সাম্প্রদায়িক ঘৃণা-বিদ্বেষ ছড়াতে ভারতে ব্যবহার করা হচ্ছে ফেসবুক

অনলাইন ডেস্ক

সাম্প্রদায়িক ঘৃণা-বিদ্বেষ ছড়াতে ভারতে ব্যবহার করা হচ্ছে ফেসবুক

যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী পত্রিকা ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানিয়েছে, সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগের জনপ্রিয় মাধ্যম ফেসবুক এক অভ্যন্তরীণ গবেষণা চালায়। গবেষণায় দেখা গেছে, ভারতীয় পাতাগুলোর একটা বড় অংশের বিষয়বস্তু (কনটেন্ট) উসকানিমূলক বক্তব্যে ভরা। সংশ্লিষ্ট গবেষকদের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এ ধরনের বিষয়বস্তু ভয়াবহ সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার সঙ্গেও যুক্ত ছিল। শনিবার (২৩ অক্টোবর) এক প্রতিবেদনে এ কথা জানায়। 

ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল এ উঠে এসেছে, ফেসবুকের গবেষকরা ২০২০ সালের জুলাইতে এক প্রতিবেদনে লেখেন, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরের পরের কয়েক মাসে উসকানিমূলক বিষয়বস্তু আগের সময়ের তুলনায় তিন গুণ বেড়েছিল। ওই সময় ভারতজুড়ে ধর্মীয় বিষয়ে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ চলে।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল পত্রিকা ফেসবুকের গবেষকদের প্রতিবেদনটি সংগ্রহ করে পর্যালোচনা করেছে। এতে দেখা যায়, বিশেষ করে ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে ফেসবুকের খুদেবার্তার সার্ভিস হোয়াটসঅ্যাপে গুজব ও সহিংসতার ডাক ব্যাপকভাবে ছড়ায়। তখন দিল্লিতে সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় ৫৩ জন নিহত হয়েছিল। 

ভারতের হিন্দু ও মুসলিম উভয় ধর্মের ফেসবুক ব্যবহারকারীরা বলেছেন, তারা ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপে সংঘাত, ঘৃণা ও সহিংসতাকে উৎসাহিত করার মতো বিশাল পরিমাণ বিষয়বস্তুর সম্মুখীন হয়ে থাকেন।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল-এর কথায়, নিজেদের সেবার সঙ্গে সাম্প্রদায়িক দ্বন্দ্বের সম্ভাব্য সম্পর্ক নিয়ে ফেসবুক এতটাই উদ্বিগ্ন ছিল যে তারা এ নিয়ে ব্যবহারকারীদের সঙ্গে কথা বলতে গবেষকদের মাঠ পর্যায়ে পাঠায়। দিল্লির একজন হিন্দু ধর্মাবলম্বী ফেসবুক ব্যবহারকারী ওই গবেষকদের বলেন, তিনি প্রায়ই ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপে বিপজ্জনক সব বার্তা পান।

ফেসবুকের গবেষকরা দেখেছেন, ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির সঙ্গে যুক্ত দুটি হিন্দু জাতীয়তাবাদী গ্রুপ ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট দেয়। তাঁরা ফেসবুকের বিদ্বেষমূলক (হেট স্পিচ) প্রচারণার নীতি লঙ্ঘনের দায়ে একটি গ্রুপকে নিষিদ্ধ করার সুপারিশ করেন। তবে গ্রুপটি এখনো সক্রিয় রয়েছে। আরেকটি গ্রুপও সহিংসতায় উসকানি দেয় ও মুসলিমদের জন্য অবমাননাকর বিষয়বস্তু পোস্ট করে। প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘রাজনৈতিক স্পর্শকাতরতার জন্য’ একে বিপজ্জনক হিসেবে চিহ্নিত করা হয়নি।

ফেসবুকের মুখপাত্র অ্যান্ডি স্টোন বলেন, ‘ফেসবুক সতর্ক, বিশদ ও বহুমাত্রিক প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে ব্যক্তি বা গোষ্ঠীকে নিষিদ্ধ করে থাকে।’ তিনি বলেন, প্রতিবেদনগুলোর কিছু কিছু চলমান কাজের অংশ মাত্র, তা পূর্ণাঙ্গ তদন্ত নয়। স্টোন আরো বলেন, ফেসবুক বিদ্বেষমূলক কথাবার্তা খুঁজে বের করতে উল্লেখযোগ্য মাত্রায় প্রযুক্তিগত বিনিয়োগ করেছে।

আরও পড়ুন:


ইকবালকে নিয়ে পুলিশের অভিযান, যা পাওয়া গেছে!

