স্বর্ণ চোরাচালান মামলায় একজনের ১৪ বছর কারাদণ্ড

অনলাইন ডেস্ক

স্বর্ণ চোরাচালান মামলায় একজনের ১৪ বছর কারাদণ্ড

কুষ্টিয়ায় স্বর্ণ চোরাচালানের মামলায় নির্মল দত্ত (৬৪) নামে একজনকে ১৪ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তিন লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আজ দুপুরে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. তাজুল ইসলাম আসামির উপস্থিতে এ রায় ঘোষণা করেন। 

দণ্ডপ্রাপ্ত নির্মল দত্ত কুষ্টিয়া শহরের আমলাপাড়া এলাকার মৃত মনিন্দ্র নাথ দত্তের ছেলে। 

আরও পড়ুন:


‘পবিত্র কোরআন অবমাননার’ ব্যাপারে সাংবাদিকদের প্রশ্নে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আমার পিছনে কোন রাজনৈতিক বংশের জোর ছিল না: মোদি

ক্যামেরার সামনেই বিরাট-আনুশকার কথা কাটাকাটি!

সরকারের মদদেই পূজা মণ্ডপে কোরআন অবমাননা: ফখরুল


কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকার পক্ষের কৌঁসুলি (পিপি) অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী বলেন, মামলায় দোষী প্রমাণিত হওয়ায় নির্মল দত্তকে ১৪ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন বিচারক।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

পরকীয়ার কারণেই শিহাব হত্যা

শেখ রুহুল আমিন, ঝিনাইদহ

পরকীয়ার কারণেই শিহাব হত্যা

মায়ের সাথে অনৈতিক সম্পর্কের কথা জেনে যায় শিশুটি। সে কারণেই অপহরণ করে হত্যা করা হয় চুয়াডাঙ্গার কুতুবপুর গ্রামের শিশু শিহাবকে। আর এর মাস্টারমাইন্ড ছিল তারই নিকটাত্বীয় পিন্টু। সম্প্রতি চুয়াডাঙ্গার আলোচিত ক্লুলেস শিশু শিহাব হত্যা মামলার মোটিভ উদ্ধার করেছে পিবিআই।

আজ রোববার ঝিনাইদহ পিবিআই কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পিবিআই’র দ্বায়িত্বরত পুলিশ সুপার মাহাবুবুর রহমান।

সংবাদ সম্মেলনে পিবিআই জানান, ২০১৫ সালের ২৮ অক্টোবর চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার কুতুবপুর গ্রামের প্রবাসী তোয়াজ উদ্দিনের ৮ বছর বয়সী ছেলে শিহাব বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। ২ দিন পর গ্রামের একটি আখ ক্ষেত থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

পিবিআই জানায়, নিহতের মায়ের দায়ের করা মামলা পিবিআই’র হাতে এলে তারা তদন্ত শুরু করে। তদন্তে বেরিয়ে আসে হত্যাকাণ্ডের মূল হোতা তার নিকটাত্বীয় একই গ্রামের জমির উদ্দিন পিন্টু। মুলত ভিকটিমের মায়ের সাথে অনৈতিক সম্পর্ক শিশুটি জেনে ফেলার কারণেই পিন্টু তার সহযোগীদের সাথে যোগসাজস করে তাকে অপহরণ করে হত্যা করে। হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় পুলিশ পিন্টুসহ ৪ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন: 


খেলাধুলার মূল কথা প্রতিযোগিতামূলক মনোভাব সৃষ্টি: মেয়র আতিক


news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

কুয়েট শিক্ষকের মরদেহ তুলে ময়নাতদন্তের আবেদন

সামছুজ্জামান শাহীন, খুলনা

কুয়েট শিক্ষকের মরদেহ তুলে ময়নাতদন্তের আবেদন

ড. সেলিমের মরদেহ

খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. মো. সেলিম হোসেনের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কবর থেকে উত্তোলনের আবেদন করেছে পুলিশ।

রোববার বিকেলে খুলনার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে খানজাহান আলী থানা-পুলিশ এ আবেদন জানিয়েছেন। তবে যেহেতু এ ঘটনায় এখনও মামলা হয়নি, সে কারণে আদালত মরদেহ উত্তোলনের অনুমতি দেয়নি।

খানজাহান আলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা প্রবীর কুমার বিশ্বাস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, শিক্ষকের মরদেহ উত্তোলনের আবেদন করলে আদালতে এ বিষয়ে জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে পুনঃআবেদনের নির্দেশনা দেন। পরে জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে আবেদন করলেও মরদেহ যেহেতু কুষ্টিয়ায় দাফন করা হয়েছে, সে কারণে আবেদনটি কুষ্টিয়া জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে পাঠানো হয়েছে। গত ১ ডিসেম্বর ময়নাতদন্ত ছাড়া ড. সেলিমের মরদেহ
কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার বাঁশগ্রামে দাফন করা হয়েছিল।

জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুর ৩টার দিকে কুয়েটের লালন শাহ হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. মো. সেলিম হোসেন হার্ট অ্যাটাকে মারা যান। কিন্তু শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, মৃত্যুর কয়েক ঘণ্টা আগে অধ্যাপক সেলিম হোসেন কুয়েট শাখা ছাত্রলীগের বেশ কয়েকজন নেতা-কর্মীর মানষিক নিপিড়নের শিকার হয়েছিলেন।

আরও পড়ুন: 


