রাত ১২টার দিকে ঘরে ঢুকে সপ্তম শ্রেণিপড়ুয়া প্রেমিকাকে ধর্ষণ প্রেমিকের

অনলাইন ডেস্ক

রাত ১২টার দিকে ঘরে ঢুকে সপ্তম শ্রেণিপড়ুয়া প্রেমিকাকে ধর্ষণ প্রেমিকের

প্রেমের ফাঁদে ফেলে খুলনার পাইকগাছায় সপ্তম শ্রেণিপড়ুয়া প্রেমিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে সৈকত শেখ (১৯) নামের এক তরুণের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় প্রেমিক সৈকতকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করা হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, তালা থানার শিবপুর গ্রামের আব্দুল ওহাব শেখের ছেলে সৈকত শেখের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে সপ্তম শ্রেণিপড়ুয়া ছাত্রী। সৈকত তালা মুক্তিযোদ্ধা কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র।

উপ-পুলিশ পরিদর্শক মো. আইয়ুব হোসেন জানান, মেয়ের বাবা-মা বাড়িতে না থাকার সুযোগে শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে সৈকত প্রেমিকা ওই কিশোরীর বাড়িতে ঢুকে পড়ে। মেয়েটিকে বারবার কুপ্রস্তাব দেয়। তাতে সে রাজি না হওয়ায় বিয়ের জন্য চাপ সৃষ্টি করে। বিয়েতেও রাজি না হওয়ায় এরপর জোরপূর্বক ধর্ষণ করে সৈকত।

আরও পড়ুন


শ্রীলংকার বিপক্ষে টাইগারদের সম্ভাব্য একাদশ, থাকতে পারে পরিবর্তন

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তানের মহাযুদ্ধ আজ

লঙ্কাবধে আজ মাঠে নামছে বাংলাদেশ

দাঙ্গা বন্ধে নোয়াখালীতে ছাগল হারান মহাত্মা গান্ধী


তিনি আরও বলেন, এ সময় মেয়েটি চিৎকার দিলে পাশ থেকে তার চাচা ও প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে ছেলেটিকে আটক করে। পরে পুলিশে খবর দেওয়া হলে তাকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় শিশুটির চাচা বাদী হয়ে পাইকগাছা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন। 

ওসি জিয়াউর রহমান জিয়া বলেন, মেয়েটির বাবা একজন ক্যান্সার রোগী। সে যশোর দড়াটানার একটি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন থাকার সুযোগে ছেলেটি তার বাড়িতে এসে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মেয়েটিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

আবারও সড়কে ঝরল শিক্ষার্থীর প্রাণ

অনলাইন ডেস্ক

আবারও সড়কে ঝরল শিক্ষার্থীর প্রাণ

ফাইল ছবি

চট্টগ্রামের কোতোয়ালি থানা এলাকায় ট্রাক চাপায় জয়দীপ দাশ (২০) নামে এক এইচএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) ভোরে নগরীর নিউমার্কেট এলাকার রিয়াজউদ্দিন বাজার মোটেল সৈকতের সামনের এ ঘটনা ঘটে।

চট্টগ্রামের চকবাজার ১ নম্বর জয়নগরের সেকান্দার ভিলার নির্মল কান্তি দাশের পুত্র জগদীশ। জয়দীপ মিরসরাই ডিগ্রি কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষার্থী ছিলেন বলে জানান আত্মীয়রা।

পাঁচলাইশ থানার ওসি (তদন্ত) সাদিকুর রহমান বলেন, জগদীশ দাশ নামে যুবক একটি ট্রাককে ওভারটেকিং করতে গেলে ট্রাকের ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়। তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন


প্রেমিকের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে লাশ হলো কিশোরী

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

প্রেমিকের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে লাশ হলো কিশোরী

অনলাইন ডেস্ক

প্রেমিকের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে লাশ হলো কিশোরী

প্রতীকী ছবি

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে প্রেমিকের সঙ্গে বেড়াতে গিয়েছেলেন অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী নুসরাত জাহান তোয়া (১৩)। কিন্তু সেখান থেকে আর জীবিত ফেরা হল না তার। ট্রেনে কাটা পড়ে মারা গেছে নুসরাত।

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) উপজেলার ধলাটেঙ্গর এলাকায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। নুসরাতের গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রামে। তারা এলেঙ্গা শামসুল হক কলেজের সামনে একটি ভাড়া বাসায় দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছেন। নিহত নুসরাত জাহান নাসির উদ্দিন ও শায়লা বেগম দম্পতির বড় মেয়ে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, স্কুল ড্রেস পরা একটি মেয়ে ও একটি ছেলে রেললাইনে বসে ছিল। সকাল ৯টা ১০ মিনিটের দিকে উত্তরবঙ্গগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে মেয়েটি ঘটনাস্থলেই মারা যান। এ সময় ছেলেটি একটু নিচে থাকায় বেঁচে যায় সে। পরে মেয়েটিকে রেখে ছেলেটি দ্রুত পালিয়ে যায়।

নুসরাতের মোবাইলের মেসেঞ্জার থেকে দেখে জানা যায়, সকালে ফেসবুক মেসেঞ্জারে সোহাগ আল হাসান জয় নামের একটি ছেলের সঙ্গে যোগাযোগ করে দেখা করার জন্য বের হন।

কান্না জড়িত কণ্ঠে নুসরাতের মা জানান, বান্ধবীর বাসায় যাওয়ার কথা বলে বের হয় নুসরাত। এ জন্য আমি আর আমার ছোট মেয়ে খানিকটা পথ এগিয়েও দিয়ে আসি। বান্ধবীর বাসা থেকে এলেঙ্গা উচ্চবিদ্যালয়ে পরীক্ষা দিতে যাওয়ার কথা। কিন্তু ও রেললাইনে কীভাবে গেল বুঝতে পারছি না।

ঘারিন্দা রেলওয়ে ফাঁড়ির ইনচার্জ এএসআই আবদুস সবুর বলেন, সকাল ৯টা ১০ মিনিটে নীল সাগর এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে নুসরাত জাহান তোয়া নামে এক ছাত্রী ঘটনাস্থলেই মারা যান। খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন


সেই লেডি বাইকার রিয়ার পক্ষে আদালতে ব্যারিস্টার সুমন

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

রাঙামাটিতে জেএসএস সদস্যকে গুলি করে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক

রাঙামাটিতে জেএসএস সদস্যকে গুলি করে হত্যা

নিহত আবিষ্কার চাকমা

রাঙামাটিতে সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) এক সদস্যকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) ভোরে সদর উপজেলার বন্দুকভাঙা ইউনিয়নের কিচিং আদাম এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আবিষ্কার চাকমা (৪০) বাঘাইছড়ি উপজেলার সারোয়াতলী ইউনিয়নের সিজক এলাকার মিন্টু চাকমার ছেলে। 

জানা যায়, আগে আবিষ্কার চাকমা বাঘাইছড়ি এলাকায় সাংগঠনিক দায়িত্বে ছিলেন। তবে তিনি লংগদু, নানিয়ারচর ও সুবলং এলাকার গত প্রায় এক বছর ধরে সাংগঠনিক দায়িত্ব পালন করছিলেন। তিনি অবস্থান করতেন রাঙামাটি সদরের কিচিং আদাম এলাকায়।


আরও পড়ুন:

গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকর

হাফ পাস শুধুমাত্র ঢাকায় কার্যকর হবে বললেন এনায়েত উল্লাহ

কুমিল্লায় কাউন্সিলর হত্যা: ৬ হামলাকারী শনাক্ত


তার অবস্থান নিশ্চিত হয়ে প্রতিপক্ষের অপর এক আঞ্চলিক দলের সশস্ত্র সদস্যরা সেখানেই ঢুকেই সোফায় বসে থাকা আবিষ্কার চাকমার বুকে গুলি চালায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। আবিষ্কার চাকমার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা ছিল বলে জানায় পুলিশ।

রাঙামাটির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) তাপস রঞ্জন ঘোষ জানান, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধারের ঘটনাস্থলে গেছে পুলিশ। তারা ফিরলে ঘটনার বিস্তারিত জানানো যাবে।

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর

ভোটে হারলো দুই সতীনই, স্বামীর ক্ষোভ তৃতীয় স্ত্রীর ‍উপর

অনলাইন ডেস্ক

ভোটে হারলো দুই সতীনই, স্বামীর ক্ষোভ তৃতীয় স্ত্রীর ‍উপর

নির্বাচনে পরাজিত দুই সতীন

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী সদর ইউনিয়নের নির্বাচনে ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন দুই সতীন। তারা চন্দ্রখানা বুদারবান্নি গ্রামের কসাই ফজলু মিয়ার প্রথম স্ত্রী আঙুর বেগম ও তৃতীয় স্ত্রী জাহানারা বেগম।

নির্বাচনের আঙুর বেগম কলম প্রতীক ও জাহানারা বেগম তালগাছ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তবে ভোট যুদ্ধে প্রতিদ্বন্ধিতাকারী আলোচিত দুই সতীনের কেউই জয়ের মালা গলায় পরতে পারেননি।

তৃতীয় ধাপের ভোটগ্রহণ শেষে রোববার ঘোষিত ফলাফলে আঙুর বেগম পেয়েছেন এক হাজার ৭৮০ ভোট এবং জাহানারা বেগম পেয়েছেন এক হাজার ৮ ভোট। তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আঞ্জুয়ারা বেগম পদ্মফুল প্রতীকে দুই হাজার ৯২৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।

নির্বাচনে দুই স্ত্রীর পরাজয়ের পর তৃতীয় স্ত্রীর উপর কিছুটা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন কসাই ফজলু মিয়া। এসময় তিনি বলেন, আমার তৃতীয় স্ত্রী জাহানারার সঙ্গে বনিবনা নেই। তার নির্বাচনে অংশ নেওয়ার বিষয়ে আমাদের পরিবার বা এলাকাবাসীর কোনো মত ছিল না। সে না দাঁড়ালে আমার বড় স্ত্রী আঙুর বেগম বিজয়ী হতো।

ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মমিনুর আলম ফলাফলের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচনে দুই সতীনের কেউই ভোটে জয় লাভ করতে পারেননি। তবে তাদের অংশগ্রহণকে স্বাগত জানাই।

আরও পড়ুন


বগুড়ায় ছুরিকাঘাতে এইচএসসি পরীক্ষার্থী নিহত

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

হাফ ভাড়া কার্যকর করতে মালিক সমিতির শর্তসমূহ

অনলাইন ডেস্ক

হাফ ভাড়া কার্যকর করতে মালিক সমিতির শর্তসমূহ

সংগৃহীত ছবি

আগামীকাল থেকে ঢাকায় গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের ‘হাফ ভাড়া’ কার্যকর করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে এক্ষেত্রে কিছু শর্তও জুড়ে দিয়েছে সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভিনিউয়ে শিক্ষার্থীদের অর্ধেক ভাড়ার বিষয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ।  

তিনি জানান, ভ্রমণকালে বিআরটিসি বাসের মতোই ব্যক্তি মালিকানাধীন বাসে ছাত্র-ছাত্রীদের অবশ্যই নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বৈধ পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখতে হবে এবং প্রয়োজনে তা প্রদর্শন করতে হবে।

এছাড়া বিআরটিসি বাসে চলাচলের ক্ষেত্রে সকাল ৭টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা হাফ ভাড়ার সুবিধা পাবে। তবে ব্যক্তি মালিকানাধীন বাসে এ সুবিধা শুরু হবে সকাল ৮টায়, চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত।

এছাড়াও ছুটির দিনে থাকবে না হাফ ভাড়া। হাফ ভাড়া শুধু ঢাকার জন্যও কার্যকর হবে বলে জানান এনায়েত উল্যাহ।

আরও পড়ুন:

ইচ্ছামৃত্যু চাইলেও নিতে হবে করোনার টিকা


news24bd.tv/ নকিব

পরবর্তী খবর