সাইবার আগ্রাসন থামছেই না

সাইবার আগ্রাসন থামছেই না

Other

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার অত:পর দাঙ্গা, যার বলি হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। সম্প্রতি কুমিল্লার ঘটনা যার বাস্তব উদাহরণ। শুধু তাই নয় সামাজিক রাজনৈতিক অস্থিরতা বাড়াতে এই সব অপপ্রচার চলছে দেশের বাইরে থেকেও। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কাছেই সবাই জিম্মি।

 

প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রাষ্ট্রের শৃঙ্খলা রক্ষায় এই জিম্মি দশা থেকে দ্রুতই বেরিয়ে আসতে হবে। সাইবার অপরাধ বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, অপরাধীদের শাস্তির আওতায় আনতে না পারলে এমন অবস্থা চলতেই থাকবে।

সম্প্রতি কুমিল্লার ঘটনায় মুহূর্তেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার ঘটনা বাংলাদেশে এটাই প্রথম নয়। এর আগেও রামু বা নাসিরনগরের ঘটনাও কারো অজানা নয়। যার নেপথ্যে সবচেয়ে বড় দায় সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অপপ্রচার।

দেশে বা দেশের বাইরে বসে এমন সাম্প্রদায়িক, সামাজিক ও রাজনৈতিক অস্থিরতা সৃষ্টির জন্য প্রতিদিন তৈরি হচ্ছে হচ্ছে অসংখ্য কন্টেন্ট। প্রচলিত আইনে বিচার না হওয়ায় অপরাধীরা থেকে যাচ্ছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে।

অধিক মাত্রায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম নির্ভরতা ও তথ্য যাচাই না করাকেই দুষছেন প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা। যার ফলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কাছে জিম্মি হয়ে পড়ছে পুরো রাষ্ট্র।

আরও পড়ুন:


গাজীপুরে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে পার্লার কর্মীকে গণধর্ষণ

পরিকল্পিতভাবে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি পূজায় সহিংসতা সৃষ্টি করেছে: কাদের

ইন্দোনেশিয়ার বালিতে শক্তিশালী ভূমিকম্প, নিহত ৩

ঘোড়ার খামারে বিয়ে করছেন বিল গেটসের মেয়ে


সাইবার অপরাধ বিশেষজ্ঞরা মনে করেন দেশের প্রচলিত আইনে বিচার পেতে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় গুলোতে সমন্বিতভাবেই কাজ করতে হবে।

ফেসবুক একটি দেশের গণতন্ত্রের জন্য হুমকি, সম্প্রতি এমন তথ্য দিয়ে পুরো বিশ্বকে চমকে দিয়েছেন খোদ ফেসবুকের সাবেক কর্মকর্তা ফ্রান্সেস হাউজেন। তাই যদি হয় তবে এই অপপ্রচার রোধে কি করণীয় হবে সে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

news24bd.tv নাজিম