আগামীকাল নুরের দলের আত্মপ্রকাশ

পাকিস্তানি সমর্থকদের ওপর ভারতীয় সমর্থকদের হামলা, আহত ২

তিন মাসে মিরপুর থেকে ৪২৪ কিশোরী নিখোঁজ!


‘ভারতে সাম্প্রদায়িক দ্বন্দ্ব’ শিরোনামের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, মুম্বাইয়ের এক মুসলিম ব্যক্তি গবেষকদের বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম আর ১০ বছর এভাবে চললে ঘৃণা ছাড়া আর কিছু থাকবে না।’

প্রতিবেদনে গবেষকরা আপত্তিকর বিষয়বস্তু নিয়ন্ত্রণের জন্য তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলাসহ কিছু সুপারিশও করেছেন। তবে ফেসবুকের মুখপাত্র অ্যান্ডি স্টোন এসব নিয়ে কথা বলতে চাননি। তিনি বলেন, ‘ফেসবুক উন্নতির ক্ষেত্রগুলো চিহ্নিত করতে সক্রিয়ভাবে কাজ করে।’ 

news24bd.tv রিমু   

পরবর্তী খবর

ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদের’ প্রভাবে উত্তাল সমুদ্র, বৃষ্টি শুরু

অনলাইন ডেস্ক

ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদের’ প্রভাবে উত্তাল সমুদ্র, বৃষ্টি শুরু

জাওয়াদের প্রভাবে উত্তাল সমুদ্র

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাব পড়তে শুরু করেছে উপকূলীয় অঞ্চলগুলোতে। এরইমধ্যে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উপকূলীয় এলাকাগুলিতেও দমকা হাওয়া বইতে শুরু করেছে। তবে ঘূর্ণিঝড়টি কিছুটা শক্তি হারিয়েছে। বলা হচ্ছে, শনিবারেই শক্তি হারিয়ে নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে জাওয়াদ। আজ রোববার তা আরও দুর্বল হয়ে সাধারণ নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে।

বর্তমানে ঘূর্ণিঝড়টি পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। রোববার দুপুর বা বিকালের দিকে ওড়িশ্যার উপকূলে আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা জাওয়াদের। এটি ঘণ্টায় ১১ কিলোমিটার গতিবেগে ওড়িশা উপকূলের দিকে এগিয়ে আসছে বলে জানিয়েছিল দেশটির আবহাওয়া দফতর।

এদিকে জওয়াদ উপকূলে পুরোপুরি প্রবেশ না করলেও সকাল থেকেই দিঘার সমুদ্রে তীব্র জলোচ্ছ্বাস শুরু হয়েছে। উত্তাল পুরীর সমুদ্রও।

ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে এমনটিই তুলে ধরা হয়েছে।

শনিবার সকাল থেকেই ভারতের পশ্চিমবঙ্গে দিঘা, মন্দারমণিসহ পূর্ব মেদিনীপুরের উপকূল এলাকায় বৃষ্টি শুরু হয়েছে। ঘন কালো মেঘ আরও ঘনীভূত হয়ে ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করে। পাশাপাশি, বাতাশের গতিবেগও সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে। উত্তাল হয়ে উঠেছে সমুদ্রও।

এদিকে, ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদের’ প্রভাবে রোববার ভোর থেকে চট্টগ্রামে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি  শুরু হয়েছে। সারাদেশের আকশই মেঘলা। আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানা যায়, চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত এবং নদী বন্দরকে ১ নম্বর নৌ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

এ সময় উত্তর ও উত্তর-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ১২ থেকে ১৫ কিলোমিটার, অস্থায়ী বা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে বাতাস প্রবাহিত হতে পারে।

আরও পড়ুন


বারবার শারীরিক সম্পর্ক, বিয়ের দাবিতে তরুণীর অনশন

news24bd.tv এসএম

পরবর্তী খবর

শক্তি হারিয়ে গভীর নিম্নচাপে ঘূর্ণিঝড় 'জাওয়াদ'

অনলাইন ডেস্ক

শক্তি হারিয়ে গভীর নিম্নচাপে ঘূর্ণিঝড় 'জাওয়াদ'

ঘূর্ণিঝড়

শক্তি হারিয়ে এখন গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে ঘূর্ণিঝড় 'জাওয়াদ'। আজ রোববার দুপুরে তা ভারতের পুরীর উপকূলে পৌঁছে শক্তি হারাতে শুরু করবে।

আবহাওয়া বিভাগ জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড়ের বিপদ থেকে মুক্ত পশ্চিমবঙ্গ এবং ওড়িশা উপকূল। এরিমধ্যে বৃষ্টি শুরু হয়েছে ওড়িশার পুরীতে। সেই সঙ্গে বইছে তীব্র ঝোড়ো হাওয়া। অতি গভীর নিম্নচাপ এবং গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে  বৃষ্টি হবে দুই রাজ্যে।

এদিকে, দুর্যোগ মোকাবিলায় প্রশাসনের পক্ষে প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। বাতিল করা হয়েছে বহু ট্রেন চলাচল।

 আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, পুরীর দিকে ক্রমশ এগোচ্ছে ঘূর্ণিঝড় 'জওয়াদ'।  

আরও পড়ুন:


 

আরও পড়ুন:


আজ আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় 'জাওয়াদ'

news24bd.tv রিমু      

 

 

পরবর্তী খবর

মহাকাশে হেঁটে অ্যান্টেনা পরিবর্তন করলেন দুই মহাকাশযাত্রী

অনলাইন ডেস্ক

মহাকাশে হেঁটে অ্যান্টেনা পরিবর্তন করলেন দুই মহাকাশযাত্রী

আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনের (আইএসএস) একটি অ্যান্টেনা পরিবর্তন করলেন দু'জন মহাকাশযাত্রী। মহাকাশে ‘হেঁটে’  গত বৃহস্পতিবার প্রায় সাড়ে ছয় ঘণ্টা ধরে কাজটি সম্পন্ন করেন তারা।

রয়টার্স এক প্রতিবেদনে জানায়, এ কাজটি করেছে টমাস মার্শবার্ন ও কায়লা ব্যারন নামের দুই মহাকাশযাত্রী।

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা জানিয়েছে, কাজটি কিছুটা ঝুঁকি নিয়েই করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:

ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের বাধা

আজ আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় 'জাওয়াদ'

৬১ বছর বয়সী টমাস মার্শবার্ন এর আগেও চারবার মহাকাশে ‘হেঁটেছেন’। এদিকে এক সপ্তাহ আগেই রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ধ্বংসাবশেষ কক্ষপথে ঘুরছে। 

তবে ৩৪ বছর বয়সী নারী মহাকাশযাত্রী কায়লা ব্যারনের কাছে এই অভিজ্ঞতা নতুন।

স্পেসওয়াকের সময় তারা একটি ত্রুটিপূর্ণ এস-ব্যান্ড রেডিও কমিউনিকেশন অ্যান্টেনা অ্যাসেম্বলি সরিয়ে ফেলে, যা এখন ২০ বছরেরও বেশি এবং এটিকে স্পেস স্টেশনের বাইরে রাখা অতিরিক্ত স্পেয়ার দিয়ে প্রতিস্থাপন করে।

 news24bd.tv/এমি-জান্নাত  

পরবর্তী খবর

মস্কোর সাথে ওয়াশিংটনের উত্তেজনা আরও তিব্র হচ্ছে

অনলাইন ডেস্ক

মস্কোর সাথে ওয়াশিংটনের উত্তেজনা আরও তিব্র হচ্ছে

ইউক্রেন ইস্যুতে মস্কোর সাথে ওয়াশিংটনের উত্তেজনা আরো তিব্র হচ্ছে। রাশিয়া ইউক্রেনে  আক্রমণের যে পরিকল্পনা সাজাচ্ছে তার পরিণাম ভয়াবহ বলে সতর্কবার্তা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

এমনকি ইউক্রেন ইস্যুতে রাশিয়ার রেড লাইন মানবেন না বলে সাফ জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।  এদিকে ঘরের পাশে নেটোর সামরিক তৎপরতা  ইউরোপে আবারো যুদ্ধের দুঃস্বপ্ন দেখতে হতে পারে বলে হুশিয়ারী দিয়েছে রাশিয়া।  

ইউক্রেনের সীমান্তে জড়ো হয়েছে প্রায় ৯০ হাজার রাশিয়ান সেনা। মার্কিন গনমাধ্যাম বলছে, ২০২২ সালের শুরুতে ইউক্রেনে আক্রমণ করতে পারে রাশিয়া। বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে পাল্টাপাল্টি মন্তব্য করছে যুক্তরাষ্ট্র এবং রাশিয়া, কথা হচ্ছে হুমকির সুরে। 

তবে উওেজনা কমাতে চলতি সপ্তাহে ভার্চ্যুয়ালি বৈঠকে বসার কথা রয়েছে বাইডেন ও পুতিনের। রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ আলাপের আশাবাদ ব্যক্ত করেছে প্রেসিডেন্ট বাইডেন। তবে এও সতর্ক করেন যে, রাশিয়ার দেওয়া কোনও রেড লাইন মেনে নেবেন না ওয়াশিংটন। 

এর আগে সুইডেনে নিরাপত্তা ও সহযোগিতা বিষয়ক সম্মেলনে, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাথে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ল্যাভরভের বৈঠক যেন সেই উওেজনা আরো বাড়িয়েছে। রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাবরভ যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনের পাশে দাঁড়িয়ে স্পষ্ট করে বলেছেন, রাশিয়া তার ঘরের পাশে নেটো সামরিক জোটের নতুন কোনো তৎপরতা কোনোভাবেই সহ্য করবে না।

আরও পড়ুন:

ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের বাধা

আজ আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় 'জাওয়াদ'

নেটো জোটের সামরিক অবকাঠামো রাশিয়ার সীমান্তে নিয়ে আসা হচ্ছে। রোমানিয়া এবং পোল্যান্ডে আমেরিকান ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী ব্যবস্থা মোতায়েন করা হচ্ছে। যার অর্থ ইউরোপে সামরিক সংঘাতের দুঃস্বপ্ন পুনরায় ফিরে আসছে
এদিকে অভিযোগ  উঠছে  ইউক্রেন সীমান্তে  আরো বেশি সেনা সমাবেশের বিস্তার ঘটাচ্ছে রাশিয়া। প্রতিবেশী ইউক্রেনে ১ লাখ ৭৫ হাজার সেনা নিয়ে বহুমুখী আক্রমণের পরিকল্পনা সাজিয়েছে মস্কো।

 news24bd.tv/এমি-জান্নাত  

পরবর্তী খবর

ওমিক্রণ আতঙ্কে স্ত্রী-সন্তানকে নির্মমভাবে হত্যা করলেন চিকিৎসক

অনলাইন ডেস্ক

ওমিক্রণ আতঙ্কে স্ত্রী-সন্তানকে 
নির্মমভাবে হত্যা করলেন চিকিৎসক

ফাইল ছবি

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন আতঙ্কে নিজের স্ত্রী ও দুই সন্তানকে হত্যা করেছেন ভারতের এক চিকিৎসক। কলকাতার প্রভাবশালী দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকা এ খবর জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়, ওই চিকিৎসক তার নিজের স্ত্রী ও ছেলে-মেয়েকে হত্যা করে ভাইকে হোয়াটসঅ্যাপে বার্তা পাঠান। সেখানে লেখা ছিল, লাশ গুণতে গুণতে আমি ক্লান্ত। ওমিক্রনের সংক্রমণ থেকে কেউ রেহাই পাবে না। এমন পরিস্থিতির যাতে শিকার না হতে হয়, তাই ওদের মুক্তি দিচ্ছি।

ভারতের উত্তরপ্রদশের কানপুরের এই চিকিৎসকের এমন কাজে শিউরে উঠেছেন অনেকেই। পুলিশ জানায়, স্ত্রী-সন্তানদের খুন করার পরই ভাইকে হোয়াটসঅ্যাপে বার্তা পাঠিয়েছিলেন চিকিৎসক। চিকিৎসকের এ ধরনের বার্তা পেয়েই ঘটনাস্থলে ছুটে যান তার ভাই। তিনি গিয়ে দেখেন একটি ঘরে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন তার বৌদি। অন্য ঘরে ভাইপো-ভাইঝি। এরপরই তিনি পুলিশে খবর দেন।

পুলিশ জানিয়েছে, স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে এবং দুই সন্তানকে হাতুড়ি দিয়ে মাথার খুলি ফাটিয়ে খুন করেছেন চিকিৎসক। পুলিশকে চিকিৎসকের ভাই জানিয়েছেন, তার দাদা মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন।

তবে এই ঘটনার পেছনে শুধুমাত্র করোনা দায়ী নাকি অন্য কোনো কারণ আছে, তা খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে পুলিশ। সেই চিকিৎসককেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন:

ক্ষেপলেন পাপন, বললেন এতো বাজে পারফরমেন্স ৮ বছরে দেখিনি

কুয়েটে শিক্ষকের মৃত্যু: ছাত্রলীগ নেতাসহ ৯ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

ইউপি নির্বাচনের পঞ্চম ধাপে নৌকা পেলেন যারা


তদন্তকারীরা চিকিৎসকের ঘর থেকে একটি ডায়েরি উদ্ধার করেছেন। সেখানে তিনি খুনের কথা লিখেছেন। শুধু তাই নয়, ওমিক্রনের কথাও সেখানে উল্লেখ করেছেন তিনি। তদন্তকারীদের দাবি, ডায়েরিতে এটাও স্পষ্ট করে লেখা যে, ‘এখন থেকে আর লাশ গুণতে হবে না। করোনা সবাইকে মারবে।’

news24bd.tv নাজিম

পরবর্তী খবর