ইতিহাসে আজকের এই দিনে

অনলাইন ডেস্ক

ইতিহাসে আজকের এই দিনে

আজ মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১। ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয় এক নজরে দেখে নিন ।

ঘটনাবলি:
১৩৮৬ -  জার্মানির সবচেয়ে প্রাচীন উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হাইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়।
১৩৮৬ -  ওসমানীয় বাহিনী বুলগেরিয়ার রাজধানী সোফিয়া দখল করে।
১৭৮১ -  যুক্তরাষ্ট্রে ব্রিটিশ সেনা প্রধান লর্ড কর্ণওয়ালিস মার্কিন সেনা প্রধান জর্জ ওয়াশিংটনের কাছে আত্মসমর্পণ করার মাধ্যমে আমেরিকার স্বাধীনতা যুদ্ধের অবসান ঘটে।
১৮১২ -  প্রাকৃতিক প্রতিকূলতার কারণে নেপোলিয়ন মস্কো ত্যাগে বাধ্য হন।
১৮৮৮ -  রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর শান্তিনিকেতন প্রতিষ্ঠা করেন।
১৯২৩ -  কামাল পাশার নেতৃত্বে আধুনিক ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র তুর্কি প্রজাতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়।
১৯৪২ -  চলচ্চিত্রবিষয়ক প্রথম মাসিক পত্রিকা ‘চিত্রপঞ্জি’ প্রকাশিত হয়।
১৯৪৪ -  ফিলিপাইনে মার্কিন সেনাদের সাথে জাপানি সৈন্যদের সংঘর্ষ শুরু হয়।
১৯৫০ -  জাতিসংঘ বাহিনী উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ং ইয়ং দখল করে।
১৯৫১ -  ব্রিটেন সুয়েজ খান অঞ্চল অধিকার করে।
১৯৫৪ -  একদল অস্ট্রেলীয় অভিযাত্রীরা পৃথিবীর ষষ্ঠ উচ্চতম পর্বত চো ওইয়ু বিজয় করেন।
১৯৬২ -  ভারত-চীন সীমান্ত সংঘর্ষ শুরু হয়।
১৯৬৫ -  চীন-নেপালে আনুষ্ঠানিক প্রত্যক্ষ ডাক-ব্যবস্থা চালু হয়।
১৯৭২ -  বাংলাদেশ ইউনেস্কোর সদস্যপদ লাভ করে।
১৯৭৩ -  স্পেনে বন্যায় ২শ’ লোকের প্রাণহানি ঘটে।
১৯৭৬ -  ফিলিস্তিন মুক্তি সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা আলী হাসান সালামাহ্ ইহুদীবাদী ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থা মুসাদের ষড়যন্ত্রের স্বীকার হয়ে লেবাননে শাহাদাত বরণ করেন।
১৯৭৭ -  দক্ষিণ আফ্রিকার ১৮টি বর্ণবাদ বিরোধী সংগঠনকে নিষিদ্ধ ঘোষণা।
১৯৮৩ -  বামপন্থী সামরিক অভ্যুত্থানে গ্রেনেডার প্রধানমন্ত্রী মবিশ নিহত।
১৯৮৬ -  দক্ষিণ আফ্রিকার সীমান্তে বিমান দুর্ঘটনায় মোজাম্বিকের প্রেসিডেন্ট সামোর মাশেল ৩০ জন সহযাত্রীসহ নিহত হন।
১৯৮৮ -  ভারতে পৃথক বিমান দুর্ঘটনায় ১৬৪ জন নিহত হন।
১৯৯১ -  বাংলাদেশে রাষ্ট্রপতি শাসিত সরকারের অবসান হয়।
১৯৯৩ -  পিপলস পার্টির নেত্রী বেনজীর ভুট্টো দ্বিতীয় বারের মতো পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন।
১৯৯৬ -  পেইচিংয়ে চীনের প্রথম হট এয়ারশীপ ” চীন ১ নম্বর” সাফল্যের সঙ্গে আকাশে উড়ে ।

জন্ম:
১৬০৫ -  ইংরেজ সাহিত্যিক স্যার টমাস ব্রাউন।
১৮৯৭ -  পাকিস্তানি শিক্ষাবিদ ও বিজ্ঞানী অধ্যাপক সেলিমুজ্জামান সিদ্দিকী।
১৮৯৯ -  গুয়াতেমালার নোবেলজয়ী (১৯৬৭) কথাশিল্পী মিগুয়েল আনজেল আন্তুরিয়াস।
১৯০৩ -  কথাসাহিত্যিক অচিন্ত্য কুমার সেনগুপ্ত ।
১৯১০ -  ব্রিটিশ ভারতে জন্মগ্রহণকারী মার্কিন জ্যোতিঃপদার্থবিজ্ঞানী সুব্রহ্মণ্যন চন্দ্রশেখর।
১৯২৪ -  রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী সুচিত্রা মিত্র জন্মগ্রহন করেন।

আরও পড়ুন


দলে পরিবর্তন, এক নজরে ওমানের বিপক্ষে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ

যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ পররাষ্ট্রমন্ত্রী কলিন পাওয়েল মারা গেছেন

বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ, আরও দুদিন বৃষ্টির সম্ভাবনা

চিকিৎসকের আত্মহত্যা, লাশের পাশে পড়ে থাকা চিঠিতে যা লেখা ছিল


মৃত্যু:

১৭৪৫ -  ইংরেজ সাহিত্যিক জোনাথন সুইফট।
১৯৩৬ -  মহান চীনা সাহিত্যিক লু স্যুন।
১৯৩৭ -  নিউজিল্যান্ডীয় নিউক্লীয় পদার্থবিজ্ঞানী আর্নেস্ট রাদারফোর্ড।
১৯৭৪ -  কবি ফররুখ আহমদ।
১৯৮৭ -  লোকগীতি সংগ্রাহক ও সম্পাদক মুহম্মদ মনসুর উদ্দীন ইন্তেকাল করেন।
১৯৯৫ -  শিল্পপতি জহুরুল ইসলাম ।
২০০৩ -  বসনিয়ার বিশিষ্ট লেখক ও রাজনীতিবিদ আলী ইজ্জাত বেগুভিচ পরলোকগমন করেন।
২০০৪ -  কানাডীয় টুরিং পুরস্কার বিজয়ী কম্পিউটার বিজ্ঞানী কেনেথ আইভার্সন।
২০১৪ -  বাংলাদেশের ইতিহাসবিদ ও জাতীয় অধ্যাপক সালাহ্উদ্দীন আহমদ।

news24bd.tv রিমু  

পরবর্তী খবর

না ফাটিয়ে যেভাবে বুঝবেন ডিম নষ্ট কিনা

অনলাইন ডেস্ক

না ফাটিয়ে যেভাবে বুঝবেন ডিম নষ্ট কিনা

সিদ্ধ ডিম

ডিম আমাদের খাদ্যতালিকার একটি অত্যাবশ্যকীয় উপাদান। ফলে সময় বাঁচাতে অনেকেই একসঙ্গে বেশি পরিমাণে ডিম কিনে সংরক্ষণ করেন। এ ক্ষেত্রে প্রায় ডিম নষ্ট হওয়ার ভয় থাকে। না ফাটিয়ে ডিম নষ্ট নাকি ভালো, তা অনেকেই বুঝতে পারেন না।

কিন্তু লবণের সাহায্যে খুব সহজেই জেনে নেওয়া যায় ডিম নষ্ট কিনা-

ডিম ভাঙার আগে সেটি ভালো নাকি নষ্ট তা বুঝতেও সাহায্য করতে পারে লবণ। এক গ্লাস পানিতে আধা চা-চামচ লবণ ভালোভাবে মেশাতে হবে। এরপর গ্লাসে ডিমটি দিতে হবে। যদি ডিমটি তাজা হয় তবে সেটি ডুবে যাবে আর যদি নষ্ট হয় তবে ভেসে থাকবে।

এছাড়া ডিমের খোসা ছাড়াতে সমস্যা হলে ডিম সিদ্ধ করার সময় পানিতে এক চিমটি লবণ দিয়ে দিলে খুব সহজেই খোসা ছাড়ানো যাবে।

পরবর্তী খবর

বিশ্বের দ্রুততম বৈদ্যুতিক উড়োজাহাজ রোলস-রয়েসের

চন্দ্রানী চন্দ্রা

অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি গতির এক নতুন যুগে প্রবেশ করছে আকাশ যোগাযোগব্যবস্থা। যুক্তরাজ্যের প্রতিষ্ঠান রোলস-রয়েস নতুন তৈরি করেছে বৈদ্যুতিক উড়োজাহাজ স্পিরিট অব ইনোভেশন। যার গতি ঘণ্টায় ৬২৩ কিলোমিটার। 

রোলস-রয়েসের তৈরি এই বৈদ্যুতিক উড়োজাহাজ। নাম দেওয়া হয়েছে স্পিরিট অব ইনোভেশন। প্রতিষ্ঠাটির পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তারা বিশ্বাস করে, বিশ্বের দ্রুতগতির উড়োজাহাজটি স্পিরিট অব ইনোভেশন। এই উড্ডয়নের তথ্য ওয়ার্ল্ড এয়ার স্পোর্টস ফেডারেশনে পাঠানো হয়েছে।

ওয়ার্ল্ড এয়ার স্পোর্টস ফেডারেশন অ্যারোনটিক্যাল ও অ্যাস্ট্রোনটিক্যাল-সংক্রান্ত রেকর্ডের স্বীকৃতি দিয়ে থাকে। তথ্য অনুসারে, গত ১৬ নভেম্বর স্পিরিট অব ইনোভেশনের গতি পরীক্ষা করা হয়। এই উড্ডয়নের সময় ৩ কিলোমিটার উড়েছে ৫৯৯ দশমিক ৯ কিলোমিটার গতিতে এবং ১৫ কিলোমিটার চলেছে ৫৩২ দশমিক ১ কিলোমিটার গতিতে। যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা দপ্তরের টেস্টিং সাইটেও এর পরীক্ষা চালানো হয়। এই উড়োজাহাজের পরীক্ষা যে পাইলট চালিয়েছেন, তার নাম ফিল ও’ডেল। তিনি ফ্লাইট অপারেশনের পরিচালকও। 


আরও পড়ুন:

ঢাবির গ ইউনিটের ফল প্রকাশ, ৭৮ শতাংশই ফেল

বুলগেরিয়ায় বাসে আগুন লেগে নিহত ৪৬

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিসহ আটক ১২৯


রোলস-রয়েসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, পূর্বের যে রেকর্ড ছিল, তার চেয়ে এবারের উড়োজাহাজের গতি ২১৩ কিলোমিটার বেশি। এর আগে ২০১৭ সালে এই রেকর্ড করেছিল সিমেন্স ই-এয়ারক্র্যাফট।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

সাগরিকা এখন বাস কন্ডাক্টর

অনলাইন ডেস্ক

সাগরিকা এখন বাস কন্ডাক্টর

আফিক হোসেনকে বল ছুঁড়ে মারার দৃশ্য।

চাকরি না পেয়ে স্নাতক পাস করা সাগরিকা পল্লবী এখন দূরপাল্লার বাসে কন্ডাক্টর। ভারতের চন্দ্রকোনা ঘটনা এটি। সগরিকা রসায়নের স্নাতক সম্পন্ন করেছেন।

তিনি চাকরি না পেয়ে নিজেই স্বনির্ভর হওয়ার পথ বেঁছে নিয়েছেন।

কয়েক মাস আগে স্বাবলম্বী হওয়ার লক্ষ্যে একটি বাস কেনেন সাগরিকা। শুরু করেন পরিবহন ব্যবসা।

এখন ওই বাসটি চন্দ্রকোনা থেকে কলকাতা স্টেশন পর্যন্ত চলাচল করছে। তাতেই কন্ডাক্টরি করেন সাগরিকা। এই কাজে তিনি পাশে পেয়েছেন তার স্বামীকেও। খবর আনন্দবাজারের।

সাগরিকা বলেন, ‘শুরুতে এই কাজ মেনে নিতে পারেননি পরিবারের অনেকেই। কিন্তু পরে তারা বুঝতে পেরেছেন কোনো কাজই ছোট নয়। তা ছাড়া সৎ পথে উপার্জন তো কোনো অন্যায় নয়।’

আরও পড়ুন: 


পরীক্ষার হলেই মৃত্যু হলো পরীক্ষার্থীর

ঢাকায় এলেন আরও ১৪ পাক ক্রিকেটার


 

প্রতিদিন রাত ৩টার সময় ঘুম থেকে উঠে প্রস্তুত হতে হয়। কাঁধে কন্ডাক্টরি ব্যাগ নিয়ে ভোর ৫টার আগে পৌঁছে যেতে হয় চন্দ্রকোনা টাউন কেন্দ্রীয় বাসস্ট্যান্ডে। তারপর ভোর সোয়া ৫টা নাগাদ বাস রওনা হয় কলকাতার উদ্দেশে। তখন থেকেই শুরু হয় সাগরিকার কাজ।

বাস কেনার শুরুতে অবশ্য সাগরিকা এই কাজ করতেন না। অন্য কন্ডাক্টর দিয়ে কাজ করানোয় খরচও হতো বেশি। এখন নিজের হাতে সবটা দেখভাল করেন সাগরিকা।

news24bd.tv/ তৌহিদ

পরবর্তী খবর

ফোন আপনার হাতে কিন্তু নিয়ন্ত্রণ করছে হ্যাকাররা, কী করবেন?

অনলাইন ডেস্ক

ফোন আপনার হাতে কিন্তু নিয়ন্ত্রণ করছে হ্যাকাররা, কী করবেন?

হ্যাকারদের হাত থেকে ফোনকে নিরাপদ রাখতে আমরা কতভাবেই না সতর্ক থাকি। তবে আপনার অজান্তেই চুরি হয়ে যাচ্ছে ব্যক্তিগত সব তথ্য সেদিকে কি সতর্ক আছেন? হ্যাঁ। সত্যই শুনেছেন। সম্প্রতি এমনই একটি ম্যালওয়ারের খোঁজ মিলল। যে 'ফোনস্পাই' ম্যালওয়ার অ্যান্ড্রয়েড ফোনের গোপনীয়তা ধ্বংস করছে। ইতিমধ্যে ২৩টি অ্যাপে চিহ্নিত করা হয়েছে সেই 'ফোনস্পাই' ম্যালওয়ার।  

গুগল প্লে স্টোরে অবশ্য অ্যাপগুলো নেই। তা সত্ত্বেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং কোরিয়ায় রীতিমতো দাপট দেখাচ্ছে। 

এ বিষয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মোবাইল নিরাপত্তা সংক্রান্ত সংস্থা জানিয়েছে, অন্যান্য ম্যালওয়ার ফোনের ফাঁকফোকরের সুবিধা নেয়। তারপর তথ্য চুরি করে নেয়। কিন্তু 'ফোনস্পাই' একেবারে সাধারণ অ্যাপের মতো লুকিয়ে থাকে। কার্যত খালি চোখে ধরা যাবে না।

মেসেজ, ছবির মতো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য চুরি করে নিতে পারে 'ফোনস্পাই'। এমনকি দূর থেকে আপনার ফোনকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে সাইবার অপরাধীরা। অর্থাৎ ফোন নামেই আপনার কাছে থাকবে। কিন্তু তা নিয়ন্ত্রণ করবে হ্যাকাররা।

এছাড়া বিভিন্ন লগইন আইডি, পাসওয়ার্ডের জিনিস চুরি হয়ে যেতে পারে।

তবে চলুন জেনে নিই, কীভাবে ফোনস্পাইয়ের হাত থেকে রক্ষা পাবেন- 

১) তৃতীয়-পার্টি অ্যাপ স্টোর থেকে কোনও অ্যাপ ডাউনলোড এবং ইনস্টল করবেন না। গুগল প্লে স্টোর থেকেই অ্যাপ ডাউনলোড করা যাবে।

আরও পড়ুন:


সেই তিন বোনের পালানোর রহস্য জানা গেল


২) মেসেজ বা ইমেলের মাধ্যমে কোনও সন্দেহজনক লিঙ্ক এলে তাতে ক্লিক করবেন না। ডাউনলোড এবং ইনস্টল করবেন না। গুগল প্লে স্টোর থেকেই অ্যাপ ডাউনলোড করা যাবে।

৩) মেসেজ বা ইমেলের মাধ্যমে কোনও সন্দেহজনক লিঙ্ক এলে তাতে ক্লিক করবেন না। 

news24bd.tv রিমু  

পরবর্তী খবর

আজ বিশ্ব পুরুষ দিবস

পুরুষের ইতিবাচক ভাবমূর্তি তুলে ধরার দিন আজ

অনলাইন ডেস্ক

পুরুষের ইতিবাচক ভাবমূর্তি তুলে ধরার দিন আজ

আজ ১৯ নভেম্বর, আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস। প্রতি বছর এই দিনে বিশ্বব্যাপী পুরুষদের মধ্যে লিঙ্গ ভিত্তিক সমতা, বালক ও পুরুষদের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করা এবং পুরুষের ইতিবাচক ভাবমূর্তি তুলে ধরার প্রধান উপলক্ষ হিসেবে এই দিবসটি উদযাপন করা হয়।

আন্তর্জাতিক পুরুষ দিবস পালন শুরু হয় নব্বইয়ের দশকে। এই দিবস পুরুষদের সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক এবং আর্থ-সামাজিক কৃতিত্বকে স্বীকৃতি দিয়ে উদযাপন করা হয়ে থাকে।

পুরুষ দিবসের ইতিহাস বেশ পুরনো। ১৯৯৪ সালে পুরুষ দিবস পালনের প্রথম প্রস্তাব করা হয়। তবে ১৯২২ সাল থেকে সোভিয়েত ইউনিয়নে পালন করা হতো রেড আর্মি অ্যান্ড নেভি ডে। এই দিনটি পালন করা হতো মূলত পুরুষদের বীরত্ব আর ত্যাগের প্রতি সম্মান জানিয়ে।

২০০২ সালে দিবসটির নামকরণ করা হয় ডিফেন্ডার অফ দ্য ফাদারল্যান্ড ডে। রাশিয়া, ইউক্রেনসহ তখনকার সময়ে সোভিয়েত ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোতে এই দিবসটি পালন করা হতো। নারী দিবসের অনুরূপভাবেই দিবসটি পালিত হয়।

পরবর্তী খবর