দেশে খাদ্যের অভাব হওয়ার কোন আশঙ্কা নেই: প্রধানমন্ত্রী
দেশে খাদ্যের অভাব হওয়ার কোন আশঙ্কা নেই: প্রধানমন্ত্রী

দেশে খাদ্যের অভাব হওয়ার কোন আশঙ্কা নেই: প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশে খাদ্যের অভাব হওয়ার কোন আশঙ্কা নেই। নীতি এবং আদর্শের অভাবে বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে বাংলাদেশে খাদ্য ঘাটতি রাখতো। আর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে বিশ্ব ব্যাংকের নিষেধ সত্ত্বেও কৃষিতে ভর্তুকি দিয়েছে।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) রাজধানীর একটি বেসরকারি হোটেলে ‘বিশ্ব খাদ্য দিবস-২০২১’ উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, শুধু খাদ্য উৎপাদন নয়, এর যথাযথ বাজারজাতকরণ প্রকৃয়ার ওপরও গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার। খাদ্য শষ্য এবং মাছ উৎপাদনে বাংলাদেশের অবস্থান শীর্ষ কাতারে। প্রধান খাদ্য ধান উপৎপাদনে বাংলাদেশ বিশ্বে তৃতীয়, সবজি এবং আলু উৎপাদনে সপ্তম, অভ্যন্তরীণ উন্মুক্ত জলাশয়ে মাছ উৎপাদনে তৃতীয় এবং বদ্ধ জলাশয়ে মাছ উৎপাদনে বাংলাদেশের অবস্থান পঞ্চম।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের প্রতিটি মানুষের জন্য খাদ্য নিশ্চিত করা সরকারের দায়িত্ব। করোনা মহামারীর মত দুর্যোগে সরকারের যথাযথ পদক্ষেপের কারণে দেশে খাদ্যের অভাব হয়নি। মানুষের খাদ নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দেশের কোথাও যেন জমি অনাবাদী পড়ে না থাকে তা নিশ্চিত করতে বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আরও পড়ুন


রাজধানী থেকে ‘আইসের’ বড় চালান জব্দ, মূলহোতাসহ গ্রেপ্তার ২

চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় হচ্ছে আরেকটি হাসপাতাল

শাকিব খানের সঙ্গে তুরস্কে গিয়ে যে ভালোবাসায় পড়েছিলেন বুবলী (ভিডিও)

কোহলিদের কোচ হচ্ছেন রাহুল দ্রাবিড়, চোখ কপালে উঠার মত বেতন?


তিনি বলেন, কৃষিতে গবেষণার ফলে এখন অনেক দেশি-বিদেশি ফল, তরি-তরকারি উৎপাদন হচ্ছে। এখন ১২ মাস সব সবজি পাওয়া যাচ্ছে। অনেক বিদেশি ফল এখন দেশেই পাওয়া যাচ্ছে, এটা কৃষিবিদদেরই অবদান। এ ক্ষেত্রে যত দূর সম্ভব আমরা সহযোগিতা দিচ্ছি। সার ও বিদ্যুৎ- সব ক্ষেত্রে ভর্তুকি দিচ্ছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, গ্যাস বেচতে রাজি হইনি বলে ২০০১ সালে ক্ষমতায় আসতে পারিনি। বৃহৎ দুটি দেশ ও প্রতিবেশী দেশের চাহিদা পূরণ করতে পারিনি বলে ক্ষমতায় আসতে পারিনি।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, আমি বলেছিলাম দেশের ৫০ বছরের চাহিদা পূরণ করে তারপর বিক্রি করব। এটা আমেরিকা ও প্রতিবেশী দেশ ভারতের পছন্দ হয়নি। এজন্য ২০০১ সালে ক্ষমতায় আসতে পারিনি। কৃষি খাতে দেশে যে উন্নয়ন হয়েছে তা কৃষিবিদদেরই অবদান।

news24bd.tv এসএম