যুবলীগ চেয়ারম্যানের নম্বর ক্লোন করে চাঁদা দাবি, আটক দুই

অনলাইন ডেস্ক

যুবলীগ চেয়ারম্যানের নম্বর ক্লোন করে চাঁদা দাবি, আটক দুই

যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের মোবাইল নম্বর ক্লোন করে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কাছে টাকা দাবি করা হয়েছে। এ অভিযোগে প্রতারক চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিট। 

আজ মঙ্গলবার ভোরে ফরিদপুর থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- ফিরোজ খন্দকার ও রাকিবুল।  

তাদের তিন দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। রিমান্ডে প্রতারক চক্রের আরো তথ্য জানা যাবে বলে মনে করছে পুলিশ। সকালে সিএমএম কোর্টের বিচারক আশেক ইমামের আদালতে তোলা হলে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড চাওয়া হয়। পরে আদালত তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।  

মামলার বাদী ব্যারিস্টার রানা তাজউদ্দিন খান বলেন, সম্প্রতি যুবলীগ চেয়ারম্যানের মোবাইল নম্বর ক্লোন করে প্রশাসনের কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গসহ বিভিন্নজনের কাছে টাকা দাবির মতো ঘটনা ঘটছে। এ নিয়ে বনানী থানায় মামলা করা হলে সাইবার ক্রাইম টিম প্রতারক চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করে।  আজ মঙ্গলবার সকালে এ অভিযানের নেতৃত্ব দেওয়া সাইবার ক্রাইমের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার ধ্রুব জ্যোর্তিময় গোপ বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন।

সূত্র জানায়, গ্রেপ্তারের আগে ফিরোজ খন্দকার  লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। তিনি ঢাকার খিলখাঁও থেকে কেরানীগঞ্জের মধ্যে বিভিন্ন বুথ থেকে এ প্রতারণার টাকা তোলেন। সন্দেহ এড়াতে এ প্রতারণা টাকা উত্তোলনের সময় মোটরসাইকেলে চড়ে বিভিন্ন বুথ থেকে অল্প অল্প করে টাকা তোলেন। তবে শেষ রেহাই পাননি ফিরোজ খন্দকার। অভিযোগ পেয়ে পুলিশের সিটি সাইবার ইন্টারনেট রেফারেল টিম খিলখাঁও থেকে কেরানীগঞ্জের যেসব বুথ থেকে ফিরোজ খন্দকার টাকা তোলেন তার সবগুলোর ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করে।

যুবলীগ চেয়ারম্যানের হয়ে ১৫ অক্টোবর রাজধানীর বনানী থানায় ওই প্রতারকের বিরুদ্ধে মামলা করেন ব্যারিস্টার রানা তাজউদ্দিন খান। মামলাটি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৪ ও ২৬ ধারায় করা হয়েছে। এতে ‘মোবাইল ফোন নম্বর ক্লোনিং করে টাকা দাবির অপরাধের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। মামলার পরপরই সাইবার সিটি টিম তদন্তে নামে। তদন্তের একপর্যায়ে ফিরোজ খন্দকারকে শনাক্ত করে সাইবার সিটি টিম।

আরও পড়ুন:


পিএসসির প্রশ্ন ফাঁস করলে ১০ বছরের জেল: মন্ত্রিপরিষদ সচিব

গাজীপুর সাফারি পার্কে জেব্রা পরিবারে নতুন অতিথি

‘সংখ্যালঘু’ শব্দটি থাকা উচিত না

পায়রা সেতুর উদ্বোধন ২৪ অক্টোবর


সূত্র জানায়, পরশের নাম করে তার ব্যবহৃত রবি নম্বরটি ক্লোন করে গত ৯ অক্টোবর প্রথম ফোন করা হয় গাইবান্ধা যুবলীগের সভাপতি সরদার মো. শাহীন হাসান লোটনের গ্রামীণফোনের নম্বরে। সংগঠনের জন্য চাঁদা হিসেবে তাকে একটি রকেট নম্বরে টাকা পাঠাতে বলা হয়। একই দিন নেত্রকোনা যুবলীগের আহ্বায়ক জনি ও সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগের চপলকে ফোন করে বিকাশ নম্বরে টাকা পাঠাতে বলা হয়।

১০ অক্টোবর মুশফিকুল ইউনুস জায়গীরদার নামে এক ব্যক্তি এবং পাবনা জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক সনি বিশ্বাসকে ফোন করে বিকাশে টাকা চাওয়া হয়। এ ছাড়া গত কয়েক দিনে একই পরিচয়ে দেশের কয়েকজন গণ্যমান্য ব্যক্তিকে ফোন করে টাকা দাবি করে এ প্রতারক চক্র।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক

কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ

ময়মনসিংহের ফুলপুর পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. এহছানুল হকের বিরুদ্ধে তার ওয়ার্ডের এক ছাত্রীকে জন্ম নিবন্ধনের কাগজ দেওয়ার কথা বলে বাসায় নিয়ে ধষণচেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে আজ বুধবার জানতে চাইলে মামলার আইও ফুলপুর থানার এসআই জাহিদ হাসান বলেন, একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

আরও পড়ুন:

গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর

হাফ পাস শুধুমাত্র ঢাকায় কার্যকর হবে বললেন এনায়েত উল্লাহ

কুমিল্লায় কাউন্সিলর হত্যা: ৬ হামলাকারী শনাক্ত


ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ব্যাপারে একটি মামলা হয়েছে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

তরুণীকে ধর্ষণের ভিডিও ইন্টারনেটে, মাসুদ গ্রেফতার

অনলাইন ডেস্ক

তরুণীকে ধর্ষণের ভিডিও ইন্টারনেটে, মাসুদ গ্রেফতার

রিসোর্টে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণ করেছিলো মাসুদ গণি মান্না ওরফে টিকটক মাসুদ। ধর্ষণ করেই ক্রান্ত হননি টিকটক মাসুদ। ধর্ষণের ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয় সে। সেই মামলায়  তাকে গ্রেফতার করেছে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার রাতে শ্রীমঙ্গল থানার পুলিশ সিলেট নগরী থেকে মাসুদকে গ্রেফতার করে। শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শামীম অর রশীদ তালুকদার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।গ্রেফতার মাসুদ হবিগঞ্জ জেলার সদর থানার অনন্তপুর গ্রামের মৃত মলাই মিয়ার ছেলে। তিনি সিলেট নগরীর একটি শোরুমের কর্মচারী।

বুধবার আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়। মাসুদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে রিমান্ডের আবেদন জানিয়েছে পুলিশ।

আরও পড়ুন:

গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর

হাফ পাস শুধুমাত্র ঢাকায় কার্যকর হবে বললেন এনায়েত উল্লাহ

কুমিল্লায় কাউন্সিলর হত্যা: ৬ হামলাকারী শনাক্ত


 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আনোয়ারুল ইসলাম জানান, অভিযুক্ত মাসুদ গণি মান্নার সঙ্গে ফেসবুকে প্রেম ছিল কমলগঞ্জ উপজেলার কালেঙ্গা এলাকার এক ছাত্রীর। ওই ছাত্রী মৌলভীবাজার ম্যাটসে পড়াশোনা করত। ফেসবুকে প্রেম হওয়ার পর মাসুদ ওই তরুণীকে শ্রীমঙ্গলের একটি রিসোর্টে নিয়ে ধর্ষণ করে। তারপর ওই ভিডিও ছেড়ে দেয় ইন্টারনেটে। এছাড়াও বিভিন্ন সময় আপত্তিকর টিকটক তৈরি করে নেটে ছাড়ত মাসুদ।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শ্রীমঙ্গল থানায় মামলা দায়ের করে। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে সিলেট নগরীর কুমারপাড়া এলাকা থেকে মাসুদ গণিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 
news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

জগন্নাথপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধ’, গুলিবিদ্ধ ২৫, আহত ৫০

মো.বুরহান উদ্দিন, সুনামগঞ্জ

জগন্নাথপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধ’, গুলিবিদ্ধ ২৫, আহত ৫০

বন্দুকযুদ্ধে গুলিবিদ্ধরা চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর পৌর শহরের ইসহাকপুর গ্রামে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুপক্ষের বন্দুকযুদ্ধে গুলিবিদ্ধ নারীসহ অর্ধশতাধিক আহত হয়েছেন।

এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ ২৫ জনকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ তিনজনকে আটক করেছে।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) রাতে সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ইসহাকপুর গ্রামের যুক্তরাজ্য প্রবাসী উস্তার গণি ও একই এলাকার নিজামুল করিমের লোকজনের মধ্যে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে একাধিকবার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার সন্ধ্যায় দুপক্ষের লোকজন বন্দুকযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েন। এতে গুলিবিদ্ধ ২৫ জনকে কে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

অপর আহতরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছেন। জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, সংঘর্ষের ঘটনায় জড়িত তিনজনকে আটক করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে রয়েছে।

আরও পড়ুন: 


পায়ের রগকাটা মরদেহ পড়ে আছে নদীর পাড়ে


news24bd.tv /তৌহিদ

পরবর্তী খবর

রাজধানীতে শাপলা ফুলের প্রলোভনে শিশু ধর্ষণ

অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীতে শাপলা ফুলের প্রলোভনে শিশু ধর্ষণ

প্রতীকী ছবি

রাজধানীর ডেমরায়  শাপলা ফুল ও চকলেটের প্রলোভন দেখিয়ে ৫ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর মা মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে অভিযুক্ত রিফাতের (১৯) বিরুদ্ধে ডেমরা থানায় মামলা করেন। 

এদিকে এ ঘটনার খবর পেয়ে এলাকাবাসী রিফাতকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন। পুলিশ ওই রাতেই লম্পট রিফাতকে ধর্ষণ মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে বুধবার আদালতে পাঠায়।

আরও পড়ুন


বাসে আগুন দেয়ার ঘটনায় মামলা, আসামি ৮ শতাধিক

টেস্ট ছাড়া কেউ দেশে এলে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী


অন্যদিকে ভুক্তভোগী মেয়েটিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসিসি) চিকিৎসার পাঠিয়েছে পুলিশ। ডেমরার পূর্ব বক্সনগর এলাকায় গত সোমবার এ ঘটনা ঘটে। 

ডেমরা থানার ওসি খন্দকার নাসির উদ্দিন জানান, ভুক্তভোগী শিশুটির প্রতিবেশী ও পাশের বাড়ির ভাড়াটিয়া লম্পট রিফাত। মেয়েটি তার ৮ বছরের চাচাতো ভাইকে নিয়ে বাড়ির সামনে খেলা করে প্রতিদিন। বিষয়টি খেয়াল করে রিফাত। 

গত সোমবার সকাল ১০টার দিকে খেলা করার সময় রিফাত ওই দুই শিশুকে চকলেট ও শাপলা ফুলের প্রলোভন দেখিয়ে তার ঘরে নিয়ে ছেলেটিকে মোবাইল দিয়ে অপর একটি ঘরে বসিয়ে দেয়। মেয়েটিকে অন্য ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে রিফাত। 

পরবর্তীতে এ ঘটনা ছেলেটি ভুক্তভোগীর মাকে পরের দিন জানায়।মেয়েটিও ভয়ে তার মাকে প্রথমে বিষয়টি জানায়নি। 

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

‌‘যুবলীগের সভা’ নিয়ে দ্বন্দ্ব, ১০ জনকে ছুরিকাঘাত

অনলাইন ডেস্ক

‌‘যুবলীগের সভা’ নিয়ে দ্বন্দ্ব, ১০ জনকে ছুরিকাঘাত

ছুরিকাঘাত, প্রতীকী ছবি।

যশোরে জেলা যুবলীগের বর্ধিত সভা নিয়ে দলীয় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে ১০জন আহত হয়েছে। তাদের মধ্যে পাঁচজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে যশোর শহরের মাইকপট্টি, তসবীর সিনেমা হল ও জজ কোর্ট এলাকায় ছুরিকাঘাতের এ ঘটনা ঘটে।

হাসপাতালে ভর্তিরা হলেন- ইসমাঈল হোসেন হ্যাপী (১৯), টিটু হোসেন (২১), খায়রুল ইসলাম (১৮), রাসেল (২০) ও আকিবুল (১৭)।

অন্যরা হলেন- শামীম হোসেন (১৮), রাব্বি (১৮), জয় আহমেদ (১৭), গোষ্ট গোপাল (২০) ও সোহাগ (২১)। তবে এ ব্যাপারে দায়িত্বশীল কোনো নেতৃবৃন্দের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

আহতদের সূত্রে জানা গেছে, বর্ধিত সভা উপলক্ষে আসা নেতৃবৃন্দকে যশোর সার্কিট হাউস থেকে শহরের চিত্রা মোড়ে একটি অভিজাত আবাসিক হোটেলে নিয়ে যাওয়ার সময় তারা পেছনে ছিলো। এ সময় অজ্ঞাত একদল দুর্বৃত্ত তাদের ছুরিকাঘাত করে।

ডিবি পুলিশের ওসি রুপণ কুমার সরকার বলেন, ছিনতাইকারী হ্যাপি তার ব্যক্তিগত আক্রোশে দুপুরে শহরের আর এন রোডে শামিমকে ছুরিকাঘাত করে। এরই জের ধরে শামীমের লোকজন জজ কোর্ট মোড়ে টিটু, হ্যাপী, খাইরুলদের ছুরিকাঘাত করে জখম করে। এ ঘটনার সঙ্গে যুবলীগের বর্ধিত সভার কোনো সম্পর্ক নেই। তারা কোনো রাজনৈতিক দলের মতাদর্শের কিনা বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: 


পায়ের রগকাটা মরদেহ পড়ে আছে নদীর পাড়ে


যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আব্দুর রশিদ ছুরিকাঘাতে আহত পাঁচজন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে বলে জানিয়েছেন। খায়রুল ইসলাম নামে একজনার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

news24bd.tv /তৌহিদ

পরবর্তী খবর