ঘরে ঢুকে গৃহবধূকে ধর্ষণ, আ.লীগ নেতা গ্রেফতার

অনলাইন ডেস্ক

ঘরে ঢুকে গৃহবধূকে ধর্ষণ, আ.লীগ নেতা গ্রেফতার

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় গামছা দিয়ে চোখ-মুখ বেঁধে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণের অভিযোগে রোববার রাতে রাঙ্গাবালী থানায় একটি মামলা করা হয়। রাতেই ওই মামলায় প্রধান অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতা হাসান মৃধাকে (৪২) উপজেলার ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের কোড়ালিয়া বাজার থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গ্রেফতার হাসান মৃধা ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। সোমবার সকালে তাকে গলাচিপা জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়। 

এর আগে শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের ছোটবাইশদিয়া গ্রামে ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, গ্রেফতার হাসান মৃধা অজ্ঞাতনামা একজন আসামি নিয়ে গৃহবধূর স্বামীর ঘরে ঢুকে তার চোখ ও মুখ গামছা দিয়ে বেঁধে ফেলে। গরম বস্তু দিয়ে গৃহবধূর বাম হাতে এবং বাম কোমরে ছেকা দেয়। একপর্যায় অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি গৃহবধূর দুই হাত চেপে ধরে রাখে। আর হাসান মৃধা তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। 

আরও পড়ুন


বঙ্গবন্ধু যেতেই গুলি বন্ধ করল বিডিআর

মানুষের সঙ্গে যেভাবে কথা বলতেন বিশ্বনবী

সূরা বাকারা: আয়াত ১২৮-১৩৩, আল্লাহর নির্দেশ ও হয়রত ইব্রাহিম (আ.)

কলকাতা প্রেস ক্লাবে ‘বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার’


রাঙ্গাবালী থানার ওসি দেওয়ান জগলুল হাসান বলেন, এ ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে। আসামিকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে নিয়ে কটূক্তি

এবার জাহাঙ্গীরের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

অনলাইন ডেস্ক

এবার জাহাঙ্গীরের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

সাময়িক বহিষ্কৃত মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলম (ফাইল ছবি)

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সাময়িক বহিষ্কৃত মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে। সোমবার ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আসসামছ জগলুল হোসেনের আদালতে ঢাকা আইনজীবী সমিতির সদস্য ওমর ফারুক আসিফ এ মামলা করেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে নিয়ে কটূক্তি করায় তার বিরুদ্ধে এ মামলা করা হয়েছে। ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি নজরুল ইসলাম শামীম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিন আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করেন। এরপর শুনানি শেষে আদালত মামলার অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করে আগামী ৬ জানুয়ারির মধ্যে সিআইডিকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

 

পরবর্তী খবর

শিশু হত্যা করে পুঁতে ফেলার শাস্তি মৃত্যুদণ্ড

বেলাল রিজভী, মাদারীপুর

শিশু হত্যা করে পুঁতে ফেলার শাস্তি মৃত্যুদণ্ড

শিশু হত্যা মামলার রায় ঘোষণা, প্রতীকী ছবি।

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার সেনদিয়া গ্রামে শিশু হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করা হয়েছে। মাদারীপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক নিতাই চন্দ্র সাহা সোমবার সকালে এই  রায় দেন। রায়ে তিনজনকে ফাঁসি ও একজনকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত। মৃত্যুদণ্ড ছাড়াও ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানাও করা হয়।

মাদারীপুর পাবলিক প্রসিকিউটর (পি.পি) মো. সিদ্দিকুর রহমান সিং এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- রাজৈর পশ্চিম স্বরমঙ্গল গ্রামের রফিক হাওলাদারের ছেলে রাজিব হাওলাদার ( ৪১), কোদালিয়া বাজিতপুরের মুহিত গাছীর ছেলে রিমন হোসাইন ওরফে ইমন গাছী (৩২) ও  পিরোজপুর জেলার ভৈরমপুরের রফিকুল ইসলাম মোল্লার ছেলে শফিকুল ইসলাম মোল্লা (৩১)।

এছাড়া এ মামলায় বাগেরহাট জেলার সেলিম হাওলাদারের (৪১) বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২০ সেপ্টেম্বর  রবিবার সকাল সাড়ে ৬ টার দিকে সেনদিয়া জামে মসজিদে আরবি পড়তে গিয়ে নিখোঁজ হয় টুকু সরদারের মেয়ে আদুরী আক্তার (০৫) । নিহতের বাবা টুকু সরদার বাদী হয়ে ২০১৫ সালের  ২২ সেপ্টেম্বর ছয়জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত আরো ৪ থেকে পাঁচজনকে আসামি করে রাজৈর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। মামলা দায়েরের পরে ওই মসজিদের ইমাম শফিকুল ইসলামকে রাজৈর থানা-পুলিশ গ্রেপ্তার করলে তিনি পুলিশের কাছে খুনের ঘটনা স্বীকার করে এবং তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী মসজিদের পাশ থেকে আদুরী আক্তারের বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার করে। পরে মামলার চার আসামিকে পুলিশ গ্রেপ্তার করলে তিন আসামি উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে অদ্যাবধি পলাতক রয়েছে। মামলার রায়ের দিন মামলার এক আসামি রিমন হোসাইন ওরফে ইমন গাছী আদালতে উপস্থিত ছিল। এসময় তিনজনকে মৃত্যুদণ্ড ও একজনকে খালাস দেন আদালত।

নিহতের বাবা টুকু সরদার বলেন, আমার মেয়ে হত্যার রায়ে আমি খুশি হয়েছি। আমার সরকারের কাছে একটাই দাবী এই ফাসির রায় যেন দ্রুত কার্যকর হয়।

আরও পড়ুন:


ফের মেয়র নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রীর ভাতিজা

হেফাজত মহাসচিব নুরুল ইসলাম জিহাদী না ফেরার দেশে

পীরগঞ্জে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত বেড়ে ৩


 

মাদারীপুর পাবলিক প্রসিকিউটর মো. সিদ্দিকুর রহমান সিং বলেন, ২০১৫ সালের ২০ সেপ্টেম্বর আদুরী নামে এক শিশুকে হত্যা করে লাশ বস্তাবন্দী করে লাশ পুঁতে রাখা হয়। পরে পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত মসজিদের ইমামকে গ্রেপ্তার করে এবং তার দেওয়া তথ্যমতে লাশ উদ্ধার করা হয়। ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। এই ঘটনায় আজ বিজ্ঞ সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ নিতাই চন্দ্র সাহা মামলায় রায় দেন। রায়ে তিনজনকে মৃত্যুদণ্ড ও একজনকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়। এই রায়ে আমরা রাষ্ট্রপক্ষ সন্তুষ্ট।

news24bd.tv/ তৌহিদ

পরবর্তী খবর

জি কে শামীমের মায়ের আগাম জামিন নয়

অনলাইন ডেস্ক

জি কে শামীমের মায়ের আগাম জামিন নয়

হাইকোর্ট।

জি কে শামীমের মা আয়েশা আক্তারকে আগাম  জামিন দেননি হাইকোর্ট। ৮ সপ্তাহের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ।

বিস্তারিত আসছে...

news24bd.tv/ তৌহিদ

পরবর্তী খবর

জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে ১০০ কোটির মামলা

শেখ সফিউদ্দিন জিন্নাহ্ , গাজীপুর

জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে ১০০ কোটির মামলা

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সদ্য বরখাস্ত হওয়া মেয়র জাহাঙ্গীর আলম

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সদ্য বরখাস্ত হওয়া মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে এবার ১০০ কোটি টাকার মানহানি মামলা হয়েছে।

রোববার (২৮ নভেম্বর) গাজীপুরের চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাটি করেন আন্তর্জাতিক ভাষা আন্দোলন পরিষদের চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান ওরফে শাহ সুলতান আতিক।

মামলার বাদী গাজীপুর মহানগরের বাসন থানার নলজানী এলাকার মৃত আব্দুল আউয়ালের ছেলে। তিনি গণফ্রন্টের গাজীপুর জেলা শাখার সভাপতিও। তিনি মামলার আবেদনে অভিযোগ করেন, জাহাঙ্গীর একজন মেয়র হয়েও আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল নন।

চলতি বছরের ১৩ সেপ্টেম্বর বিকেলে তার বাসায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও স্বাধীনতার ইতিহাস নিয়ে কটূক্তি করেন, যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। তার বক্তব্যে সমগ্র বাংলাদেশ ও বাঙালি জাতির সুনাম ক্ষুণ্ন হয় এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়। মামলায় তার ১০০ কোটি টাকার মানহানি হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।

আরও পড়ুন: 


তাইজুল ম্যাজিকে লিড পেলো বাংলাদেশ

শাহ সুলতান আতিক বলেন, আদালত মামলাটি গ্রহণ করে গাজীপুর মহানগর পুলিশের সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্কমর্তাকে (ওসি) তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। আগামী ৩০ জানুয়ারির মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলেরও নিদের্শ দেওয়া হয়েছে।

এর আগে গত মঙ্গলবার মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের অভিযোগে রাজবাড়ীর আদালতে তার বিরুদ্ধে একটি মামলা করা হয়। এছাড়া পঞ্চগড়েও তার বিরুদ্ধে একটি মামলা হয়েছে বলে জানা গেছে।

news24bd.tv তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ব‌রিশা‌লে ইভ্যালির এমডির বিরুদ্ধে তিন‌টি মামলা

অনলাইন ডেস্ক

ব‌রিশা‌লে ইভ্যালির এমডির বিরুদ্ধে তিন‌টি মামলা

ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা প‌রিচালক মোহাম্মদ রা‌সে‌ল

ই কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা প‌রিচালক মোহাম্মদ রা‌সে‌লের বিরু‌দ্ধে ব‌রিশা‌লে তিন‌টি চেক প্রতারণার মামলা দা‌য়ের করা হ‌য়ে‌ছে। আজ রোববার (২৮ নভেম্বর) ব‌রিশাল অ‌তি‌রিক্ত চীফ মে‌ট্রোপ‌লিটন ম্যাজি‌স্ট্রেট আদাল‌তের বিচারক মো. মাসুম বিল্লাহ পৃথক তিন‌টি মামলা আম‌লে নি‌য়ে সমন জা‌রি ক‌রেন।

আদাল‌তের বেঞ্চ সহকা‌রি চার‌চিল ও বাদী প‌ক্ষের আইনজীবী মোস্তা‌ফিজুর রহমান বিষয়‌টি নি‌শ্চিত ক‌রে‌ছেন ।

আরও পড়ুন:


হেফাজত মহাসচিব মাওলানা নুরুল ইসলাম আইসিইউতে

অন্তঃসত্ত্বা নারীকে হত্যা করে পেট চিরে বাচ্চা চুরি!


মামলা সূ‌ত্রে জানা যায়, ব‌রিশা‌লের বা‌সিন্দা নিলয় শরীফ মোটরসাই‌কেল ক্রয়ের জন্য ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা, সা‌দিকুর রহমান সুরুজ ২ লাখ ৭১ হাজার টাকা এবং মো. ফেরদাউস ১ লাখ ৭৪ হাজার টাকা ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা প‌রিচালক মোহাম্মদ রা‌সে‌লের বরাবরে প্রদান ক‌রেন। এর বিপরী‌তে ৩ জনকে চেক দেয়া হ‌য়েছিল। তারা চেক নি‌য়ে ব্যাংকে গেলে ব্যাংক তাদেরকে চেক ফেরত দেওয়া হয়।

প‌রে তারা পোস্ট অ‌ফিসের মাধ্যমে টাকা ফেরত চে‌য়ে লিগ্যাল নো‌টিশ পাঠায়। এ ব্যাপারে কো‌নো উত্তর না পেয়ে ৩ জনে পৃথক তিন‌টি মামলা দা‌য়ের করেন।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর