১১ কোটিতে বিক্রি হলো সেই ১ রুপির কয়েন

অনলাইন ডেস্ক

১১ কোটিতে বিক্রি হলো সেই ১ রুপির কয়েন

১৩৬ বছরের পুরাতন একটি কয়েন বিক্রি হয়েছে ১১কোটি টাকায়। নিলামে ভারতের সেই এক রুপির কয়েনটির দাম উঠেছে ১০ কোটি রুপি (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় সাড়ে ১১ কোটি টাকা)। আকারে এসময়ের সাধারণ এক টাকার কয়েনের চেয়ে কিছুটা বড়। এর এক পিঠে খোদাই করা রয়েছে ইংল্যান্ডের রানি ভিক্টোরিয়ার ছবি। অন্য পিঠে ইংরেজি অক্ষরে লেখা ‘ওয়ান রুপি ইন্ডিয়া ১৮৮৫’।

ভারতে ব্রিটিশ শাসনামল ১৮৮৫ সালে মুম্বাইয়ের কোনও মিন্টে কয়েনটি বানানো হয়েছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। তার ৯ বছর আগেই ভারতীয় মুদ্রায় সামান্য পরিবর্তন আসে। তখন কয়েনে রানি ভিক্টোরিয়ার বদলে লেখা শুরু হয়েছিল সম্রাজ্ঞী ভিক্টোরিয়া বা ‘ভিক্টোরিয়া এমপ্রেস’। নিলামে ওঠা কয়েনটি সেই সময়ের।

আরও পড়ুন:


ইভ্যালিকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরের সর্বোচ্চ চেষ্টা করব: বিচারপতি মানিক

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কমলেও বেড়েছে শনাক্ত

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজছাত্রকে অপহরণ করে বিয়ে করলো তরুণী!

ডিএমপি কমিশনার ও র‍্যাব ডিজি’র পদোন্নতি


 

এক ওয়েবসাইটে ওই কয়েনটির ছবি পোস্ট করেছিলেন এক সংগ্রাহক। এরপর কয়েনটি কেনার জন্য হুড়োহুড়ি পড়ে যায় সংগ্রাহকদের মধ্যে।

এর আগে গত জুন মাসে ১৯৩৩ সালের আমেরিকার একটি কয়েন এক কোটি ৮৯ লক্ষ ডলারে বিক্রি হয়েছিল। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

স্বস্তি ফিরতে শুরু করেছে কাঁচা বাজারে

অনলাইন ডেস্ক

কাঁচা বাজার

কিছুটা স্বস্তি ফিরতে শুরু করেছে কাঁচা বাজারে। শীতকালীন সবজির আমদানি বাড়ায় এ সপ্তাহে কমেছে প্রায় ধরনের সবজির দাম। তবে ক্রেতারা বলছেন, এখনো দাম হাতের নাগালে নেই।

অন্যদিকে মাছের দাম খানিকটা বেড়েছে এ সপ্তাহেও। তবে স্থিতিশীল রয়েছে মুরগী কিংবা গরুর মাংসের দাম। সপ্তাহের বাজার করতে ১০ হাজার টাকা নিয়ে এসেছেন । নিজের পছন্দ মতো কিছু দেশি মাছ আর মাংস কিনেই ব্যয় হয়ে গেছে ৮ হাজার টাকা। জানালেন, ভালো আয় করেও বাড়তি দামের বাজারে হিমশিম খেতে হচ্ছে তাকে। 

এই যখন মধ্যবিত্তের অবস্থা তখন ভালো নেই নিম্নবিত্তরাও। বাজারে সবজির আমদানি বেশ তবে দাম এখনো চড়া। যদিও বিক্রেতারা জানালেন, এ সপ্তাহে কেজিতে ১০ থেকে ২০ টাকা কমেছে প্রায় সব ধরনের সবজির দাম। সিম বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা কেজিতে যা গেলো সপ্তাহে ছিলো ৮০ টাকা, আবার দেশি টমেটো বিক্রি হচ্ছে ১৪০ টাকা কেজিতে কমেছে ২০ টাকা। তবে এরপরও স্বস্তিতে নেই ক্রেতারা। 

সবজি কিছুটা কমে আসলেও মাছের দাম যেনো আকাশ ছোঁয়া। বিশেষ করে দেশি মাছ কিনতে গুণতে হবে বাড়তি দাম। বিক্রেতারা বলছেন, নদীতে মাছ কম ধরা পড়ছে বিধায় দাম কমছে না। 

আরও পড়ুন


রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চেয়ে বিদেশে যেতে হবে খালেদাকে: হানিফ

স্বল্পোন্নত দেশ থেকে বের হয়ে যাওয়া ও বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জ

সিলেট থেকে বিদেশে পণ্য রপ্তানির ব্যবস্থা করা হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী


এদিকে মাংসের বাজারে অনেকটাই অপরিবর্তিত। সোনালী মুরগি, ব্রয়লার কিংবা দেশি মোরগ বিক্রি হচ্ছে আগের দামেই। বাড়েনি গরুর মাংসের দামও। 

পেঁয়াজ রসুনের দামও রয়েছে অপরিবর্তিত, তবে বিক্রি অনেকটা কম বলে জানালেন বিক্রেতারা। 

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

নকশিকাঁথার সুইয়ের গাথুনীতে আগামীর স্বপ্ন বুনছে প্রতিবন্ধী তরুনীরা

বরিশাল থেকে রাহাত খান:

প্রতিবন্ধী মেয়েদের প্রশিক্ষণ

নকশিকাঁথার ভাঁজে ভাঁজে লুকিয়ে আছে ওদের স্বপ্ন। রং বাহারী কাথায় সুইয়ের গাথুনীতে আগামীর স্বপ্ন বুনছে বরিশালের সামাজিক প্রতিবন্ধী নারীদের প্রশিক্ষণ ও পূনর্বাসন কেন্দ্রের শিশু ও তরুনীরা। সুবিধাবঞ্চিত এসব মেয়েকে দক্ষ ও উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করছে প্রতিষ্ঠানটি। 

তবে অবকাঠামোগত কিছু সমস্যার কারণে নতুন একটি পাকা স্থাপনার দাবি জানিয়েছেন তারা। এ বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপের আশ্বাস দিয়েছেন বরিশালের জেলা প্রশাসক। 

নানা কারণে সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন শিশুসহ ৩২ জন তরুণী বসবাস করছে বরিশাল নগরীর কালীজিরা সামাজিক প্রতিবন্ধী মেয়েদের প্রশিক্ষণ ও পূনর্বাসন কেন্দ্রে। তাদের ভরন-পোষণসহ যাবতীয় খরচ বহন করছে সরকার। লেখাপড়ার পাশাপাশি নকশিকাঁথা, ব্লক-বাটিক, পাটের কাজ, শোপিস ও ওয়ালম্যাটসহ বিভিন্ন ধরনের হাতের কাজ শিখছে তারা। এসব কাজের মাধ্যমে তাদেরকে দক্ষ ও স্ব-নির্ভর হিসেবে গড়ে তোলা হচ্ছে বলে জানায় সমাজসেবা বিভাগ। 

আরও পড়ুন


ভাইরাল ছবি হাছান মাহমুদের নয়!


পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে ৩ বছর ধরে সামাজিক প্রশিক্ষণ ও পূনর্বাসন কেন্দ্রে আছেন বর্ষা আক্তার। লেখাপড়ার পাশাপাশি শিখছেন হাতের কাজ। তারমতো অন্যরাও হাতের কাজ শিখে উদ্যোক্তা হিসেবে স্বনির্ভর হওয়ার স্বপ্ন দেখছে। 

তবে এই পুনর্বাসন কেন্দ্রে রয়েছে অবকাঠামোগত নানা সমস্যা। বর্ষায় টিনের চাল থেকে পানি পড়ে। খসে পড়ছে দেয়ালের পলেস্তার। অবকাঠামোগত সুবিধা বাড়াতে নতুন ভবনের দাবি জানিয়েছেন তারা। 

ওই কেন্দ্রের মেয়েদের দক্ষ এবং উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তুলতে সময় পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বরিশালের জেলা প্রশাসক। 

প্রশিক্ষন ও পূনর্বাসন কেন্দ্রে মেয়েদের তৈরি বিভিন্ন পণ্যের চাহিদা রয়েছে বাজারে। তাদের তৈরি পণ্য বিক্রি করে জমা রাখা হচ্ছে মেয়েদের ব্যাংক হিসেবে। 

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

একই জমিতে ফল-সবজির বাগান, রবিউলের দৃষ্টান্ত স্থাপন

অনলাইন ডেস্ক

দিনাজপুরে একই জমিতে ফল ও সবজির বাগান করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন রবিউল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি। মাল্টা ও কমলার বাগানে সাথী ফসল হিসেবে উৎপাদন করছেন বিভিন্ন জাতের কুল, ড্রাগন ফল, থাই পেয়ারা ও সবজি।

চলতি মৌসুমে এরই মধ্যে ফল ও সবজি বিক্রি করে প্রায় ৪ লাখ টাকা আয় করেছেন তিনি। দিনাজপুরে সদর উপজেলার জপেয়া পাঁচবাড়ী এলাকার রবিউল ইসলাম। মাত্র এক বিঘা জমিতে ফল ও সবজির বাগান করে সফলতা পেয়েছেন তিনি। 

মাল্টা ও কমলার বাগানে সাথী ফসল হিসেবে উৎপাদন করছেন বিভিন্ন জাতের কুল, ড্রাগন ফল, থাই পেয়ারা। শুধু তাই নয় সবজিরও আবাদ করেছেন।

বরিউল জানান, চলতি মৌসুমে এরই মধ্যে ফল ও সবজি বিক্রি করে প্রায় ৪ লাখ টাকা আয় করেছেন। এই বাগান করে তিনি শুধু নিজে স্বাবলম্বী হননি কর্মসংস্থানও করেছেন অনেকের। তার এই বাগান দেখতে প্রতিদিনই  দূর-দূরান্ত থেকে আসছেন অনেকে।


আরও পড়ুন:

ঢাবি ‘ঘ’ ইউনিটের ফল প্রকাশ, ৯০.১৩ শতাংশই ফেল

পুলিশের সব ছুটি বাতিল, দ্রুত কর্মস্থলে ফেরার নির্দেশ

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ


সংশ্লিষ্টরা জানান, শুধু রবিউল ইসলামকে নয়, এই ধরণের বাগান করতে যারা আগ্রহী হবেন তাদেরকেও সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে। করোনাকালীন সময়ে যখন মানুষ কাজ হারাচ্ছে তখন এ খাতে বিনিয়োগ বাড়ছে, প্রচুর নতুন উদ্যোক্তা তৈরি হচ্ছে কৃষিতে এমনটাই মনে করেন অনেকে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

মাস্টারকার্ড এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড ২০২১ পেল ‘নগদ’

নিজস্ব প্রতিবেদক

মাস্টারকার্ড এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড ২০২১ পেল ‘নগদ’

দেশে আর্থিক খাতে অন্তর্ভুক্তি বৃদ্ধিতে অবদান রাখার জন্য ‘মাস্টারকার্ড এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড-২০২১’ অর্জন করেছে বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতবর্ধনশীল মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’। আর্থিক অন্তর্ভুক্তির পাশাপাশি মার্চেন্ট ক্যাটাগরিতে মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসে উল্লেখযোগ্য অবদানের রাখায় ‘নগদ’ এই পুরস্কার পেল।

সম্প্রতি ঢাকায় ‘মাস্টারকার্ড এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড-২০২১’ নেক্সট অ্যান্ড বেয়ন্ড ঘোষণার মধ্য দিয়ে বিজয়ী প্রতিষ্ঠানসমূহের নাম প্রকাশ করা হয়। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, বিশেষ অতিথি বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক মো. খুরশিদ আলম, বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন দূতাবাসের ‘চার্জ দি অ্যাফেয়ার্স’ হেলেন লা ফেইভসহ আরও অনেক ব্যক্তিবর্গ ও প্রতিষ্ঠান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

ডাক বিভাগের সেবা ‘নগদ’ যাত্রার পর থেকে সহজ ও সাশ্রয়ী সেবা প্রদানের কারণে স্বল্প সময়ে দেশে জনপ্রিয় মোবাইল সেবা প্রতিষ্ঠান হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হয়েছে। দেশ সেরা সর্বনিম্ন ক্যাশ আউট চার্জ, ফ্রি ইউটিলিটি বিল পেমেন্ট, ফ্রি সেন্ড মানি এবং সেভিংসে সর্বোচ্চ মুনাফা প্রদানসহ আরও এমন অনেক সেবার কারণে দেশের সাধারণ মানুষের কাছে ‘নগদ’-এর চাহিদা দিন দিন বাড়ছে।

‘নগদ’ ইতিপূর্বে বাংলাদেশে প্রথম ই-কেওয়াইসি উদ্ভাবনের জন্য বেস্ট ইনোভেশন ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস অ্যাওয়ার্ড, বিশ্ব সেরা ফিনটেক উদ্যোগ হিসেবে ইনক্লুসিভ ফিনটেক ফিফটি অ্যাওয়ার্ড, বেস্ট ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস প্রোভাইডার অ্যাওয়ার্ড, উইটসা গ্লোবাল আইসিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড, ডিজিটাল বাংলাদেশ অ্যাওয়ার্ড, ফাইন্যান্সিয়াল টেকনোলজি ম্যান অব ইয়ার, ই-কমার্স মুভার অ্যাওয়ার্ড, বেস্ট মার্কেটিং কমিউনিকেশন অ্যাওয়ার্ডসহ আরও অনেক দেশীয় ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি অর্জন করেছে।

এবার ‘মাস্টারকার্ড এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড-২০২১’-এ মার্চেন্ট ক্যাটাগরিতে মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসে উল্ল্যেখযোগ্য অবদানের রাখায় ‘নগদ’-কে এই পুরস্কার প্রদান করা হয়। মাস্টারকার্ড কর্তৃক এক্সিলেন্স পুরস্কারটি মূলত যাত্রা শুরু করে ২০১৯ সালে। বিশেষত আর্থিক খাতে অন্তর্ভুক্তি বৃদ্ধিতে অবদানের জন্য বিভিন্ন ব্যাংক, ফিনটেক ও অন্যান্য কোম্পানিকে মূল্যায়নের উদ্দেশে এই পুরস্কারের যাত্রা।

‘নগদ’-এর এই অর্জনের বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির সহপ্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুক বলেন, ‘যেকোনো প্রাপ্তি মানুষকে তৃপ্তি দেয়। আমরা শুরু থেকে মানুষের জন্য সাশ্রয়ী ও সহজ সেবা দেওয়ার চেষ্টা করছি। আশা করছি ভবিষ্যতেও ‘নগদ’-এর এক্সিলেন্স অব্যাহত থাকবে।’

মাস্টারকার্ড বাংলাদেশে ব্যবসায়িক পদচারণার ৩০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে তার ৩৫টি শীর্ষ পার্টনার ব্যাংক, ফিনান্সিয়াল ইন্সটিটিউশন এবং মার্চেন্টদের স্বীকৃতিস্বরূপ এই আয়োজন করছে। ফলে এই স্বীকৃতি প্রদানের তৃতীয় বছরে এসে ব্যবসায়িক প্রবৃদ্ধিতে উদ্ভাবন ও সফলতায় অবদান রাখায় প্রতিষ্ঠানটি তার ব্যবসায়িক পার্টনারদের বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে এই সম্মাননা প্রদান করেছে।

আরও পড়ুন


ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনপির রোমান বাদশা এবার নৌকার মাঝি!

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

কর অঞ্চল বগুড়ার সেরা করদাতাদের পুরস্কার প্রদান

আব্দুস সালাম বাবু , বগুড়া:

কর অঞ্চল বগুড়ার সেরা করদাতাদের পুরস্কার প্রদান

বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, গাইবান্ধা ও জয়পুরহাট জেলার ২৮ জন সেরা করদাতাকে সম্মাননা ক্রেস্ট ও সনদপত্র বিতরণ করেছে কর অঞ্চল বগুড়া। 

বুধবার বেলা ১১ টায় বগুড়ার মম ইন এর স্কাইভিউ মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে প্রতি জেলার ৩ জন সর্বোচ্চ আয়কর প্রদানকারী, ২ জন দীর্ঘ মেয়াদি কর প্রদানকারী, সর্বোচ্চ আয়কর প্রদানকারী (মহিলা) ও তরুণ সর্বোচ্চ আয়কর প্রদানকারী করদাতাকে সম্মাননা দেয়া হয়। 

কর অঞ্চল বগুড়ার উদ্যোগে জেলা ভিত্তিক সর্বোচ্চ ও দীর্ঘ সময় কর প্রদানকারী করদাতাবৃন্দদের পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কর অঞ্চল বগুড়ার কর কমিশনার রাসেল চাকমা।

আরও পড়ুন


সিটি করপোরেশনের গাড়ির ধাক্কায় নটরডেমের ছাত্র নিহত


এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সরকারী আজিজুল হক কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর শাহজাহান আলী, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বগুড়া চেম্বার অব কমার্স সভাপতি মাসুদুর রহমান মিলন, বগুড়া ট্যাক্সেস ল,ইয়ার্স এসোসিয়েশন সভাপতি আব্দুল হামিদ, অতিরিক্ত কর কমিশনার মহিদুল ইসলাম। 

কর পরিদর্শক হযরত আলীর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সম্মাননা প্রাপ্ত করদাতা অশোক রায়, জান্নাত আরা হেনরী, রাসেল আহমেদ লিটন, রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

সভায় সকলে মিলে কর প্রদান করে দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নেয়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন বক্তারা।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর