দুই শতাংশ জমির বিরোধ : সালিশ বৈঠকেই যুবক খুন
দুই শতাংশ জমির বিরোধ : সালিশ বৈঠকেই যুবক খুন

দুই শতাংশ জমির বিরোধ : সালিশ বৈঠকেই যুবক খুন

অনলাইন ডেস্ক

মাত্র দুই শতাংশ জমি নিয়ে বিরোধ ছিলো জাহের আলীর সাথে নুরুল আমিনের। সেই বিরোধ নিরসনের জন্য ডাকা হয় সালিশ। কিন্তু সেই সালিশি বৈঠকেই ছুরিকাঘাতে জাহের আলী (৩৮) খুন হয়েছেন। একই ঘটনায় ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন নিহতের দুই ভাই ও ভাতিজা।

শুক্রবার (২২ অক্টোবর) বেলা ১১টার দিকে বগুড়া সদরের লাহিড়ীপাড়া ইউনিয়নের রহমতবালা মধ্যপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। নিহত জাহের আলী একই গ্রামের মৃত হারুনুর রশিদের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, সদরের রহমতবালা গ্রামে সরকারি গুচ্ছ গ্রামের পাশে রাস্তার জন্য দুই শতাংশ জমি নিয়ে একই গ্রামের জাহের আলীর সাথে নুরুল আমিনের দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছিল। সম্প্রতি নুরুল আমিন রাস্তা দখলের জন্য গুচ্ছ গ্রামের কয়েকটি ঘরে তালা দেন। এনিয়ে উত্তপ্ত পরিস্থিতি তৈরি হওয়ায় বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য লাহিড়ীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের ৩ নং ওয়ার্ড সদস্য আল আমিন শুক্রবার সকাল ১১টায় উভয়পক্ষকে নিয়ে সালিশ বৈঠক আহ্বান করেন।

সালিশ বৈঠকে আলোচনা করে বিরোধপূর্ণ জমি আমিন ( সার্ভেয়ার) দিয়ে পরিমাপ করার সিদ্ধান্ত হয়। সেই অনুযায়ী জমি পরিমাপ শুরু হলে উভয়পক্ষের মধ্যে তর্ক-বিতর্ক শুরু হয়। এরই এক পর্যায়ে নুরুল আমিনের ছেলে সজিব আকস্মিকভাবে জাহের আলীর পেটে ও বুকে ছুরিকাঘাত করে। এসময় জাহের আলীকে রক্ষা করতে গেলে জাহের আলীর ভাই আবু তাহের, বাদল ও বাদলের ছেলে ইসলামকেও ছুরিকাঘাত করে সজিব একাই।

আরও পড়ুন


বঙ্গবন্ধু যেতেই গুলি বন্ধ করল বিডিআর

মানুষের সঙ্গে যেভাবে কথা বলতেন বিশ্বনবী

সূরা বাকারা: আয়াত ১২৮-১৩৩, আল্লাহর নির্দেশ ও হয়রত ইব্রাহিম (আ.)

কলকাতা প্রেস ক্লাবে ‘বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার’


পরে আহতদের উদ্ধার করে টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জাহের আলী মারা যান।

বগুড়া সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘটনার সাথে জড়িতদের আটক করতে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে কাজ শুরু করেছে।

news24bd.tv/আলী

;