তাইওয়ানকে চীনের হাত থেকে রক্ষা করতে বদ্ধপরিকর যুক্তরাষ্ট্র

অনলাইন ডেস্ক

তাইওয়ানকে চীনের হাত থেকে রক্ষা করতে বদ্ধপরিকর যুক্তরাষ্ট্র

বরাবরই তাইওয়ানকে নিজেদের ভূখন্ড বলে দাবি করে চীন। সাম্প্রতিক সময়ে তাইওয়ানের আকাশসীমা লঙ্ঘন এবং একাধিকবার দক্ষিণ চীন সাগরে নিজেদের সামরিক শক্তি প্রদর্শনের মাধ্যমে পরিস্থিতি আরও জটিল করে তুলেছে দেশটি। এই পরিস্থিতিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জানালেন এই দুই দেশ নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থানের কথা। 

সিএনএন টাউনহলের এক অনুষ্ঠানে মার্কিন প্রেসিডেন্ট এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, চীন যদি তাইওয়ানের উপর আক্রমণ করে সেক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র তাইওয়ানের পক্ষে সহযোগিতা করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

এর আগেও তাইওয়ানের আকাশসীমায় চীনের বিমান ঢুকে পড়ার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে আলোচনায় অংশ নিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন:

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা কে এই ইকবাল?

আগামী মাসেই ফেসবুকের প্রতিদ্বন্দ্বী নিয়ে আসছেন ট্রাম্প

পূজামণ্ডপে কোরআন শরিফ রেখে গদা নিয়ে যায় ইকবাল

মানবদেহে প্রতিস্থাপিত হল শূকরের কিডনী


এছাড়া প্রতিবেদনে বলা হয়, তাইওয়ানের কাছে চীনের পূর্বাঞ্চলের একটি বিমান ঘাঁটিতে অত্যাধুনিক জে-১৬ডি যুদ্ধবিমান মোতায়েন করেছে চীন। এর ফলে তাইওয়ানের নিজেদের সার্বভৌমত্ব ধরে রাখার বিষয়টি হুমকির মুখে পড়ে। এই পরিস্থিতিতে পশ্চিমা গণতান্ত্রিক দেশগুলোর কাছে সাহায্য চায় তাইওয়ান।

news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর

নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছেনা দিল্লির বায়ু দুষণ

অনলাইন ডেস্ক

নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছেনা দিল্লির বায়ু দুষণ

কোনভাবে নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছেনা দিল্লির বায়ু দুষণ। শীতের শুরুতে ভারতের রাজধানী দিল্লিতে ঘন ধোয়াশা এবং শুষ্ক আবহাওয়া বিরাজ করছে। 

এখনও তীব্র ধোঁয়াশার কবলে দিল্লির বাতাস । শীতের শুরুতে সেই ধোঁয়াশা যেন আরও বেড়েছে  সিস্টেম অব এয়ার কোয়ালিটি অ্যান্ড ওয়েদার ফোরকাস্টিং অ্যান্ড রিসার্চ জানিয়েছে  মঙ্গলবার সকালেও দিল্লির বাতাসে সার্বিক দূষণসূচক ছিল ৩০৫। আর এই মাত্রা মানব স্বাস্থ্যের জন্য খুবই খারাপ।

সরকারী তথ্য বলছে, বিগত ৬ বছরের মধ্যে নভেম্বরের সবচেয়ে খারাপ বাতাস রেকর্ড ছুঁয়েছে ভারতের রাজধানী।
এতে ক্রমেই বাড়ছে  দিল্লী বাসীর শ্বাসনালি ও ফুসফুসে সংক্রমণজনিত সমস্যা। এ ঘটনায় দিল্লী কতৃপক্ষ  সুপ্রিম কোর্টের তোপের মুখে আছে। স্বস্তিতে নেই কেন্দ্রীয় সরকারও।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বাতাসের এই গুণমান নেমে যাওয়ায় চোখে জ্বালাপোড়া, ত্বকে জ্বালা এবং শ্বাসকষ্টের গুরুতর সমস্যা হতে পারে। মৃত্যুও হতে পারে। তাই শুধু দিল্লী নয়। প্রতিবেশী রাজ্যগুলিতে যানবাহন দূষণ এবং খড় পোড়ানোও বন্ধে ব্যবস্থা নেয়ার তাগিদ দেন তারা।

সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এন ভি রামান্নার বেঞ্চে দিল্লি বায়ুদূষণ মামলার শুনানি হয়। মামলাকারী আইনজীবী বিকাশ সিং দাবি করেন, নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার কথা বলা হলেও কেন্দ্রীয় সরকারের সেন্ট্রাল ভিস্তার কাজ এখনও চলছে।

আমাদের কাছে ভিডিও আছে, কীভাবে এই নির্মাণ কাজে ধুলো উড়ছে এবং তার ফলে বায়ু দূষিত হচ্ছে। বিকাশবাবু এই বিষয়ে আদালতের হস্তক্ষেপ চান। শীর্ষ আদালত এরপরেই ক্ষোভ প্রকাশ করে জানিয়ে দেয়, কেন্দ্র ও রাজ্যগুলিকে দ্রুত বক্তব্য জানাতে হবে।

আরও পড়ুন

দক্ষিণ কোরিয়ায় ৬৯ ছাত্রের বিরুদ্ধে কিশোরীকে দলবদ্ধভাবে ধর্ষণের অভিযোগ

কুয়েট শিক্ষকের রহস্যজনক মৃত্যু, তদন্ত চেয়ে শিক্ষার্থীদের অবস্থান

দিল্লিতে এই দূষণের মাত্রা না কমায় ফলে চিন্তায় পরিবেশবিদেরা। রাজধানী ক্ষেত্রের নয়ডাতেও বাতাসে দূষণ-সূচক এদিন ছিল খুব খারাপ।

শহরে বাতাসের গতি কমেছে , কমেছে তাপমাত্রা। আগামী কয়েকদিনে শহরের বাতাসের মানের উন্নতির কোনো লক্ষণ নেই। 

ভারতীয় আর্থ সায়েন্সেস মন্ত্রণালয় বা সিস্টেম অফ এয়ার কোয়ালিটি অ্যান্ড ওয়েদার ফোরকাস্টিং অ্যান্ড রিসার্চ  দিল্লির ধোয়াশার  ৩০৫ ডিগ্রি রেকর্ড করা হয়েছে। দূষণের কারণে শ্বাসকষ্ট এবং চোখ জ্বালাপোড়া করছে স্থানীয়দের। 

 news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

পরবর্তী খবর

বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর তেল আবিব

অনলাইন ডেস্ক

বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর তেল আবিব

বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল শহর এখন ইসরায়েলের তেল আবিব। দ্বিতীয় স্থানে যৌথভাবে রয়েছে সিঙ্গাপুর সিটি ও ফ্রান্সের প্যারিস। আর জীবনযাপনের ব্যয় সবচেয়ে কম সিরিয়ার দামেস্কে। জীবনযাত্রার ব্যয় নিয়ে যুক্তরাজ্যের লন্ডনভিত্তিক ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে। 

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়েছে, প্রথমবারের ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিট ইআইইউর প্রতিবেদনে  ব্যয়বহুল শহরের তালিকায় শীর্ষে উঠে এল তেল আবিব। মার্কিন ডলারে বিশ্বের ১৭৩টি শহরে পণ্য ও সেবার মূল্যমান বিবেচনায় নিয়ে বিশ্বজুড়ে জীবনযাপনের ব্যয়ের এই সূচক তৈরি করেছে ইআইইউ। ডলারের বিপরীতে ইসরায়েলের মুদ্রা শেকেলের মূল্য কমে যাওয়ার সঙ্গে পরিবহনের খরচ বৃদ্ধি ও মুদিদোকানে পাওয়া যায়—এমন দ্রব্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় শীর্ষ ওঠে তেল আবিব।

আরও পড়ুন

দক্ষিণ কোরিয়ায় ৬৯ ছাত্রের বিরুদ্ধে কিশোরীকে দলবদ্ধভাবে ধর্ষণের অভিযোগ

কুয়েট শিক্ষকের রহস্যজনক মৃত্যু, তদন্ত চেয়ে শিক্ষার্থীদের অবস্থান

তালিকায় যৌথভাবে দ্বিতীয় স্থানে আছে প্যারিস ও সিঙ্গাপুর। এরপর রয়েছে চীনের আধা স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল হংকং ও সুইজারল্যান্ডের জুরিখ। ইআইইউর তালিকায় নিউইয়র্কের অবস্থান ষষ্ঠ। সুইজারল্যান্ডের আরেক শহর জেনেভা সপ্তম স্থানে রয়েছে। এরপর শীর্ষ দশে থাকা অন্য শহরগুলো হলো যথাক্রমে ডেনমার্কের কোপেনহেগেন, যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেস ও জাপানের ওসাকা।

গত বছর ইআইইউর তালিকায় যৌথভাবে বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল তিন শহর ছিল প্যারিস, জুরিখ ও হংকং।

চলতি বছর আগস্ট ও সেপ্টেম্বরে সংগ্রহ করা তথ্য দিয়ে তালিকা তৈরি করা হয়েছে। এ সময়ে জলপথে মালামাল পরিবহনের খরচ ও পণ্যের দাম বেড়েছে। দেখা গেছে, দেশে দেশে স্থানীয় মুদ্রার ক্ষেত্রে গড় দাম ৩ দশমিক ৫ শতাংশ বেড়েছে। এর মধ্য দিয়ে গত পাঁচ বছরের মধ্যে বিশ্বে দ্রুততম মুদ্রাস্ফীতির রেকর্ড হয়েছে এবার।

 news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

পরবর্তী খবর

অক্সফোর্ড স্কুলে এক বন্দুকধারীর হামলায় কমপক্ষে ৩ জন নিহত

অনলাইন ডেস্ক

অক্সফোর্ড  স্কুলে এক বন্দুকধারীর  হামলায় কমপক্ষে ৩ জন নিহত

যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান অঙ্গরাজ্যের অক্সফোর্ড হাই স্কুলে এক বন্দুকধারী শিক্ষার্থীর হামলায় কমপক্ষে ৩ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে অন্তত ৮ জন।

রয়টার্স জানায়, মার্কিন স্থানীয় মঙ্গলবার বিকেলে অক্সফোর্ড স্কুলে ১৫ বছর বয়সী এক শিক্ষার্থী বন্দুক নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। ঘটনাস্থলেই হতাহত হয় বেশ কয়েকজন। ৯১১ এ কল পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর ৫ মিনিটের মধ্যেই বন্দুকধারীকে আটক করে পুলিশ।

আরও পড়ুন

দক্ষিণ কোরিয়ায় ৬৯ ছাত্রের বিরুদ্ধে কিশোরীকে দলবদ্ধভাবে ধর্ষণের অভিযোগ

কুয়েট শিক্ষকের রহস্যজনক মৃত্যু, তদন্ত চেয়ে শিক্ষার্থীদের অবস্থান

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশের হেফাজতে নেয়া হয়েছে তাকে। সন্দেহভাজন ওই শিক্ষার্থীর কাছ থেকে একটি হ্যান্ডগান উদ্ধার করা হয়েছে। ওই বন্দুক দিয়ে ১৫ থেকে ২০টি গুলি চালিয়েছে বলে ধারণা করা হয়েছে। সে একাই ঘটনা ঘটিয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে প্রশাসন। আহতদের হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

 news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

পরবর্তী খবর

দক্ষিণ কোরিয়ায় ৬৯ ছাত্রের বিরুদ্ধে কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক

দক্ষিণ কোরিয়ায় ৬৯ ছাত্রের বিরুদ্ধে কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগ

৬৯ জন বিদেশি শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে সেখানকার এক কিশোরীকে দলবদ্ধভাবে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। দক্ষিণ কোরিয়ার গ্যাংওন প্রদেশের স্থানীয় একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে এই ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠে।

দেশটির পুলিশ জানায়, অভিযুক্তদের সবাই বিদেশি শিক্ষার্থী, তাদের মধ্যে নেপালি এবং বাংলাদেশিও রয়েছেন।

দেশটির সংবাদমাধ্যম কোরিয়া টাইমস গতকাল মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এই খবর দিয়েছে ।

গ্যাংওন প্রাদেশিক পুলিশ সংস্থা জানিয়েছে, প্রদেশের স্থানীয় একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬৯ জন বিদেশি শিক্ষার্থীকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গত বছরের ডিসেম্বর থেকে প্রায় ১০০ বার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এক ছাত্রীর সঙ্গে যৌন ক্রিয়াকলাপে লিপ্ত হয়েছিলেন তারা।

পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওই কিশোরীকে স্ন্যাকস খাওয়ানো এবং তাদের বাসায় আড্ডার প্রলোভন দেখিয়ে অভিযুক্তরা তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কের প্রস্তাব দেয়। দেশটির আইনপ্রয়োগকারী কর্তৃপক্ষ এই ঘটনাকে সংবিধিবদ্ধ অপরাধ হিসেবে বিবেচনা করছে। কারণ মেয়েটি নাবালিকা এবং অভিযুক্ত শিক্ষার্থীরা সেটা জেনেই এটা করেছে।

আরও পড়ুন

কুয়েট শিক্ষকের রহস্যজনক মৃত্যু, তদন্ত চেয়ে শিক্ষার্থীদের অবস্থান

কোরীয় আইন অনুযায়ী, ১৬ বছরের কম বয়সী শিশুদের সঙ্গে কোনো প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তি যৌনতায় লিপ্ত হলে তার বিরুদ্ধে শিশু যৌন নিপীড়ন অথবা ধর্ষণের অভিযোগ আনা হবে। ভুক্তভোগীর বয়স জানার পরও তার সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হলে সেটিকে যৌন অপরাধ হিসেবে বিবেচনার বিধান রয়েছে।

ধর্ষণের এই ঘটনায় গত আগস্টের শুরুর দিকে ওই কিশোরী  প্রকাশ করে তার স্কুলের শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলার সময়। পরবর্তীতে পুলিশের কাছে এ বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করা হয়।

মামলা দায়েরের পর এই ঘটনার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত ওই ৬৯ শিক্ষার্থীর দক্ষিণ কোরিয়া ত্যাগের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে পুলিশ।

 news24bd.tv/এমি-জান্নাত   

পরবর্তী খবর

মেক্সিকান মাদক সম্রাটের স্ত্রীকে ৩ বছরের কারাদণ্ড

অনলাইন ডেস্ক

মেক্সিকান মাদক সম্রাটের স্ত্রীকে ৩ বছরের কারাদণ্ড

এমা করোনেল

মেক্সিকোর অপরাধ সিন্ডিকেটের প্রধান ও বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী ড্রাগ লর্ড হিসেবে পরিচিত জোয়াকিন গুজম্যান বা এল চ্যাপোর স্ত্রী এমা করোনেল আইসপুরোকে তিন বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) এক আদেশে এ সাজা দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনের একটি ফেডারেল আদালত।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এ খবর জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়, আন্তর্জাতিক মাদক চোরাচালানের সঙ্গে যুক্ত থাকার অপরাধে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিলো। তার বিরুদ্ধে স্বামীর অবৈধ ব্যবসায় সাহায্যের অভিযোগ আনা হয়।

সিএনএন জানায়, এমার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের শাস্তি ছিল যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। কিন্তু  ৩২ বছর বয়সী সাবেক এ বিউটি কুইন 
দোষ স্বীকার করে আদালতে ক্ষমা চান এবং অনুশোচনা প্রকাশ করেন। পরে তার সংক্ষিপ্ত সাজা চান মার্কিন প্রসিকিউটররা।

সাজা ঘোষণার আগে তিনি স্প্যানিশ ভাষায় বলেন, আমি সবকিছু জন্য সত্যিকারভাবে অনুশোচনা প্রকাশ করছি। পরিবারকে আমি যে যন্ত্রণা দিয়েছি তার ফল ভোগ করছি।

এ সময় নয় বছরের যমজ কন্যাকে লালন-পালনের অনুমতি চান করোনেল। বলেন, তারা ইতিমধ্যে মা-বাবার একজনের উপস্থিতি ছাড়াই বেড়ে উঠছে। আমি আপনাকে অনুরোধ করছি দয়া করে মায়ের উপস্থিতি ছাড়া তাদের বেড়ে উঠতে দেবেন না।


আরও পড়ুন:

বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে কটূক্তি, কাটাখালীর মেয়র আটক

শুরু হলো মহান বিজয়ের মাস

আজ থেকে ঢাকার গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের ভাড়া অর্ধেক কার্যকর


ফেব্রুয়ারিতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। জুনে ষড়যন্ত্র থেকে অবৈধ মাদক বিতরণসহ একাধিক অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করা হয় এমাকে। মেক্সিকোর কারাগার থেকে এল চ্যাপোকে পালাতে সাহায্য করার বিষয়টিও স্বীকার করে নেন তিনি।

এমার ৬৪ বছর বয়সী স্বামী বর্তমানে কলোরাডোতে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ভোগ করছেন।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর