মোবাইলে প্রেম, পরে ৩৪ দিন আটকে গণধর্ষণ

অনলাইন ডেস্ক

মোবাইলে প্রেম, পরে ৩৪ দিন আটকে গণধর্ষণ

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ৩৪ দিন আটকে রেখে এক কিশোরীকে গণর্ধষণের অভিযোগ উঠেছে। পরে ওই কিশোরীকে ভারত পাচারের উদ্যোগ নেয় পাচারকারী দলের সদস্যরা। সেখান থেকে কৌশলে পালিয়ে আসে সে। পরবর্তীতে পরিবারের সদস্যদের কাছে সমস্ত ঘটনা খুলে বলে ওই কিশোরী।

এ ঘটনায় ওই কিশোরীর বাবা জুলহাস শেখ বাদী হয়ে আল আমিনকে প্রধান আসামি করে ট্রাক চালক মাসুম, আসকর মল্লিক, নজরুল মল্লিকের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরও ৫-৬ জনের বিরুদ্ধে রোববার (১৭ অক্টোবর) টাঙ্গাইল আদালতে মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে জেলা গোয়েন্দা পুলিশকে (ডিবি) তদন্তের নির্দেশ দেয়। এ ছাড়া ২০২২ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারির মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

কিশোরী ও মামলা সূত্রে জানা যায়, ভূঞাপুরের একটি স্কুলের অষ্টম শ্রেণিতে পড়াশোনা করে ওই কিশোরী। মোবাইলের মাধ্যমে তার পার্শ্ববর্তী ঘাটাইল উপজেলার গৌরিশ্বর গ্রামের আসকরের ছেলে আল আমিনের (২৫) সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

গত ২১ জুলাই কোরবানির ঈদের দিন বিকেলে ওই কিশোরী ও তার মায়ের সঙ্গে নানার বাড়ি ভূঞাপুরের পৌর এলাকার তেঘরী গ্রামে যায়। সেখান থেকে আল আমিনের টেলিফোন পেয়ে নানার বাড়ি থেকে আল আমিনের সঙ্গে ঘাটাইল উপজেলার চেংটা গ্রামে যায়। আল আমিন তাকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ওই বাড়িতে রেখে একটানা ২৫ দিন ধর্ষণ করে।

পরবর্তীতে ১৫ আগস্ট সে তার আত্মীয়ের বাসায় নিয়ে যাওয়ার কথা বলে বের হয়ে কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ডে আসে। বাসস্ট্যান্ডে আল আমিনের বন্ধু পাচার চক্রের সদস্য ট্রাক ড্রাইভার মাসুদের ট্রাকে তুলে দেয়। ১৬ আগস্ট ভোর ৫টার দিকে একটি ফাঁকা বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয় কিশোরীকে।

সেখানে তিন-চারজন মিলে মেয়েটিকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। পরে তিন-চারজন লোকের আলাপচারিতায় মেয়েটি বুঝতে পারে যে তাকে ভারতে পাচার করার পরিকল্পনা করছে। পরের দিন সে বাথরুমে যাওয়ার কথা বলে ২৫ আগস্ট রাত ৮টার দিকে ওখান থেকে পালিয়ে রিকশাযোগে বেনাপোল বাসস্ট্যান্ড আসে। পরে সেখান থেকে ২৬ আগস্ট বাড়িতে চলে আসে।

মেয়ের বাবা জুলহাস জানান, আমার মেয়েটি বাড়িতে আসার পর তার শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখে পল্লী চিকিৎসক দ্বারা চিকিৎসা করে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের ঘটনা অবহিত করি। পরে আসামিদের নাম ও ঠিকানা সংগ্রহ করে গত ১০ সেপ্টেম্বর আমার মেয়েকে নিয়ে ভূঞাপুর থানায় একটি অভিযোগ করতে যাই। ভূঞাপুর থানা পুলিশ অভিযোগ শুনে মামলা গ্রহণ না করায় আমি আল আমিনকে প্রধান আসামি করে ট্রাক চালক মাসুম, আসকর মল্লিক, নজরুল মল্লিকের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরও পাঁচ-ছয় জনের বিরুদ্ধে টাঙ্গাইল আদালতে মামলা দায়ের করি।

তবে ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ আবদুল ওহাব জানান, এ বিষয়ে ভূঞাপুর থানায় কেউ অভিযোগ নিয়ে আসেনি।

এদিকে, বাদীপক্ষের আইনজীবী আকবর হোসেন রানা জানান, আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে ডিবি টাঙ্গাইলকে তদন্তের নির্দেশ দেন। ২০২২ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারির মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

মামলার বিষয়ে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি উত্তর) ওসি মো. হেলাল উদ্দিন বলেন, এ ধরনের কোনো মামলা এখনও হাতে আসেনি।

পরবর্তী খবর

অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথি, বাড়িঘরে সন্ত্রাসী হামলা

অনলাইন ডেস্ক

অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথি, বাড়িঘরে সন্ত্রাসী হামলা

পূর্ব শত্রুতার জেরে বাড়িঘরে হামলা, ভাঙচুর ও অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় যুবলীগ নেতার স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বাসহ দুইজন আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন, ৫৬ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক রাসেদ চৌধুরীর স্ত্রী পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা শিরিন আক্তার মুন্নি (২৮) ও রাশেদের বন্ধু মো. সাজ্জাদ হেসেন (২৪)। গুরুতর অসুস্থ মুন্নিকে টঙ্গীর শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর) জুমার নামাজের পর গাজীপুরের টঙ্গীর মধুমিতা রেলগেট এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করলেও কাউকে আটক করেনি।

আরও পড়ুন:


আফ্রিকার ৭ দেশ থেকে এলেই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন

দুই হাত হারানো ফাল্গুনীকে বিয়ে করলো এনজিও কর্মী সুব্রত

স্বাধীনতার ৫০ বছরে স্বাস্থ্যখাতে অভাবনীয় সাফল্য

ঢাকার যানজটেই শেষ জিডিপির প্রায় ৮৭ হাজার কোটি টাকা


 

সিসি ক্যামেরায় ধারণ করা ভিডিও’র বরাদ দিয়ে রাসেদ চৌধুরী জানান, ব্যবসায়িক বিষয় নিয়ে তার ভগ্নিপতি স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ইমরান তালুকদার বছিরের সঙ্গে স্থানীয় শুক্কুর আলীর দ্বন্দ্ব ছিল। দুই দিন আগে শুক্কুরের বিরুদ্ধে টঙ্গী পূর্ব থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন তার ভগ্নিপতি। শুক্রবার জুমার নামাজের পরপরই শুক্কুর আলীর নেতৃত্বে মোমেন, সাইফুল, মাহবুব, খোরশেদ, সালসা সুমনসহ ১২-১৪ জনের একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে প্রথমে মদিনাপাড়া এলাকায় বছিরের বাড়িতে হামলা চালায়। সেখানে তাকে না পেয়ে সন্ত্রাসীরা তার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করে। ওই সময় তিনি বাসায় ছিলেন না। একা পেয়ে শুক্কুর আলী তার পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি মারধর এবং এক পর্যায়ে পেটে লাথি মেরে গুরুতর আহত করে। চলে যাওয়ার সময় তারা রাস্তায় পেয়ে তার বন্ধু সাজ্জাদকে বেধড়ক মারধর করে।

টঙ্গী পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদ মাসুদ বলেন, এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। 

news24bd.tv/আলী

পরবর্তী খবর

চট্টগ্রাম থেকে অপহরণ নোয়াখালীতে উদ্ধার কিশোরী

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রাম থেকে অপহরণ নোয়াখালীতে উদ্ধার কিশোরী

অপহরণ, প্রতীকী ছবি।

চট্টগ্রামের চান্দগাঁও থেকে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে অপহরণের সাত দিন পর নোয়াখালীর সুধারাম থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বিস্তারিত আসছে...

আরও পড়ুন: 


৪ অভিজ্ঞ ছাড়াই ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে লড়বে পাকিস্তান


news24bd.tv/ তৌহিদ

পরবর্তী খবর

রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে পঞ্চম শ্রেণির একছাত্রীকে ধর্ষণ

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে পঞ্চম শ্রেণির একছাত্রীকে ধর্ষণ

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নের বীর নারায়নপুর গ্রামে মাদরাসা থেকে বাড়ি ফেলার পথে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে পঞ্চম শ্রেণির একছাত্রী (১২) ধর্ষণ করার অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। 

মাদরাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় ভিক্টিমের মা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে জহির উদ্দিন (৪৫) ও হাবীব উল্যাহ (৪৩)কে আসামী করে সেনবাগ থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

শুক্রবার সকালে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এদিকে  ধর্ষককে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

জানা যায়, বীর নারায়নপুর গ্রামের ডেকোরেটর দোকানদার ধর্ষক জহির এবং ওই দোকানের জায়গার মালিক হাবীব বিভিন্ন সময় ওই ছাত্রীকে মাদরাসায় যাওয়ার আসার সময় ইভটিজিং করত। 

আরও পড়ুন


যৌনাঙ্গের মুখে আঠা দিয়ে বন্ধ করে বান্ধবীর সঙ্গে মিলন, যুবকের মৃত্যু


বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই ছাত্রী মাদরাসা থেকে বাড়ি ফেরার পথে ডেকোরেটর দোকানের সামনে পৌঁছলে ধর্ষক জহির তাকে মুখ চেপে ধরে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে দোকানে ডুকিয়ে স্যাটার বন্ধ করে হাবিবের সহায়তায় তাকে ধর্ষণ করে। 

এ সময় ওই মাদরাসা ছাত্রীর চিৎকারে স্থানীয় কিছু এলাকাবাসী এগিয়ে এসে ধর্ষকের দোকান ঘেরাও করলে কৌশলে তারা পালিয়ে যায়। পরে রাতে এ ঘটনায় ছাত্রীর মা বাদী হয়ে দুইজনকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে সেনবাগ থানায় মামলা দায়ের করেন। 

সেনবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ধর্ষককে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে এবং ছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে শুক্রবার হওয়ায় পরীক্ষা হয়নি। শনিবার পরীক্ষা হবে।

news24bd.tv/ কামরুল 

পরবর্তী খবর

এক মাসে রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ‘আরসা’ সদস্যসহ আটক ১৯৩

অনলাইন ডেস্ক

এক মাসে রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ‘আরসা’ সদস্যসহ আটক ১৯৩

ফাইল ছবি

এক মাসে কক্সবাজারের উখিয়ার বিভিন্ন রোহিঙ্গা শিবির থেকে ‘আরসা’ নামধারীসহ অন্তত ১৯৩ জন দুষ্কৃতিকারীকে আটক করা হয়েছে। গত নভেম্বর মাসে তাদের আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আটককৃতদের কাছ থেকে এসময় বিপুল পরিমাণ মাদক, দেশি-বিদেশি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) এসব তথ্য ১৪ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) পক্ষ থেকে জানানো হয়।
 
এছাড়াও বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ১৪ এপিবিএনের অধিনায়ক (পুলিশ সুপার) মো. নাইমুল হক। এসময় তিনি বলেন, ১৪ এপিবিএনের আওতাধীন বিভিন্ন রোহিঙ্গা শিবিরে অভিযান চালিয়ে নভেম্বর মাসে কথিত আরসা সদস্যসহ ১৯৩ জন দুষ্কৃতিকারীকে আটক করা হয়েছে।

এ সময় ৫৩ হাজার ৫২২টি ইয়াবা, ৫৫০ গ্রাম গাঁজা, ৪৩ ক্যান বিদেশি বিয়ার, ৫ বোতল বিদেশি মদ, মাদক বিক্রির নগদ ২ লাখ ৬৮ হাজার টাকা, ২টি আগ্নেয়াস্ত্র, বিভিন্ন ধরনের ১৪৯টি দেশীয় অস্ত্র, ২০ লাখ টাকার বিভিন্ন অবৈধ পণ্য উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, এসব ঘটনায় ৩৫টি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ছাড়াও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ৯৯ হাজার টাকা জরিমানা আদায়, বিভিন্ন মামলার সন্দেহজনক ২১ জন পলাতক আসামি আটক, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অনুপ্রবেশ করায় ২৭ জন রোহিঙ্গা নাগরিক আটক, অবৈধ ৫২টি সিএনজি চালিত অটোরিকশা, ব্যাটারি চালিত ৯টি অটোরিকশা ও ১টি কাভার্ড ভ্যান জব্দ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন


কাফরুলে যুবলীগ কর্মী গুলিবিদ্ধ, হাসপাতালে ভর্তি

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

কাফরুলে যুবলীগ কর্মী গুলিবিদ্ধ, হাসপাতালে ভর্তি

অনলাইন ডেস্ক

কাফরুলে যুবলীগ কর্মী গুলিবিদ্ধ, হাসপাতালে ভর্তি

প্রতীকী ছবি

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রাজধানীর কাফরুল শেওড়াপাড়ায় গুলিতে সজিব হোসেন লিংকন (২৭) নামে এক যুবক আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) রাত ১২টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। যুবক সজিবকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত সজিবের খালাতো ভাই সাব্বির আহমেদ সুমন (রাহি) জানান, পরিবার নিয়ে পূর্ব শেওড়াপাড়া হাজী আশরাফ আলী স্কুল সংলগ্ন একটি বাসায় থাকে সজিব। স্থানীয় ওয়ার্ড পর্যায়ের যুবলীগ কর্মী সে। রাতে বাসার সামনে মোটরসাইকেল রেখে গ্যারেজের গেট খুলছিল সজিব। তখন মোহাম্মদ আলী নামে এক যুবক তাকে গুলি করে পালিয়ে যায়।

তিনি আরও জানান, ওই বাসার চতুর্থ তলায় নিজেদের ফ্ল্যাটে থাকে সজিব। একই ভবনের দ্বিতীয় তলাতে থাকে অভিযুক্ত মোহাম্মদ আলী। দীর্ঘদিন ধরে তাদের মধ্যে ভবনের ফ্ল্যাট নিয়ে একটি ঝামেলা চলছিল। এ নিয়ে মামলাও হয়েছিল। এরই জের ধরে রাতে আলী একজন সঙ্গীসহ এসে সজিবকে লক্ষ্য করে ৬টি গুলি ছোড়ে। এর ২টি গুলি তার ডান পায়ে ও ১টি গুলি তার পিঠে লাগে।

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মো. বাচ্চু মিয়া জানান, হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ভর্তি আছে গুলিবিদ্ধ আহত যুবক। পিঠে আর পায়ে গুলি লেগেছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। ঘটনাটি বিস্তারিত তদন্তের জন্য কাফরুল থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে।

কাফরুল থানার ডিউটি অফিসার (এসআই) সোরহাব জানান, ঘটনাস্থলে আমাদের কর্মকর্তারা কাজ করছেন। বিস্তারিত জানার চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন


আর্সেনালকে হারাল ইউনাইটেড, গোল সংখ্যায় সবার শীর্ষে রোনালদো

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর