ভারতের ঢলে বন্যার কবলে তিস্তাপাড়ের মানুষ, আতঙ্কে ঘর ছাড়ছে সবাই

আব্দুর রশিদ শাহ, নীলফামারী

ভারতের ঢলে বন্যার কবলে তিস্তাপাড়ের মানুষ, আতঙ্কে ঘর ছাড়ছে সবাই

উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে তিস্তা নদীর পানি বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বুধবার (২০ অক্টোবর) ভোর ৬টা থেকে তিস্তা নদীর পানি নীলফামারী ডিমলার ডালিয়া তিস্তা ব্যারেজ পয়েন্টে বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

তিস্তার পানি হঠাৎ বেড়ে যাওয়ায় আশে পাশের মানুষের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। ভেঙ্গে গেছে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ফ্লাট বাইপাস রাস্তাটিও। 

ভারি বর্ষণ, উজানের ঢল ও ভারতের গজলডোবার সব কয়টি গেট খুলে দেওয়ায় হু হু করে বাড়ছে তিস্তার পানি। ডিমলা উপজেলার ডালিয়া পয়েন্টে সকাল থেকেই তিস্তা নদীর পানি বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে উপজেলার টেপাখড়িবাড়ী, গয়াবাড়ী, ছোটখাতা, বাইশ পুকুর, ছাতুনামাসহ তিস্তা নদীবেষ্টিত এলাকা তলিয়ে গেছে। এ কারণে রেড অ্যালার্ট জারি করে মানুষজনকে নিরাপদে সরে যাওয়ার জন্য ঘোষণা দিয়েছে তিস্তা অববাহিকায় পানি উন্নয়ন বোর্ড।

ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের পানি পরিমাপক নূরুল ইসলাম জানান, উজানের পাহাড়ি ঢলে মঙ্গলবার রাত থেকে তিস্তা নদীর পানি বাড়তে থাকে। বুধবার ভোর ৬টা থেকে তিস্তার পানি ৫৩ দশমিক ২০ সেন্টিমিটার অর্থাৎ বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার (বিপৎসীমা ৫২ দশমিক ৬০ সেন্টিমিটার) ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানির গতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে তিস্তা ব্যারেজের ৪৪টি জলকপাট খুলে রাখা হয়েছে।

ডিমলা উপজেলার পূর্বছাতনাই ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ খান জানান, এলাকার জিরো পয়েন্টে তিস্তার ডান তীর ও গ্রোয়েন বাঁধ হুমকির মুখে পড়েছে। বিশেষ করে গ্রোয়েন বাঁধটির উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। ওই গ্রোয়েনটি বিধ্বস্ত হলে ডান তীর বাঁধসহ এলাকার শত শত বাড়ি তিস্তা নদীতে ভেসে যাবে।

আরও পড়ুন


উঠতি নায়িকার সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে যে আলাপ হতো আরিয়ানের

বিএনপি নিজেরাই রাজনৈতিকভাবে সাম্প্রদায়িক: ওবায়দুল কাদের

তিন সহোদরের মারামারি, মামলা দিল প্রতিবেশি দুই সরকারি চাকরিজীবীকে

আবাসিক হোটেলে ‘অসামাজিক কাজ’, ৯ তরুণ-তরুণী গ্রেপ্তার


টেপাখড়িবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান ময়নুল হক জানান, পরিস্থিতি খুব খারাপ। তিস্তা বাজার, তেলিরবাজার, দোলাপাড়া, চরখড়িবাড়ি এলাকা তলিয়ে গেছে। চরের ফসলের জমি সব পানির নিচে। ঘরবাড়ি ছেড়ে মানুষজন গবাদি পশুসহ নিরাপদে সরে গেছে।

খালিশা চাপানী ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান সরকার বলেন, কার্তিক মাসের এমন হঠাৎ বন্যা এলাকাবাসীকে পথে বসিয়ে দিচ্ছে। এলাকার ছোটখাতা, বাইশপুকুর, সুপারীপাড়া গ্রাম এখন নদীতে পরিণত হয়েছে।

এদিকে, তিস্তার পানির বৃদ্ধির কারনে ভেঙ্গে  গেছে বাঁধ। ভেঙে যাওয়ার কারণে তলিয়ে গেছে চাষাবাদকৃত বিভিন্ন ফসল ও হুমকিতে পড়েছে কয়েক গ্রামের বাড়িঘর  ও রাস্তাঘাট।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

রামপুরা ব্রিজ অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

অনলাইন ডেস্ক

রামপুরা ব্রিজ অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

রামপুরা ব্রীজে শিক্ষার্থীদের অবরোধ

সড়ক দুর্ঘটনায় একরামুন্নেছা স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী মাঈনুদ্দিন নিহতের প্রতিবাদে রাজধানীর রামপুরা ব্রিজ অবরোধ করে বিক্ষোভ করছে শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে এই বিক্ষোভ শুরু হয়। ফলে এই সড়কে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

গতকাল সোমবার (২৯ নভেম্বর) রাতে  রামপুরায় দুটি বাসের প্রতিযোগিতায় চাপা পড়ে নিহত হয় মাঈনুদ্দিন। এ ঘটনার জেরে রাতেই বেশ কয়েকটি বাসে অগ্নিসংযোগ করে বিক্ষুব্ধ জনতা।

রামপুরার একরামুন্নেছা স্কুল অ্যান্ড কলেজের বাণিজ্য শাখা থেকে এ বছর এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল মাঈনুদ্দিন। স্কুলের খাতায় তার নাম মঈন ইসলাম।

দুই ভাই ও এক বোনের মধ্যে মাঈনুদ্দিন সবার ছোট। বড় ভাই মনির ছোট একটি চাকরি করেন। মূলত বাবার টিনের ছোট্ট চায়ের দোকানের আয় থেকেই সংসার চলে। বড় হয়ে সংসারের হাল ধরতে চেয়েছিল সে।

তাদের গ্রামের বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়। প্রায় ১৫ বছর রামপুরা এলাকায় বসবাস করছে তার পরিবার। স্কুল জীবন ও বাবার চায়ের দোকানে সহযোগিতা করার কারণে ওই এলাকায় বেশ পরিচিত ছিল মাঈনুদ্দিন। ছিল মেধাবী ছাত্রও।

মাঈনুদ্দিন নিহত হওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে রামপুরা বাজার এলাকায় বেশ কয়েকটি বাসে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ ঘটনায় ঘাতক বাসের চালককে আটক করা হয়েছে বলে তাৎক্ষণিক জানায় পুলিশ।

আরও পড়ুন:

ছাত্রাবাস থেকে ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার


news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

বাবা-মায়ের পর পরিবারের তৃতীয় চেয়ারম্যান সাফিয়া পারভীন

মনিরুল ইসলাম মনি, সাতক্ষীরা

বাবা-মায়ের পর পরিবারের তৃতীয় চেয়ারম্যান সাফিয়া পারভীন

নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান সাফিয়া পারভীন

সাতক্ষীরা কালিগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে একই পরিবারের মধ্যে চেয়ারম্যান পদে টানা তিনবার জয় ধরে রেখেছে মোশারাফ পরিবার। বাবা-মা এবং সর্বশেষ মেয়ে টানা এই হ্যাটট্রিক জয়ে আনন্দে ভাসছে পুরো পরিবার ও তাদের কর্মী সমর্থকরা।

দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে পরিবারের তৃতীয় সদস্য হিসাবে জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে জয় ছিনিয়ে এনেছেন সাফিয়া পারভীন। গত নির্বাচনের পূর্ব মুহুর্তে ইউপি চেয়ারম্যান বাবা মোশাররফ হোসেন দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন। পরবর্তীতে মা আকলিমা খাতুন নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়লাভ করেন। মায়ের পরে এবার কন্যা সাফিয়া পারভীন তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী ঘোড়া প্রতীকের জিএম রবিউল বাহার এবং নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শ্যামলী রানী বাপ্পিসহ ৮ জন প্রার্থীকে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

কালীগঞ্জ উপজেলার কৃষ্ণনগরের দায়িত্ব প্রাপ্ত রির্টানিং কর্মকর্তা ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আবুল কালাম আজাদ জানান, বিজয়ী প্রার্থী লাঙ্গল প্রতীকের সাফিয়া পারভীন পেয়েছেন ৭ হাজার ২৩৮ ভোট। নিকটতম প্রার্থী স্বতন্ত্র প্রার্থী ঘোড়া প্রতীকের জিএম রবিউল বাহার পেয়েছেন ৬ হাজার ৮৭৫ ভোট। আর নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শ্যামলী রানী বাপ্পি পেয়েছেন ৩৮৫ ভোট।

আরও পড়ুন


স্কুলছাত্র নিহত: ৯ বাসে আগুনের ঘটনায় যা বলছে পুলিশ

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

ছাত্রাবাস থেকে ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

অনলাইন ডেস্ক

ছাত্রাবাস থেকে ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

প্রতীকী ছবি

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার ইদ্রিশ আহমদ ছাত্রাবাস থেকে রিয়াজুল ইসলাম জনি নামে এক শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। 

রিয়াজুল দিনা ফজলুল হক সরকারি কলেজের ছাত্র। তার বাড়ি দিনাজপুর জেলার কাহরোল উপজেলার চকমোরম গ্রামে।

শিবগঞ্জ থানার ওসি ফরিদ হোসেন বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সোমবার সকালে জানালা দিয়ে রিয়াজুল ইসলাম জনির ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পেয়ে শিক্ষার্থীরা পুলিশে খবর দেয়।

পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। ধারণা করা হচ্ছে সে আত্মহত্যা করেছে। 

তবে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার আগ পর্যন্ত এটি আত্মহত্যা কিনা জানা সম্ভব নয় বলে জানায় পুলিশ।

আরও পড়ুন:

বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির নতুন সভাপতি সায়েম সোবহান আনভীর


news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

কাউন্সিলরসহ জোড়া খুন: দুই আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

অনলাইন ডেস্ক

কাউন্সিলরসহ জোড়া খুন: দুই আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

বন্দুকযুদ্ধে নিহত সাব্বির হোসেন ও সাজন

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ১৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সৈয়দ মোহাম্মদ সোহেল ও আওয়ামী লীগ কর্মী হরিপদ সাহাকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় এজাহারভুক্ত দুই আসামি জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) ও থানা পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন।

নিহতরা হলেন- এই হত্যা মামলার তিন নম্বর আসামি নগরীর সুজানগর এলাকার বাসিন্দা রফিক মিয়ার ছেলে মো. সাব্বির হোসেন (২৮) ও মামলার পাঁচ নম্বর আসামি সংরাইশ এলাকার কাকন মিয়ার ছেলে সাজন (৩২)। নিহতদের মরদেহ বর্তমানে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রয়েছে।

সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে কুমল্লা নগরীর সংরাইশ গোমতী বেড়িবাঁধ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহতের ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা জেলা ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সত্যজিৎ বড়ুয়া।

এসময় তিনি বলেন, সোমবার রাত সাড়ে ১২ টার দিকে গোপন সংবাদে মাধ্যমে জানতে পারি আলোচিত এই জোড়া খুনের মামলার এজহারনামীয় আসামিসহ অজ্ঞাতনামা আসামিরা সংরাইশ ও নবগ্রাম এলাকায় অবস্থান করছে। খবর পেয়ে কোতয়ালি মডেল থানা এবং ডিবি পুলিশের একাধিক টিম আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু করে। রাত প্রায় ১টার দিকে সদর উপজেলার গোমতী নদীর বেড়িবাঁধের সংরাইশ বালুমহল সংলগ্ন এলাকায় ডিবি ও থানা পুলিশের টিম পৌঁছালে আসামিরা পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছুঁড়তে থাকে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়।

গোলাগুলি শেষ হলে ঘটনাস্থলে ওই দুইজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরবর্তীতে তাদেরকে চিকিৎসার জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। এই ঘটনায় পুলিশের তিনজন সদস্য আহত হয়েছেন। আহত পুলিশ সদস্যদের উন্নত চিকিৎসার জন্য পুলিশ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

সত্যজিৎ বড়ুয়া আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে সন্ত্রাসীদের ব্যবহৃত একটি ৭.৬৫ পিস্তল, একটি পাইপ গান, পিস্তলের অব্যবহৃত গুলি,  গুলির খোসা এবং কার্তুজের খোসা  উদ্ধার করা হয়।

উল্লেখ্য, ২২ নভেম্বর বিকেল ৪টার দিকে কুমিল্লার পাথরিয়াপাড়া থ্রি স্টার এন্টারপ্রাইজে কাউন্সিলর কার্যালয়ে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হন কাউন্সিলর সোহেল ও হরিপদ সাহা। জোড়া খুনের ঘটনায় গত ২৩ নভেম্বর রাতে কাউন্সিলর সোহেলের ছোট ভাই সৈয়দ মো. রুমন বাদী হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরও ১০ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

আরও পড়ুন


সপ্তমবারের মতো ডি’অর এর মালিক মেসি

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

পুত্রবধূকে জড়িয়ে ধরে গ্রেপ্তার হলেন শ্বশুর

অনলাইন ডেস্ক

পুত্রবধূকে জড়িয়ে ধরে গ্রেপ্তার হলেন শ্বশুর

প্রতীকী ছবি

চুয়াডাঙ্গায় পুত্রবধূকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে নাজিমউদ্দিন বিশ্বাস (৬৯) নামের এক বৃদ্ধকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ সকালে চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার সাদেক আলী মল্লিক পাড়া থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গ্রেপ্তার নাজিমউদ্দিন বিশ্বাস বিভিন্ন সময় তার গৃহবধূকে (২২) অশ্লীল কথাবার্তাসহ কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। বিষয়টি শাশুড়ি ও স্বামীকে জানালেও তারা কোনো পদক্ষেপ নেননি। আজ সকালে রান্নাঘরে কাজ করার সময় তার শ্বশুর তাকে পেছন থেকে জড়িয়ে ধরেন এবং ধর্ষণচেষ্টা চালান।


আরও পড়ুন:

দেশে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া সবাই পুরুষ

খালেদা জিয়ার মেডিকেল বোর্ডের বক্তব্যকে গুরুত্ব দিন: সরকারকে রিজভী

ফাঁকিবাজ সরকার বলেই সত্য বললেও মানুষ বিশ্বাস করেনা: মান্না


এসময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে নাজিমউদ্দিনকে আটক করেন। পরে শ্বশুরকে আসামি করে মামলা করেন ওই নারী।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর