কুমিল্লার ঘটনার দায় সরকারকে নিতে হবে: জাফরুল্লাহ
Breaking News

কুমিল্লার ঘটনার দায় সরকারকে নিতে হবে: জাফরুল্লাহ

কুমিল্লার ঘটনার দায় সরকারকে নিতে হবে: জাফরুল্লাহ

অনলাইন ডেস্ক

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক দেশ। এখানে এই ধরনের হামলা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। পূজামণ্ডপ রক্ষার মূল দায়িত্ব সরকারের, ব্যর্থতার দায়ও সরকারের। ব্যর্থতা আমাদেরও রয়েছে। তবে সরকারকে এ ঘটনার দায় নিতে হবে যেন এর পুনরাবৃত্তি না ঘটে।

আজ দুপুরে কুমিল্লা নগরের নানুয়া দিঘির উত্তরপাড়ে দর্পণ সংঘের ভাঙচুর হওয়া পূজামণ্ডপ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলপাকালে এসব কথা বলেন তিনি।

জাফরুল্লাহ বলেন, এত পুলিশ থাকার পরও কীভাবে ঘটনাটি ঘটল? এটি দুঃখজনক ও ন্যক্কারজনক। এত বড় ঘটনা ১৯৪৭-এর পর আর ঘটেনি। কক্সবাজার, নাসিরনগর, শাল্লা ও হাজীগঞ্জে আক্রমণ হয়েছে। তবে কুমিল্লার মতো এত বড় ঘটনা কোথাও ঘটেনি।

তিনি আরও বলেন, এই ঘটনা প্রমাণ করে দেশে নৈরাজ্য হচ্ছে। এ জন্য জাতীয় সরকার দরকার। এখানে পুলিশের ব্যর্থতা আছে। তাদের সাসপেন্ড করা দরকার। ব্যর্থ পুলিশের ট্রাইব্যুনালে বিচার করা দরকার।

জাফরুল্লাহ বলেন, সরকারকে পদত্যাগ করে জাতীয় সরকার গঠন করে মানুষের জানমালের নিরাপত্তা দিতে হবে। এ পর্যন্ত একটি ঘটনারও বিচার হয়নি। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে কুমিল্লার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তার করে দ্রুত আইনের আওতায় এনে ১৫ দিনের মধ্যে সমাধান করা উচিত।  

সরকারের পায়ের তলায় মাটি নেই মন্তব্য করে কুমিল্লার ঘটনায় লোক দেখানো ধরপাকড়ের নামে সরকার ঘটনাটি অন্য খাতে প্রবাহিত করতে চাইছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

আজ দুপুর সাড়ে ১২টায় পূজামণ্ডপটি পরিদর্শনে আসেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী। এ সময় গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব শেখ রফিকুল ইসলাম তাঁর সঙ্গে ছিলেন। তাঁরা নানুয়া দিঘির পাড় এলাকার বিভিন্ন মানুষের সঙ্গে কথা বলেন।

আরও পড়ুন

থেমে-থেমে জ্বর আসছে খালেদা জিয়ার, খাচ্ছেনও খুবই অল্প

কুমিল্লার ঘটনা উদ্দেশ্যমূলক ও পরিকল্পিত: রিজভী

যুক্তরাষ্ট্রে উড়াল দিলেন মৌসুমী, ভিসা মেলেনি ওমর সানীর

ক্ষমতায় যাওয়ার বিএনপির রঙিন খোয়াব অচিরেই দুঃস্বপ্নে পরিণত হবে: কাদের

জোনায়েদ সাকি বলেন, আমরা এর বিচার চাই। মানুষ প্রতিবাদ করলে পরিস্থিতি ঘোলাটে হয়। সেটা প্রশাসন নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি।

এদিকে একই সময়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নেতারা। ঐক্য পরিষদের নেতা সুব্রত চৌধুরী বলেন, এটি পরিকল্পিত ঘটনা। মোটেই বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। এখানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে। রামু থেকে কুমিল্লা, কারও ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। রামুর ২২ মামলার অভিযোগপত্রও দেওয়া হয়নি।

news24bd.tv নাজিম