বাড়িতেই পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ, অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর জানলো সবাই
বাড়িতেই পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ, অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর জানলো সবাই

বাড়িতেই পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ, অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর জানলো সবাই

অনলাইন ডেস্ক

গত ২৮ মার্চ রাত সাড়ে ৮টায় জাফর উল্যাহ পঞ্চম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীর (১৩) বাড়িতে আসেন। সেখানে সে শিশুটিকে একা পেয়ে
শিশুটির মুখ চেপে ধরে বাড়ির বাইরে নিয়ে ধর্ষণ করেন। ধর্ষণ শেষে বিষয়টি কাউকে জানালে প্রাণনাশের হুমকি দেন। সেই ভয়ে শিশুটি ওই ঘটনা কাউকে জানায়নি।

পরে তার শারীরিক পরিবর্তন ও অসুস্থ হয়ে পড়লে বিষয়টি সবার নজরে আসে। পরে মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) জাফর উল্যাহকে আসামি করে থানায় ধর্ষণ মামলা করেন শিশুর বাবা।

ধর্ষণের স্বীকার শিশুটি বর্তমানে ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলায় এই ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত ব্যক্তি হাতিয়া থানার পণ্ডিত গ্রামের মৃত মাহফুজুর রহমানের ছেলে জাফর উল্যাহ (৩২)।

মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম।

আরও পড়ুন:


ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইপিএল নিয়ে জুয়া, ৩ জনের সাজা

চট্টগ্রাম আদালত এলাকায় বোমা হামলা মামলার রায় আজ

টুইটার অ্যাকাউন্ট ফিরে পেতে আদালতে ট্রাম্প

যুবলীগ নেতার সঙ্গে ভিডিও ফাঁস! মামলা তুলে নিতে নারীকে হুমকি


 

এসপি শহীদুল ইসলাম বলেন, গত ২৮ মার্চ রাত সাড়ে ৮টায় আসামি জাফর উল্যাহ বাদীর বাড়িতে আসেন। এক পর্যায়ে শিশুটির মুখ চেপে ধরে বাড়ির বাইরে নিয়ে ধর্ষণ করেন। বিষয়টি কাউকে জানালে প্রাণনাশের হুমকি দেন। ভয়ে শিশুটি ওই ঘটনা কাউকে জানায়নি। পরে তার শারীরিক পরিবর্তন ও অসুস্থ হয়ে পড়লে বিষয়টি জানাজানি হয়।  

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনেয়ারুল ইসলাম বলেন, ধর্ষণের মামলায় আসামি জাফরকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

news24bd.tv/আলী