেন। সে কথা উল্লেখ করে আবুল হায়াত বলেন, প্রতিশ্রুতি দেয়ার মতো এমন মানুষ ক’জন আছেন! একজন একজন করে চলে যাচ্ছে। তিনি অত্যন্ত ভালো মানুষ ছিলেন, ভালো অভিনেতা ছিলেন।

আরও পড়ুন:


ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইপিএল নিয়ে জুয়া, ৩ জনের সাজা

চট্টগ্রাম আদালত এলাকায় বোমা হামলা মামলার রায় আজ

টুইটার অ্যাকাউন্ট ফিরে পেতে আদালতে ট্রাম্প

যুবলীগ নেতার সঙ্গে ভিডিও ফাঁস! মামলা তুলে নিতে নারীকে হুমকি


প্রসঙ্গত, ড. ইনামুল হকের জন্ম ১৯৪৩ সালের ২৯ মে ফেনী সদরের মটবী এলাকায়। তার বাবা ওবায়দুল হক ও মা রাজিয়া খাতুন। ফেনী পাইলট হাইস্কুল থেকে এসএসসি, ঢাকার নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি এবং পরবর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রসায়ন বিভাগ থেকে অনার্স ও এমএসসি সম্পন্ন করেন তিনি। এরপর মানচেস্টার ইউনিভার্সিটি থেকে পিএইচডি লাভ করেন। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) দীর্ঘ ৪৩ বছর শিক্ষকতা পেশায় নিয়োজিত ছিলেন তিনি।

news24bd.tv/আলী