খেলাধুলার মূল কথা প্রতিযোগিতামূলক মনোভাব সৃষ্টি: মেয়র আতিক


news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ঢাকা ও চট্টগ্রামে বিআরটি'র অভিযানে ৩৩ বাসকে জরিমানা

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকা ও চট্টগ্রামে বিআরটি'র অভিযানে ৩৩ বাসকে জরিমানা

ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরীতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) আজ রোববার ১০টি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেছে। পরিচালিত অভিযানে ৩৩ বাসকে দুই লাখ চার হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। 

আজ রোববার সন্ধ্যায় বিআরটিএর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়। 

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, অভিযানে ১৯টি ডিজেল চালিত বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করায় ৮৯ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন


চট্টগ্রামেও হাফ ভাড়া নেওয়ার ঘোষণা


এক রুটের বাস অন্য রুটে চলায় ১১টি বাসকে ৪৮ হাজার টাকা এবং অন্যান্য অপরাধে ৭১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এ ছাড়া তিনটি বাস ডাম্পিংয়ে পাঠানো হয়েছে এবং একজনকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

অযথা ক্ষমতা দেখাবেন না, দুদককে হাইকোর্ট

অনলাইন ডেস্ক

অযথা ক্ষমতা দেখাবেন না, দুদককে হাইকোর্ট

হাইকোর্ট

ক্ষমতার অপব্যবহার নিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) সতর্ক করে হাইকোর্ট বলেছেন, ক্ষমতা থাকলেই কেন অপব্যবহার করবেন! অযথা ক্ষমতা দেখাবেন না। 

রোববার (৫ ডিসেম্বর) বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ দুদকের আইনজীবীর উদ্দেশ্যে এই মন্তব্য করেন।

আফতাব অটো মোবাইল লিমিটেডের কো-অপারেটিভ ডিরেক্টর মো. মামুন খানের বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা নিয়ে রোববার এক রিট শুনানিতে আদালত তার পর্যবেক্ষণে দুদকের উদ্দেশ্যে এ কথা বলেন।

মামুনের বিদেশ গমনে নিষেধাজ্ঞা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে এদিন রুল জারি করেন বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ। একইসঙ্গে সংশ্লিষ্টদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মো. জয়নাল আবেদীন ও অ্যাডভোকেট সাঈদা ইয়াসমিন।

এ বিষয়ে অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন বলেন, অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ২০১৯ সালের মার্চ মাসে আফতাব অটো মোবাইল লিমিটেডের কো-অপারেটিভ ডিরেক্টর মো. মামুন খানের বিরুদ্ধে দুদক নোটিশ পাঠায় এবং তাকে দুদক কার্যালয়ে হাজির হতে বলা হয়। সে অনুযায়ী মামুন খান দুদক কার্যালয়ে উপস্থিত হন। এরপরও ২০১৯ সালের ৭ সেপ্টেম্বর তার বিদেশযাত্রায় নিষেধাঞ্জা দিয়ে ইমিগ্রেশন পুলিশকে চিঠি পাঠায় সংস্থাটি। দুদকের চিঠির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে গত আগস্ট মাসে হাইকোর্টে রিট করেন মামুন খান।

আরও পড়ুন:


চট্টগ্রামেও হাফ ভাড়া নেওয়ার ঘোষণা

লকডাউন দেয়ার বিষয়ে যা জানালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী


সেই রিটের শুনানিতেই আদালত দুদকের উদ্দেশ্যে বলেন, ক্ষমতা থাকলেই অপব্যবহার করবেন না। অযথা ক্ষমতা দেখাবেন না। একজন মানুষকে ২০১৯ সালে নোটিশ দিলেন, কিন্তু এখনও নিষ্পত্তি করলেন না। আবার তার বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা দিলেন। কেয়ামত পর্যন্ত কি এ নিষেধাজ্ঞা থাকবে?

এরপরই আদালত মামুন খানের বিদেশ গমনে নিষেধাজ্ঞা কেন অবৈধ ঘোষণা হবে না, এ মর্মে রুল জারি করেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

দুই শিশু হত্যার ঘটনায় মায়ের নামে বাবার মামলা

অনলাইন ডেস্ক

দুই শিশু হত্যার ঘটনায় মায়ের নামে বাবার মামলা

গাজীপুর

গাজীপুর মেট্টোপলিটানের পশ্চিম জয়দেবপুর এলাকায় দুই কন্যা শিশুকে হত্যার দায়ে মা লিজা আক্তারের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করা হয়েছে। সদর থানায় আজ রোববার সকালে নিহতদের বাবা বিল্লাল হোসেন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। 

ময়নাতদন্তের পর নিহত দুই শিশুকন্যার মরদেহ কুমিল্লার দেবিদ্বার গ্রামের বাড়িতে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পর থেকে ওই এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে। নিহতরা হলো- তাবিহা ও  বুশরা। 

আরও পড়ুন


চট্টগ্রামেও হাফ ভাড়া নেওয়ার ঘোষণা


স্থানীয়রা জানায়, শনিবার সন্ধ্যায় নগরের সদর থানার পশ্চিম জয়দেবপুর মোক্তারটেক এলাকার শামসুল হক মাস্টারের বাড়ির ভাড়াটিয়া বিল্লাল হোসেনের দুই শিশুকে হত্যার পর তার স্ত্রী লিজা আক্তার সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ওড়না পেচিয়ে ফাঁসিতে ঝুলে। পরে বিল্লাল হোসেনের ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে লিজা আক্তারকে হাসপাতালে পাঠায়।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার মো. জাকির হাসান জানান, মরদেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত করাতে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। আর তাদের মা লিজা আক্তার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। 

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর